Connect with us

এশিয়া

গাজার গর্ভবতী নারীদের অবর্ণনীয় দুর্ভোগ, নিহত সাড়ে ৯ হাজার

Avatar of author

Published

on

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজায় ইসরায়েলের নির্বিচার হামলা ও অভিযানে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৫০০ জনে। যার অর্ধেকের বেশি আবার নারী ও শিশু। এদিকে গাজায় হাজার হাজার গর্ভবর্তী নারী অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। গাজার ফিলিস্তিনি নারীরা ইসরায়েলি উত্তেজনার মধ্যে অকাল প্রসব ও গর্ভপাতের সম্মুখীন হচ্ছে।

শনিবার (৪ নভেম্বর) গাজা প্রশাসনের জনসংযোগ অফিস এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানিয়েছেন। আনাদুলু এজেন্সির খবরে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

গাজা প্রশাসনের জনসংযোগ কর্মকর্তা সালাম মারুফ সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, অক্টোবরের ৭ তারিখ থেকে শুরু হওয়া ইসরায়েলি আগ্রাসনে গাজা উপত্যকায় অন্তত সাড়ে ৯ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ৩ হাজার ৯০০ জনই শিশু এবং ২ হাজার ৫০৯ জন নারী।

ইসরায়েলি হামলায় গাজায় বিভিন্ন স্থাপনার ক্ষয়ক্ষতি তুলে ধরে সালামা মারুফ বলেন, ‘ইসরায়েলি হামলার কারণে গাজায় ৫৫টি মসজিদ,৩টি বিশ্ববিদ্যালয়, তিনটি গির্জা ধ্বংস হয়েছে।’

তিনি আরও জানান গাজা প্রশাসনের ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অধীনের পাঁচটি ভবনও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। স্বাস্থ্য খাতের অবকাঠামোগত ক্ষয়ক্ষতি তুলে ধরে তিনি বলেন, ১৬টি হাসপাতাল, ৩২টি প্রাথমিক চিকিৎসা কেন্দ্র এবং ২৭টি অ্যাম্বুলেন্স ধ্বংস হয়েছে। চিকিৎসা খাত সংক্রান্ত ১০৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

Advertisement

গাজার জনসংযোগ বিভাগের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ইসরায়েলি হামলায় ৮ হাজার ৫০০ ঘর, ৪০ হাজার আবাসন ইউনিট পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়েছে। এ ছাড়া ২ লাখ ২০ হাজার ইউনিট কোনো না কোনোভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ছাড়া ৮৮টি সরকারি প্রধান কার্যালয়, ২২০টি স্কুল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এসব স্কুলের মধ্যে ৬০টি মেরামত অযোগ্য।

আনাদুলু এজেন্সির খবরে বলা হয়েছে, গর্ভবতী ফিলিস্তিনি নারীরা গাজা উপত্যকায় গর্ভপাত এবং অকাল প্রসবের সম্মুখীন হচ্ছেন। গাজা শহরের আল-শিফা মেডিকেল কমপ্লেক্স আল-হিলু ইন্টারন্যাশনাল হাসপাতালে প্রসূতি পরিষেবা বিভাগ এসব তথ্য জানিয়েছে।

হাসপাতালটি এখন হাজার হাজার বাস্তুচ্যুত বাসিন্দাদের আশ্রয়স্থল। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, গাজায় ইসরায়েলের যে যুদ্ধ চলছে তার কারণে গর্ভবতী মহিলারা বিছানা, ডাক্তার এবং প্রসব-পূর্ব এবং পরবর্তী ভাল চিকিৎসা পরিষেবার অভাবের মধ্যে ভুগছেন।

বেইত হানুন শহরের ইসলাম হামদান আনাদোলুকে তার বোন সম্পর্কে বলেছিলেন, যিনি গাজা শহরের আল-হিলু আন্তর্জাতিক হাসপাতালে সন্তান জন্ম দিতে চলেছেন। তিনি বলেন, ‘কোথাও নিরাপদ নয়, হাসপাতাল নেই, স্কুল নেই, কোথাও নেই’।

হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে চলমান যুদ্ধ নিয়ে কথা বলতে গত শনিবার জর্ডানের রাজধানী আম্মানে সফর করেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন। সেখানে আরব বিশ্বের পাঁচ দেশ সৌদি আরব, মিসর, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কাতার ও জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে করেন। বৈঠকে আরব নেতাদের চাপের মুখে পড়েন ব্লিংকেন। তারা গাজায় তাৎক্ষণিক যুদ্ধবিরতির দাবি জানান এবং হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র যে অবস্থান নিয়েছে এতে তারা সমর্থন জানাননি।

Advertisement

ব্লিংকেন বলেন, গাজায় এই অভিযান অব্যাহত রাখার মাধ্যমে হামাসকে দমন করা সম্ভব হবে। এতে হামাস ইসরায়েলে দ্বিতীয়বারের মতো আর হামলা চালাতে পারবে না।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনের একপর্যায়ে বলেন, যখন তিনি দেখতে পান ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে গাজার শিশুদের টেনে তোলা হয়; তখন সে দৃশ্য তার মনে নিজের সন্তানদের মুখচ্ছবি জাগিয়ে তোলে। তিনি জানান, তাদের সবাইকে একে অপরের প্রতি মানবিক হতে হবে। তবে যুক্তরাষ্ট্র এখনো গাজায় কোনো যুদ্ধবিরতি চায় না বলে জানিয়েছেন ব্লিংকেন। তিনি বলেছেন, যুদ্ধবিরতি করলে হামাস আবার সংঘটিত হবে এবং ৭ অক্টোবরের মতো হামলা চালাবে।

Advertisement

আন্তর্জাতিক

‘তিন ছেলে-নাতি-নাতনিদের হত্যায় যুদ্ধের গতিপথ বদলাবে না’

Avatar of author

Published

on

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র সংগঠন হামাসের প্রধান নেতা ইসমাইল হানিয়া। সংগৃহীত ছবি

‘ইসরায়েলি বাহিনী যদি মনে করে আমার সন্তানদের লক্ষ্য করার মাধ্যমে এই মুহূর্তে হামাসের অবস্থান পরিবর্তন করা যাবে, তাহলে তারা ভ্রান্তিতে আছে। ফিলিস্তিনের সন্তানদের চেয়ে আমার সন্তানদের রক্তের মূল্য বেশি নয়। ফিলিস্তিনের সকল শহীদ আমার সন্তান।’

পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন ইসরায়েলি বাহিনীর বোমা হামলায় তিন ছেলে ও নাতি-নাতনি নিহত হওয়ার পর এসব কথা বলেন ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র সংগঠন হামাসের প্রধান নেতা ইসমাইল হানিয়া।

হামাসের বর্ষিয়ান এই রাজনীতিক মানসিকভাবে ভেঙে না পড়ে যে হৃদয়গ্রাহী বক্তব্য দিয়েছেন তাতে গোটা বিশ্ব অভিভূত হয়েছে। তার এই বক্তব্যের সঙ্গে মুসলিম উম্মাহর অন্তরে হচ্ছে রক্তক্ষরণ।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, হামাসপ্রধান হানিয়ার ছেলেদের লক্ষ্য করে গাজার উত্তরপূর্বাঞ্চলের শাতি শরণার্থী ক্যাম্পে হামলা চালানো হলে হতাহতের এই ঘটনা ঘটে।

ছেলে ও নাতি-নাতনিদের মৃত্যুর বিষয়টি আল জাজিরাকে নিশ্চিত করে  হানিয়া জানান, ইসরাইলি হামলায় কয়েকজন নাতি-নাতনিসহ তার তিন ছেলে হাজেম, আমির এবং মোহাম্মদ প্রাণ হারিয়েছেন। তবে সন্তানদের মৃত্যুতেও বিচলিত নন হামাসপ্রধান।

Advertisement

আল জাজিরাকে ইসমাইল হানিয়া জানান, শহীদদের রক্ত এবং আহতদের যন্ত্রণার মাধ্যমে ফিলিস্তিনিরা আশা তৈরি করে, ভবিষ্যৎ তৈরি করে, মানুষ ও জাতির জন্য স্বাধীনতা ও মুক্তি তৈরি করে।

তিনি আরও বলেন, ঈদ উপলক্ষে আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে দেখা করতে শাতি শরণার্থী ক্যাম্পে গিয়েছিলেন তার ছেলেরা। ওই সময় হামলা চালানো হয়। নেতাদের বাড়িঘর ও পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা চালিয়ে হামাসকে থামানো যাবে না বরেও ইসরায়েলি বাহিনীর প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

হামাসপ্রধান বলেন, কোনো সন্দেহ নেই এই শত্রুরা প্রতিশোধ, হত্যা এবং রক্তপাতে উদ্বুদ্ধ হয়েছে এবং তারা কোনো আইন মানে না। চলমান যুদ্ধে এখন পর্যন্ত তার পরিবারের ৬০ সদস্য নিহত হয়েছেন। ছেলেদের হত্যার মাধ্যমে যুদ্ধের গতিপথ বদলাবে না এবং হামাস যুদ্ধবিরতির দাবি থেকে একটুও সরে আসবে না বলেও তিনি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

প্রসঙ্গত, আল শাতি শরণার্থী ক্যাম্পে বেসামরিকদের বহনকারী একটি গাড়িতে ইসরায়েলি সেনারা বিমান থেকে হামলা চালায়। হানিয়ার পরিবার-পরিজন গাজাতে থাকলেও নিরাপত্তার কারণে তিনি কাতারে বসবাস করেন। সেখান থেকেই দলটির সব কার্যক্রম পরিচালনা করেন গাজার এই নেতা।

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

বিড়াল বাঁচাতে গিয়ে একই পরিবারের ৫ জন নিহত

Avatar of author

Published

on

ভারতের মহারাষ্ট্রের  আহমেদ নগর জেলায়  কুয়ায় পড়ে যাওয়া বিড়াল বাঁচাতে গিয়ে একই পরিবারের ৫ জন নিহত হয়েছেন। আহত অবস্থায় হাসপাতালে একজনকে ভর্তি করা হয়েছে। ওই কুয়ায় স্থানীয় এক কৃষক তাঁর গবাদি পশুর মল ফেলতেন।

বুধবার (১০ এপ্রিল) ভারতের আহমেদ নগর জেলার ভাগদি নামক গ্রামে ঘটনাটি ঘটে বলে এক প্রতিবেদনে  নিশ্চিত করেছে ভারতের গণমাধ্যম দ্যা হিন্দুস্তান টাইমস।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই কুয়াতে বিড়াল পড়ে থাকতে দেখে পরিবারে এক সদস্য  লাফিয়ে পড়েন। তবে নরম গোবরের মধ্যে তিনি তলিয়ে যেতে থাকেন। এ সময় তাকে বাঁচাতে অন্য সদস্যরা লাফিয়ে পড়েন। একে একে আরও তিন সদস্য কুয়াতে লাফিয়ে পড়েন। তবে কেউই কুয়া থেকে উঠে আসতে পারেননি।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পাশাপাশি উদ্ধারকারী দলও সেখানে পৌঁছায়। এরপর একে একে কুয়া থেকে ৫ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করে।

নেওয়াসা থানার পুলিশ পরিদর্শক ধনঞ্জয় যাদব জানান, পরপর ৫ জন কুয়াতে নেমেছিলেন। কিন্তু, কেউই জীবিত অবস্থায় উঠে আসেননি। যে ব্যক্তি কোমরে দড়ি বেঁধে কুয়াতে নেমেছিলেন তার চিকিৎসা চলছে। বর্তমানে তার অবস্থা স্থিতিশীল। ৩৫ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির নাম বিজয় মানিক বলে জানান তিনি।

Advertisement

প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তারা জানান, আহমেদনগর পৌর কতৃপক্ষের দুটি বড় আকারে পাম্প লাগিয়ে ওই কুয়োর মলমূত্র সরিয়ে লাশগুলো উদ্ধার করা হয়।

প্রসঙ্গত, গবাদি পশুর মলের বিষাক্ত গ্যাসে তাদের মৃত্যু হয় বলে প্রাথমিকাভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

বদলা নিতে সমুচার ভেতর ঢুকিয়ে দিলো কনডম, সুপারি, পাথর

Avatar of author

Published

on

চুক্তি বাতিলের প্রতিশোধ নিতে একটি অটোমোবাইল প্রতিষ্ঠানের ক্যান্টিনে সরবরাহ করা সমুচার ভিতর কনডম, সুপারি (গুটখা) এবং পাথর দিয়েছে একটি খাবার সরবারহকারী প্রতিষ্ঠান। এ ঘটনায় এসআরএ এন্টারপ্রাইজ নামের খাবার সরবারহকারী প্রতিষ্ঠানটির পাঁচ কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তারা হলেন রহিম শেখ, আজহার শেখ, মাজহার শেখ, ফিরোজ শেখ এবং ভিকি শেখ। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের পুনেতে। খবর হিন্দুস্তান টাইমস।

পুনের পিম্পরি চিঞ্চওয়াড়ে অবস্থিত ওই অটোমোবাইল প্রতিষ্ঠানটিতে খাবার সরবারহ করত এসআরএ এন্টারপ্রাইজ। খাবারে ভেজাল সংক্রান্ত সমস্যার জন্য তাদের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করা হয়েছিল। পরে দায়িত্ব দেয়া হয় ক্যাটালিস্ট সার্ভিস সলিউসনশ প্রাইভেট লিমিটেডকে। আর ক্যাটালিস্ট সার্ভিস সাব-কন্ট্রাক্টে মনোহর এন্টারপ্রাইজ নামে একটি সংস্থাকে দায়িত্ব দেয়  অটোমোবাইল প্রতিষ্ঠানটিতে সমুচা সরবারহ করার জন্য।

আর অটো মোবাইল প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নিতে এসআরএ এন্টারপ্রাইজ মনোহর এন্টারপ্রাইজে তাদের তিনজন কর্মী নিয়োগ করে। আর তারাই মনোহর এন্টারপ্রাইজের সরবারহ করা সমুচার ভিতরে কনডম, সুপারি (গুটখা) এবং পাথর ঢুকিয়ে দেয়।

মনোহর এন্টারপ্রাইজের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতে চেয়েছিল বলে অভিযোগ করা হয়। পুলিশ ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩২৮ ধারা এবং ১২০বি ধারায় মামলা দায়ের করেছে।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

জাতীয়9 mins ago

দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী

বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ  উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী রোববার (১৪ এপ্রিল) দেশজুড়ে উদযাপিত হবে বাংলা নববর্ষ।...

ক্রিকেট2 hours ago

পা ভাঙ্গার ভয়ে ২-৩ বছর বুমরাহ’র বল খেলেননি সূর্যকুমার!

‘জাসপ্রিত বুমরাহকে নিজেদের দলে পাওয়া সবসময়ই দারুণ। আর গত দুই-তিন বছরে নেটে কখনই আমি তার বল মোকাবিলা করিনি। কারণ সে...

ফায়ার-সার্ভিস ফায়ার-সার্ভিস
জাতীয়3 hours ago

নিয়ন্ত্রণে এসেছে বাড্ডার আগুন

নিয়ন্ত্রণে এসেছে রাজধানীর বাড্ডার সাঁতারকুল ইয়াসিন নগরে গ্যারেজে লাগা আগুন। ফায়ার সার্ভিসের আধা ঘণ্টার চেষ্টায় শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দুপুর পৌনে...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা4 hours ago

এবার বাড্ডায় আগুন

রাজধানীর বাড্ডায় একটি গ্যারেজে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে যাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এর...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা6 hours ago

হাজারীবাগে বস্তিতে আগুন

রাজধানীর হাজারীবাগ বেড়িবাঁধ এলাকায় একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৭টি ইউনিট। শুক্রবার (১২ এপ্রিল)...

বার্ণ ইউনিট বার্ণ ইউনিট
দুর্ঘটনা8 hours ago

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নারী-শিশুসহ দগ্ধ ৬

রাজধানীর মিরপুরের ভাসানটেকে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নারী-শিশুসহ ৬ জন দগ্ধ হয়েছেন। দগ্ধরা হলেন, মেহরুন্নেছা (৬৫), সূর্য বানু (৩০), লিজা(১৮), লামিয়া...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা8 hours ago

এস আলমের অয়েল মিলে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৪ ইউনিট

চট্টগ্রামে মইজ্জারটেক এলাকায় অবস্থিত এস আলম এডিবল অয়েল মিলে আগুন লেগেছে। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) সকাল ৮টা ২০ মিনিটের দিকে আগুনের...

জাতীয়21 hours ago

সম্প্রীতির বন্ধনকে যেন আরও দৃঢ় করতে পারি :পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা আমাদের দেশে যে সম্প্রীতি আছে, সেই সম্প্রীতির বন্ধনকে যেন আরও দৃঢ় করতে পারি। একই সঙ্গে আমাদের...

দুর্ঘটনা22 hours ago

ঈদের দিন মোটরসাইকেল কেড়ে নিলো ৮ প্রাণ

ঈদের আনন্দে মোটর সাইকেল নিয়ে ঘুরতে বেড়িয়ে সড়কে প্রাণ গেলো ৮ জনের। পঞ্চগড়, নেত্রকোনা, ও খাগড়াছড়ি জেলায়  মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার নিহতের...

দেশজুড়ে23 hours ago

ঈদে বিজিবি-বিএসএফ মিষ্টি বিনিময়

পবিত্র ঈদুল ফিতরের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে দিনাজপুরের হিলি সীমান্তে বিজিবি ও ভারতীয় সীমান্ত রক্ষীবাহিনী (বিএসএফ) একে অপরকে মিষ্টি উপহার...

Advertisement
সৌদি আরব
আন্তর্জাতিক5 days ago

সৌদি আরবে ঈদ কবে- যা জানা গেলো

জনদুর্ভোগ5 days ago

ঢাকাকে আলোকিত করতে গ্রামের বিদ্যুৎ ছিনিয়ে নেয়া হচ্ছে

সৌদি আরব
আন্তর্জাতিক4 days ago

সৌদিতে ঈদ বুধবার

আন্তর্জাতিক2 days ago

বিড়াল বাঁচাতে গিয়ে একই পরিবারের ৫ জন নিহত

সেনাবাহিনী প্রধান
বাংলাদেশ5 days ago

বিচ্ছিন্নতাবাদীদের দমনে কম্বিং অপারেশন শুরু: সেনাপ্রধান

টুকিটাকি6 days ago

মহাকাশে তারার বিস্ফোরণ, জীবনে দেখা যাবে একবারই

আন্তর্জাতিক4 days ago

ঈদের তারিখ জানালো অস্ট্রেলিয়া

বিএনপি4 days ago

ব্যারিস্টার খোকনকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত পাঠানো হয়েছে লন্ডনে

আন্তর্জাতিক5 days ago

৬ মাসে হামাসকে কতটুকু ধ্বংস করতে পেরেছে ইসরায়েল

চাঁদপুর,-তরুণীর-লাশ
চট্টগ্রাম5 days ago

প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে এসে লাশ হলেন তরুণী

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসিনা
জাতীয়2 weeks ago

গায়ের চাদর না পুড়িয়ে বউদের ভারতীয় শাড়ি পোড়ান: প্রধানমন্ত্রী

ফুটবল3 weeks ago

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ব্রাজিল কোচ জানালেন এটা মাত্র শুরু

টুকিটাকি3 weeks ago

জিলাপির প্যাঁচে লুকিয়ে আছে যে রহস্য!

অর্থনীতি4 weeks ago

বাজারে লেবুর সরবরাহ বেশি, তবুও দাম চড়া

রেশমা
বাংলাদেশ1 month ago

রাজধানীতে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার কিশোরীর ঠিকানা খুঁজছে পুলিশ

হলিউড1 month ago

নীল দুনিয়ায় অভিনেত্রী সোফিয়ার রহস্যজনক মৃত্যু

ফুটবল1 month ago

জামালকে ঠিকঠাক বেতন দেয়নি আর্জেন্টাইন ক্লাব

টুকিটাকি1 month ago

রণবীরের ‘অ্যানিম্যাল’ দেখে শখ, মাইনাস ২৫ ডিগ্রিতে বসলো বিয়ের আসর

অর্থনীতি1 month ago

গরুর মাংসের দাম কেজি প্রতি পৌনে ৬ লাখ টাকা!

অপরাধ2 months ago

ডিবিতে যে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

সর্বাধিক পঠিত