Connect with us

ক্যাম্পাস

তুমুল আত্মবিশ্বাসী বিশ্ববিদ্যাল ভর্তি পরীক্ষার্থী জব্বার

Avatar of author

Published

on

২০২২-২০২৩ শিক্ষাবর্ষে ২২ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ জিএসটি’র সি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিভিন্ন এলাকা থেকে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে ছুটে এসেছেন  হাজার হাজার শিক্ষার্থী। এতো শিক্ষার্থীর মধ্যে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে এসেছেন পাবনার জব্বার আলী। দুই হাতেরই প্রায় সম্পূর্ণ অংশ না থাকলেও জব্বার আলীর রয়েছে তুমুল আত্মবিশ্বাস। আর তাইতো হাতের অল্প অংশ ও পা দিয়ে লিখেই গুচ্ছ পরীক্ষা দিয়েছেন। জানা যায় ইতোমধ্যে জব্বার চান্স পেয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়েও।

আজ শনিবার (২৭ মে) দুপুর ১২ টা থেকে ১ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে এই ভর্তি পরীক্ষা।

পাবনা জেলার সাথিয়া উপজেলার বাসিন্দা জব্বার আলী। বাবা-মা ও ৪ ভাই-বোন নিয়ে তার পরিবার। জন্মের সময় থেকেই যুদ্ধ করে যাচ্ছেন শারীরিক প্রতিবন্ধকতার সাথে। তবে হাল ছেড়ে দেননি। এবার এইচএসসি পরীক্ষায় আল হেরা কলেজ থেকে অংশ নিয়ে পেয়েছেন জিপিএ ৫। এসএসসিতেও পেয়েছেন ৪.৬৭।

ভর্তি পরীক্ষার বিষয়ে জানতে চাইলে জব্বার বলেন, আজকের পরীক্ষা ভালো হয়েছে। আমার লিখতে কোন অসুবিধা হয়নি। আমি হাত ও পা উভয় দিয়ে ই লিখতে পারি। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে সি ইউনিটে চান্স পেয়েছি। এই ভর্তি পরীক্ষায়ও ভাল করবো।

শত প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে এতটুকু পাড়ি দেয়ার বিষয়ে বলেন,বর্তমান সময়ে বেশিরভাগ শিক্ষার্থীরই স্বপ্ন ভাল করে পড়াশোনা করে ভালো একটা চাকরি পেয়ে নিজের পায়ে দাঁড়াবে। কিন্তু আমি এই উদ্দেশ্যে পড়ছি না। আমি চাই নিজেকে সুশিক্ষিত করে গড়ে তোলতে। আর সেইসাথে আমার মতো যাদের বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা আছে তাদেরও  আমি পড়াশোনা করে দেখিয়ে দিতে চাই। তাদের জন্য অনুপ্রেরণা হতে  চাই।

Advertisement

 

 

 

 

Advertisement
Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক রুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন লগিন

রিপ্লাই দিন

শিক্ষা

অনুমোদন পেলো নতুন যে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়

Published

on

দেশে নতুন করে আরও একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন দিয়েছে সরকার। ‘জাস্টিস আবু জাফর সিদ্দিকী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়’ নামে নতুন এই বিশ্ববিদ্যালয়টি হবে কুষ্টিয়ায়। শিক্ষা মন্ত্রণালয় গেলো রোববার (৭ জুলাই) মোট ২২টি শর্তে এই বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের অনুমোদন দিয়ে আদেশ জারি করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়টির বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান নার্গিস আফরোজকে চিঠি দিয়েছে, তা জানানো হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়টিকে দেয়া শর্তের মধ্যে আছে সাময়িক অনুমতির মেয়াদ হবে সাত বছর, প্রস্তাবিত বিশ্ববিদ্যালয়ের কমপক্ষে ২৫ হাজার বর্গফুট আয়তনের নিজস্ব বা ভাড়া করা ভবন থাকতে হবে। ন্যূনতম তিনটি অনুষদ এবং এসব অনুষদের অধীন কমপক্ষে ছয়টি বিভাগ থাকতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে সংরক্ষিত তহবিলে কমপক্ষে দেড় কোটি টাকা যেকোনো তফসিলি ব্যাংকে জমা থাকতে হবে। এ রকমভাবে মোট ২২টি শর্ত মানতে হবে।

উল্লেখ্য, এটি নিয়ে দেশে অনুমোদিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা দাঁড়াচ্ছে ১১৫টিতে। দেশে ১৯৯২ সাল থেকে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার অনুমোদন দেয়া শুরু হয়। এর উদ্দেশ্য ছিল উচ্চশিক্ষার সুযোগ বাড়ানো ও শিক্ষার্থীদের বিদেশে চলে যাওয়া নিরুৎসাহিত করা। শুরুর দিকে বেশ ভালো ছিল। এমনকি শুরুর দিকের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোই মূলত এখনো ভালো করছে। কিছু নতুন বিশ্ববিদ্যালয়ও ভালো করছে। কিন্তু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশের মান নিয়ে প্রশ্ন আছে। এমন কি কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থা খুবই খারাপ, যা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) একাধিক তদন্ত প্রতিবেদনেও উঠে এসেছে।

এএম/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

শিক্ষা

পছন্দের কলেজ পাননি প্রায় ১২ হাজার শিক্ষার্থী

Published

on

শিক্ষার্থী

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির তৃতীয় ও শেষ ধাপের ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। প্রকাশিত ফলাফলের জরিপে দেখা গেছে, জিপিএ-৫ পাওয়া ৭০০ শিক্ষার্থী কোথাও ভর্তি হতে পারেনি। এছাড়া কলেজ ভর্তির সুযোগ পাননি প্রায় ১২ হাজার শিক্ষার্থী।

শুক্রবার (১২ জুলাই) রাতে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তিবিষয়ক ওয়েবসাইটে ফল প্রকাশের পর এমন তথ্য উঠে আসে। এদিকে শনিবার বিষয়টি নিয়ে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটি জানায়, যারা আবেদন করেও কলেজ পায়নি তাদের জন্য এবার এনালগ (সরাসরি) পদ্ধতিতে ভর্তির সুযোগ দেয়া হবে ।

আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক তপন কুমার সরকার জানান, ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী তিন ধাপে আবেদন নেয়ার কথা ছিল। তিন ধাপ শেষেও ১২ হাজারের কিছু বেশি শিক্ষার্থী কলেজ বরাদ্দ পাননি। তার মধ্যে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থী ৭০০ জনের মতো রয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, চলতি বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় ১৬ লাখের বেশি শিক্ষার্থী পাস করেছেন। এর বিপরীতে কলেজে ভর্তিযোগ্য আসন রয়েছে ২৫ লাখের মতো। অর্থাৎ সব শিক্ষার্থী ভর্তি হলেও ৮ লাখের বেশি আসন ফাঁকা থাকার কথা। এরপরেও শিক্ষার্থীদের ভর্তিবঞ্চিত হওয়ার কারণ পছন্দের কলেজ না পাওয়া।

ভর্তি তথ্যানুযায়ী, তিন ধাপে আবেদনের পর ফল প্রকাশ, নিশ্চায়ন ও মাইগ্রেশন শেষে ১৫ জুলাই থেকে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হবে যা চলবে ২৫ জুলাই পর্যন্ত। ভর্তি কার্যক্রম শেষে আগামী ৩০ জুলাই সারাদেশে একযোগে একাদশ শ্রেণিতে ক্লাস শুরু হবে।

Advertisement

 

কেএস/

 

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

শিক্ষা

মাধ্যমিকের ৩৬ শিক্ষক-কর্মচারীকে শোকজ

Published

on

দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে মাধ্যমিকের ৩৬ জন শিক্ষক-কর্মচারীকে ছুটি ছাড়া বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকায় শোকজ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)।

গেলো বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) রাতে মাউশি অধিদফতরের সহকারী পরিচালক জিয়াউল হায়দার হেনরীর স্বাক্ষর করা এক অফিস আদেশ থেকে এ তথ্য জানা যায়।

এতে বলা হয়, মাঠ পর্যায়ের শিক্ষা কর্মকর্তারা ডিজিটাল মনিটরিং সিস্টেমের মাধ্যমে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো নিয়মিত পরিদর্শনের প্রতিবেদন (মার্চ, ২০২৪ মাসের) মাউশি অধিদফতরের মনিটরিং অ্যান্ড ইভালুয়েশন উইং থেকে মাধ্যমিক উইংয়ে পাঠানো হয়। অভিযুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে নিজ নিজ জেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে স্কুলে অনুপস্থিত থাকার স্পষ্ট কারণ উল্লেখ করতে হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, মাধ্যমিক স্তরের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তারা পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই গত মার্চ ও এপ্রিল মাসে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেন। এ সময় এই ৩৬ জনকে প্রতিষ্ঠানে অনুপস্থিত পাওয়া যায়।

এএম/

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত