Connect with us

এশিয়া

ঘূর্ণিঝড় নালগায়ে’র আঘাতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭২

Avatar of তাসনিয়া রহমান

Published

on

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ফিলিপাইনের দক্ষিণ ও মধ্যাঞ্চলে মৌসুমি ঘূর্ণিঝড় নালগায়ে’র প্রভাবে প্রবল বর্ষণ এবং তার ফলে সৃষ্ট আকস্মিক বান ও ভূমিধসে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭২ জনে পৌঁছেছে। বিভিন্ন এলাকায় নিখোঁজ রয়েছেন ১৪ জন। এছাড়া আহত অবস্থায় ৩৩ জনকে উদ্ধার করেছেন ফিলিপাইনের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের কর্মীরা।

শনিবার (২৯ অক্টোবর) দেশটির মুখপাত্র বেরনার্দো রাফায়েলিতো আলেজান্দ্রো বেতার সংবাদমাধ্যম ডিজিএমএমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গেলো বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া এই দুর্যোগে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি প্রাণহানি হয়েছে ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ মাগিন্দানাওয়ে। প্রদেশটির বন্যা ও ভূমিধস কবলিত বিভিন্ন এলাকা থেকে এ পর্যন্ত ৬৭ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

এছাড়া পার্শ্ববর্তী সুলতান কুদরত প্রদেশে ২ জন, দক্ষিণ কোতাবাতো প্রদেশে ২ জন এবং ফিলিপাইনের মধ্যাঞ্চলীয় প্রদেশ ভিসায়াসের বিভিন্ন এলাকা থেকে আরও ৬ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে ডিজিএমএমকে জানিয়েছেন আলেজান্দ্রো।

ফিলিপাইন সাগরে গত কয়েকদিন ধরে চলা একটি নিম্নচাপ বৃহস্পতিবার ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয়। ফিলিপিনো আবহাওয়া দপ্তর এই ঝড়ের নাম দিয়েছে ‘নালগায়ে’। ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৬০ কিলোমিটার বেগে ধেয়ো আসা নালগায়ে ইতোমধ্যে শনিবার ভোর বেলা আছড়ে পড়েছে দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় কাতানদুয়ানেস প্রদেশে।

Advertisement

বৃহস্পতিবার রাত থেকেই এই ঝড়ের প্রভাবে রাজধানী ম্যানিলা ও তার আশপাশের অঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চলসহ সারা দেশে শুরু হয়েছে বর্ষণ ও দমকা হাওয়া। তবে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন প্রদেশে বৃষ্টিপাত ছিল অতিমাত্রায় প্রবল। সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, দক্ষিণাঞ্চলে এত বর্ষণ এর আগে দেখা যায়নি।

প্রবল বৃষ্টি, পাহাড়ি ঢল এবং সেই ঢলের কাদা, পাথর ও গাছ লোকালয়ে ভেসে আসায় শুক্রবার ভোরের আগেই মাগিন্দানাও, সুলতান কুদরত, দক্ষিণ কোতাবাতো ও ভিসায়াত প্রদেশের বিভিন্ন গ্রাম ও শহরে আকস্মিক বান ও ভূমিধস ঘটে। এই দিন সকাল থেকেই দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের কর্মীরা উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেছিলেন।

এশিয়া

ভারতে কারখানায় আগুন, তিন শিশুসহ নিহত ৬

Published

on

আগুন

ভারতের উত্তরপ্রদেশে একটি ভবনের নিচতলার কারখানায় আগুন লেগে ওপরের তলায় থাকা একটি পরিবারের তিন শিশুসহ ছয় ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ফিরোজাবাদে এ ঘটনা ঘটে। আগুন লাগার ঘটনা নিশ্চিত করেছেন ফিরোজাবাদের পুলিশ সুপার আশিস তিওয়ারি।

পরিবারটির আরও তিন সদস্য আগুনে দগ্ধ হয়েছেন এবং তাদেরকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানিয়েছেন পুলিশ এ কর্মকর্তা।

তিওয়ারি বলেন, ফায়ার সার্ভিসের ১৮টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় আড়াই ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণ আনতে সক্ষম হয়। এলাকাটি ঘনবসতিপূর্ণ হওয়ায় উদ্ধারকারীদের বেগ পেতে হয়েছে।

ফিরোজাবাদের পুলিশ সুপার আশিস তিওয়ারি বলেন, ইনভার্টার কারখানায় আগুন লাগলে তা দ্রুত ওপরের তলায় ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে পরিবারটি থাকত।

Advertisement

কারখানায় শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে এর সঠিক কারণ এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ প্রাণহানির জন্য শোক প্রকাশ করেছেন এবং পরিবারটির জন্য ২ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেছেন।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

এশিয়া

মন্থর হয়ে আসছে চীনের বিক্ষোভ 

Published

on

চীন

চীনে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বিধি-নিষেধবিরোধী বিক্ষোভকারীদের ব্যাপারে কঠোর অবস্থানে গেছে নিরাপত্তা বাহিনী। এতে করে দেশটির সাংহাই ও বেইজিংয়ে গত কয়েক দিনের তুলনায় বিক্ষোভ কিছুটা মন্থর হয়ে গেছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীদের কাছে ফোনকল যাচ্ছে। পুলিশ পরিচয়ে তাদের কাছে ফোন যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন অনেকে। কীভাবে পুলিশ তাদের পরিচয় জানতে পারল তা স্পষ্ট নয়।

চীনের বেজিং সাংহাই ও উহানের মতো বেশ কিছু শহরে হওয়া ওই বিক্ষোভে হাজার হাজার লোকের সমাগম হয়েছিল। এসব বিক্ষোভে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে পদত্যাগ করার দাবি জানিয়ে শ্লোগান দেয়া হয় – যা চীনে অত্যন্ত বিরল ঘটনা।

বিক্ষোভের অবসান ঘটাতে চীনা কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই ব্যবস্থা নিতে শুরু করেছে।

দেশটির শহরগুলোতে পুলিশ উপস্থিতি অনেকগুণ বেড়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। কর্তৃপক্ষ বিক্ষোভকারীদের সতর্ক করে দিয়েছে যেন তারা আইন না ভাঙে।

Advertisement

বিক্ষোভ এর মধ্যেই স্তিমিত হয়ে আসছে। সোমবার (২৮ নভেম্বর) বেজিংয়ে যে বিক্ষোভ হবার কথা ছিলো – তার সমাবেশস্থলটি পুলিশ ঘিরে রাখার কারণে হতে পারেনি।

সাংহাই শহরে বিক্ষোভকারীদের ব্যবহৃত প্রধান সড়কটির পাশে  বড় বড় প্রতিবন্ধক বসানো হয়।

চীন

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সকালে বেজিং এবং সাংহাই শহরের এমন কিছু জায়গায় পুলিশকে টহল দিতে দেখা যায় যেখানে টেলিগ্রাম -অ্যাপভিত্তিক কিছু গ্রুপ লোকজনকে জড়ো হবার আহ্বান জানিয়েছিল।

সোমবার রাতে দক্ষিণাঞ্চলীয় হাংজু শহরে একটি ছোট আকারের বিক্ষোভ শুরু হবার কিছুক্ষণের মধ্যে পুলিশ এসে থামিয়ে দেয় এবং কয়েকজনকে গ্রেফতার করে।

খবরে বলা হয়, পুলিশ অনেক লোকের ফোন পরীক্ষা করে দেখছে যে সেখানে ভিপিএন আছে কিনা, টেলিগ্রাম বা টুইটারের মতো অ্যাপ আছে কিনা – যা চীনে নিষিদ্ধ।

Advertisement

গত দু’দিনে বেশ কিছু লোককে  আটকও করা হয়- যার মধ্যে এমন লোকও আছেন যারা রাস্তায় ছবি তোলার জন্য থেমেছিলেন।

বার্তা সংস্থা এএফপিকে একজন নারী বলেছেন – বেজিংয়ে একটি বিক্ষোভে যোগ দেবার পর তিনি ও তার পাঁচ বন্ধু পুলিশের ফোন পেয়েছেন। তাদের একজন ফোন না ধরায় পুলিশ তার বাড়িতে গিয়ে খোঁজ নেয় যে তিনি তাদের ভাষায় “অবৈধ সমাবেশে” গিয়েছিলেন কিনা ।

আরেক জন রয়টার্সকে জানিয়েছেন, তাদের কয়েকজনকে একটি থানায় গিয়ে “রোববার রাতে তারা কী কী করেছেন” তার একটি লিখিত বিবৃতি জমা দিতে বলা হয়েছে।

বেজিং-এর একজন বিক্ষোভকারী বলেছেন, তারা মরিয়া হয়ে তাদের ‘ইন্টারনেট চ্যাট হিস্ট্রি’ মুছে ফেলছেন।

চীনা সরকারের একজন মুখপাত্র এই বিক্ষোভের জন্য এমন কিছু শক্তিকে দায়ী করেন যাদের অসাধু উদ্দেশ্য ছিলো – তবে তিনি বিস্তারিত আর কিছু বলেননি।

Advertisement

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, আইনের শাসনের ব্যাপারে দেশটির অবস্থান একক এবং নাগরিকদের সব অধিকার ও স্বাধীনতা সুরক্ষিত, তবে সেগুলো অবশ্যই আইনের কাঠামোর মধ্যে প্রয়োগ করতে হবে।

গত সপ্তাহান্তে দেশটির বেশ ক’টি শহরে বিক্ষোভের ওপর চীনা নেতৃত্বের দিকে থেকে এটিই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে কঠোর বিবৃতি।

গত বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) পশ্চিম চীনের উরুমচিতে একটি বহুতল ভবনে আগুন লেগে ১০ জনের মৃত্যুর পর এ বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল। অনেক চীনাই মনে করেন, করোনার বিধি-নিষেধ না থাকলে এ মৃত্যু এড়ানো যেতো। তবে কর্তৃপক্ষ একথা অস্বীকার করছে।

একজন কর্মকর্তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল যে এ বিক্ষোভের কারণে ‘জিরো কোভিড’ নীতিতে পরিবর্তন আনা হবে কিনা। জবাবে তিনি বলেন,  চীন এসব বিধি-নিষেধে পরিমার্জন-পরিবর্তন অব্যাহত রাখবে।

চীনা স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ দেশের টিকাদান কর্মসূচিকে ত্বরান্বিত করার ঘোষণা করেছেন এবং বয়স্ক ব্যক্তিদের টিকাদানের ওপর জোর দিচ্ছে।

Advertisement

কেন্দ্রীয় সরকার স্থানীয় কর্তৃপক্ষকে তাদের এলাকায় কোভিড-১৯-এর উপস্থিতি শনাক্ত হওয়া মাত্রই কঠোর লকডাউন আরোপ করার সুপারিশ করেছে।

চীনে গত তিন বছর ধরে একের পর এক লকডাউন এবং গণহারে কোভিড পরীক্ষার জেরে মানুষের ধৈর্য সহ্যের চরম সীমায় পৌঁছেছে। সাংহাই এবং রাজধানী বেইজিংয়ের মত বড় বড় শহরে গত ক’দিনের বিক্ষোভে হাজার হাজার মানুষ যোগ দেয়।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

এশিয়া

বৌদ্ধমন্দিরে সব সন্ন্যাসী মাদকাসক্ত

Published

on

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

থাইল্যান্ডের ফেটচাবুন প্রদেশের বুং সাম ফান জেলায় একটি বৌদ্ধমন্দিরে সন্ন্যাসীরা মাদক গ্রহণ করেন কি না, তা জানতে পরীক্ষা চালানো হয়েছিল। সেখানে মোট চার জন সন্ন্যাসী ছিলেন। ওই পরীক্ষায় কেউ কৃতকার্য হননি। তাই সন্ন্যাসীদের সবাইকে পাঠানো হয়েছে মাদক নিরাময়কেন্দ্রে।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) বার্তাসংস্থা এএফপির উদ্ধৃতি দিয়ে এ খবর জানিয়েছে বিবিসি।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) ওই পরীক্ষায় তাদের সবার শরীরে মেথামফেটামিন নামের এক ধরনের মাদকের উপস্থিতি পাওয়া যায়।

মাদকাসক্ত হিসেবে শনাক্ত হওয়ার পর ওই চার সন্ন্যাসীর ধর্মীয় আচারে অংশ নেয়ার ক্ষমতা কেড়ে নেয়া হয়েছে।

বুং সাম ফান জেলার কর্মকর্তা বোনলার্ট থিনটাপথই বলেন, ওই মন্দিরে এখন কোনো সন্ন্যাসী নেই। ধর্মীয় আচার কীভাবে পালন করবেন, তা নিয়ে স্থানীয়রা চিন্তায় রয়েছেন। তবে ওই মন্দিরে অন্য সন্ন্যাসীদের পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

Advertisement

থাইল্যান্ডে মাদক বেশ সহজলভ্য। ২০ ভাট (প্রায় ৬০ টাকা) খরচ করলে রাস্তাঘাটেই পাওয়া যায় মেথামফেটামিনের একটি ট্যাবলেট। জাতিসংঘের মাদক ও অপরাধবিষয়ক দপ্তরের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, মিয়ানমার থেকে মাদক পাচারের জন্য মূল পথগুলোর একটি থাইল্যান্ড।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়19 mins ago

বিএনপির নেতাকর্মীদের স্বাচ্ছন্দের ব্যবস্থা করছে সরকার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

১০ ডিসেম্বরের বিএনপির সমাবেশে খালেদা জিয়া যোগ দিলে আদালত ব্যবস্থা নেবেন। সমাবেশের নামে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নষ্ট করলে ভুল করবে। বিএনপির...

ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট
আইন-বিচার1 hour ago

ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড (আইবিবিএল) থেকে ভুয়া ঠিকানা ও কাগুজে কোম্পানির নাম ব্যবহার করে কয়েক হাজার কোটি টাকা উত্তোলন এবং...

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
অপরাধ2 hours ago

আয়াত হত্যা: আরও ৭ দিনের রিমান্ডে আবির

চট্টগ্রামের ইপিজেডে ৫ বছরের শিশু আলীনা ইসলাম আয়াতকে অপহরণের পর হত্যায় মামলায় গ্রেপ্তার প্রধান আসামি আবির আলীর আরও ৭ দিনের...

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
অপরাধ2 hours ago

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৩৮

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। অভিযানে মাদক বিক্রি ও...

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
অপরাধ4 hours ago

প্রতিবন্ধী এক তরুণীকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ

ঢাকার কেরানীগঞ্জে দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার বাক প্রতিবন্ধী তরুণী মারা গেছেন। পরিবারের অভিযোগ, তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায়...

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
করোনা ভাইরাস4 hours ago

করোনার ৪র্থ ডোজ টিকা দেয়ার সুপারিশ

করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় সম্মুখ সারির যোদ্ধা, ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি, গর্ভবতীদের করোনার ৪র্থ ডোজ টিকা দেয়ার সুপারিশ টিকা সংক্রান্ত কারিগরি কমিটির। বুধবার...

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়16 hours ago

সীমান্তে নিরাপত্তায় যৌথ টহল দেবে বিজিবি-বিজিপি

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের অপতৎপরতা মেনে নেবে না বিজিবি ও বিজিপি। এজন্য যৌথ টহল শুরুর ব্যাপারে একমত হয়েছে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী...

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
অপরাধ21 hours ago

ফুটবল দ্বন্দ্বে নয়, কোমরের বেল্ট নিয়ে বন্ধুকে হত্যা

ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে নয় বরং কোমরের বেল্ট নিয়ে চাঁদপুরে দশম শ্রেণির ছাত্র মো. বরকত ছুরিকাঘাতে তার বন্ধু মো. মেহেদীকে...

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বাংলাদেশ21 hours ago

ভারতে আরো একটি ব্যবসা বন্ধ করছে অ্যামাজন

ভারতে পাইকারি বিতরণ ব্যবসাও বন্ধ করে দিচ্ছে অ্যামাজন। বার্ষিক পরিচালন কার্যক্রম পর্যালোচনা এবং খরচ কমানোর অংশ হিসেবে এ পদক্ষেপ নিচ্ছে...

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বাংলাদেশ22 hours ago

বিশ্বকাপসহ টিভিতে যা দেখবেন আজ

ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপে আজ (২৯ নভেম্বর) ‘এ’ গ্রুপে রাত ৯টায় নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি হবে কাতার এবং ইকুয়েডরের প্রতিপক্ষ সেনেগাল। অন্যদিকে ‘বি’...

Advertisement

আর্কাইভ

স্বস্তিকা মুখোপাধ‍্যায়
বিনোদন17 mins ago

স্বস্তিকা মুখোপাধ‍্যায় গর্ভবতী, বাবা কে!

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়19 mins ago

বিএনপির নেতাকর্মীদের স্বাচ্ছন্দের ব্যবস্থা করছে সরকার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
স্বাস্থ্য23 mins ago

আলঝেইমার প্রতিষেধক যুগান্তকারী ‘লেকানেমাব’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
অর্থনীতি27 mins ago

রিটার্ন দাখিলের সময় বাড়ল আরও এক মাস

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ফুটবল35 mins ago

কঠিন সমীকরণে আজ মাঠে নামছে সাত দল

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বিনোদন52 mins ago

শোয়েব-সানিয়ার বিচ্ছেদ গুঞ্জন নিয়ে মুখ খুললেন আয়শা

আগ্রহী
লাইফস্টাইল54 mins ago

খাবারে আগ্রহী করে তুলুন বাড়ির ছোট সদস্যটিকে

আগুন
এশিয়া1 hour ago

ভারতে কারখানায় আগুন, তিন শিশুসহ নিহত ৬

ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট
আইন-বিচার1 hour ago

ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
অপরাধ2 hours ago

আয়াত হত্যা: আরও ৭ দিনের রিমান্ডে আবির

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়16 hours ago

সীমান্তে নিরাপত্তায় যৌথ টহল দেবে বিজিবি-বিজিপি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়2 days ago

সরকারকে জ্বালানির মূল্য নির্ধারণে সংশোধনী অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
রংপুর2 days ago

পা দিয়ে লিখে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে সেই মানিক

সতর্ক
আওয়ামী লীগ4 days ago

বিএনপির সম্মেলন নিয়ে অফিসিয়ালি কিছু আসেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়4 days ago

খেতে খেতে চীনের প্রধানমন্ত্রীকে টানেলের প্রস্তাবটা দেই: প্রধানমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়5 days ago

ময়দার বস্তায় আটা বিক্রি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বলিউড6 days ago

উরফি এবার মদের গ্লাস দিয়ে শরীর ঢাকলেন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়6 days ago

‘রাজনীতি করতে চাই না, রাজনীতিবীদদের সহযোগিতা চাই’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়7 days ago

বিশ্বকাপে আমাদের টিম নেই এটা আসলে কষ্ট দেয় : প্রধানমন্ত্রী

হত্যা
অপরাধ7 days ago

প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে নানাকে হত্যা

সর্বাধিক পঠিত