ঢাকা , ১২ ২০১৯ ,

ভারতীয় গণমাধ্যমে নোবেলের নামে অপবাদ

বায়ান্ন | ৬ Augu, ২০১৯ ৬:২৮ অপরাহ্ন | আপডেট : ৬ Augu, ২০১৯ ৬:২৮ অপরাহ্ন
feature-top

বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের শোবিজ অঙ্গনের সবচেয়ে সাড়া জাগানো নাম মাইনুল আহসান নোবেল। সম্প্রতি জাতীয় সঙ্গীত নিয়ে তাঁর একটি পুরনো সাক্ষাৎকারের অংশ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়।

এর মধ্যে কলকাতার একটি সংবাদ মাধ্যম অভিযোগ করেছে, ‘সারেগামাপা’ প্রতিযোগিতা চলার সময় অন্য প্রতিযোগীদের নাকি পাত্তা দিতেন না নোবেল। এক বিচারককে নাকি অপমান করেছিলেন তিনি। বাংলাদেশি শিল্পীকে সমালোচনা করে নানা কথাই ভারতের গণমাধ্যমগুলো লিখছে; ব্যবহার করছে 'অভব্যতা'র মতো শব্দ। প্রতিযোগিতায় নোবেলের সঙ্গে ন্যায়বিচার করা হয়নি এমন অভিযোগ সবমহলের। এ অবস্থায় আয়োজকদের পাশে দাড়িয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো। আয়োজকদের পক্ষ নিয়ে তারা একর পর অপবাদ দিয়ে যাচ্ছে নোবেলের নামে।

কলকাতার গণমাধ্যমগুলো বলছে, সেখানকার কোনও (নোবেল) শিল্পীকেই নাকি তাঁর যোগ্য মনে হতো না। এমনকি এক বিচারককে নোবেল নাকি বলেছিলেন, তাঁর গান বিচার করার ক্ষমতা সেই বিচারকের নেই। এমন ব্যবহারের কারণেই নাকি মঞ্চে বেশ কিছুদিন দেখা যায়নি নোবেলকে, তাঁকে সাসপেন্ড করা হয়েছিল।

তবে, এখবর কতটুকু সত্য? মোনালি ঠাকুরের সঙ্গে নোবেলের ঝামেলার শুরু একটি গানের নম্বর দেয়া নিয়ে। তবে নোবেল তাঁকে অপমান করেননি। জানা যায়, অন্য দুইজন বিচারক নোবেলকে ৯ করে নম্বর দিলেও মোনালি নম্বর দিয়ে দেন ১০ এর মধ্যে মাত্র '৪।' এতে নোবেল অবাক হন। মোনালি কারণ হিসেবে জানান, 'এই গানের কথাই বোঝা যায়নি।নোবেল মোনালিকে উদ্দেশ্য করে বলেছিলেন, 'গানটি আসলে এমনই- আপনি শুনুন'- আর এতেই তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠেন মোনালি।

নোবেলকে ক্ষমা চাইতে বলা হয় মোনালি ঠাকুরের নিকট। কিন্তু নোবেল বুঝে উঠতে পারছিলেন না ঠিক কী কারণে তাঁকে ক্ষমা চাইতে হবে।

‘সারেগামাপা’ শুরু হওয়ার পর থেকেই বাংলাদেশি গায়ক নোবেলের গানে মজে যায় অনেক দর্শক ও শ্রোতা। দ্রুত বাড়তে থাকে অনুরাগীর সংখ্যা। তার ওপর আবার পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় তাঁর ‘ভিঞ্চিদা’ ছবিতে গান গাওয়ান নোবলকে দিয়ে।

কলকাতার একটি গণমাধ্যম বলছে- বাস্তবে এর কতটা সত্য আর কতটা মিথ্যা তা সময় বলে দেবে। তবে ঢাকায় নোবেলকে কনসার্টে এমনটা মনে হয়নি। বরঞ্চ তিনি ভক্ত-দর্শকদের অনেক কাছাকাছি থাকেন। তবে এখনো বাংলাদেশের গণমাধ্যমগুলো ভারতীয় গণমাধ্যমের বিপক্ষে বা নোবেলের পক্ষ নেয়নি।

রাখা

আরও খবর »