Connect with us

ইউরোপ

প্রধানমন্ত্রিত্ব হারানোর শঙ্কায় লিজ ট্রাস

Avatar of উম্মে রুম্মান ক্রান্তি

Published

on

প্রতিবন্ধী

যুক্তরাজ্যে অর্থনৈতিক বিশৃঙ্খলা ও চাপের মধ্যেই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেড় মাস আগে দায়িত্বগ্রহণ করেছেন লিজ ট্রাস। এরই মধ্যে চলতি সপ্তাহেই কনজার্ভেটিভ দলের বিদ্রোহী সদস্যরা তাকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টা শুরু করবে। যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম এই সংবাদ সামনে এনেছে।

সোমবার (১৭ অক্টোবর) আন্তর্জাতিক বার্তাসংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ডাউনিং স্ট্রিটের সতর্কতা সত্ত্বেও ব্রিটিশ আইনপ্রণেতারা এই সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাসকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টা করবেন বলে যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম জানায়। এর ফলে আবার সাধারণ নির্বাচনের দিকে যেতে পারে ইউরোপের প্রভাবশালী এই দেশটি।

ব্রিটেনের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির ১০০ জনেরও বেশি পার্লামেন্ট সদস্য (এমপি) লিজ ট্রাসের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে চিঠি জমা দিতে প্রস্তুত। এই চিঠি তারা কনজারভেটিভ পার্টির নেতৃত্ব প্রতিযোগিতার আয়োজনকারী কমিটির প্রধান গ্রাহাম ব্র্যাডির কাছে জমা দেবেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এমপিরা ব্র্যাডির কাছে ট্রাসকে এটাই বলতে অনুরোধ করবেন যে, ‘তার (ট্রাসের) সময় শেষ’ বা তার নেতৃত্বে অবিলম্বে আস্থা ভোটের অনুমতি দেয়ার জন্য রাজনৈতিক দলের নিয়ম পরিবর্তন করতে হবে।

Advertisement

প্রতিবেদনে থেকে আরও জানা যায়, গ্রাহাম ব্র্যাডি এই পদক্ষেপে বাধ সাধছেন বলে জানা গেছে। তার যুক্তি, নবনিযুক্ত চ্যান্সেলর অর্থাৎ ব্রিটিশ অর্থমন্ত্রী জেরেমি হান্টের সাথে আগামী ৩১ অক্টোবরের বাজেটে অর্থনৈতিক কৌশল নির্ধারণের সুযোগ পাওয়ার যোগ্য লিজ ট্রাস।

 

ইউরোপ

বিশ্বকাপে মরক্কোর বিরুদ্ধে হারের পর বেলজিয়ামে দাঙ্গা

Published

on

প্রতিবন্ধী

চলমান কাতার বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে বড় দলগুলোর মধ্যে আর্জেন্টিনা, জার্মানির পরে এবার অপ্রত্যাশিতভাবে পরাজয়ের সম্মুখীন হয়েছে বেলজিয়াম। ফিফা র্যাং কিংয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ইউরোপীয় এই দেশটিকে জোড়া গোলে হারিয়ে দেয় মরক্কো।

আর এরপরই বেলজিয়ামে দাঙ্গা সৃষ্টি হয়েছে। এ সময় গাড়িতে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটে এবং অনেককে আটকও করে পুলিশ।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরার দেয়া এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, কাতারে বিশ্বকাপের ম্যাচে বেলজিয়ামের বিপক্ষে মরক্কোর জয়ের পর রোববার ব্রাসেলসে দাঙ্গা শুরু হয়। এসময় বিক্ষুব্ধ সমর্থকরা একটি গাড়ি ও কিছু বৈদ্যুতিক স্কুটারে আগুন লাগিয়ে দেয়। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বেলজিয়ামের পুলিশ এক ডজন লোককে আটক করে।

আলজাজিরা বলছে, বিশ্বকাপে পরাজয়ের পর বেলজিয়ামের রাজধানীজুড়ে বেশ কয়েকটি জায়গায় দাঙ্গা সংঘটিত হয়। এসময় কয়েক ডজন বিক্ষুব্ধ ফুটবল অনুরাগী দাঙ্গা পুলিশের সাথে সংঘর্ষে লিপ্ত হন। যদিও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ জলকামান এবং কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করেছিল। এছাড়া দাঙ্গাকারীদের অনেকে মরক্কোর পতাকায় আবৃত ছিল।

Advertisement

বেলজিয়ামের পুলিশের মুখপাত্র ইলস ভ্যান ডি কিরে বলেছেন, ‘সন্ধ্যা ৭ টার দিকে পরিস্থিতি শান্ত হয়ে গেছে এবং উত্তেজনা রয়েছে এমন সেক্টরগুলোতে প্রতিরোধমূলক টহল জারি রাখা হয়েছে।’

পুলিশ জানিয়েছে, ‘দাঙ্গাকারীরা পাইরোটেকনিক উপাদান, প্রজেক্টাইল, লাঠি ব্যবহার করে এবং পাবলিক হাইওয়েতে আগুন লাগিয়ে দেয়।’
তারা আরও জানিয়েছে, ‘এছাড়াও একজন সাংবাদিক আতশবাজির কারণে মুখে আঘাত পেয়ে আহত হয়েছেন। এই কারণেই পুলিশ সেখানে হস্তক্ষেপ করে এবং জলকামান মোতায়েন ও টিয়ার গ্যাস ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।’

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছিল বেলজিয়াম। মেগা টুর্নামেন্টে সেটিই ছিল তাদের সেরা পারফরম্যান্স। ফিফা র‌্যাংকিয়েও দুই নম্বরে রয়েছে এই দেশটি। কিন্তু তাদের পারফরম্যান্সে খুশি হতে পারছেন না কেউই। মরক্কোর বিরুদ্ধে ম্যাচে দলের বেহাল দশা প্রকট হয়ে দেখা দেয়।

অন্যদিকে বিশ্বকাপের মঞ্চে তৃতীয়বার ম্যাচ জিতল মরক্কো। জয়ের আনন্দে মাঠেই হাঁটু গেড়ে বসে ঘাসের মধ্যে মাথা নিচু করে সিজদায় লুটে পড়েন মরক্কোর ফুটবলাররা। আর্জেন্টিনাকে হারানোর পরে সৌদি আরবে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছিল। আর মরক্কোতেও একই ঘোষণা করার দাবি তুলেছেন অনেকে।

Advertisement
পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

ইউরোপ

ইউক্রেনের এখনও ৬০ লাখেরও বেশি বাড়িঘরে বিদ্যুৎ নেই

Published

on

প্রতিবন্ধী

ইউক্রেনের এখনও ৬০ লাখেরও বেশি বাড়িঘরে বিদ্যুৎ নেই। এই শীত আমাদের সহ্য করতে হবে। এই শীতকালকে সকলেই মনে রাখবে। বললেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদমির জেলেনস্কি।

এদিকে, ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় খেরসন শহরে রাশিয়ার গোলাবর্ষণে ১৫ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে। গেলো কয়েক সপ্তাহ ধরে রাশিয়ার বিমান হামলায় ইউক্রেনের বিদ্যুৎ গ্রিডসমূহ মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দেশটিতে শীত আসন্ন হওয়ায় জনগণের স্বাস্থ্য সংকট নিয়ে মারাত্মক উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

দেশটির জাতীয় বিদ্যুৎ কোম্পানি ইউক্রেনেরগো স্থানীয় সময় শুক্রবার বলেছে, জাতীয় গ্রীডে এখনও ৩০ শতাংশ ঘাটতি রয়েছে। বিদ্যুৎ পুনরুদ্ধারে প্রকৌশলীরা সার্বক্ষনিক কাজ করে যাচ্ছে ।

দেশটির প্রকৌশলীরা বড় বড় শহরগুলোতে বিদ্যুৎ ও পানি সরবরাহ স্বাভাবিক করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এদিকে, ইউক্রেনের দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলীয় গুরুত্বপূর্ণ শহর খেরসনে রাশিয়ার ভয়াবহ বোমা হামলায় ১৫ জন নিহত ও আরো ৩৫ জন আহত হয়েছে।

Advertisement

খেরসনের সামরিক প্রশাসনের প্রধান ইয়ারভস্লাভ ইয়ানুশোভিচ বলেছেন, রুশ হামলাকারীরা একটি আবাসিক এলাকায় কয়েকটি রকেট ছুঁড়েছে। এ সময়ে বড়ো একটি ভবনে আগুন ধরে যায়।

ইউক্রেনের বিদ্যুৎ কেন্দ্রে হামলার সমালোচনায় মস্কো জোর দিয়ে বলেছে, তারা কেবল সামরিক সংযুক্ত অবকাঠামোয় হামলা চালিয়েছে। ইউক্রেনে চলা ব্ল্যাকআউটের জন্যে রাশিয়া কিয়েভকে দায়ী করেছে। একইসঙ্গে রাশিয়া বলেছে, ইউক্রেন রুশ দাবির প্রতি সম্মতি জানিয়ে ইউক্রেনবাসীর দুর্ভোগের অবসান ঘটাতে পারে।

 

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

ইউরোপ

‘ধর্মগুরু’ আস্তানায় ১ হাজার যৌনদাসী, ৬৯ হাজার গর্ভনিরোধক ওষুধ

Published

on

প্রতিবন্ধী

‘ধর্মগুরু’ রামরহিমের কীর্তির কথা অনেকেই জানেন। সম্প্রতি তাকে প্যারোলে ছাড়া নিয়ে জোর চর্চা হয়েছে। তার মধ্যেই প্রকাশ্যে এল আরও এক ধর্মগুরুর কাহিনী। তবে এই ধর্মগুরু ভারতের নন। তিনি তুরস্কের এক স্বঘোষিত ধর্মগুরু আদনান ওক্তার। তার বয়স ৬৬ বছর। তিনি হারুণ ইয়াইয়া নামেও পরিচিত। ইস্তানবুলের ফৌজদারি আদালত ওক্তার ও তার ১৩ সহযোগীকে সাড়ে ৮ হাজার বছরেরও বেশি কারাদণ্ড দিয়েছে সম্প্রতি।

আদনান ওক্তারের রয়েছে এক হাজার সঙ্গিনী যাদের তিনি যৌনদাসী বানিয়ে রাখতেন। তার ঘর থেকে উদ্ধার করা হয় ৬৯ হাজার গর্ভনিরোধক ওষুধ।

খুন, ধর্ষণ, মহিলাদের যৌনদাসী বানিয়ে রাখাসহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সেই ধর্মগুরুকেই এ বার ৮ হাজার ৬৫৮ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দিলেন দেশটির এক আদালত।

ফাইন আর্টস নিয়ে পড়াশোনার করার পর ধর্মগুরুর পথ বেছে নেন আদনান। ১৯৮০ সালে এক জন ধর্মগুরু হিসেবে পেশাগত জীবন শুরু করেন তিনি।

প্রতিবন্ধী

ধর্মগুরু হিসেবে কাজ করতে করতেই আদনানসিলর নামে একটি সংগঠন খোলেন এই ধর্মগুরু। পরে ১৯৯০ সালে সায়েন্স রিসার্চ ফাউন্ডেশন খুলে মহিলাদের পোশাক নিয়ে গবেষণার কাজ শুরু করেন। মহিলাদের জন্য আধুনিক এবং ছোট পোশাক বানিয়ে ব্যবসাতেও নামেন।

Advertisement

গোপন সূত্রে পুলিশ খবর পেয়েছিল যে, সংগঠনের আড়ালে আদনান অসামাজিক কাজকর্মের একটা সাম্রাজ্য গড়ে তুলেছেন। তার পরই ২০১৬ সালে আদনানের বাংলো এবং সংগঠনের দপ্তরে তল্লাশি চালায় তুরস্ক পুলিশ। যদিও সেই সময় কিছু পায়নি তারা।

২০১৭ সালেও ফের তল্লাশি চালায় পুলিশ। তখন ওক্তার কোনও রকমে পুলিশের নাগাল থেকে পালিয়ে যান। তার খোঁজে তল্লাশি জারি রাখে পুলিশ।

সংবাদ সংস্থার প্রতিবেদন অনুযায়ী, নাবালিকাদের যৌন শোষণ, ধর্ষণ, প্রতারণা, রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টিতে উস্কানি এবং চরবৃত্তির অভিযোগে ২০১৮ সালে ওক্তারকে গ্রেপ্তার করে তুরস্ক পুলিশ।

প্রতিবন্ধী

একটি টেলিভিশন চ্যানেল চালাতেন ওক্তার। ধর্ম নিয়ে জনপ্রিয় টক শো-ও করতেন সেখানে। কিন্তু গ্রেপ্তার হওয়ার পর এ৯ নামে সেই টিভি চ্যানেল বন্ধ করে দেয় পুলিশ।

অস্ট্রেলীয় সংবাদমাধ্যম টাউন্সভিলে-র প্রতিবেদন অনুযায়ী, সংগঠন চালানোর নামে ওক্তার এক হাজার তরুণীকে জোর করে যৌনদাসী বানিয়ে তাঁদের উপর অত্যাচার চালাতেন। ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, মহিলাদের ত্বকের সমস্যা দূর করার বাহানায় তাদের জোর করে গর্ভনিরোধক ওষুধ খাওয়ানোর অভিযোগ ওঠে ওক্তারের বিরুদ্ধে। তার বাংলোতে তল্লাশি চালানোর সময় ৬৯ হাজারের বেশি গর্ভনিরোধক ওষুধ পেয়েছিল পুলিশ।

Advertisement

ওক্তারের আশপাশে সব সময় সুন্দরী মহিলারা ঘিরে থাকতেন। আদালতে ওক্তার স্বীকার করেছিলেন, তার এক বা দুই নয়, এক হাজার ‘গার্লফ্রেন্ড’ রয়েছে। ওই মহিলাদের তিনি ‘পোষা বিড়াল’ বলে ডাকতেন।

প্রতিবন্ধী

ওক্তারের সংগঠনে এক সদস্য এক সাক্ষাৎকারে বলেন, কেউ যদি ওক্তারের সংগঠন ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করতেন, তার জীবন নরকে পরিণত করতে দ্বিধাবোধ করতেন না এই স্বঘোষিত ধর্মগুরু। ওক্তারের রাজনৈতিক প্রভাবও ছিল যথেষ্ট মজবুত। ফলে সংগঠন ছেড়ে পালিয়ে কেউ রেহাই পেতেন না।

অপরাধীদের গ্যাং চালানো, রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র, ধর্ষণ, ব্ল্যাকমেল এবং শারীরিক অত্যাচার-সহ একাধিক অভিযোগে ২০২১ সালে ১০টি আলাদা মামলায় ওক্তারের ১০৭৫ বছরের সাজা ঘোষণা করে আদালত।

তুরস্কের নির্বাসিত ধর্মগুরুকে সহযোগিতা করার অভিযোগ উঠেছিল ওক্তারের বিরুদ্ধে।

অবৈধ ভাবে সংগঠন চালানো, শিক্ষা এবং যৌন অধিকার লঙ্ঘন, ব্যক্তিগত তথ্য চুরি, চরবৃত্তি-সহ নানা অভিযোগে এ বছরের ১৭ নভেম্বর ওক্তারকে ৮,৬৫৮ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে তুরস্কের আদালত।

Advertisement

ওক্তার হলেন তুরস্কের ইতিহাসে দ্বিতীয় ব্যক্তি যাকে এত বড় সাজা দিল আদালত। এর আগে তুরস্কেরই এক ব্যক্তিকে ৯ হাজার ৮০৩ বছরের জন্য সাজা দিয়েছিল আদালত।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

প্রতিবন্ধী প্রতিবন্ধী
অপরাধ2 hours ago

প্রতিবন্ধী এক তরুণীকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ

ঢাকার কেরানীগঞ্জে দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার বাক প্রতিবন্ধী তরুণী মারা গেছেন। পরিবারের অভিযোগ, তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায়...

প্রতিবন্ধী প্রতিবন্ধী
করোনা ভাইরাস3 hours ago

করোনার ৪র্থ ডোজ টিকা দেয়ার সুপারিশ

করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় সম্মুখ সারির যোদ্ধা, ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি, গর্ভবতীদের করোনার ৪র্থ ডোজ টিকা দেয়ার সুপারিশ টিকা সংক্রান্ত কারিগরি কমিটির। বুধবার...

প্রতিবন্ধী প্রতিবন্ধী
জাতীয়14 hours ago

সীমান্তে নিরাপত্তায় যৌথ টহল দেবে বিজিবি-বিজিপি

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের অপতৎপরতা মেনে নেবে না বিজিবি ও বিজিপি। এজন্য যৌথ টহল শুরুর ব্যাপারে একমত হয়েছে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী...

প্রতিবন্ধী প্রতিবন্ধী
অপরাধ19 hours ago

ফুটবল দ্বন্দ্বে নয়, কোমরের বেল্ট নিয়ে বন্ধুকে হত্যা

ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে নয় বরং কোমরের বেল্ট নিয়ে চাঁদপুরে দশম শ্রেণির ছাত্র মো. বরকত ছুরিকাঘাতে তার বন্ধু মো. মেহেদীকে...

প্রতিবন্ধী প্রতিবন্ধী
বাংলাদেশ20 hours ago

ভারতে আরো একটি ব্যবসা বন্ধ করছে অ্যামাজন

ভারতে পাইকারি বিতরণ ব্যবসাও বন্ধ করে দিচ্ছে অ্যামাজন। বার্ষিক পরিচালন কার্যক্রম পর্যালোচনা এবং খরচ কমানোর অংশ হিসেবে এ পদক্ষেপ নিচ্ছে...

প্রতিবন্ধী প্রতিবন্ধী
বাংলাদেশ20 hours ago

বিশ্বকাপসহ টিভিতে যা দেখবেন আজ

ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপে আজ (২৯ নভেম্বর) ‘এ’ গ্রুপে রাত ৯টায় নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি হবে কাতার এবং ইকুয়েডরের প্রতিপক্ষ সেনেগাল। অন্যদিকে ‘বি’...

প্রতিবন্ধী প্রতিবন্ধী
জাতীয়20 hours ago

জঙ্গি তৎপরতা আর বিএনপির কার্যক্রম এক সূত্রে গাঁথা: তথ্যমন্ত্রী

জঙ্গি তৎপরতা আর বিএনপির কার্যক্রম এক সূত্রে গাঁথা। বলেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। আজ মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সচিবালয়ে...

বেসিক ব্যাংক বেসিক ব্যাংক
আইন-বিচার21 hours ago

বেসিক ব্যাংক: ৩ মাসের মধ্যে তদন্ত শেষ না হলে ব্যবস্থা নিবে হাইকোর্ট

আগামী তিন মাসের মধ্যে বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারির মামলাগুলোর তদন্ত কাজ শেষ করতে হবে দুদককে। অন্যথায় দুদকের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী...

প্রতিবন্ধী প্রতিবন্ধী
আইন-বিচার21 hours ago

চিত্রনায়িকা শিমু হত্যা: স্বামীসহ দুজনের বিচার শুরু

চিত্রনায়িকা রাইমা ইসলাম শিমু হত্যা মামলায় স্বামী সাখাওয়াত আলী নোবেল ও তার বন্ধু এস এম ফরহাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন...

সতর্ক সতর্ক
জাতীয়22 hours ago

‘জঙ্গি ও শীর্ষ সন্ত্রাসীদের স্থানান্তরকালে অধিকতর সতর্ক হতে হবে’

কারা অভ্যন্তরে  জঙ্গি, শীর্ষ সন্ত্রাসীরা কোনো ধরনের সমাজ ও রাষ্ট্রবিরোধী তৎপরতা চালাতে না পারে সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। এমনকি...

Advertisement

আর্কাইভ

প্রতিবন্ধী
জাতীয়14 hours ago

সীমান্তে নিরাপত্তায় যৌথ টহল দেবে বিজিবি-বিজিপি

প্রতিবন্ধী
জাতীয়2 days ago

সরকারকে জ্বালানির মূল্য নির্ধারণে সংশোধনী অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা

প্রতিবন্ধী
রংপুর2 days ago

পা দিয়ে লিখে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে সেই মানিক

সতর্ক
আওয়ামী লীগ4 days ago

বিএনপির সম্মেলন নিয়ে অফিসিয়ালি কিছু আসেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রতিবন্ধী
জাতীয়4 days ago

খেতে খেতে চীনের প্রধানমন্ত্রীকে টানেলের প্রস্তাবটা দেই: প্রধানমন্ত্রী

প্রতিবন্ধী
জাতীয়5 days ago

ময়দার বস্তায় আটা বিক্রি

প্রতিবন্ধী
বলিউড6 days ago

উরফি এবার মদের গ্লাস দিয়ে শরীর ঢাকলেন

প্রতিবন্ধী
জাতীয়6 days ago

‘রাজনীতি করতে চাই না, রাজনীতিবীদদের সহযোগিতা চাই’

প্রতিবন্ধী
জাতীয়7 days ago

বিশ্বকাপে আমাদের টিম নেই এটা আসলে কষ্ট দেয় : প্রধানমন্ত্রী

হত্যা
অপরাধ7 days ago

প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে নানাকে হত্যা

সর্বাধিক পঠিত