Connect with us

আন্তর্জাতিক

কসোভোকে শাস্তি দিলো যুক্তরাষ্ট্র

Avatar of author

Published

on

দক্ষিণ-পূর্ব ইউরোপের দেশ কসোভোর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে চলমান অস্থিরতা ও সহিংসতা কমাতে যুক্তরাষ্ট্রের কথা না শোনায় এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

মূলত সংখ্যাগরিষ্ঠ সার্ব উত্তরাঞ্চলে উত্তেজনা বৃদ্ধি এড়াতে যুক্তরাষ্ট্রের পরামর্শ উপেক্ষা করেছিল কসোভো। বুধবার (৩১ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কসোভের উত্তরাঞ্চলে জাতিগত সার্বিয়ানরা সংখ্যাগরিষ্ঠ এবং সেখানে উত্তেজনা-অস্থিরতা এড়াতে দেয়া মার্কিন পরামর্শ না শোনায় কসোভোর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। একইসঙ্গে উত্তর কসোভোতে জাতিগত আলবেনিয়ান মেয়রদের ‘জোর করে’ ক্ষমতায় বসানোর সিদ্ধান্তের সমালোচনাও করেছে দেশটি।

বিবিসি বলছে, ইউরোপে আমেরিকার নেতৃত্বে চলমান সামরিক মহড়ায় অংশগ্রহণ করা থেকে কসোভোকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এর আগে সোমবার উত্তর কসোভোর জেভেকানে সার্ব বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশ ও ন্যাটো সেনাদের সংঘর্ষ হয়।

সার্ব জনসংখ্যার সংখ্যাগরিষ্ঠ এলাকায় জাতিগত আলবেনিয়ান মেয়রকে দায়িত্বে বসানোকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট অস্থিরতার মধ্যে বিক্ষোভকারীরা সরকারি ভবনে আক্রমণ করার চেষ্টা করেছিল। একপর্যায়ে সংঘর্ষে জেভেকানে সংঘর্ষে ৩০ জন ন্যাটো শান্তিরক্ষী এবং ৫২ জন বিক্ষোভকারী আহত হয়। অবশ্য পরে কসোভোতে অতিরিক্ত আরও ৭০০ সৈন্য মোতায়েন করার ঘোষণা দিয়েছে ন্যাটো।

Advertisement

সংবাদমাধ্যম বলছে, সার্ব অধ্যুষিত অঞ্চলে আলবেনিয়ান গোষ্ঠীর মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় সংঘর্ষ শুরু হয়। রাস্তায় নেমে সার্বরা বিক্ষোভ শুরু করলে তা মোকাবিলা করতে সোমবার পথে নামে ন্যাটোর শান্তি বাহিনী বা কেফোর। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে তারা কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে। পাল্টা হামলা করেন সার্ব বিক্ষোভকারীরাও। আর এতেই বেশ কিছু ন্যাটো অফিসার আহত হন।

মূলত গেলো এপ্রিলে এই সংকট শুরু হয়। সেসময় সার্বরা মেয়র নির্বাচন বয়কট করেছিল। তা সত্ত্বেও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় এবং সার্ব অধ্যুষিত অঞ্চলেও আলবেনিয়ান প্রার্থীরা মেয়র নির্বাচিত হয়। অবশ্য সার্বিয়ানরা নির্বাচন বয়কট করায় সেসময় সবমিলিয়ে মাত্র ৪ শতাংশ ভোট পড়েছিল।

উত্তরাঞ্চলে যেসব সার্বিয়ান বাস করেন সেখানে গেলো ২৫ মে তিনজন মেয়র দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ফলে যেসব মেয়র দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন তাদের বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করেন তারা। এরই প্রতিবাদে রাস্তায় নামেন সার্বরা। এমনকি সরকারি ভবনে ঢুকে পড়ার চেষ্টাও করেন তারা।

কেফোর এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, একাধিক দেশ থেকে আসা তাদের ফোর্সের কমপক্ষে ২৫ জন কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। তাদের চিকিৎসা চলছে। ইতালি এবং হাঙ্গেরির সেনাদের বেছে বেছে আক্রমণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের মতো ইউরোপীয় ইউনিয়নও উত্তর কসোভোর পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার জন্য কসোভান কর্তৃপক্ষকে অভিযুক্ত করেছে এবং সেখানে জাতিগত উত্তেজনা ছড়িয়ে দিতে পারে এমন যেকোনও পদক্ষেপের বিরুদ্ধে সতর্ক করেছে।

Advertisement

বিবিসি বলছে, সার্বিয়ান এবং প্রধানত আলবেনিয়ান বাসিন্দাদের মধ্যে বছরের পর বছর ধরে টানাপোড়েনের সম্পর্কের পর ২০০৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে সার্বিয়া থেকে স্বাধীনতা ঘোষণা করে কসোভো। এরপর যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রধান দেশগুলোর কাছ থেকে স্বীকৃতি পেয়েছে তারা।

কিন্তু শক্তিশালী মিত্র রাশিয়ার সমর্থনপুষ্ট সার্বিয়া কসোভোকে স্বীকৃতি দিতে অস্বীকার করেছে বরাবরই। একইসঙ্গে কসোভোর উত্তর দিকে বসবাস করা জাতিগত সার্বিয়ানরা কসোভোর কেন্দ্রীয় সরকারের আইনসহ কোনও কিছু মানতে চান না।

যদিও জাতিগত আলবেনিয়ানরা কসোভোর মোট জনসংখ্যার ৯০ শতাংশেরও বেশি। এরপরও সার্বরা উত্তরাঞ্চলের জনসংখ্যার মধ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগোষ্ঠী হিসেবে রয়ে গেছে।

কসোভোর রাজধানী প্রিস্টিনায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত জেফ্রি হোভেনিয়ার বলেছেন, সার্ব সংখ্যাগরিষ্ঠ চারটি পৌরসভায় জোরপূর্বক জাতিগত-আলবেনিয়ান মেয়র বসানোর সিদ্ধান্তের ‘পরিণাম কী হতে পারে তা আগে থেকেই বুঝেছিল’ যুক্তরাষ্ট্র।

কসোভোর শক্তিশালী মিত্র দেশ যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, তারা প্রধানমন্ত্রী আলবিন কুর্তিকে তার পদক্ষেপ পরিবর্তন করার জন্য ‘দৃঢ়ভাবে পরামর্শ’ দিয়েছে। কিন্তু যুত্তরাষ্ট্রের সেসব পরামর্শ উপেক্ষা করা হয়েছে।

Advertisement

ফলস্বরূপ মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটোর ‘ডিফেন্ডার ইউরোপ ২৩’ মহড়ায় কসোভোর অংশগ্রহণ বাতিল করা হয়েছে।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত জেফ্রি হোভেনিয়ার বলেছেন, কসোভোর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র অন্যান্য ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বিবেচনা করছে এবং বর্তমানে কসোভোকে ব্যাপক আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পাইয়ে দিতে বা ইইউ এবং ন্যাটোর সদস্য করার প্রচেষ্টায় সহায়তা করার ‘কোনও উৎসাহ নেই’ ওয়াশিংটনের।

অবশ্য সার্বিয়া এবং কসোভোর নেতারা সহিংসতার জন্য একে অপরকে অভিযুক্ত করেছেন। সার্বিয়ার প্রেসিডেন্ট আলেকসান্ডার ভুসিক বলেছেন, কসোভোর প্রধানমন্ত্রী আলবিন কুর্তি এই বিশৃঙ্খলার জন্য একাই দায়ী।

অন্যদিকে কুর্তি দাবি করেছেন, জেভেকানের বিক্ষোভকারীরা সার্বির রাজধানী বেলগ্রেডের নির্দেশে একগুচ্ছ চরমপন্থি হিসেবে কাজ করছে।

তবে ন্যাটো জোটের প্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ বলেছেন, সহিংসতা অবশ্যই বন্ধ করতে হবে। তিনি কসোভোতে ন্যাটোর শান্তিরক্ষা বাহিনীকে উল্লেখ করে ‘কেফোর সৈন্যদের বিরুদ্ধে বিনা প্ররোচনায় হামলার’ তীব্র নিন্দা করেছেন।

Advertisement
Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক রুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন লগিন

রিপ্লাই দিন

আর্কাইভ

শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১ 

জাতীয়

জাতীয়7 mins ago

বরিশাল-সিলেটের পুলিশ কমিশনারসহ ৫ এসপিকে প্রত্যাহারের নির্দেশ

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু করার জন্য বরিশাল ও সিলেটের পুলিশ কমিশনারসহ ৫ পুলিশ সুপারকে (এসপি) প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছে...

রাষ্ট্রপতি-মো.-সাহাবুদ্দিন রাষ্ট্রপতি-মো.-সাহাবুদ্দিন
জাতীয়7 mins ago

মার্কিনিদের মানবাধিকার শেখাবে বাংলাদেশ : রাষ্ট্রপতি

মার্কিনিরা যেন আমাদের মানবাধিকার না শেখায়। বরং বাংলাদেশ তাদের মানবাধিকার শেখাবে। যারা আমাদের মানবাধিকার শেখাতে চায়, তাদের মাস্টার আমরা। বলেছেন...

হাইকোর্ট হাইকোর্ট
আইন-বিচার1 hour ago

তফসিলের বৈধতা নিয়ে রিটের আদেশ আজ নয় কাল

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল স্থগিত চেয়ে দায়ের করা রিটের আদেশের দিন পিছিয়ে আগামীকাল সোমবার (১১ ডিসেম্বর) ধার্য করেছেন হাইকোর্ট।...

পেঁয়াজ পেঁয়াজ
জাতীয়1 hour ago

সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে এসেছে ৭৪৩ টন পেঁয়াজ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে একদিনে ৭৪৩ টন ভারতীয় পেঁয়াজ এসেছে। গতকাল শনিবার (৯ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা পর্যন্ত ২৬ ট্রাকে এ পেঁয়াজ...

মাদকবিরোধী মাদকবিরোধী
অপরাধ2 hours ago

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৩১   

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। অভিযানে মাদক বিক্রি ও...

জাতীয়2 hours ago

চলছে আপিল শুনানি: প্রার্থিতা ফিরে পেলেন যারা

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থিতা ফিরে পেতে ও বৈধ মনোনয়ন বাতিল চেয়ে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আপিল করেছেন রেকর্ড সংখ্যক ৫৬১...

জাতীয়3 hours ago

ফের দূষিত শহরের তালিকায় শীর্ষে ঢাকা

বিশ্বের দূষিত বায়ুর শহরের তালিকায় শীর্ষ স্থানে অবস্থান করছে ঢাকা। রাজধানী শহরটির স্কোর ২৩৭, যা ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ বলে বিবেচনা করা...

প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী
জাতীয়3 hours ago

‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর দেশে মানবাধিকার বলে কিছু ছিল না’

পঁচাত্তরের পনেরোই আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পর বাংলাদেশে মানবাধিকার বলে আর কিছু ছিল না। বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (১০...

ব্যারিস্টার-মইনুল-হোসেন ব্যারিস্টার-মইনুল-হোসেন
আইন-বিচার3 hours ago

সুপ্রিম কোর্টের বিচারকাজ বন্ধ থাকবে অর্ধবেলা

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের মৃত্যুতে অর্ধবেলা আপিল বিভাগের বিচারকাজ বন্ধ...

অপরাধ4 hours ago

তমিজী যদি মানসিক রোগী হন তাহলে রিহ্যাবে পাঠাবো: হারুন

আলোচিত ব্যবসায়ী আদম তমিজী হক যদি মানসিক রোগী হন তাহলে তাকে রিহ্যাবে পাঠানো হবে। আর যদি তিনি ইন্টেনশনালি বাংলাদেশে বসে...

Advertisement
জাতীয়7 mins ago

বরিশাল-সিলেটের পুলিশ কমিশনারসহ ৫ এসপিকে প্রত্যাহারের নির্দেশ

রাষ্ট্রপতি-মো.-সাহাবুদ্দিন
জাতীয়7 mins ago

মার্কিনিদের মানবাধিকার শেখাবে বাংলাদেশ : রাষ্ট্রপতি

প্রেস ক্লাব
রাজনীতি46 mins ago

হাজারো নেতাকর্মীর স্লোগানে মুখরিত প্রেস ক্লাব

বিএনপির-স্থায়ী-কমিটির-সদস্য-সেলিমা-রহমান
বিএনপি47 mins ago

অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দেখাতে চাইছে সরকার: সেলিমা রহমান

রাজনীতি55 mins ago

প্রার্থিতা ফিরে পেয়ে চুন্নুকে নিয়ে যা বললেন নৌকা প্রার্থী

হাইকোর্ট
আইন-বিচার1 hour ago

তফসিলের বৈধতা নিয়ে রিটের আদেশ আজ নয় কাল

পেঁয়াজ
জাতীয়1 hour ago

সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে এসেছে ৭৪৩ টন পেঁয়াজ

গাজায়-নিহতদের-প্রায়-অর্ধেক-শিশু
আন্তর্জাতিক1 hour ago

গাজায় নিহতদের প্রায় অর্ধেক শিশু

তথ্য-প্রযুক্তি2 hours ago

প্লাস্টিক বর্জ্য অপসারণের যুগান্তকারী সমাধান!

ঢাকা2 hours ago

আইল্যান্ডে প্রাইভেটকারের ধাক্কা, নিহত ২

রাজশাহী4 days ago

বড় ভাইয়ের মৃত্যুর খবরে মারা গেলেন ছোট ভাইও

ইন্সপেক্টর ফ্রেডরিক্_স
বলিউড5 days ago

বিদায় সিআইডি খ্যাত ইন্সপেক্টর ফ্রেডরিক্‌স

জাতীয়5 days ago

খালেদা জিয়ার সাবেক সহকারী প্রেস সচিবের মাইক বন্ধ করলেন মিলার

এশিয়া21 hours ago

সংসদ সদস্যের বাড়ি থেকে ২৯০ কোটি টাকা উদ্ধার

দুর্ঘটনা2 days ago

বাসের চাপায় মিশে গেলো বিসিএস ক্যাডারের স্বপ্ন!

আইন-বিচার4 days ago

প্রধান বিচারপতির দেখা মিলেনি শাহজাহান ওমরের

শাকিব,-বুবলি,-তাপস,-মুন্নি
ঢালিউড6 days ago

তাপস-বুবলীর ‘প্রেম’ নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন শাকিব

চট্টগ্রাম21 hours ago

পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে মাঠে নামলো প্রশাসন

জাতীয়5 days ago

দেশের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় যুক্ত হলো সামরিক ড্রোন

ঢাকা2 days ago

নৌকার প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিলে ইসিতে গেলেন এ কে আজাদ

আওয়ামী লীগ2 weeks ago

নির্বাচনে বিএনপি বাধাদানের চেষ্টা করছে তবুও চুপ সভ্য দেশগুলো

আওয়ামী লীগ2 weeks ago

প্রয়োজনে শরিকদের জন্য ১০০ আসন ছাড়া হবে: কাদের

টলিউড3 weeks ago

ডিবি অফিস থেকে বেরিয়ে যা বললেন অভিনেত্রী তিশা

আওয়ামী লীগ3 weeks ago

আওয়ামী লীগের প্রায় ১৯০টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি

র‌্যাব-অভিযান
অপরাধ4 weeks ago

প্লাস্টিকে মোড়ানো ব্যাগ থেকে উদ্ধার হলো ৬ ককটেল

সিন্ডিকেট
জাতীয়1 month ago

মাথায় বাড়ি দিয়ে বাজার সিন্ডিকেটকে ধরুন: বাণিজ্যমন্ত্রীকে তাপস

জাতীয়1 month ago

যেকোনো মূল্যে ২৯ জানুয়ারির আগেই নির্বাচন: সিইসি

বিএনপি1 month ago

বিএনপিতে সব ‘ইয়েস স্যার, রাইট স্যার’ করে: হাফিজ

জাতীয়1 month ago

বেলজিয়াম সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী

সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল
জাতীয়1 month ago

কমিশনের হাতে আর কোনো বিকল্প নেই: সিইসি

সর্বাধিক পঠিত