Connect with us

স্বাস্থ্য

লিবরার ২৪ ধরনের ওষুধের দাম বাড়লো

Avatar of উম্মে রুম্মান ক্রান্তি

Published

on

করোনায়

ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান লিবরা ইনফিউশন লিমিটেডের ২৪ ধরনের ওষুধের দাম বাড়িয়েছে সরকার। কোম্পানিটির ২৪ ধরনের ওষুধের দাম প্রকারভেদে ৫ শতাংশ থেকে ১২ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। হাইকোর্টে কোম্পানিটির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালতের নির্দেশনায় এ দাম বাড়ানো হয়েছে। জানিয়েছে বাংলাদেশ ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পরিচালক আশরাফ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আশরাফ হোসেন বলেন, আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী রোববার (২০ নভেম্বর) দুপুরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ওষুধের দাম নির্ধারণ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ওষুধের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব ড. মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদারের সভাপতিত্বে সভায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ কনজুমার্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন ও বাংলাদেশ ফার্মাসিউটিক্যালস সোসাইটির প্রতিনিধিরা উপস্থিতি ছিলেন।

সভা থেকে জানানো হয়— কাঁচামালের দাম বাড়ায় ওষুধের দাম বাড়ানো হয়েছে।

Advertisement

তিনি বলেন, লিবরা ইনফিউশন লিমিটেডের ২৪ ধরনের ওষুধের দাম প্রকারভেদে ৫ শতাংশ থেকে ১২ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। আমরা চাই না ওষুধের দাম বাড়ুক। দাম বাড়লে সাধারণ মানুষ চাপে পড়ে। তবে, তারা অনেক আগেই ওষুধের দাম বাড়ানোর আবেদন জানিয়েছিল। সর্বশেষ উচ্চ আদালতের ওষুধের দাম বিবেচনা করার নির্দেশনায় আমরা তাদের আবেদনের নামমাত্র দাম বাড়িয়েছি।

বর্তমানে ডলার সংকট, কাঁচামালের দাম বাড়ার পরিপ্রেক্ষিতে নিজেদের ওষুধের দাম বৃদ্ধি বিবেচনা করে এ দাম সমন্বয় করা হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়— ২৪ ধরনের ওষুধ লিবরা ইনফিশন লিমিটেড প্রস্তুত করে। বাংলাদেশে এ ওষুধ আর কোনো কোম্পানি উৎপাদন করে না। ফলে জনসাধারণ বাধ্য হয়ে বেশি দামে এক কোম্পানি থেকে ওষুধ কিনতে হবে।

 

যেসব ওষুদের দাম বাড়লো

Advertisement

লিবরা কোম্পানির ৫০০ মিলির কলেরা স্যালাইনের দাম ৬১ থেকে বাড়িয়ে ৭২ টাকা করা হয়েছে। ১০০০ মিলির দাম ৮৮ থেকে বাড়িয়ে ৯৮ টাকা করা হয়েছে। ২০০০ মিলির ১১৩ থেকে বাড়িয়ে ১২২ টাকা করা হয়েছে। ৫০০ মিলির হাটসম্যান সলিউশন ৭৭ থেকে বাড়িয়ে ৮২ টাকা, ৯৫ টাকার ১০০০ মিলির হাটসম্যান ১০৫ টাকা, ৫৫ টাকার ৫০০ মিলির হাটসম্যান প্লাস ৬৬ টাকা, ৭১ টাকার ১০০০ মিলির হাটসম্যান ৮০ টাকা, দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ (.০৯) সোডিয়াম ক্লোরাইডের দাম ছিল ৬৪ টাকা, তা এখন ৬৬ টাকা, ৭৪ টাকার সোডিয়াম ক্লোরাইড ৮০ টাকা, ৮৯ টাকার সোডিয়াম ক্লোরাইড ১০০ টাকা, ১০২ টাকার সোডিয়াম ক্লোরাইড ১১৫ টাকা, ১০ শতাংশের ৮০ টাকার ডেক্সট্রোজ ৯০ টাকা, ৯৮ টাকার ডেক্সট্রোজ ১০৫ টাকা, ৭০ টাকার ডেক্সট্রোজ প্লাস সোডিয়াম ক্লোরাইড ৮০ টাকা, ৯৩ টাকার ডেক্সট্রোজ প্লাস সোডিয়াম ক্লোরাইড ১০৭ টাকা, ৬৬ টাকার ২৫ডেক্সট্রোজ ৭৫ টাকা, ৭৮ টাকার ২৫ডেক্সট্রোজ ৮২ টাকা, ৯৩ টাকার ৫ % ডেক্সট্রোজ ১০৫ টাকা, ৬৬ টাকার ডেক্সট্রোজ প্লাস সোডিয়াম ৭২ টাকা, ৭৮ টাকার ডেক্সট্রোজ প্লাস সোডিয়াম ৮৫ টাকা, ৮৬ টাকার ডেক্সট্রোজ প্লাস সোডিয়াম ৯০ টাকা, ৭৮ টাকার ডেক্সট্রোজ প্লাস সোডিয়াম ৮২ টাকা, ৯৩ টাকার ডেক্সট্রোজ প্লাস সোডিয়াম ১০০ টাকা করা হয়েছে।

শিশু স্বাস্থ্য

এই প্রথম জোড়া মেরুদণ্ডের দুই শিশুকে আলাদা করবে বিএসএমএমইউ

Published

on

করোনায়

বাংলাদেশে এই প্রথম কোনো মেরুদণ্ড জোড়া লাগা শিশুর অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হতে যাচ্ছে বিএসএমএমইউ তে।

আগামী বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) এই অস্ত্রোপচার নিয়ে সকাল ১০টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) মেডিকেল বোর্ড বসবে।

জটিল, কঠিন ও অত্যন্ত স্পর্শকাতর এ অস্ত্রোপচারের নেতৃত্বে রয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের নিউরোসার্জারি বিভাগের অধ্যাপক এবং সার্জারি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হোসেন।

যমজ শিশু দুটির বাবা কুড়িগ্রামের কাঁঠালবাড়ীর আলমগীর রানা, পেশায় পরিবহন শ্রমিক। প্রায় সাড়ে সাত মাস আগে রানার স্ত্রী নাসরিন ফুটফুটে দুই যমজ কন্যাসন্তানের জন্ম দেন। শিশু দুটির মেরুদণ্ড ও স্পাইন জন্মগতভাবে জোড়ালাগা।

জোড়া লাগা দুই শিশু নুহা ও নাবা। তাদের বয়স সাত মাস ১৩ দিন। দৃষ্টিশক্তি, শ্রবণশক্তিসহ অন্যান্য সব কিছু ঠিক থাকলেও দুবোনের মেরুদণ্ডের নিচের অংশ জোড়ালাগা। চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায় যাকে কনজয়েন্ড টুইন বলে। এ যমজ শিশু বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

Advertisement

 

 

 

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

অন্যান্য

সাড়ে ৪৮ হাজার বছরের পুরনো জম্বি ভাইরাস ফিরে এলো

Avatar of জাকির হোসাইন

Published

on

করোনায়

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বহু হাজার বছরের পুরনো বরফের স্তর বা পারমাফ্রস্ট গলে যাওয়া মানুষের জন্য নতুন আশঙ্কার সৃষ্টি করতে পারে। এমন কথা বিজ্ঞানীরা বহু দিন ধরেই বলেছেন। তারা জানিয়েছেন, দুই ডজনেরও বেশি এমন ভাইরাস খুঁজে পেয়েছেন, যেগুলি মারাত্মক বিপদ ডেকে আনতে পারে। আর এই তালিকায় রয়েছে এমন কয়েকটি ভাইরাস, যাদের নাম দেয়া হয়েছে জম্বি ভাইরাস।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, একটি হ্রদের তলদেশে জমা হয়েছিল এই ভাইরাসগুলি। এগুলি ৪৮,৫০০ বছরেরও বেশি পুরনো। ইউরোপের কয়েক জন বিজ্ঞানী রাশিয়ার সাইবেরিয়া অঞ্চলের পারমাফ্রস্ট থেকে এমন কিছু নমুনা পেয়েছেন, যা তারা পরীক্ষা করে এই ভাইরাসটির অস্তিত্ব জানতে পেরেছেন।

বিজ্ঞানীরা ১৩টি নতুন প্যাথোজেনকে পুনরোজ্জীবিত করেছেন এবং চিহ্নিত করেছেন। এদের নাম দেয়া হয়েছে জম্বি ভাইরাস। গবেষকদের মতে, কয়েক হাজার বছর ধরে হিমায়িত বরফে বসবাস করেও তারা দীর্ঘ সময় পর্যন্ত সংক্রামক ছিল।

বিজ্ঞানীরা দীর্ঘদিন ধরে সতর্ক করেছেন যে, বায়ুমণ্ডলীয় উষ্ণায়নের কারণে পারমাফ্রস্ট গলে যাওয়ায় মিথেনের মতো ইতোমধ্যে আটকে থাকা গ্রিনহাউস গ্যাসগুলি আবার ছড়িয়ে পড়ছে। এগুলি পরিবেশের বিরাট ক্ষতি করতে চলেছে। কিন্তু সুপ্ত প্যাথোজেনের উপর এর প্রভাব সম্পর্কে তথ্য এখনও কম পাওয়া গেয়েছে। কিন্তু সাবধান হতে বলছেন বিজ্ঞানীরা।

রাশিয়া, জার্মানি এবং ফ্রান্সের গবেষক দলগুলি বলেছে যে, তারা যে ভাইরাস নিয়ে গবেষণা করেছে, তা পুনরোজ্জীবিত করার কাজটিতে আপাতত কোনও ঝুঁকি নেই। কারণ এই জীবাণুগুলি একসময়ে শুধু অ্যামিবা জীবাণুকে সংক্রমিত করতে পারত। যে ভাইরাসগুলি প্রাণী বা মানুষকে সংক্রমিত করতে পারে, সেগুলি খুব সমস্যাজনক জিনিস। এক্ষেত্রে এখনও তেমন ভয়ের উদাহরণ পাওয়া যায়নি।

Advertisement

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, প্রাচীন পারমাফ্রস্ট আরও বেশি পরিমাণে গলে যাওয়ার পরে এই ভাইরাসগুলি পরিবেশে মুক্ত হয়ে যেতে পারে। এতে বলা হয়েছে, ভাইরাস বাইরের পরিবেশে আসার পর কত ক্ষণে সংক্রমণ ছড়াতে পারে, কীভাবে এটি প্রতিরোধ করা যায় এবং একজন ব্যক্তি কত বার সংক্রমিত হতে পারেন— তা অনুমান করা এখনও অসম্ভব।’ কিন্তু তাদের দাবি, বিশ্ব উষ্ণায়নের ফলে নতুন ধরনের সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়বে। কারণ পারমাফ্রস্ট আরও বেশি করে গলতে থাকবে এবং বরফ গলে যাওয়ার কারণে আর্কটিকে আরও বেশি সংখ্যক লোক বসতি গড়বে।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

স্বাস্থ্য

ডেঙ্গুতে আরও ৪জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৪২৬

Published

on

করোনায়

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে আরও চারজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫৪ জনে। এ সময় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৪২৬ জন। জন। এ নিয়ে বর্তমানে সারাদেশে হাসপাতালে ভর্তি ডেঙ্গুরোগীর সংখ্যা এক হাজার ৮০৩ জন।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের ইনচার্জ ডা. মো. জাহিদুল ইসলামের সই করা ডেঙ্গুবিষয়ক এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গেলো ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ৪৩৬ জনের মধ্যে ঢাকার বাসিন্দা ২৩৯ জন। এছাড়া ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৮৭ জন। বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি থাকা মোট ডেঙ্গুরোগীর সংখ্যা এক হাজার ৮০৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, চলতি বছরে ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন মোট ৫৭ হাজার ৩৫৮ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছন ৫৫ হাজার ৩০১ জন।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালে করোনাভাইরাসের মহামারির সময়ে ডেঙ্গুর প্রকোপ তেমন একটা দেখা যায়নি। তবে ২০২১ সালে সারাদেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হন ২৮ হাজার ৪২৯ জন। ওই বছর ডেঙ্গুতে ১০৫ জনের মৃত্যু হয়।

Advertisement
পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

করোনায় করোনায়
করোনা ভাইরাস56 mins ago

দেশে করোনায় শনাক্ত ১৮

সবশেষ হিসাব অনুযায়ী দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গেলো ২৪ ঘণ্টায় কেউ মারা যায় নি। এ সময়ে নতুন করে ১৮ জনের...

জিএম কাদের জিএম কাদের
আইন-বিচার3 hours ago

জি এম কাদের জাপার চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না

গঠনতন্ত্র অনুযায়ী জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদেরের দায়িত্ব পালনে নিষেধাজ্ঞা নিয়ে হাইকোর্টের আদেশ আগামী সোমবার পর্যন্ত স্থগিত...

করোনায় করোনায়
অপরাধ4 hours ago

আয়াতের খণ্ডিত পা দুটি উদ্ধার

চট্টগ্রামের ইপিজেডে ৫ বছরের শিশু আলীনা ইসলাম আয়াতকে হত্যার পর ছয় টুকরা করা শিশু আলিনা ইসলাম আয়াতের খণ্ডিত পা দুটি...

করোনায় করোনায়
জাতীয়4 hours ago

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন সাময়িকভাবে বন্ধ

পদ্মাসেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের আওতায় ঢাকা থেকে গেন্ডারিয়া অংশে ৩টি পৃথক রেল লাইনের নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। কাজটি দ্রুত সম্পন্ন...

করোনায় করোনায়
আইন-বিচার5 hours ago

রাজধানীতে এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, আসামির মৃত্যুদণ্ড

নগরীর বাড্ডায় সাড়ে তিন বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে আসামি শিপনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও ২০ হাজার টাকা...

করোনায় করোনায়
অপরাধ6 hours ago

জঙ্গি ছিনতাইকাণ্ডে আরও এক পুলিশ সদস্য বরখাস্ত

ঢাকার প্রাঙ্গণ থেকে পুলিশের চোখে-মুখে স্প্রে করে প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামিকে ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় পুলিশের আরও এক সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত...

করোনায় করোনায়
জাতীয়6 hours ago

বিএনপির নেতাকর্মীদের স্বাচ্ছন্দের ব্যবস্থা করছে সরকার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

১০ ডিসেম্বরের বিএনপির সমাবেশে খালেদা জিয়া যোগ দিলে আদালত ব্যবস্থা নেবেন। সমাবেশের নামে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নষ্ট করলে ভুল করবে। বিএনপির...

ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট
আইন-বিচার7 hours ago

ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড (আইবিবিএল) থেকে ভুয়া ঠিকানা ও কাগুজে কোম্পানির নাম ব্যবহার করে কয়েক হাজার কোটি টাকা উত্তোলন এবং...

করোনায় করোনায়
অপরাধ7 hours ago

আয়াত হত্যা: আরও ৭ দিনের রিমান্ডে আবির

চট্টগ্রামের ইপিজেডে ৫ বছরের শিশু আলীনা ইসলাম আয়াতকে অপহরণের পর হত্যায় মামলায় গ্রেপ্তার প্রধান আসামি আবির আলীর আরও ৭ দিনের...

করোনায় করোনায়
অপরাধ7 hours ago

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৩৮

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। অভিযানে মাদক বিক্রি ও...

Advertisement

আর্কাইভ

করোনায়
এশিয়া6 mins ago

১১ ধর্ষককে মুক্তি না দিতে আদালতে বিলকিসের আবেদন

করোনায়
শিশু স্বাস্থ্য10 mins ago

এই প্রথম জোড়া মেরুদণ্ডের দুই শিশুকে আলাদা করবে বিএসএমএমইউ

করোনায়
ফুটবল34 mins ago

আজ বাঁচামরার লড়াইয়ে আর্জেন্টিনা দলে যারা খেলবেন

করোনায়
নিউজ47 mins ago

ডিআরইউর নব-নির্বাচিত সভাপতি নোমানী, সাধারণ সম্পাদক সোহেল

করোনায়
এশিয়া53 mins ago

বাংলাদেশ ভারতের কাছ থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায় : ভার্মা

করোনায়
করোনা ভাইরাস56 mins ago

দেশে করোনায় শনাক্ত ১৮

করোনায়
চাকরির খবর1 hour ago

৪৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

করোনায়
বলিউড1 hour ago

মালাইকা বিয়ের আগেই অন্তঃসত্ত্বা! যা বললেন অর্জুন

করোনায়
এশিয়া2 hours ago

চীনের সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াং জেমিনের মৃত্যু

করোনায়
অন্যান্য2 hours ago

সাড়ে ৪৮ হাজার বছরের পুরনো জম্বি ভাইরাস ফিরে এলো

করোনায়
জাতীয়6 hours ago

বিএনপির নেতাকর্মীদের স্বাচ্ছন্দের ব্যবস্থা করছে সরকার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

করোনায়
জাতীয়22 hours ago

সীমান্তে নিরাপত্তায় যৌথ টহল দেবে বিজিবি-বিজিপি

করোনায়
জাতীয়2 days ago

সরকারকে জ্বালানির মূল্য নির্ধারণে সংশোধনী অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা

করোনায়
রংপুর2 days ago

পা দিয়ে লিখে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে সেই মানিক

সতর্ক
আওয়ামী লীগ4 days ago

বিএনপির সম্মেলন নিয়ে অফিসিয়ালি কিছু আসেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

করোনায়
জাতীয়4 days ago

খেতে খেতে চীনের প্রধানমন্ত্রীকে টানেলের প্রস্তাবটা দেই: প্রধানমন্ত্রী

করোনায়
জাতীয়5 days ago

ময়দার বস্তায় আটা বিক্রি

করোনায়
বলিউড6 days ago

উরফি এবার মদের গ্লাস দিয়ে শরীর ঢাকলেন

করোনায়
জাতীয়6 days ago

‘রাজনীতি করতে চাই না, রাজনীতিবীদদের সহযোগিতা চাই’

করোনায়
জাতীয়1 week ago

বিশ্বকাপে আমাদের টিম নেই এটা আসলে কষ্ট দেয় : প্রধানমন্ত্রী

সর্বাধিক পঠিত