Connect with us

আন্তর্জাতিক

বিয়ে করতে আসলেন কফিনে শুয়ে

Published

on

নৌযান

সাধারণত বিয়ে বাড়িতে বর বা কনে পক্ষে বিয়ে করতে আসলে দামি নামি গাড়ি কিংবা ঘোড়া নিয়ে আসেন। কিন্তু এইবার ঘটলো ভিন্ন একটি ঘটনা বর আসলেন কফিনে শুয়ে। ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে।

বিয়ের অনুষ্ঠানের একটি ভিডিও টিকটকে পোস্ট করেছেন এক ব্যবহারকারী। ভিডিওর শিরোনামে তিনি লিখেছেন, ‘এটি কি কোনো শেষকৃত্য অনুষ্ঠান? আরে না। এভাবেই আমার বন্ধু বিয়ের মঞ্চে উঠেছেন।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবাই কিন্তু প্রথমে ধন্দে পড়ে গিয়েছিলেন। তাঁরা ভেবেছিলেন, কফিনের ভেতরে নিশ্চয়ই কোনো মরদেহ আছে। তবে সবার ভুল ভাঙে কিছুক্ষণ পরই। হঠাৎ বর কফিনের ঢাকনা খুলে উঠে বসেন, আর বেরিয়ে এসে বিয়ের জন্য প্রস্তুত হন।

ভিডিওতে বর বা কনের পরিচয় জানানো হয়নি। উদ্ভট ওই পরিকল্পনার পর তাঁদের প্রতিক্রিয়া কেমন ছিল, তা-ও দেখা যায়নি। তবে ভিডিওটি দেখে যে অনেকে মোটেও খুশি হননি, তা বোঝা যায় তাঁদের মন্তব্য থেকে।

বেশির ভাগ মানুষের ভাষ্য, এমন কর্মকাণ্ড একেবারেই ‘অসম্মানজনক’। একজন লিখেছেন, ‘আমি সেখানে থাকলে বিয়েই ভেঙে দিতাম।’ আরেকজন মন্তব্য করেছেন, ‘আমার কাছে এটা একেবারেই অসহ্য। কোনো অনুষ্ঠানে এমন হলে আমি সেখানে থাকবই না।’

Advertisement

কেউ কেউ আবার বরের আগমনের এই ধরনকে মজা হিসেবেই নিয়েছেন। যেমন একজন বলেছেন, ‘বর কি বোঝাতে চাচ্ছেন যে বিয়ে করলে তাঁর জীবন শেষ হয়ে যাবে?’

বিয়ের উৎসবে এমনই উদ্ভট এক কাণ্ড গত মে মাসেই ঘটেছিল। ওই বিয়ের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক সাড়া ফেলে। ভিডিওতে দেখা যায়, বর ও কনে হাত ধরাধরি করে আগুনের ওপর দিয়ে হাঁটছেন। বর-কনের নাম জেব জোসেপ ও আমবির মিশেল। তাঁরা দুজনই টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রে কাজ করেন। ভিডিওটি ১ কোটি ৫০ লাখবারের বেশি দেখা হয়েছিল।

Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক করুন

রিপ্লাই দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এশিয়া

প্রেমিকাকে খু নের পর তার আংটি নতুন বান্ধবীকে উপহার

Published

on

নৌযান

প্রেমিকা শ্রদ্ধা ওয়ালকরকে খুনের পর তার হাতের সোনার আংটি অন্য এক বান্ধবীকে উপহার দিয়েছিলেন অভিযুক্ত প্রেমিক আফতাব! শ্রদ্ধা হত্যাকাণ্ডের তদন্তে নেমে এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এলো দিল্লি পুলিশের হাতে। পুলিশ শ্রদ্ধার হাতের সেই আংটি ইতোমধ্যেই খুঁজে পেয়েছে।

পুলিশ জানায়, শ্রদ্ধা এই সোনার আংটিটি পরতেন। শ্রদ্ধাকে খুনের পর আফতাব ওই আংটি তার হাত থেকে খুলে নিয়ে নিজের কাছে রেখে দেন। পরে আফতাব ওই আংটি নতুন বান্ধবীকে উপহার হিসাবে দিয়ে দেন। শ্রদ্ধাকে খুনের পর এই বান্ধবীকেই আফতাব তার ফ্ল্যাটে নিয়ে এসেছিলেন বলে ওই পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

আংটি উদ্ধার করে আফতাবের ওই বান্ধবীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ। সূত্রের খবর, ওই যুবতী পুলিশকে জানান যে আফতাবের সঙ্গে দেখা করতে ফ্ল্যাটে যাওয়ার পর তাকে ওই আংটি উপহার দিয়েছিলেন আফতাব। পুলিশ এই আংটি শ্রদ্ধার বাবাকে দেখিয়েছিল। শ্রদ্ধার বাবা জানান, ওই আংটি তিনিই শ্রদ্ধার জন্মদিনে উপহার দিয়েছিলেন। আংটি দেখে শ্রদ্ধার বাবা বিকাশ ওয়ালকর কান্নায় ভেঙে পড়েন।

এই আংটিকে শ্রদ্ধা হত্যা মামলায় গুরুত্বপূর্ণ প্রমাণ হিসেবেই বিবেচনা করছে পুলিশ। এই পরিস্থিতিতে আংটি উপহার দেওয়া ওই বান্ধবীর বক্তব্যও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

তদন্তকারী পুলিশ মনে করছে, শ্রদ্ধাকে খুন করার পর অভিযুক্ত আফতাব তার মাথার চুল কেটে ফেলেন। সেই চুল ফেলে দিয়ে আসা হয় ছতরপুরের জঙ্গলে। শ্রদ্ধার কাটা চুল পুলিশ ইতোমধ্যেই উদ্ধার করেছে। ডিএনএ পরীক্ষার পর সেই চুলের সঙ্গে শ্রদ্ধার বাবার চুলের ডিএনএ মিলে গিয়েছে। এর আগে খুঁজে পাওয়া হাড় এবং রক্তের ডিএনএ পরীক্ষার জন্যও পাঠানো হয়েছিল।

Advertisement

উল্লেখ্য, ছমাস আগে ১৮ মে দিল্লির মেহরৌলীতে একত্রবাসে থাকা প্রেমিকা শ্রদ্ধাকে খুনের অভিযোগ রয়েছে প্রেমিক আফতাব আমিন পুনাওয়ালার বিরুদ্ধে। অভিযোগ, শ্রদ্ধার দেহ ৩৫ টুকরো করে ছতরপুর ছিটমহলের জঙ্গলের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে দিয়েছিলেন আফতাব।

শ্রদ্ধার বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমে দিল্লি পুলিশ ১২ নভেম্বর শনিবার আফতাবকে গ্রেপ্তার করে। চলছে তদন্ত। একাধিক প্রমাণও উঠে এসেছে পুলিশের হাতে।

 

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

এশিয়া

‘আমি আমার বউকে ফেরত চাই’

Published

on

নৌযান

স্বামীরবাড়ি থেকে বাপেরবাড়ি গিয়ে আর ফিরছেন না স্ত্রী। অনেক অনুনয়-বিনয়েও কাজ হয়নি। তাকে ফেরত পেতে রোববার পোস্টার হাতে নিয়ে ধর্নায় বসেছিলেন এক যুবক। এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার পিংলা থানার জামনা এলাকায়। চোখের সামনে এমন কাণ্ড ঘটতে দেখে ভিড় জমে যায় ধর্নাস্থলে।

বছর দেড়েক আগে পিংলার জামনার এক তরুণীর সঙ্গে বিয়ে হয় মেদিনীপুর জেলার কেশপুর থানার আনন্দপুরের এক যুবকের। ওই যুবকের দাবি, মাস ছয়েক আগে তার স্ত্রী এসেছিলেন বাপেরবাড়িতে। এক নিকট আত্মীয়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে বাপের বাড়িতে যান তার স্ত্রী। এর পর থেকে তিনি আর স্বামীরবাড়িতে ফিরছেন না বলে অভিযোগ ওই যুবকের।

তিনি বলেন, স্ত্রীকে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে প্রাথমিকভাবে তিনি অনেক অনুনয়-বিনয় করেছিলেন। কিন্তু তার স্ত্রী রাজি হননি। শেষ পর্যন্ত স্ত্রীকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে রোববার মোক্ষম অস্ত্র প্রয়োগ করেন ওই যুবক। পিংলার জামনায় তার শ্বশুরবাড়ির সামনে উপস্থিত হয়ে হাতে প্ল্যাকার্ড নিয়ে ধর্নায় বসেন তিনি। সেই প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘আমি আমার বউকে ফেরত চাই।’

এই ঘটনা চাউর হতেই আশপাশের বাসিন্দারা এলাকায় ভিড় জমান। খবর পৌঁছয় থানাতেও। পিংলা থানার পুলিশও ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিষয়টি খতিয়ে দেখে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, যুবকের শেষ অস্ত্র প্রয়োগও বৃথা গিয়েছে। ধর্না দিলেও স্বামীর কাছে ফিরতে নারাজ বউ।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

অন্যান্য

ইউরোপীয় দেশগুলোকে আরও কঠিন সময় পার করতে হবে : ন্যাটো মহাসচিব

Published

on

নৌযান

ইউক্রেনের প্রতি সামরিক ও আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতা দিতে গিয়ে ইউরোপকে চড়া মূল্য দিতে হচ্ছে। সামনের দিকে ইউরোপীয় দেশগুলোর জনগণকে আরও কঠিন সময় পার করতে হবে। বললেন ন্যাটোর মহাসচিব ইয়ান্স স্টোলটেনবার্গ।

স্থানীয় সময় রোববার জার্মান দৈনিক ওয়াল্ট এম সটংকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন।

ন্যাটো মহাসচিব বলেন, খাদ্যপণ্য ও জ্বালানির দাম বেড়ে যাওয়ার অর্থ হচ্ছে ইউরোপীয় পরিবারগুলোর জন্য কঠিন দিন অপেক্ষা করছে।

অবশ্য এজন্য অনুতপ্ত না হয়ে বরং ইউক্রেনের প্রতি অর্থ ও অস্ত্রের চালান অব্যাহত রাখতে উৎসাহ দিয়েছেন স্টোলটেনবার্গ।

তিনি বলেন, ইউরোপীয় নাগরিকদের এ কথাটি ভুলে গেলে চলবে না যে, ইউক্রেনের জনগণ তাদের রক্ত দিয়ে যুদ্ধের মূল্য পরিশোধ করছে।

Advertisement

ন্যাটো মহাসচিব বলেন, ইউরোপীয় নাগরিকদের যুদ্ধের জন্য চড়া মূল্য দিতে হলেও ইউক্রেনের প্রতি তাদের সমর্থন অব্যাহত রাখত হবে। কারণ, ইউক্রেনের প্রতি সমর্থনই হচ্ছে শান্তি বজায় রাখার সর্বোত্তম উপায়।

তিনি সরাসরি কিয়েভের প্রতি জার্মান সমরাস্ত্রের চালান অব্যাহত রাখতে উৎসাহ দিয়ে বলেন, জার্মান অস্ত্র ইউক্রেনের জনগণের জীবন বাঁচাতে সাহায্য করছে। ইউক্রেনকে অস্ত্র যোগালে আলোচনার টেবিলে পশ্চিমাদের অবস্থান শক্তিশালী থাকবে।

ন্যাটো জোটে ইউক্রেনের সম্ভাব্য যোগদান ঠেকাতে গত ফেব্রুয়ারি মাসে দেশটির বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান শুরু করে রাশিয়া। এ অবস্থায় রাশিয়াকে কোণঠাসা করতে দেশটির ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপের পাশাপাশি কিয়েভের প্রতি নিজেদের সমরাস্ত্রের ভাণ্ডার উন্মুক্ত করে দেয় আমেরিকা ও ইউরোপীয় দেশগুলো। ইউক্রেনকে সমরাস্ত্র দেয়ার ক্ষেত্রে জার্মানি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করছে।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

নৌযান নৌযান
জাতীয়45 mins ago

নৌযান শ্রমিকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ানের সঙ্গে বৈঠক শেষে নৌযান শ্রমিকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার করা হয়েছে। আজ সোমবার (২৮ নভেম্বর) বিকেলে...

নৌযান নৌযান
আইন-বিচার2 hours ago

স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করলেন সারিকা

যৌতুকের দাবিতে মারধরের অভিযোগে স্বামী জি এস বদরুদ্দিন আহমেদ রাহীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন মডেল, অভিনেত্রী ও উপস্থাপিকা সারিকা সাবরিন। আজ...

নৌযান নৌযান
বাংলাদেশ4 hours ago

ফের পেছালো শিক্ষক নিয়োগের ফল

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফল আজ সোমবার (২৮ নভেম্বর) প্রকাশ করার কথা থাকলেও তা পেছানো হয়েছে। আগামী...

নৌযান নৌযান
আইন-বিচার4 hours ago

প্রেমের ফাঁদে নগ্ন ভিডিও করে প্রেমিকের চাঁদা দাবি

নোয়াখালী সদরে প্রেমের ফাঁদে কলেজছাত্রীর (১৮) নগ্ন ভিডিও করে চাঁদা দাবির ঘটনায় প্রেমিকসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ রোববার (২৭...

নৌযান নৌযান
শিক্ষা6 hours ago

৫০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কেউ পাস করেনি

চলতি বছরের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষায় সারা দেশের ২ হাজার ৯৭৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাসের হার শতভাগ। আর ৫০টি...

নৌযান নৌযান
অপরাধ9 hours ago

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৪০

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। অভিযানে মাদক বিক্রি ও...

নৌযান নৌযান
জাতীয়10 hours ago

‘শান্তিরক্ষা মিশনে নারীরা দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করছে’

আমাদের দেশের মেয়েরা শান্তিরক্ষা মিশনে বিশাল ভূমিকা পালন করছে। জাতিসংঘ কর্তৃক পরিচালিত বিশ্বব্যাপি শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের সেনা, নৌ, বিমান এবং...

নৌযান নৌযান
জাতীয়1 day ago

তৃতীয়বারের মতো সরকারকে ইসির চিঠি

জাতীয় নির্বাচন সংক্রান্ত আইন গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে (আরপিও) সংশোধনী বিলের অগ্রগতি জানতে আবারও সরকারকে চিঠি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ নিয়ে...

নৌযান নৌযান
আইন-বিচার1 day ago

জঙ্গি ছিনতাইয়ে আত্মসমর্পণের পর রিমান্ডে ঈদী আমিন

ঢাকার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণ থেকে পুলিশের চোখে স্প্রে করে প্রকাশক দীপন হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামি ছিনিয়ে নেয়ার...

নৌযান নৌযান
আইন-বিচার1 day ago

স্ত্রী হত্যায় ১৭ বছর পর স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূ বিবি ফাতেমা আক্তার পলিকে (২২) হত্যার দীর্ঘ ১৭ বছর পর তার স্বামী মঈন উদ্দিনের (৪২) মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন...

Advertisement

আর্কাইভ

নৌযান
আওয়ামী লীগ2 days ago

বিএনপির সম্মেলন নিয়ে অফিসিয়ালি কিছু আসেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নৌযান
জাতীয়2 days ago

খেতে খেতে চীনের প্রধানমন্ত্রীকে টানেলের প্রস্তাবটা দেই: প্রধানমন্ত্রী

নৌযান
জাতীয়3 days ago

ময়দার বস্তায় আটা বিক্রি

নৌযান
বলিউড4 days ago

উরফি এবার মদের গ্লাস দিয়ে শরীর ঢাকলেন

নৌযান
জাতীয়4 days ago

‘রাজনীতি করতে চাই না, রাজনীতিবীদদের সহযোগিতা চাই’

নৌযান
জাতীয়5 days ago

বিশ্বকাপে আমাদের টিম নেই এটা আসলে কষ্ট দেয় : প্রধানমন্ত্রী

হত্যা
অপরাধ5 days ago

প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে নানাকে হত্যা

নৌযান
বিএনপি5 days ago

‘আদালত থেকে জঙ্গি ছিনতাই সরকারের নতুন নাটক’

নৌযান
শিক্ষা6 days ago

অভিন্ন গ্রেডিং পদ্ধতি মানছে না বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়

নৌযান
ফুটবল1 week ago

‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ টি-শার্ট কাতার মাঠে

সর্বাধিক পঠিত