Connect with us

ফুটবল

রেকর্ডের দিনে মেসি বললেন, ম্যাচ সহজ ছিল না

Avatar of author

Published

on

কোপা আমেরিকার ইতিহাসে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড এখন লিওনেল মেসির দখলে। এতদিন পর্যন্ত চিলির সের্হিও লিভিংস্টোনের সাথে ভাগাভাগি অবস্থানে ছিলেন মেসি। এই প্রয়াত গোলরক্ষকের ৩৪ টি ম্যাচ খেলার রেকর্ড পেরিয়ে মেসি এখন ৩৫ টি ম্যাচ ঝুলিতে নিয়ে অবস্থান করছেন। এমন দিনে দলও জিতেছে কোপা আমেরিকার উদ্বোধনী ম্যাচে।

মেসির হাতে আরও সুযোগ ছিল। গোল করতে পারেননি। তবে গোল করিয়েছেন। একটি গোলে সরাসরি অবদান ছিল তার। আর অন্য গোলটিতেও মূল কাজটুকু করেছেন। আটালান্টার মার্সিডিজ বেঞ্জ স্টেডিয়ামে কানাডার বিপক্ষে গোল পেয়েছেন হুলিয়ান আলভারেজ ও লাউতারো মার্টিনেজ।

প্রথমার্ধ ছিল গোলশূন্য। এরপর দ্বিতীয়ার্ধ শুরু হওয়ার পর ৪৯ মিনিটে আলভারেজের পা থেকে প্রথম গোল আসে। যেখানে ম্যাক অ্যালিস্টারকে বল বাড়িয়েছিলেন মেসি। আর অ্যালিস্টারের পায়ের খোঁচাতেই আলভারেজ পেয়ে যান দলের পক্ষে প্রথম গোল।

এরপর ৮৮ মিনিটের মাথায় আর্জেন্টাইন অধিনায়কের চমৎকার এক থ্রু-পাসে গোল করতে ভুল করেননি লাউতারো মার্তিনেজ। এই গোলের পর উচ্ছ্বাসে মেতে ওঠে আকাশী-নীল জার্সিধারীরা।

আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়েরা মোট ৬৫ শতাংশ বলের দখলে ছিলেন। আর ১৯ টি শটের মধ্যে লক্ষ্যে ছিল ৯ টি শট। গোলের সুযোগ মিস না করলে হয়তো ব্যবধান আরও বাড়িয়ে নিতে পারতো মেসি বাহিনী।

ম্যাচ শেষে মেসি বলেন, ‘আমরা ধৈর্য্য নিয়ে বলের দখল নিই এবং আক্রমণ চালাই। আজ আমাদের ফাঁকা জায়গা খুঁজে পেতে বেশ সংগ্রাম করতে হয়েছে। বেশিরভাগ প্রতিপক্ষ আমাদের চেয়ে আলাদা ধরনের ফুটবল খেলে। যার বিপরীতে আমাদের মনোবল শক্ত রাখতে হয় এবং লক্ষ্য ছিল বল নিয়ন্ত্রণে রেখে সুযোগ আসলেই তা কাজে লাগানোর।’

Advertisement

আর্জেন্টিনা অধিনায়ক আরও যোগ করেন, ‘আমরা জানতাম তাদের সঙ্গে কঠিন ম্যাচ হবে, কারণ তারা বেশ শরীরি ভাষায় জবাব দেয়। প্রথমার্ধে তো তেমন সুযোগই দেয়নি আমাদের। সৌভাগ্যবশত দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই আমরা গোল পেয়ে যাই, কিন্তু এরপরও ম্যাচ খুব একটা সহজ ছিল না।’

 

এম/এইচ

Advertisement

ফুটবল

স্পেনে রঙিন ইউরোর সেরা একাদশ

Published

on

ইউরোপিয়ান ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা (উয়েফা) থেকে ইউরো-২৪ এর সেরা একাদশ ঘোষণা করা হয়েছে।  যেখানে ৫ টি দলের খেলোয়াড়েরা জায়গা করে নিয়েছেন। আর স্পেন দল থেকেই সর্বোচ্চ ৬ জন খেলোয়াড় আছেন।

উয়েফার সেরা একাদশে ফ্রান্স থেকে ২ জন খেলোয়াড় আছেন। একজন করে খেলোয়াড় জায়গা পেয়েছেন; ইংল্যান্ড, সুইজারল্যান্ড, জার্মানি থেকে। খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স, দলে তাদের প্রভাব- এসব বিবেচনায় আনা হয়েছে সেরা একাদশ গঠন করার ক্ষেত্রে।

৪-৩-৩ ফর্মেশনে সাজানো হয়েছে এই সেরা একাদশ। স্পেন থেকে আছেন লামিনে ইয়ামাল, নিকো উইলিয়ামস, দানি অলমো, ফাবিয়ান রুইজ, রদ্রি ও মার্ক কুকুয়েরা। ফ্রান্স থেকে গোলরক্ষক মাইক মাইনিয়, রক্ষণে উইলিয়াম সাবিলা আছেন। জার্মানি, সুইজারল্যান্ড ও ইংল্যান্ড থেকে আছেন; জামাল মুসিয়ালা, ম্যানুয়েল আকাঞ্জি, কাইল ওয়াকার।

ইউরো-২০২৪ এর সেরা একাদশ মাইক মাইনিয় (ফ্রান্স); কাইল ওয়াকার (ইংল্যান্ড), উইলিয়াম সালিবা (ফ্রান্স), ম্যানুয়েল আকাঞ্জি (সুইজারল্যান্ড), মার্ক কুকুরেয়া (স্পেন); রদ্রি (স্পেন), দানি ওলমো (স্পেন), ফাবিয়ান রুইজ (স্পেন); লামিন ইয়ামাল (স্পেন), জামাল মুসিয়ালা (জার্মানি), নিকো উইলিয়ামস (স্পেন)।

 

Advertisement

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ফুটবল

অনির্দিষ্টকালের জন্য মাঠের বাইরে লিওনেল মেসি

Published

on

কোপা আমেরিকার ফাইনালে পুরো ম্যাচ খেলা হয়নি লিওনেল মেসির। চোট পেয়ে মাঠের বাইরে বেরিয়ে যেতে হয় ৯০ মিনিট শেষ হওয়ার আগেই। এবার জানা গেল, অনির্দিষ্টকালের জন্য মাঠের বাইরে থাকতে হবে এই আর্জেন্টাইন তারকাকে।

মেসির ক্লাব ইন্টার মায়ামি থেকে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। যেখানে বলা হয়, ‘মেডিকেল পরীক্ষার পর এটি নিশ্চিত হওয়া গেছে, লিওনেল মেসি তার ডান অ্যাঙ্কেলের লিগামেন্টে চোট পেয়েছেন। অধিনায়ককে কবে পাওয়া যাবে, সেটা তার সেরে ওঠার ওপর নির্ভর করছে।‘

কোপা আমেরিকার ফাইনালে কলম্বিয়াকে ১-০ গোলে পরাজিত করে আর্জেন্টিনা। টানা দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা জয়ের দিনে পুরো ম্যাচ খেলা হয় না মেসির। কান্নাভেজা চোখে মাঠ ছাড়তে দেখা যায় তাকে। এই ম্যাচ ছিল আনহেল দি মারিয়ার বিদায়ের ম্যাচ। আর্জেন্টিনার জার্সিতে বিদায় বলে দিয়েছেন এই উইঙ্গার।

সম্প্রতি একটি ইন্সটাগ্রাম পোস্টে মেসি নিজের আবেগ প্রকাশ করেন। যেখানে তিনি নিজের শারীরিক অবস্থা নিয়েও কথা বলেন। তিনি সেখানে জানিয়েছিলেন, মাঠে ফিরছেন খুব শীগ্রই। তবে তার ক্লাব মায়ামির বিবৃতি যা বলছে, তাতে মেসির মাঠে ফেরা হয়তো আরও পিছিয়ে যাবে।

 

Advertisement

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ফুটবল

পদত্যাগ করলেন ইংল্যান্ড কোচ গ্যারেথ সাউথগেট

Published

on

ইংল্যান্ড কোচের দায়িত্ব ছাড়লেন গ্যারেথ সাউথগেট। ইংল্যান্ডের ফুটবল সংস্থা থেকে আশা করা হয়েছিল, সাউথগেট হয়তো তার চুক্তি বৃদ্ধি করবেন। কিন্তু এই কোচ নতুন চ্যালেঞ্জ খোঁজার লক্ষ্য নিয়ে দায়িত্ব ছেড়েছেন।

ইংল্যান্ড ও স্পেনের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয় ইউরো ২০২৪ এর ফাইনাল। যেখানে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে শিরোপা অর্জন করে স্পেন। সেই ম্যাচটি ছিল ইংলিশদের হয়ে সাউথগেটের শেষ ম্যাচ। এই কোচ বিদায়ের আগে একটি বিবৃতি দিয়েছেন। যেখানে তিনি বলেন, ‘একজন গর্বিত ইংরেজ হয়ে, ইংল্যান্ডের খেলা ও ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করা আমার জন্য সম্মানের।‘

‘এটা আমার জন্য সবকিছুই ছিল এবং আমি এর জন্য সবকিছুই দিয়েছি। তবে এখন পরিবর্তন করার সময় নতুন এক অধ্যায়ের জন্য। স্পেনের বিপক্ষে রবিবারের ফাইনাল ইংল্যান্ডের ম্যানেজার হিসেবে আমার শেষ ম্যাচ।‘

সাউথগেটের বয়স ৫৩ বছর। শীর্ষ টুর্নামেন্টগুলোতে ধারাবাহিক পারফরম্যান্সের ক্ষেত্রে সফল এক ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। এই পদে ৮ বছর কাটালেন সাউথগেট। তিনি থাকাকালীন ইংল্যান্ড মোট ১০২ টি ম্যাচ খেলেছে।

সাউথগেটের অধীনে ২০১৮ বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল, ২০২২ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলেছে ইংল্যান্ড। এছাড়াও টানা দুইবার ইউরোর ফাইনাল খেললো ইংল্যান্ড, যা এই ইংলিশ কোচ দায়িত্বে থাকাকালীন।

Advertisement

 

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত