ঢাকা , ০৮ ২০১৯ ,

বিপুল পরিমান ফেন্সিডিল ও গাঁজাসহ মাদক সম্রাট উজ্জল মীরের ২ সহযোগী গ্রেপ্তার

বায়ান্ন নিউজ ডেস্ক | ১২ নভেম্বর, ২০১৯ ৭:৩৪ অপরাহ্ন | আপডেট : ১৩ নভেম্বর, ২০১৯ ১২:২৬ অপরাহ্ন
feature-top

রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া মহাসড়কের কালুখালি উপজেলার সোনাপুর মোড় থেকে প্রায় এক হাজার বোতল ফেন্সিডিল, ৬ কেজি গাঁজা ও বিপুল পরিমান মাদকদ্রব্যসহ আন্তঃজেলা মাদক ব্যবসায়ী চক্রের ২ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব ৮। 

এ সময় আসামীদের কাছ থেকে মাদক ক্রয়-বিক্রয় কাজে ব্যবহৃত ০৫ টি সিম কার্ডসহ ০৪টি মোবাইল ফোন এবং মাদক পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত সাদা রংয়ের একটি প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়। আটককৃতরা ফরিদপুরসহ দেশের দক্ষিণাঞ্চলের মাদক সম্রাট উজ্জল মীরের গ্রুপের সদস্য।

আটক আসামীরা হল ফরিদপুর কোতোয়ালী থানার  হাড়োকান্দি গ্রামের মোঃ তাছের মৃধা ছেলে মোঃ সুমন মৃধা ওরফে ইয়াকুব (২৬) ও একই গ্রামের মৃতঃ ফারুক শেখের ছেলে মোঃ আশিকুর রহমান রাহাত (২২)।

তারা জানায়, এ মাদকদ্রব্য ফরিদপুরে উজ্জল মীরের গোডাউন থেকে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বেশ কয়েকটি  স্থানে সরবরাহ করার জন নিয়ে যাচ্ছিল।

র‌্যাব-৮, সিপিসি-২, ফরিদপুর ক্যাম্প সূত্র জানায়, তারা গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, একটি মাদক ব্যবসায়ী চক্র দীর্ঘদিন যাবৎ বাংলাদেশের দক্ষিণ পশ্চিম সীমান্তবর্তী যশোর-বেনাপোল, চুয়াডাঙ্গা ও কুষ্টিয়া জেলার সীমান্ত এলাকা দিয়ে ভারত আসা মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল সংগ্রহ করে পাংশা রাজবাড়ী রুট ব্যবহার করে দেশের বিভিন্ন এলাকার মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে পাইকারী বিক্রয় করে থাকে। এ বিষয়ে ফরিদপুর র‌্যাব গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ ও ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য গভীর অনুসন্ধান করে ঘটনার সত্যতা পায়। এই তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৮, সিপিসি-২ ফরিদপুর ক্যাম্প গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, এক মাদক উজ্জল মীরের নেতৃত্বে মাদক ব্যবসায়ী চক্র রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া সড়কের কালুখালী হয়ে নানা মাদকদ্রব্যের চালান বিক্রয়ের জন্য নিয়ে যাবে।

ফরিদপুর র‌্যাব ক্যাম্পের একটি বিশেষ  দল রাজবাড়ী জেলার কালুখালী থানার সোনাপুর মোড় এলাকায় অস্থায়ী চেকপোস্ট স্থাপন করে সন্দেহ জনক গাড়ি তল্লাশী করতে থাকে। এসময় একটি প্রাইভেটকারের চালককে গাড়ি থামানোর সংকেত দিলে চালক গাড়ি না থামিয়ে র‌্যাবের ব্যরিকেড ভেঙ্গে পালানোর চেষ্টা করে। তখন র‌্যাবের সদস্যরা প্রাইভেট কারটিকে ধাওয়া করে রাজবাড়ী জেলার কালুখালীর সোনাপুর মোড় সংলগ্ন শিয়ালমারী গ্রামের মোঃ সয়া আহম্মেদ এর বাড়ির সামনে সড়কের উপর থেকে প্রাইভেটকারটিকে আটক করে। এসময় অন্য একটি গাড়ীতে থাকা মূল হোতা উজ্জল মীর পালিয়ে গেলেও তার দুই সহযোগি র‌্যাবের হাতে আটক হয়। পরে স্থানীয় সাক্ষীদের উপস্থিতিতে তল্লাশী করে এসব ফেন্সিডিল ও ছয় কেজি গাঁজাসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়।

আসামীদের স্বীকারোক্তি থেকে জানা যায় যে, বিপুল পরিমান ফেন্সিডিল ও গাঁজাসহ মাদকদ্রব্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে তারা প্রাইভেটকারে পরিবহন করে ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছিল। উজ্জল মীরের নেতৃত্বে তারা দীর্ঘদিন যাবৎ ইয়াবা, ফেন্সিডিল, গাঁজা কুষ্টিয়া ও চুয়াডাঙ্গা সীমান্তবর্তী এলাকা হতে ক্রয় করে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট পাইকারী বিক্রয় করে থাকে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল ও অন্যান্য আলামতসহ গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী জেলার কালুখালী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। র‌্যাব সূত্র আরো জানায়, উজ্জল মীরসহ উক্ত চক্রের অন্য আসামীদের গ্রেফতারের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। 

মি

আরও খবর »