Connect with us

বিনোদন

বিয়ের পরদিনই হাসপাতালে ছুটতে হল পরম-পত্নী পিয়াকে!

Avatar of author

Published

on

হাসপাতালে

অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় এবং মনো-সমাজকর্মী পিয়া চক্রবর্তী বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন সোমবার (২৭ নভেম্বর)। তবে আজ মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরেই হাসপাতালে ছুটতে হল পিয়াকে।

বিয়ের ছবি সমাজমাধ্যমে দেয়া মাত্রই শুভেচ্ছার বন্যায় ভেসে গেছে নবদম্পতি। রাতে খাওয়াদাওয়ার আয়োজন করেছিলেন পরমব্রতর বন্ধুরা, সে কথা অভিনেতা নিজেই জানান। এই পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। তাহলে কেনো পিয়ার ছুটতে হলো হাসপাতালে।

জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকুরিয়ার বেসরকারি একটি হাসপাতালে অস্ত্রোপচার হবে পরম-ঘরনি পিয়ার। বেশ কিছু দিন আগেই কিডনিতে পাথর ধরা পড়েছিল তার। সেই কষ্ট কতটা অসহনীয়, তা জানিয়ে সমাজমাধ্যমে স্টেটাসও দিয়েছিলেন পিয়া। সেই কষ্ট সহ্য করতে না পেরেই তড়িঘড়ি হাসপাতালে ছুটতে হয়েছে তাকে। তবে পিয়ার শারীরিক পরিস্থিতি এখন কেমন, সে বিষয়ে পরিবার বা পরমব্রতের তরফ থেকে কিছু জানানো হয়নি।

টলিউডের ‘মোস্ট এলিজেব্‌ল ব্যাচেলর’ এই অভিনেতার বিয়ে নিয়ে অনেক দিন ধরেই কানাঘুষো চলছিল। সঙ্গীতশিল্পী, বন্ধুর প্রাক্তন স্ত্রী, পরমের ‘ভাল বন্ধু’ থেকে কখন যে পরম বন্ধু হয়ে উঠছিলেন, সে কথা কাকপক্ষীতেও টের পায়নি। শোনা যায়, বিভিন্ন ক্ষেত্রে একসঙ্গে কাজ করেছেন পিয়া ও পরমব্রত। সেই থেকেই বন্ধুত্বের সূত্রপাত। একেবারে বিবাহবাসর থেকে দু’জনের ছবি পোস্ট করে ব্রত ভঙ্গ করেন পরম। কড়া নিরাপত্তায় ঘেরা আইনি বিয়ে শেষে ভবানীপুরে বন্ধুর বাড়িতে বসেছিল খানাপিনার আসর। নিমন্ত্রিতের সংখ্যাও ছিল হাতেগোনা। পরে অভিনয় জগতের সকলকে নিয়ে অনুষ্ঠান করার ইচ্ছে রয়েছে তাদের। আপাতত অস্ত্রোপচারের পর পিয়া কেমন থাকেন, সকলের চোখ থাকবে সে দিকেই।

Advertisement

টলিউড

‘মুঠোফোনে জালিয়াতি’ সতর্ক করলেন আলিয়ার মা

Published

on

আজ কাল মুঠোফোনের মাধ্যমে বহু মানুষই জালিয়াতির শিকার হচ্ছেন। অচেনা নম্বর থেকে ফোন করে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়ার ঘটনা প্রায়ই ঘটে। এবার সেই জালিয়াতির নিশানায় ছিলেন অভিনেত্রী আলিয়া ভটের মা সোনি রাজ়দান।  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই কথা বললেন সোনি রাজদান।

‘আমাদের চারপাশে বড় জালিয়াতি চলছে। একজন আমায় ফোন করে বললেন, তিনি দিল্লি পুলিশ থেকে কথা বলছেন।

তিনি বললেন, আমি নাকি বেআইনি মাদক অর্ডার করেছি। আমার আধার কার্ডের নম্বর জিজ্ঞাসা করলেন। আমারই পরিচিত কয়েক জনের কাছে এই ধরনেরই ফোন কল এসেছিল। ইনস্টাগ্রামে এক পোস্ট তিনি এ তথ্য জানিয়েছেন।

আলিয়ার মা আরও বলেন ‘তারা ফোন করে ভয় পাইয়ে দেন। এই ধরনের কথা বলে টাকা হাতিয়ে নিতে চান। এই ধরনের ফাঁদে পা দেবেন না। তাদের দ্বারা প্রভাবিত হবেন না। আমি কয়েক জনকে জানি, যারা তাদের কথার ফাঁদে পড়েছেন এবং বহু টাকা হারিয়েছেন। অন্য কেউ যাতে এই বিপদে না পড়েন, তাই এই পোস্টে জানালাম।’

এই ধরনের জালিয়াতি নিয়ে সচেতন থাকার কথা বলে সোনি জানান, ‘এই ধরনের ফোন এলে স্বাভাবিক ভাবেই বোঝা যায় না। বিশ্বাস করুন, আমিও প্রথমে ভেবেছিলাম, এই ফোনের মধ্যে কোনও সত্যতা আছে। আমি এক জনের সঙ্গে কথা বলে বুঝতে পারলাম যে, এটা আসলে জালিয়াতি করার উদ্দেশ্যে করা হয়েছে। তাই আমি এড়িয়ে গিয়েছি। দিন দিন এই ধরনের জালিয়াতি আরও বাড়ছে। তাই সতর্ক থাকুন।’

Advertisement

এএম/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

বলিউড

অভিনেত্রীর মৃত্যুর এক সপ্তাহ না পেরোতেই নায়কের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার

Published

on

গেল রবিবার (১২ মে) মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছেন তেলেগু অভিনেত্রী পবিত্রা জয়রাম। অন্ধ্রপ্রদেশের মেহবুবা নগরের কাছে একটি ভয়াবহ গাড়ি দুর্ঘটনায় তার মৃত্যু হয়। জনপ্রিয় তেলেগু টেলিভিশন ধারাবাহিক ‘ত্রিনয়নী’তে তিলোত্তমার ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন পবিত্রা। অভিনেত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় গুরুতর আহত হয় স্বামী অভিনেতা চন্দ্রকান্ত।

দুর্ঘটনার সময় তিনিও গাড়িতে ছিলেন। তবে স্ত্রীর মৃত্যুর পর একেবারে ভেঙে পড়েছিলেন এই অভিনেতা। এবার নিজেও পাড়ি জমালেন পরপারে। শুক্রবার (১৭ মে) তেলেঙ্গনার অলকাপুরে নিজের বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় অভিনেতার ঝুলন্ত দেহ।

ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, প্রাথমিক তদন্তে পবিত্রার স্বামী চন্দ্রকান্ত আত্মহত্যা করেছেন বলে উঠে এসেছে। এই বিষয়ে চন্দ্রকান্তের বাবার বয়ান রেকর্ড করেছেন পুলিশ। তিনি জানিয়েছেন, বেশ কয়েকদিন ধরেই অবসাদে ভুগছিলেন চন্দ্রকান্ত।

স্ত্রী’র মৃত্যু কিছুতেই মেনে নিতে পারছিলেন না তিনি। পবিত্রার মৃত্যুর পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হৃদয় বিদারক একটি পোস্টও শেয়ার করেছিলেন অভিনেতা। পবিত্রার মৃত্যুর পরই ছিল তার জন্মদিন। ওই দিন স্ত্রীর সঙ্গে বেশ কিছু ছবি শেয়ার করে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চন্দ্রকান্ত।

ঐ পোস্টে তিনি লিখেছিলেন, ‘শুধু দুদিন অপেক্ষা করো।’ দুই দিনের অপেক্ষা কথাটার মধ্যেই এমন রহস্য লুকিয়ে থাকবে তা হয়তো কেউ ধারণা করেনি!

Advertisement

মাত্র কয়েকদিনের ব্যবধানে নায়ক-নায়িকার মৃত্যুর খবরে শোকের আবহ তেলুগু টেলিভিশন জগতে। ‘ত্রিনয়নী’ ধারাবাহিকে একসঙ্গেই কাজ করছিলেন পবিত্রা ও চন্দ্রকান্ত। দর্শকমহলে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল এই জুটি।

এসআই/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ঢালিউড

‘দুজনই মূর্খ’ ডিপজল-মিশাকে আইনিভাবে মোকাবিলা করবেন নিপুণ

Published

on

ফের আলোচনায় চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন। নব নির্বাচিত সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক ডিপজলের সঙ্গে সাবেক সাধারণ সম্পাদক নিপুণের দ্বন্দ্ব এখন চরমে। এরই মধ্যে নিপুণ বর্তমান কমিটির কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেছেন।

যে কারণে নিপুণের ওপর চটেছেন ডিপজল ও মিশা। সম্প্রতি এসব বিষয় নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে থেকে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন নিপুণ। মিশা ও ডিপজলকে মূর্খ সম্বোধন করে এই অভিনেত্রী বলেন, তাদের সঙ্গে কথা বলার কোনো ধরনের ইচ্ছাই তাঁর নেই। তাদের সঙ্গে আইনজীবীর মাধ্যমে কথা বলবেন বলেও জানান।

এ সময় নিপুণ অভিযোগ করে বলেন, তাঁর সঙ্গে অভদ্র ব্যবহার করেছেন মিশা ও ডিপজল। একই সঙ্গে জায়েদ খানের প্রসঙ্গে টেনে অভিনেত্রী বলেন, ‘কোনো সৌজন্য দেখায়নি তাঁরা। শেষ দুই বছর এফডিসিতেও আসেননি। শেষ দুই বছর ধরে যে বেয়াদব ছেলেটা ছিল, যেটাকে বেয়াদব বলতে হয়, যার নাম জায়েদ খান, তিনি যা ইচ্ছা মিডিয়াতে বলে বেড়াচ্ছিল, তখন তাঁরা কোথায় ছিলেন? এই বেয়াদবকে কি থামিয়েছেন?’

এদিকে বৃহস্পতিবার (১৬ মে) সমিতির কার্যকরী সভা শেষে বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি চিত্রনায়ক ডিএ তায়েব জানান, নিপুণের সদস্য পদ বাতিল হতে পারে। গণমাধ্যমের সামনে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদককে নিয়ে বাজে মন্তব্য করেছেন নিপুণ। তাঁর সদস্যপদ কেন বাতিল করা হবে না, সেটি জানতে চেয়ে চিঠি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বর্তমান কমিটি।

এ বিষয়ে নিপুণের ভাষ্য, ‘সদস্যপদের সঙ্গে কোর্টের কোনো সম্পর্ক নেই। রিট যেহেতু করেছি, ওনাদের কোর্টে আসতেই হবে। আর তিনি যদি সদস্যপদ খারিজ করতেই চায়, তাহলে সেটার জন্যও কোর্ট রয়েছে।’

Advertisement

এর আগে গেল ১৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে জয় লাভ করে মিশা-ডিপজল পরিষদ। কিন্তু এই ফলাফল বাতিল চেয়ে এখন আদালতের দ্বারস্ত হয়েছেন নিপুণ।

এসআই/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত