ঢাকা , ১৮ ২০১৯ ,

ঘূর্ণিঝড় ফেথাই বাংলাদেশের দিকে আসার সম্ভাবনা নেই

| ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ৫:৪৩ পূর্বাহ্ণ | আপডেট : ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ৫:৪৩ পূর্বাহ্ণ
feature-top

আন্দামান সাগরের নিম্নচাপ থেকে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘ফেথাই’ এখন বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে,  প্রবল ঘূর্ণিঝড় (PHETHAI) পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণপশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে।

এজন্য সমুদ্র বন্দর সমূহকে দুই নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অফিসের রোববার রাতের বুলেটিনের তথ্য অনুযায়ী, সন্ধ্যা ৬টায় প্রবল ঘূর্ণিঝড় ফেথাইয়ের অবস্থান ছিল চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ১৪১৫ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১৩৭০ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে, মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১২৮০ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ১২৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে। যা এখন আরও ক্ষিপ্ত হতে শুরু করেছে।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, ফেথাই বাংলাদেশের দিকে আসার তেমন কোনও সম্ভাবনা নেই। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানা যায়, ঘূর্ণিঝড় ফেথাইয়ের প্রভাবে রোববার মধ্যরাত থেকেই রাজধানীসহ দেশের বিভিন্নস্থানে গুড়িগুড়ি বৃষ্টি হচ্ছে।

এদিকে ভারতীয় আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, ফেথাই আরও উত্তর-উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে সোমবার বিকেল নাগাদ কাকিনাদা এলাকা দিয়ে অন্ধ্র উপকূল অতিক্রম করতে পারে। এছাড়া উপকূল অতিক্রম করার পর বৃষ্টি ঝরিয়ে দুর্বল হয়ে এ ঘূর্ণিঝড় ওইদিনই গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। ঘণ্টায় ৯৫ কিলোমিটার গতির বাতাসের শক্তি নিয়ে এ ঝড় ধীরে ধীরে ভারতের অন্ধ্র উপকূলের দিকে এগোচ্ছে।

অক্টোবরে ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’ ও নভেম্বর ‘গজ’ – এর পর দেখা মিলেছে ‘ফেথাই’ ঘূর্ণিঝড়ের। এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সাগর তীরের আট দেশের আবহাওয়া দপ্তরের নির্ধারিত তালিকা থেকে এ ঝড়ের নাম দেয়া হয় ‘PHETHAI’, যা প্রস্তাব করেছিল থাইল্যান্ড। স্থানীয় ভাষায় রত্নপাথর জিরকনকে ফেথাই বলা হয়।

তবে ১৭ ডিসেম্বর দুপুর ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দর সমূহের জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানা যায়- খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার অঞ্চলসমূহের উপর দিয়ে পূর্ব/ পূর্ব-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কি.মি. বেগে বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা/ ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দর সমূহকে ১ নম্বর (পুনঃ) ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

feature-top
feature-top

আরও খবর »

feature-top