Bayanno Tv
বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ২ আষাঢ় ১৪২৮
×

ফিলিস্তিনি নয়, ইসরায়েলিদের পক্ষেই বাইডেনের সাফাই

  বায়ান্ন অনলাইন ডেস্ক ১৩ মে ২০২১, ১২:৪৩

ফিলিস্তিনি নয়, ইসরায়েলিদের পক্ষেই বাইডেনের সাফাই

ফিলিস্তিনের পশ্চিমতীরে ইসরায়েলি আগ্রাসন নয় বরং ইহুদিবাদীদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনিদের পাল্টা জবাবে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কপালে। ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে ফোনালাপ করে এ নিয়ে শান্তি প্রতিষ্ঠার আশ্বাসও দিয়েছেন তিনি।

মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, পশ্চিমতীরে চলমান সহিংসতা নিয়ে বাইডেন বলেছেন, ইসরায়েলের দিকে হাজার হাজার রকেট ছোড়ার জবাবে তেল আবিবের আত্মরক্ষার অধিকার রয়েছে।

গতকাল বুধবার এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউস থেকে জানানো হয়, নেতানিয়াহুর সঙ্গে ফোনালাপে স্থায়ী শান্তি পুনরুদ্ধারে উৎসাহ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন। পাশাপাশি, ইসরায়েলের নিরাপত্তা এবং জনগণকে রক্ষার বৈধ অধিকারের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের অটল সমর্থনের কথাও জানান তিনি।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, জেরুজালেম এবং তেল আবিবের বিরুদ্ধে হামাস ও অন্যান্য সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর রকেট হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন। বিভিন্ন ধর্মের মানুষের জন্য গুরুত্বপূর্ণ জেরুজালেমের মতো শহর অবশ্যই শান্তিপূর্ণ থাকতে হবে, এমন বিশ্বাসের কথাও বলেন তিনি। তবে বিবৃতিতে ফিলিস্তিনিদের বিষয়ে কোনো বক্তব্য দেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

ইসরায়েল-ফিলিস্তিনি ইস্যুতে কয়েকদিন আগে বাইডেন প্রশাসনের সমালোচনা করেছিলেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেছিলেন, নতুন প্রেসিডেন্টের দুর্বলতার কারণেই হামলার শিকার হচ্ছে তাদের ঘনিষ্ঠ মিত্র ইসরায়েল।

ট্রাম্প জানান, তাঁর শাসনামলে মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি বজায় ছিল। এর মূল কারণ তখন ইসরায়েলের শত্রুরা জানতো শক্তভাবে ইসরায়েলিদের পাশে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। আর তারা হামলার শিকার হলে মোক্ষম জবাব দেওয়া হবে।

তিনি আরও জানান, বাইডেনের আমলে বিশ্ব ক্রমেই সহিংস এবং অস্থিতিশীল হয়ে উঠছে। বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্টের দুর্বলতা এবং ইসরায়েলের প্রতি সমর্থনের অভাব এর কারণ। আমাদের মিত্রদের নতুন হামলার মুখে ঠেলে দিয়েছে বাইডেনের এই নীতি।

সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্রকে অবশ্যই সবসময় ইসরায়েলের পাশে থাকা উচিত এবং এটি পরিষ্কার বুঝিয়ে দিতে হবে ফিলিস্তিনিদের অবশ্যই সহিংসতা, সন্ত্রাস ও রকেট হামলা বন্ধ করতে হবে। যুক্তরাষ্ট্র ইসরায়েলের আত্মরক্ষার অধিকারকে সবসময় শক্তভাবে সমর্থন করবে, এটি পরিষ্কার করতে হবে।

ট্রাম্পের বক্তব্যের ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই সুর মেলালেন বাইডেন। একইসঙ্গে, ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর কাছে সরাসরি ফোন করে পাশে থাকার আশ্বাসও দিয়েছেন তিনি।

এদিকে, ইসরায়েলি আগ্রাসনে গাজায় আবারও দীর্ঘমেয়াদে যুদ্ধের শঙ্কা দেখা দিয়েছে। ইহুদি বাহিনীর বিমান হামলা ও হামাসের অব্যাহত রকেট হামলায় দুইপক্ষই যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে বলে সতর্ক করেছে জাতিসংঘ। দফায় দফায় ইসরায়েলি গোলায় এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছে ১৬ শিশুসহ ৬৯ জন ফিলিস্তিনি। এর মধ্যে হামাসের শীর্ষ এক কমান্ডারও রয়েছেন। তেল আবিব হামলার ব্যাপারে চুপ থাকলেও হামাসের রকেট হামলার নিন্দা জানিয়ে ইসরায়েলের পক্ষেই সাফাই গাইলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

চলমান সংঘাত বন্ধে দ্রুত বিশ্বনেতাদের আলোচনার টেবিলে বসা দরকার বলে জানিয়েছে রাশিয়া। বিশেষ করে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র, জাতিসংঘ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নকে এক টেবিলে বসার আহ্বান জানিয়েছেন রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লেভরভ। সংঘাত বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন মস্কো সফররত জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসও।

এর আগে, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের চলমান পাল্টাপাল্টি হামলায় গভীর উদ্বেগ জানিয়ে দুইপক্ষকেই পিছু হটার আহ্বান জানানো হয়েছে।

 

এসএন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র

প্রধান সম্পাদকঃ সৈয়দ আশিক রহমান
বেঙ্গল টেলিভিশন লিমিটেড

৪৩৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।