Bayanno Tv
শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮
×

ব্রাজিলে করোনা রোগীদের শ্বাসকষ্টের চিকিৎসায় অক্সিজেন হেলমেট!

  বায়ান্ন অনলাইন ডেস্ক ১৩ মে ২০২১, ১২:০১

ব্রাজিলে করোনা রোগীদের শ্বাসকষ্টের চিকিৎসায় অক্সিজেন হেলমেট!

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শ্বাসকষ্টের চিকিৎসায় ব্যবহৃত ভেন্টিলেটরের সংকট রয়েছে বিশ্বজুড়ে। একই পরিস্থিতি ব্রাজিলেও। মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অক্সিজেন হেলমেট উদ্ভাবন করেছে দেশটির চিকিৎসক-গবেষকরা। পুরোপুরি দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি পদ্ধতিতে এসেছে এ সাফল্য। তাই ল্যাটিন অ্যামেরিকার দেশটিতে ভেন্টিলেটর সংকট থাকলেও আগের মতো ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে না। ইতোমধ্যে যুগান্তকারী হেলমেটটিকে অনুমোদন দিয়েছে ব্রাজিলের স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

মার্কিন সংবাদ সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস জানায়, এই অক্সিজেন হেলমেটগুলো বাতাসের চাপ এমনভাবে নিয়ন্ত্রণ করে যাতে রোগীর শ্বাসপ্রশ্বাসে কোনো সমস্যা না হয়। রোগীর শরীরে কী পরিমাণ অক্সিজেনের চাহিদা রয়েছে সেই পরিমাণ অক্সিজেন এটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে সরবরাহ করে। দেশটির করোনা আক্রান্তদের বেশিরভাগ রোগীই ষাটোর্ধ। তাই বিদেশী প্রতিষ্ঠান থেকে প্রযুক্তি কিনে সস্তায় দেশেই অক্সিজেন হেলমেট তৈরি হচ্ছে।

ব্রাজিলের চিকিৎসক অ্যালিসন এলভিস বলেন, এই হেলমেটগুলোর বিশেষত্ব হলো বাতাসের চাপ এমনভাবে নিয়ন্ত্রণ করে যাতে রোগীর শ্বাসপ্রশ্বাস নিতে কোনো সমস্যা না হয়। রোগীর শরীরে কী পরিমাণ অক্সিজেনের চাহিদা আছে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে সরবরাহ করে এটি।

অক্সিজেন হেলমেটের উদ্ভাবক থিয়েগো ডিসুজা জানান, আমরা বিদেশ থেকে প্রযুক্তি এনে পরে এর জাতীয়করণ করেছি। এখন পুরো দেশজুড়ে এই হেলমেট উৎপাদিত হচ্ছে। অল্প খরচে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা করাই আমাদের লক্ষ্য ছিলো। আমরা তাতে সফল হয়েছি।

অক্সিজেন হেলমেট ব্যবহারকারী আর্থার রাউল বলেন, এই যন্ত্র খুবই কার্যকর। আমি অসুস্থ হওয়ার সময় এই যন্ত্রই ব্যবহার করেছিল চিকিৎসকরা। এখন আমি পুরোপুরি সুস্থ আছি।

করোনা মহামারিতে ব্রাজিলে রয়েছে বিশেষায়িত হাসপাতাল ও আইসিইউর সংকটও। ল্যাটিন অ্যামেরিকায় করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুতে শীর্ষে থাকা দেশগুলোর মধ্যে ব্রাজিল অন্যতম।

 

এসএন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র

প্রধান সম্পাদকঃ সৈয়দ আশিক রহমান
বেঙ্গল টেলিভিশন লিমিটেড

৪৩৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।