ঢাকা , ১৬ ২০১৯ ,

নিরাপত্তা চেয়ে নরসিংদীতে বিএনপির ৫ প্রার্থীর সংবাদ সম্মেলন

| ২২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ৭:৩১ পূর্বাহ্ণ | আপডেট : ২২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ৭:৩১ পূর্বাহ্ণ
feature-top

নরসিংদীতে নির্বাচনের লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি, হামলা, মামলা ও সহিংসতার হাত থেকে রক্ষা পেতে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে জেলার ৫টি সংসদীয় আসনের বিএনপির প্রার্থীরা সংবাদ সম্মেলন করেছে।

আজ শুক্রবার নরসিংদী জেলা আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন করেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান নির্বাচন কমিশনের প্রতি অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচন কমিশন বড় বড় অক্ষরে আচরণ বিধিমালা প্রণয়ন করেছেন। আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা আচরণবিধি লঙ্ঘনের গণহিড়িক চালালেও এখন পর্যন্ত কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। প্রশাসনের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনও সন্ত্রাসের অংশ। সারা দেশে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থীদের নির্বাচনী এলাকায় প্রার্থীদের গণসংযোগ ও প্রচারণার সময় হামলার ঘটনা ঘটছে। আমরা লিখিতভাবে ড. কামাল সাহেবের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনে গিয়ে কমিশনারকে জানিয়েছি। কিন্তু চারদিন অতিবাহিত হলেও কোনও ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

আওয়ামী লীগের প্রতি অভিযোগ এনে মঈন খান বলেন, আমরা আওয়ামী লীগের মতো সন্ত্রাসী রাজনীতিতে বিশ্বাস করি না। তাদের লগি-বৈঠার রাজনীতিতে বিশ্বাস করি না। তাই বলে কি আমাদের জীবনের নিরাপত্তা থাকবে না? ভোটের অধিকার থাকবে না? রাম দা দিয়ে আমাদের মেরে ফেলে দেশকে সন্ত্রাসের জনপদ তৈরি করবে?

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন নরসিংদী-১ (সদর) আসনের বিএনপির কারাবন্দী প্রার্থী খায়রুল কবির খোকনের স্ত্রী শিরিন সুলতানা, নরসিংদী-৩ (শিবপুর) আসনের বিএনপির প্রার্থী মঞ্জুর এলাহী, নরসিংদী-৪ (মনোহরদী-বেলাব) আসনের বিএনপির প্রার্থী সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল ও নরসিংদী-৫ (রায়পুরা) আসনের বিএনপি প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার আশরাফ উদ্দিন বকুল ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন মাস্টার।

অন্যদিকে, দলের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, সংবাদ সম্মেলন শেষে আইনজীবী মিলনায়তন থেকে বের হওয়ার পর বিএনপির ১০ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।

feature-top
feature-top

আরও খবর »

feature-top