Connect with us

রাজশাহী

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে নিম্ন মধ্যবিত্তের দীর্ঘশ্বাস 

Avatar of author

Published

on

সারা দেশের ন্যায় পাবনাতেও সব ধরনের নিত্যপণ্যের দাম বেড়েই চলেছে। ক্রয়ের ক্ষমতা নিম্ন মধ্যবিত্তের আয়ত্তের বাহিরে। বাজারে নেই স্বস্তি, সব সবজির দামই চড়া। যদিও গত দুই সপ্তাহের তুলনায় সবজির দাম কিছুটা কমেছে। তবে বেড়েছে আলু, রসুন, পেঁয়াজ ও আদার দাম। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে হিমশিম খাচ্ছে সাধারণ মানুষ।

আজ বৃহস্পতিবার (৭ সেপ্টেম্বর) পাবনার বিভিন্ন বাজার ঘুরে এ চিত্র দেখা যায়।

গেলো সপ্তাহের চেয়ে এ সপ্তাহে নিত্যপণ্যের দাম বেড়েই চলেছে। গেলো সপ্তাহের তুলনায় বাজারে প্রায় সব সবজিই কিছুটা কম দামে বিক্রি হচ্ছে। লম্বা বেগুন ৮০ টাকা, গোল বেগুন ১০০ টাকা, শসা ৬০-৭০ টাকা, করলা ৮০ টাকা, পেঁপে ৪০ টাকা, পটল ৬০-৮০ টাকা, কাঁকরোল ৮০ টাকা, গাজর প্রকারভেদে ১০০-১৮০ টাকা, মুলা ৬০ টাকা, টমেটো ১২০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৪০ টাকা, ঢেঁড়স ৮০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, ধুন্দল ৬০ টাকা, বরবটি ৮০ টাকা, কচুরমুখী ৮০ টাকা, শিম ২০০ টাকা, কাঁচা মরিচ ১৬০ টাকা, ধনেপাতা ২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া প্রতিটি লাউ ৮০ টাকা এবং চাল কুমড়া ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহের তুলনায় বেশ কয়েকটি সবজির দাম ১০ থেকে ২০ টাকা কমেছে। গত সপ্তাহে কেজিতে ১০০ টাকায় বিক্রি হওয়া করলা, কচুরমুখী ও বরবটি ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অন্যদিকে কেজিপ্রতি ১২০ টাকায় বিক্রি হওয়া গোল বেগুন ১০০ টাকায় ও ১০০ টাকায় বিক্রি হওয়া লম্বা বেগুন ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

সবজির দাম কমলেও গত সপ্তাহের তুলনায় ভারতীয় পেঁয়াজের দাম ১০ টাকা করে বেড়েছে। আলুর দাম বেড়েছে ৫ টাকা। আদা ও রসুনের দাম আগে থেকেই বাড়তি রয়েছে। কেজিতে দেশি পেঁয়াজ ৯০ টাকা, ক্রস জাতের পেঁয়াজ ৮৫ টাকা, ভারতীয় পেঁয়াজ ৭০ টাকা, দেশি আদা ২২০ টাকা, ইন্দোনেশিয়ার আদা ২৬০ টাকা, চায়না রসুন ২৪০ টাকা, দেশি রসুন ২৬০ টাকা, আলু ৪৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

Advertisement

কাশিনাথপুর বাজার করতে আসা বেসরকারি চাকরিজীবী আবুল হোসেন বাজার পরিস্থিতি নিয়ে হতাশা প্রকাশ করে বলেন, “বলার মতো কিছু নেই। কাকে বলবো? কী বলবো? শুধু এতটুকুই বলবো, আমাদের দেখার কেউ নেই।” রমজান নামের আরেক ক্রেতা বলেন, “আগে ১৫-২০ টাকা কেজিতে কেনা বেগুন আজ ১০০ টাকায় কিনতে হচ্ছে! কবে আবার আগের দামে কিনতে পারব? সবকিছুর খরচ বেড়েছে, তাই উৎপাদন খরচও বেড়েছে। কিন্তু ১০০ টাকা কেজি তো হওয়ার কথা না।”

বাজার পরিস্থিতি ব্যাখ্যা করে আলু ও পেঁয়াজ বিক্রেতা আরিফ বলেন , “আমাকে ভারতীয় পেঁয়াজ কিনতেই হচ্ছে ৬২ টাকায়। আনতে খরচ হয়, আবার নষ্ট বের হয়। তাই আমাকে ৭০ টাকায় বিক্রি করতে হচ্ছে। আবার শুনছি, ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানিতে খরচ বেড়েছে।”

বাজারে বেড়েছে বিভিন্ন মাছের দামও। ইলিশ মাছ ১৪০০-১৮০০ টাকা, রুই ৩৮০-৪৫০ টাকা, কাতল ৪০০-৫০০ টাকা, চিংড়ি ১০০০-২০০০ টাকা, কাঁচকি ৫০০ টাকা, টেংরা ৭০০ টাকা, কৈ মাছ ২৮০-৩০০ টাকা, পাবদা ৫০০ টাকা, শিং ৫০০-৬০০ টাকা, বোয়াল ৬৫০-৭৫০ টাকা, বেলে মাছ ৬০০-১০০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

মাছ কিনতে আসা মুজিব ইসলাম বলেন, “সবকিছুর দাম এমনিতেই বেশি। কিন্তু আমি ভাবতেও পারছি না চিংড়ি মাছের কেজি দুই হাজার টাকা। আমার ছেলেমেয়ে চিংড়ি মাছ খেতে পছন্দ করে। কিন্তু এ রকম দাম হলে কীভাবে খাওয়াবো?”

এদিকে, বাজারে কেজিতে ব্রয়লার মুরগি ১৬৬-১৭২ টাকা, কক ২৯০-৩০০, দেশি মুরগি ৫৫০ টাকা, গরুর মাংস ৭৫০-৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে দ্রব্যমূল্যের বাজারে মুদি দোকানের পণ্যের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

Advertisement

প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল ১৭৫ টাকা, চিনি ১৩৫ টাকা, মুসর ডাল ১২৫ টাকা, মুগ ডাল ১২০ টাকা, খেসারি ডাল ৭০ টাকা, বুটের ডাল ৮৫ টাকা, ছোলা ৭৫ টাকা, দুই কেজি প্যাকেট ময়দা ১৪০ টাকা, দুই কেজি প্যাকেটের আটা ১২০ টাকা, প্রতি লিটার খোলা সরিষার তেল ২২৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

Advertisement

রাজশাহী

পাবনায় কলেজ ছাত্র হত্যায় তিনজনের যাবজ্জীবন

Published

on

হত্যা

পাবনার আমিনপুর থানা এলাকার আব্দুল গাফফার মাছুম নামের এক কলেজ ছাত্রকে হত্যার ঘটনায় তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) বেলা ১২টার দিকে পাবনার বিশেষ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আহসান তারেক এ আদেশ দেন।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলো, সিরাজগঞ্জ জেলার চৌহালী থানার মিনিদিয়ার চর এলাকার নুরাল মেম্বারের ছেলে মো. আজিম (৩৫), চৌহালীর বাউসা এলাকার ওহাব মোল্লার ছেলে মো. শহিদুল (২৮) এবং একই এলাকার মৃত মছলত সরদারের ছেলে ছাবেদ আলী (৩০)। আসামিরা রায়ের সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন পরে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, নিহত আব্দুল গাফফার মাছুম সুজানগরের দুলাই ডা. জহরুল কামাল কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। ২০১৫ সালের ১৯ আগস্ট কলেজে ক্লাস চলাকালীন সময়ে মোটরসাইকেল ক্রয়-বিক্রয়ের কথা বলে কৌশলে অপহরণ করেন  চাচাতো দুলাভাই মো. আজিম। পরের দিন মাছুমের ফোনে কল করা হলে অজ্ঞাত পরিচয়ে জানান মাছুমকে অপহরণ করা হয়েছে। মুক্তিপণ হিসেবে ২০ লাখ টাকা দাবি করেন। পরে দুলাভাই মো. আজিমকে সন্দেহ করে তার নাম উল্লেখ্য করে অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়। পরে আজিমকে জিজ্ঞাসাবাদে মাছুমকে অপহরণের পর মুক্তিপণ না পেয়ে হত্যা করে লাশ যমুনা নদীতে ফেলে দেয়ার কথা স্বীকার করে। এঘটনা তদন্ত শেষে ২০১৬ সালের ৩ নভেম্বর আজিমসহ আরও তিনজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয় পুলিশ। পরে রমজান নামের এক আসামির মৃত্যুর পরে তিনজনের বিচার শেষে আজকে রায় ঘোষণা করা হলো।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন সরকারি কৌশুলী (পিপি) অ্যাডভোকেট দেওয়ান মজনুল হক এবং আসামিপক্ষের শুনানি করেন শফিকুল ইসলাম সুমন এবং কামাল আহমেদ। রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তুষ্ট হলে অসন্তুষ্ট প্রকাশ করেন আসামি পক্ষের আইনজীবী। রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে বলে জানান  আসামিপক্ষের আইনজীবীরা।

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

রাজশাহী

আইএফআইসি ব্যাংকের সিন্দুক ভেঙে মোটা অংকের টাকা চুরি

Published

on

বগুড়ার মাটিঢালির আইএফআইসি ব্যাংকের উপশাখা থেকে সিন্দুক ভেঙে ২৯ লাখ টাকা চুরির অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (১২ জুন) দিবাগত রাতে সদরের মাটিডালি শাখায় দুই তলা ব্যাংক ভবনটির ছাদের গেট কেটে দুর্বৃত্তরা ওই টাকা চুরি করে।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) বিষয়টি নিশ্চিত করেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইহান ওলিউল্লাহ।

তিনি জানান, ব্যাংকটিতে কোনো নিরাপত্তা প্রহরি ছিলেন না। বিকেলে ব্যাংকে কর্মকর্তারা তাদের কার্যক্রম শেষ করে চলে যান। আজ সকালে এসে তারা ব্যাংকের সিন্দুকটি কাটা দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন। প্রাথমিকভাবে ২৯ লাখ টাকা লুটের হিসেব নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এর আগেও গেলো ২৬ জানুয়ারি বগুড়া সদর উপজেলার পল্লীমঙ্গল হাটে এনআরবিসি ব্যাংকের উপশাখার ভল্ট ভেঙে ৯ লাখ টাকা চুরির ঘটনা ঘটে।

Advertisement

টিআর/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

রাজশাহী

হাসপাতালে ভর্তি কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা

Published

on

পাবনার-ফরিদপুর-উপজেলা-হাসপাতাল

হাসপাতালে ভর্তি ১২ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি ঘটেছে পাবনার ফরিদপুর উপজেলা হাসপাতালে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত মোফাজ্জল হোসেন মোফাকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১১ জুন) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফরিদপুর থানার ওসি হাফিজুর রহমান।

গ্রেপ্তার মোফাজ্জল ফরিদপুর উপজেলার গোপালনগর গ্রামের আজাহার আলীর ছেলে।

ফরিদপুর থানায় দায়ের করা অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, রোববার (৯ জুন) দিবাগত রাত তিনটার দিকে মোফাজ্জল হোসেন নামের ওই যুবক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ২নং মহিলা ওয়ার্ডে প্রবেশ করেন। এরপর ওই ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ওই কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় তার চিৎকার শুনে বেডে থাকা তার মা এবং অন্যান্য রোগীর স্বজনরা ওই ব্যক্তিকে আটক করেন।

এ ব্যাপারে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. বিজুক খাতুন হাসপাতালের ইউএইচএ ডা. মনজুর রহমানকে জানান। ইউএইচএ সোমবার সকালে ফরিদপুর থানায় বিষয়টি লিখিতভাবে জানান। পরে পুলিশ এসে মোফাজ্জল হোসেনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

Advertisement

ফরিদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে শিশু ও নারী নির্যাতন আইনে মামলা হয়েছে। তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে পাবনা জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত