Connect with us

আন্তর্জাতিক

ব্রুনেইয়ের সুলতানের সম্পদ-বিলাসবহুল জীবন নিয়ে যা জানা যায়

Avatar of জাকির হোসাইন

Published

on

ব্রুনেইয়ের সুলতান হাসানাল বলকিয়াহ তিনদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে বাংলাদেশে আসছেন শনিবার (১৫ই অক্টোবর)। এই মূহুর্তে বিশ্বে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে সিংহাসনে থাকা শাসকদের অন্যতম তিনি।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ২০২০ সালে তার এই সফরটি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কোভিডের কারণে সেটি পিছিয়ে এখন হচ্ছে।

বিলাসবহুল জীবন

সুলতান হাসানাল বলকিয়াহ তার বিলাসবহুল জীবনযাত্রার জন্যও বেশ আলোচিত। এক সময় তিনি ছিলেন বিশ্বের শীর্ষ ধনী, এবং এখন তার সম্পদের পরিমাণ প্রায় তিন হাজার কোটি মার্কিন ডলার।

ছয়শো বছরের বেশি পুরনো রাজবংশের উত্তরাধিকারী সুলতান হাসানাল বলকিয়াহ উত্তরাধিকার সূত্রেই বিপুল সম্পত্তির মালিক হয়েছেন। এছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য এবং ইউরোপের বিভিন্ন দেশে অনেকগুলো বিলাসবহুল হোটেলের মালিক সুলতান। এছাড়াও এসব দেশে বিপুল ভূ-সম্পত্তিরও মালিকানা রয়েছে তার।

Advertisement

বিশাল প্রাসাদ, বিভিন্ন দেশে পাঁচ-তারা হোটেল, সোনায় মোড়ানো রোলস্‌রয়েস, হাজারো গাড়ির বহর, সোনার প্রলেপ দেয়া বোয়িং, মহামূল্য চিত্রকর্মের বিশাল সংগ্রহ, পোলো খেলা- হাসানাল বলকিয়াহর পরিচয়ের সাথে এসব বিষয় যেন ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে।

ব্রুনেইয়ের দারুসসালামে অবস্থিত সুলতানের প্রাসাদ ইস্তানা নুরুল ইমান আকারে ভ্যাটিকান বা বাকিংহাম প্রাসাদের চাইতে অনেকগুণ বড়।

ব্রুনেইয়ের সুলতান

সুলতানের প্রাসাদ ইস্তানা নুরুল ইমান

গিনেস বুক অব রেকর্ডস অনুযায়ী এটি বিশ্বের সবচাইতে বড় প্রাসাদ। এই প্রাসাদে কক্ষের সংখ্যা ১৭০০।

হাসানাল বলকিয়াহর রয়েছে এক বিশাল গাড়ির বহর। বলা হয়ে থাকে তার বহরে সাত হাজারের মত গাড়ি আছে, যার মোট মূল্য ৫০০ কোটি মার্কিন ডলার। তার গ্যারেজের সংখ্যা ১১০টি। বহরের সবচেয়ে আকর্ষণীয় বাহন তার সোনায় মোড়ানো রাজকীয় রোলস্‌রয়েস। বিশেষ ডিজাইনের রোলস্‌রয়েসের ছাদ খোলা এবং পেছনে ছাতা সংযুক্ত করা।

এতে চেপে তিনি নিজে যেমন শহর পরিভ্রমণ করেন, তেমনি রাজপরিবারের সদস্যদের বিয়েশাদীর অনুষ্ঠানের পর প্রথা অনুযায়ী প্রজাদের দর্শন দিতেও ব্যবহার হয় এই গাড়ি।

এটি ছাড়াও মোট ৬০০টির মত রোলস্‌রয়েস গাড়ির মালিক সুলতান। ধারণা করা হত, নব্বইয়ের দশকে বিক্রি হওয়া বিশ্বের অর্ধেক রোলস্‌রয়েসের মালিক সুলতান এবং তার পরিবার। এছাড়া কয়েকশ’ ফেরারি গাড়ি আছে তার। এর বাইরে ল্যাম্বরগিনি, পোর্সেসহ দুর্লভ এবং লিমিটেড এডিশন গাড়িরও লোভনীয় বহর আছে সুলতানের। সুলতানের প্রাইভেট জেট বহরে আছে বোয়িং ৭৪৭-৪০০, বোয়িং ৭৪৭-২০০ এবং একটি এয়ারবাস বিমান।

Advertisement

বিমান বহরের মধ্যে সবচেয়ে আলোচিত বোয়িংটি সোনার প্রলেপ দেয়া, যাকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে ‘উড়ন্ত প্রাসাদ’ বলে অভিহিত করা হয়।

সুলতান হাসানাল বলকিয়ার রয়েছে বহুমূল্য চিত্রকর্মের বিশাল সংগ্রহ।এর মধ্যে পাবলো পিকাসো এবং পিয়ের-অগস্ত্য রেনোয়াঁর একাধিক আসল চিত্রকর্মের মালিক তিনি। এছাড়া পশ্চিমা সঙ্গীতেরও বড় ভক্ত তিনি। তার ৫০তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে পারফর্ম করতে এসেছিলেন ‘কিং অব পপ’ খ্যাত মাইকেল জ্যাকসন। বলা হয়ে থাকে সেই অনুষ্ঠানের জন্য মাইকেল জ্যাকসনকে সাত মিলিয়ন ডলার পারিশ্রমিক দেয়া হয়েছিল।

এছাড়া সুলতান ঘোড়া পছন্দ করেন, এবং পোলো খেলতে ভালোবাসেন।

তিনি ফ্যাশনেবল পোশাক পরতে পছন্দ করেন। তার ব্যক্তিগত পরিচর্যার ব্যয়ও বিপুল। দ্য টাইমসের এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, সুলতানের চুল কাটার জন্য তার নিজের মালিকানাধীন ব্রিটেনের দ্য ডরচেষ্টার হোটেলের একজন নাপিত নিয়মিত বিমানের প্রথম শ্রেণীতে চেপে উড়ে যান ব্রুনেই। বিমান ভাড়া এবং অন্যান্য খরচ বাদে তার পারিশ্রমিক কুড়ি হাজার মার্কিন ডলার। এবং ওই নাপিতকে প্রতিবার নগদ অর্থে পারিশ্রমিক প্রদান করা হয়।

ব্রুনেইয়ের সুলতান

সিংহাসন আরোহন ও রাজনৈতিক ইতিহাস

Advertisement

১৯৬৭ সালে তার বাবা স্যার হাজি ওমর আলী সাইফুদ্দিন সিংহাসন ত্যাগ করার পর ১৯৬৮ সালের অগাস্টে হাসানাল বলকিয়াহ ব্রুনেইয়ের সুলতান হিসেবে রাজমুকুট পরিধান করেন।

সুলতান হাসানাল বলকিয়াহ একই সাথে ব্রুনেইয়ের প্রধানমন্ত্রী এবং দেশটির সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা। এছাড়া তিনি বিশ্বের শীর্ষ ধনীদের একজন, এবং শাসক হিসেবেও শীর্ষ সম্পদশালীদের অন্যতম। সুলতানের দুইজন স্ত্রী এবং ১১ জন সন্তান।

বিশ্বজুড়ে সর্বশেষ টিকে থাকা পূর্ণাঙ্গ রাজতন্ত্রগুলোর একটি এটি। ১৯৬৮ সালে সুলতান হন হাসানাল বলকিয়াহ। তখন থেকে তার হাতেই সব নির্বাহী ক্ষমতা। তিনি একাধারে প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র, প্রতিরক্ষা এবং অর্থমন্ত্রী।

ব্রুনেইয়ের সুলতান

সুলতান দুইজন স্ত্রী সঙ্গে

রাজতান্ত্রিক ইসলামিক শাসনে পরিচালিত দেশ ব্রুনেই একসময় ব্রিটেনের উপনিবেশ ছিল, ১৮৮৮ সালে ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনের অধীনে আসে দেশটি।

একমাত্র মালয় রাজ্য হিসেবে ১৯৬৩ সালে ব্রুনেই ব্রিটিশ উপনিবেশ হিসেবেই থাকার সিদ্ধান্ত নেয়, এর মাধ্যমে দেশটি মালয়েশিয়ার অংশ হবার জন্য গঠন করা ফেডারেশনে যোগদানের সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করেছিল।

এরপর ১৯৭৮ সালে ব্রিটিশ ঔপনিবেশিকতা থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য ব্রিটেনের সাথে আলোচনা শুরু করেন সুলতান হাসানাল বলকিয়াহ। এরপর ১৯৮৪ সালে পূর্ণ স্বাধীনতা পায় ব্রুনেই। কিন্তু ওই বছরই সুলতান দেশটির পার্লামেন্ট বাতিল করেন। এর বিশ বছর পর ২০০৪ সালে সুলতান পার্লামেন্ট নতুন করে চালু করেন। পর্যবেক্ষকেরা মনে করেন এর মাধ্যমে দেশটির জনগণকে কিছু রাজনৈতিক অধিকার দেয়া হয়।

Advertisement

২০১৪ সালে পূর্ব এশিয়ার প্রথম দেশ হিসেবে ব্রুনেই ইসলামিক শরিয়া আইনে দেশ চালানোর ঘোষণা দেয়। দেশটির আইনে পরকীয়া প্রেমের শাস্তি পাথর ছুড়ে মৃত্যুদণ্ড এবং চুরির সাজা হিসেবে হাত কেটে নেয়ার বিধান আছে।

১৯৯১ সালে তিনি দেশটিতে ‘মালয় মুসলিম মোনার্কি’ নামে নতুন এক রক্ষণশীল ভাবধারা চালু করেন, যার মাধ্যমে সম্রাটকে ধর্মের রক্ষাকারী বা রক্ষক হিসেবে উপস্থাপন করা হয়।

এছাড়া ২০১৯ সালে দেশটিতে সমকামিতার জন্য কঠোর শাস্তির বিধান রেখে একটি আইন করা হয়। আইনে পুরুষে পুরুষে যৌনকর্ম এবং পরকীয়া সম্পর্কের জন্য পাথর ছুড়ে মৃত্যুর বিধান রাখা হয়েছে।

ওই আইন পাস হওয়ার পর পশ্চিমা দুনিয়ায় ব্রুনেইয়ের সুলতানের ব্যাপক সমালোচনা হয়, যাতে সামিল হয়েছিলেন স্যার এলটন জন এবং জর্জ ক্লুনির মত বিখ্যাত তারকারাও।

সেসময় অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সুলতানকে দেয়া সম্মানসূচক ডিগ্রী প্রত্যাহারের ডাক দিয়েছিলেন মানবাধিকার কর্মীরা। আন্দোলনের মুখে সুলতান নিজেই তার ডিগ্রী ফিরিয়ে দেয়ার ঘোষণা দেন। যদিও সুলতান পরে ওই আইন থেকে মৃত্যুদণ্ডের বিধান রহিত করেন। কিন্তু ব্রুনেইয়ে আগে থেকেই সমকামিতা নিষিদ্ধ ছিল এবং এজন্য ১০ বছরের কারাদণ্ডের বিধান ছিল।

Advertisement

ব্রুনেইতে কোনো বিরোধী দল নেই, এমনকি স্বাধীনতার পর থেকে কোনো স্বাধীন সিভিল সোসাইটি গ্রুপও গড়ে উঠেনি। সরকারের বিরোধিতা গণ্য হতে পারে রাষ্ট্রদ্রোহিতা হিসেবেও, যার শাস্তি অত্যন্ত কঠিন।

১৯৪৬ সালে জন্মগ্রহণ করা হাসানাল বলকিয়াহ মালয়েশিয়া এবং ইংল্যান্ডে পড়াশোনা করেছেন। তিনি ব্রিটিশ রয়্যাল এয়ারফোর্সে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত একজন পাইলট।

দীর্ঘদিন ধরে দেশ শাসন করলেও প্রজাদের কাছে তিনি বেশ জনপ্রিয়। তেল ও গ্যাসের বিপুল মজুদের কল্যাণে ছোট্ট একটি দেশ ব্রুনেইয়ের জনগণের জীবনযাত্রার মান বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয়। এ দেশের মানুষকে কোন আয়কর দিতে হয় না সরকারকে। বরং বিভিন্ন সরকারি স্কিম বা কর্মসূচীর অধীনে সুলতান নিয়মিত জনগণের মধ্যে জমি এবং বাড়িঘর বিতরণ করে থাকেন। এসব কারণে ব্রুনেইয়ের জনগণের কাছে সুলতান বেশ জনপ্রিয়। সূত্র-বিবিসি

Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক করুন

রিপ্লাই দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এশিয়া

ভারতে কারখানায় আগুন, তিন শিশুসহ নিহত ৬

Published

on

আগুন

ভারতের উত্তরপ্রদেশে একটি ভবনের নিচতলার কারখানায় আগুন লেগে ওপরের তলায় থাকা একটি পরিবারের তিন শিশুসহ ছয় ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ফিরোজাবাদে এ ঘটনা ঘটে। আগুন লাগার ঘটনা নিশ্চিত করেছেন ফিরোজাবাদের পুলিশ সুপার আশিস তিওয়ারি।

পরিবারটির আরও তিন সদস্য আগুনে দগ্ধ হয়েছেন এবং তাদেরকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানিয়েছেন পুলিশ এ কর্মকর্তা।

তিওয়ারি বলেন, ফায়ার সার্ভিসের ১৮টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় আড়াই ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণ আনতে সক্ষম হয়। এলাকাটি ঘনবসতিপূর্ণ হওয়ায় উদ্ধারকারীদের বেগ পেতে হয়েছে।

ফিরোজাবাদের পুলিশ সুপার আশিস তিওয়ারি বলেন, ইনভার্টার কারখানায় আগুন লাগলে তা দ্রুত ওপরের তলায় ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে পরিবারটি থাকত।

Advertisement

কারখানায় শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে এর সঠিক কারণ এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ প্রাণহানির জন্য শোক প্রকাশ করেছেন এবং পরিবারটির জন্য ২ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেছেন।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

এশিয়া

মন্থর হয়ে আসছে চীনের বিক্ষোভ 

Published

on

চীন

চীনে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বিধি-নিষেধবিরোধী বিক্ষোভকারীদের ব্যাপারে কঠোর অবস্থানে গেছে নিরাপত্তা বাহিনী। এতে করে দেশটির সাংহাই ও বেইজিংয়ে গত কয়েক দিনের তুলনায় বিক্ষোভ কিছুটা মন্থর হয়ে গেছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীদের কাছে ফোনকল যাচ্ছে। পুলিশ পরিচয়ে তাদের কাছে ফোন যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন অনেকে। কীভাবে পুলিশ তাদের পরিচয় জানতে পারল তা স্পষ্ট নয়।

চীনের বেজিং সাংহাই ও উহানের মতো বেশ কিছু শহরে হওয়া ওই বিক্ষোভে হাজার হাজার লোকের সমাগম হয়েছিল। এসব বিক্ষোভে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে পদত্যাগ করার দাবি জানিয়ে শ্লোগান দেয়া হয় – যা চীনে অত্যন্ত বিরল ঘটনা।

বিক্ষোভের অবসান ঘটাতে চীনা কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই ব্যবস্থা নিতে শুরু করেছে।

দেশটির শহরগুলোতে পুলিশ উপস্থিতি অনেকগুণ বেড়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। কর্তৃপক্ষ বিক্ষোভকারীদের সতর্ক করে দিয়েছে যেন তারা আইন না ভাঙে।

Advertisement

বিক্ষোভ এর মধ্যেই স্তিমিত হয়ে আসছে। সোমবার (২৮ নভেম্বর) বেজিংয়ে যে বিক্ষোভ হবার কথা ছিলো – তার সমাবেশস্থলটি পুলিশ ঘিরে রাখার কারণে হতে পারেনি।

সাংহাই শহরে বিক্ষোভকারীদের ব্যবহৃত প্রধান সড়কটির পাশে  বড় বড় প্রতিবন্ধক বসানো হয়।

চীন

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সকালে বেজিং এবং সাংহাই শহরের এমন কিছু জায়গায় পুলিশকে টহল দিতে দেখা যায় যেখানে টেলিগ্রাম -অ্যাপভিত্তিক কিছু গ্রুপ লোকজনকে জড়ো হবার আহ্বান জানিয়েছিল।

সোমবার রাতে দক্ষিণাঞ্চলীয় হাংজু শহরে একটি ছোট আকারের বিক্ষোভ শুরু হবার কিছুক্ষণের মধ্যে পুলিশ এসে থামিয়ে দেয় এবং কয়েকজনকে গ্রেফতার করে।

খবরে বলা হয়, পুলিশ অনেক লোকের ফোন পরীক্ষা করে দেখছে যে সেখানে ভিপিএন আছে কিনা, টেলিগ্রাম বা টুইটারের মতো অ্যাপ আছে কিনা – যা চীনে নিষিদ্ধ।

Advertisement

গত দু’দিনে বেশ কিছু লোককে  আটকও করা হয়- যার মধ্যে এমন লোকও আছেন যারা রাস্তায় ছবি তোলার জন্য থেমেছিলেন।

বার্তা সংস্থা এএফপিকে একজন নারী বলেছেন – বেজিংয়ে একটি বিক্ষোভে যোগ দেবার পর তিনি ও তার পাঁচ বন্ধু পুলিশের ফোন পেয়েছেন। তাদের একজন ফোন না ধরায় পুলিশ তার বাড়িতে গিয়ে খোঁজ নেয় যে তিনি তাদের ভাষায় “অবৈধ সমাবেশে” গিয়েছিলেন কিনা ।

আরেক জন রয়টার্সকে জানিয়েছেন, তাদের কয়েকজনকে একটি থানায় গিয়ে “রোববার রাতে তারা কী কী করেছেন” তার একটি লিখিত বিবৃতি জমা দিতে বলা হয়েছে।

বেজিং-এর একজন বিক্ষোভকারী বলেছেন, তারা মরিয়া হয়ে তাদের ‘ইন্টারনেট চ্যাট হিস্ট্রি’ মুছে ফেলছেন।

চীনা সরকারের একজন মুখপাত্র এই বিক্ষোভের জন্য এমন কিছু শক্তিকে দায়ী করেন যাদের অসাধু উদ্দেশ্য ছিলো – তবে তিনি বিস্তারিত আর কিছু বলেননি।

Advertisement

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, আইনের শাসনের ব্যাপারে দেশটির অবস্থান একক এবং নাগরিকদের সব অধিকার ও স্বাধীনতা সুরক্ষিত, তবে সেগুলো অবশ্যই আইনের কাঠামোর মধ্যে প্রয়োগ করতে হবে।

গত সপ্তাহান্তে দেশটির বেশ ক’টি শহরে বিক্ষোভের ওপর চীনা নেতৃত্বের দিকে থেকে এটিই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে কঠোর বিবৃতি।

গত বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) পশ্চিম চীনের উরুমচিতে একটি বহুতল ভবনে আগুন লেগে ১০ জনের মৃত্যুর পর এ বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল। অনেক চীনাই মনে করেন, করোনার বিধি-নিষেধ না থাকলে এ মৃত্যু এড়ানো যেতো। তবে কর্তৃপক্ষ একথা অস্বীকার করছে।

একজন কর্মকর্তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল যে এ বিক্ষোভের কারণে ‘জিরো কোভিড’ নীতিতে পরিবর্তন আনা হবে কিনা। জবাবে তিনি বলেন,  চীন এসব বিধি-নিষেধে পরিমার্জন-পরিবর্তন অব্যাহত রাখবে।

চীনা স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ দেশের টিকাদান কর্মসূচিকে ত্বরান্বিত করার ঘোষণা করেছেন এবং বয়স্ক ব্যক্তিদের টিকাদানের ওপর জোর দিচ্ছে।

Advertisement

কেন্দ্রীয় সরকার স্থানীয় কর্তৃপক্ষকে তাদের এলাকায় কোভিড-১৯-এর উপস্থিতি শনাক্ত হওয়া মাত্রই কঠোর লকডাউন আরোপ করার সুপারিশ করেছে।

চীনে গত তিন বছর ধরে একের পর এক লকডাউন এবং গণহারে কোভিড পরীক্ষার জেরে মানুষের ধৈর্য সহ্যের চরম সীমায় পৌঁছেছে। সাংহাই এবং রাজধানী বেইজিংয়ের মত বড় বড় শহরে গত ক’দিনের বিক্ষোভে হাজার হাজার মানুষ যোগ দেয়।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

২০৩৫ সালের মধ্যে চীনের পারমাণবিক অস্ত্র ৩ গুণ বাড়বে: যুক্তরাষ্ট্র

Published

on

ব্রুনেইয়ের সুলতান

 

২০৩৫ সালের মধ্যে চীনের পারমাণবিক অস্ত্রভাণ্ডার বাড়বে। আর তা তিন গুণ বাড়তে পারে। জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চীনের পারমাণবিক অস্ত্রভাণ্ডার ২০৩৫ সালের মধ্যে তিন গুণ বাড়বে। এসময় চীনের পারমাণবিক ওয়ারহেড তিন গুণেরও বেশি বৃদ্ধি পেয়ে দেড় হাজারে পৌঁছাবে।

বাণিজ্য, তাইওয়ান প্রশ্ন, ইউক্রেন যুদ্ধ, উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাসহ একাধিক বিষয়কে কেন্দ্র করে সম্প্রতি চীন-যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের অবনতি হয়েছে। এমনকি তাইওয়ান নিয়ে বেইজিংকে কার্যত পরোক্ষ সামরিক হুমকিও দিয়ে রেখেছে ওয়াশিংটন।

Advertisement

আর তাই উভয় দেশই অপরের সামরিক সক্ষমতার ওপর কড়া নজর রাখছে। এই পরিস্থিতিতে চীনের পারমাণবিক অস্ত্রভাণ্ডার নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

এএফপি বলছে, যুক্তরাষ্ট্রের জন্য বেইজিংকে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে চিহ্নিত করেছে ওয়াশিংটন। এছাড়া চীনের সামরিক বাহিনীর ওপর প্রস্তুত করা বার্ষিক প্রতিবেদনে দেশটি তার পারমাণবিক ও প্রচলিত সামরিক শক্তি উভয়ের উন্নতির ওপর জোর দিয়েছে বলেও দেখা গেছে।

পেন্টাগনের ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, ‘মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগ ধারণা করছে, (চীনের) অপারেশনাল পারমাণবিক ওয়ারহেডের মজুদ ৪০০ ছাড়িয়ে গেছে। চীন যদি তার পারমাণবিক সম্প্রসারণের গতি অব্যাহত রাখে তবে দেশটি সম্ভবত ২০৩৫ সালের মধ্যে প্রায় ১৫০০ ওয়ারহেড মজুত করবে।’

অবশ্য ২০৩৫ সালের মধ্যে চীনের পারমাণবিক অস্ত্রভাণ্ডার ৩ গুণ বাড়লেও তা যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়ার অস্ত্রাগার থেকে অনেক পিছিয়েই থাকবে। কারণ বৈশ্বিক পরাশক্তি এই দেশ দু’টির প্রত্যেকের কয়েক হাজার করে পারমাণবিক ওয়ারহেড রয়েছে।

পেন্টাগনের ওই রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, চীন তার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের আধুনিকীকরণের জন্যও কাজ করছে যা পারমাণবিক অস্ত্র সরবরাহ করতে পারে। ২০২১ সালের মধ্যে এ ধরনের প্রায় ১৩৫টি পরীক্ষা চালিয়েছে দেশটি। যা কোনও সংঘাতে নিক্ষেপ করা ছাড়া বিশ্বের বাকি অংশের চেয়ে বেশি।

Advertisement

এছাড়া বেইজিংয়ের বিমান বাহিনীও দ্রত অগ্রগতি করছে বলে রিপোর্টে উল্লেখ করেছে পেন্টাগন। মার্কিন এই প্রতিরক্ষা দপ্তরের ভাষায়, ‘সক্ষমতার দিক দিয়ে চীন বেশ দ্রুততার সঙ্গে পশ্চিমা বিমান বাহিনীকে ধরে ফেলছে।’

প্রতিবেদন প্রকাশের আগে যুক্তরাষ্ট্রের একজন সিনিয়র প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা বলেন, চীনা বিমান বাহিনী ‘সকল ফ্রন্টে দ্রুত অগ্রগতি করার চেষ্টা করছে’। সামরিক সরঞ্জাম পরিচালনা এবং পাইলটসহ অন্যান্য কর্মী পরিচালনার ক্ষেত্রেও বেইজিং অগ্রগতি অর্জন করছে।

চীন যেভাবে ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে নিজেদের সামরিক বাহিনীকে নিযুক্ত করছে তার লক্ষ্য নিয়ে পেন্টাগনের প্রতিবেদনটি বলেছে, এই অঞ্চলে বেইজিং ‘আরও শক্তিশালী এবং আক্রমণাত্মক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।’

এই অঞ্চলটিতে বিশেষত তাইওয়ানের আশপাশের এলাকাও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। তাইওয়ান প্রণালীর স্ব-শাসিত গণতান্ত্রিক এই দ্বীপকে বেইজিং নিজের প্রদেশ বলে দাবি করে থাকে।

এমনিতেই তাইওয়ান নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে উত্তেজনা চলছে। তার ওপর গত আগস্টে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ানে সফর উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা আরও বাড়িয়ে দেয়।

Advertisement

এর জেরে পেলোসির সফরের পরপরই তাইওয়ানের চারপাশে বিশাল সামরিক মহড়া শুরু করে চীন। সেসব মহড়া এখনও অব্যাহত রয়েছে। যদিও তা সীমিত পরিমাণে এবং মহড়ার মাত্রা কমিয়ে দিয়েছে চীনের সশস্ত্র বাহিনী।

সিনিয়র মার্কিন প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা বলেছেন, তাইওয়ানের চারপাশে চীনা সামরিক তৎপরতা হ্রাস পেলেও তা আগের চেয়ে বেশি।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট
আইন-বিচার21 mins ago

ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড (আইবিবিএল) থেকে ভুয়া ঠিকানা ও কাগুজে কোম্পানির নাম ব্যবহার করে কয়েক হাজার কোটি টাকা উত্তোলন এবং...

ব্রুনেইয়ের সুলতান ব্রুনেইয়ের সুলতান
অপরাধ32 mins ago

আয়াত হত্যা: আরও ৭ দিনের রিমান্ডে আবির

চট্টগ্রামের ইপিজেডে ৫ বছরের শিশু আলীনা ইসলাম আয়াতকে অপহরণের পর হত্যায় মামলায় গ্রেপ্তার প্রধান আসামি আবির আলীর আরও ৭ দিনের...

ব্রুনেইয়ের সুলতান ব্রুনেইয়ের সুলতান
অপরাধ33 mins ago

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৩৮

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। অভিযানে মাদক বিক্রি ও...

ব্রুনেইয়ের সুলতান ব্রুনেইয়ের সুলতান
অপরাধ3 hours ago

প্রতিবন্ধী এক তরুণীকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ

ঢাকার কেরানীগঞ্জে দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার বাক প্রতিবন্ধী তরুণী মারা গেছেন। পরিবারের অভিযোগ, তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায়...

ব্রুনেইয়ের সুলতান ব্রুনেইয়ের সুলতান
করোনা ভাইরাস3 hours ago

করোনার ৪র্থ ডোজ টিকা দেয়ার সুপারিশ

করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় সম্মুখ সারির যোদ্ধা, ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি, গর্ভবতীদের করোনার ৪র্থ ডোজ টিকা দেয়ার সুপারিশ টিকা সংক্রান্ত কারিগরি কমিটির। বুধবার...

ব্রুনেইয়ের সুলতান ব্রুনেইয়ের সুলতান
জাতীয়15 hours ago

সীমান্তে নিরাপত্তায় যৌথ টহল দেবে বিজিবি-বিজিপি

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের অপতৎপরতা মেনে নেবে না বিজিবি ও বিজিপি। এজন্য যৌথ টহল শুরুর ব্যাপারে একমত হয়েছে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী...

ব্রুনেইয়ের সুলতান ব্রুনেইয়ের সুলতান
অপরাধ20 hours ago

ফুটবল দ্বন্দ্বে নয়, কোমরের বেল্ট নিয়ে বন্ধুকে হত্যা

ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে নয় বরং কোমরের বেল্ট নিয়ে চাঁদপুরে দশম শ্রেণির ছাত্র মো. বরকত ছুরিকাঘাতে তার বন্ধু মো. মেহেদীকে...

ব্রুনেইয়ের সুলতান ব্রুনেইয়ের সুলতান
বাংলাদেশ20 hours ago

ভারতে আরো একটি ব্যবসা বন্ধ করছে অ্যামাজন

ভারতে পাইকারি বিতরণ ব্যবসাও বন্ধ করে দিচ্ছে অ্যামাজন। বার্ষিক পরিচালন কার্যক্রম পর্যালোচনা এবং খরচ কমানোর অংশ হিসেবে এ পদক্ষেপ নিচ্ছে...

ব্রুনেইয়ের সুলতান ব্রুনেইয়ের সুলতান
বাংলাদেশ21 hours ago

বিশ্বকাপসহ টিভিতে যা দেখবেন আজ

ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপে আজ (২৯ নভেম্বর) ‘এ’ গ্রুপে রাত ৯টায় নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি হবে কাতার এবং ইকুয়েডরের প্রতিপক্ষ সেনেগাল। অন্যদিকে ‘বি’...

ব্রুনেইয়ের সুলতান ব্রুনেইয়ের সুলতান
জাতীয়21 hours ago

জঙ্গি তৎপরতা আর বিএনপির কার্যক্রম এক সূত্রে গাঁথা: তথ্যমন্ত্রী

জঙ্গি তৎপরতা আর বিএনপির কার্যক্রম এক সূত্রে গাঁথা। বলেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। আজ মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সচিবালয়ে...

Advertisement

আর্কাইভ

ব্রুনেইয়ের সুলতান
জাতীয়15 hours ago

সীমান্তে নিরাপত্তায় যৌথ টহল দেবে বিজিবি-বিজিপি

ব্রুনেইয়ের সুলতান
জাতীয়2 days ago

সরকারকে জ্বালানির মূল্য নির্ধারণে সংশোধনী অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা

ব্রুনেইয়ের সুলতান
রংপুর2 days ago

পা দিয়ে লিখে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে সেই মানিক

সতর্ক
আওয়ামী লীগ4 days ago

বিএনপির সম্মেলন নিয়ে অফিসিয়ালি কিছু আসেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ব্রুনেইয়ের সুলতান
জাতীয়4 days ago

খেতে খেতে চীনের প্রধানমন্ত্রীকে টানেলের প্রস্তাবটা দেই: প্রধানমন্ত্রী

ব্রুনেইয়ের সুলতান
জাতীয়5 days ago

ময়দার বস্তায় আটা বিক্রি

ব্রুনেইয়ের সুলতান
বলিউড6 days ago

উরফি এবার মদের গ্লাস দিয়ে শরীর ঢাকলেন

ব্রুনেইয়ের সুলতান
জাতীয়6 days ago

‘রাজনীতি করতে চাই না, রাজনীতিবীদদের সহযোগিতা চাই’

ব্রুনেইয়ের সুলতান
জাতীয়7 days ago

বিশ্বকাপে আমাদের টিম নেই এটা আসলে কষ্ট দেয় : প্রধানমন্ত্রী

হত্যা
অপরাধ7 days ago

প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে নানাকে হত্যা

সর্বাধিক পঠিত