Connect with us

অর্থনীতি

টেকসই পুঁজিবাজার বিনির্মাণে কাজ করছে ডিএসই: এটিএম তারিকুজ্জামান

Avatar of author

Published

on

জনগণের দাঁড়গোড়ায় ডিএসই’র সেবা পৌঁছে দেয়ার পাশাপাশি একটি সমৃদ্ধশালী এবং টেকসই পুঁজিবাজার বিনির্মাণে নিরন্তরকাজ করে যাচ্ছে ডিএসই ৷ বললেন দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. এটিএম তারিকুজ্জামান ।

রোববার (১০ ডিসেম্বর) গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি অফ বিজনেস স্টাডিস-এর ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং ডিপার্টমেন্টের শিক্ষক এবং ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য অনুষ্ঠিত পুঁজিবাজার কেন্দ্রিক একাডেমিক শিক্ষা সচেতনতামূলক কর্মশালায় তিনি এ বক্তব্য দেন।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. এটিএম তারিকুজ্জামান সিপিএ স্বাগত বক্তব্যে বলেন,  বিনিয়োগকারীদের জন্য ডিএসই’র বিনিয়োগ শিক্ষা কার্যক্রম একটি চলমান প্রক্রিয়া। এটা বিএসইসি, ডিএসই এবং আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো আইওএসকোর কার্যক্রমের একটি অংশ‌। এতে করে আর্থিক বিনিয়োগের পরিবেশ ও সময় ইত্যাদি বিষয়ে জানা যায়৷ তাই আইওএসকোর সদস্য হিসেবে আমরা সারাদেশে এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে আসছি। শুধু বিশ্ববিদ্যালয় নয়, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ দেশব্যাপী বিনিয়োগকারীদের সচেতন করার জন্য এ ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। যাতে বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগে ঝুঁকি এড়িয়ে জেনে বুঝে বিনিয়োগ করে। জনগণের দাঁড়গোড়ায় ডিএসই’র সেবা পৌঁছে দেয়ার পাশাপাশি একটি সমৃদ্ধশালী এবং টেকসই পুঁজিবাজার বিনির্মাণে নিরন্তরকাজ করে যাচ্ছে ডিএসই৷

বিশেষ অতিথি বিএসইসি’র কমিশনার জনাব মোঃ আব্দুল হালিম বলেন, আজকের যে ফিন্যান্সিয়াল লিটারেসি অনুষ্ঠান, তা শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস ফ্যাকাল্টির ছাত্রছাত্রীদের জন্য নয়। এটা সবার জন্য আয়োজন করা হয়েছে। আজকে এখানে যারা ছাত্র-ছাত্রী রয়েছেন তারা হয়ত এখনো কোনো উপার্জনে নেই। কিন্তু আমরা আজকে আপনাদের ভবিষ্যতের বিনিয়োগ নিয়ে কিছু কথা বলব‌‌। একজন মানুষ যা আয় করে, তা থেকে সব খরচের পরে যে বাড়তি অর্থ থাকে সেটাই বিনিয়োগ করে। এই বিনিয়োগের ফলে জিডিপির যে প্রবৃদ্ধি তাতে আমরা কত শতাংশ সেভিংস করতে পারি তাতে অবদান রাখে। আগে আমরা যখন ছাত্র ছিলাম তখন সেটা ছিল ১৩-১৪ শতাংশ। আর আজকে সেটা ৩০ শতাংশ ছাড়িয়েছে।

তিনি বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে দেশ উন্নত আয়ে উন্নীত হতে যে মাথাপিছু আয় লাগবে সেখানে বিনিয়োগের মাধ্যমে তা সম্ভব হবে। আজকে অনেকে বিদেশ থেকে টাকা পাঠান কিন্তু কোনো বিনিয়োগ করতে পারেন না। আবার অনেক সঠিক জায়গায় বিনিয়োগ না করার কারণে আর্থিকভাবে প্রতারিত ও ক্ষতিগ্রস্ত হন। এর কারণ হচ্ছে তারা বিনিয়োগের ঝুঁকি সম্পর্কে সঠিকভাবে জানেন না। আমাদের দেশে একজন মানুষ বিনিয়োগ করে কত আয় আর লোকসান করল সেটা সে বুঝতে পারে না। দেখা যায় তার আয়ের থেকে লোকসান বেশি হয়। এর কারণ হচ্ছে তার বিনিয়োগের সঠিক জ্ঞান নেই। তাই আমরা শুধু এখানে না, সারা দেশের সব যায়গায় এই প্রোগ্রাম আয়োজন করি। আজকে ডিএসইর মাধ্যমে এখানে এসেছি আপনাদের জানাতে।

Advertisement

বিএসইসি’র কমিশনার আরো বলেন, আমরা এখনি বলছিনা আপনারা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করেন। তবে পুঁজিবাজার বিনিয়োগের একটি অন্যতম ভালো মাধ্যম। যখন আপনারা আয় করবেন এবং আপনাদের বিনিয়োগের জন্য অর্থ থাকবে তখন এখানে যেনে বুঝে বিনিয়োগ করতে পারেন। আমরা একটি বয়সের পর আর আয় করতে পারব না, তখন তাহলে কি করবেন। তাই ভবিষ্যতের জন্য বিনিয়োগ করতে হবে। আর সেক্ষেত্রে পুঁজিবাজার একটি দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগের যায়গা। পুঁজিবাজারকে অনেকেই কাঁচাবাজার মনে করেন। যারা এখানে প্রতিদিন কেনা-বেচা করতে চান। কিন্তু এটা সেই যায়গা না‌। এখানে আপনার দৈনন্দিন ব্যয় বাদ দিয়ে বিনিয়োগ করতে হবে। তাই পুঁজিবাজারে যদি দীর্ঘ মেয়াদে বিনিয়োগ করা যায় তবে এখান থেকে রিটার্ন সম্ভব।

অর্থনৈতিক সকল সূচকে বাংলাদেশ শক্ত অবস্থানে রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিনিয়োগকারীদের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগে আগ্রহী করতে হবে। বুঝে শুনে পুঁজিবাজারে আসতে হবে। কারো কথায় প্ররোচিত হয়ে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করা ঠিক হবে না। যারা অন্যের কথায় উত্সাহিত হয়ে বাজারে বিনিয়োগ করে তারাই ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সকলকে সাথে নিয়ে দেশের পুঁজিবাজার উন্নয়নে কাজ করতে হবে। তবেই স্থিতিশীল পুঁজিবাজার গড়ে তোলা সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

স্টক এক্সচেঞ্জের কার্যক্রম ব্যাপক। এখানে বিশ্বখ্যাত নাসডাক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে ট্রেডিং কার্যক্রম সম্পন্ন হয়ে থাকে৷ এই পুঁজিবাজারের মাধ্যমেই দেশের ছোট বড় সব ধরনের শিল্পায়ন প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হয় এবং নতুন নতুন শিল্প কারখানা গড়ে তুলতে দীর্ঘমেয়াদি অর্থায়নের সুযোগ সৃষ্টি হয়৷

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ভাইস-চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. এ কিউ এম মাহবুব বিজয়ের এই মাসে জাতির পিতার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, পুঁজিবাজার স্থিতিশীল অর্থনীতির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আজকে এই লিটারেসি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা ক্লাস রুমের বাইরেও অনেক কিছু শিখতে পারবে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে৷ বিশ্বে বাংলাদেশের অর্থনীতির অবস্থা অনেক মজবুত। একটি দেশের পুঁজিবাজার যতটা উন্নত, সে দেশের অর্থনীতি ততটা ভালো। একটি ভালো পুঁজিবাজার ছাড়া ২০৪১ সালের উন্নত ও স্মার্ট বাংলাদেশ বাস্তবায়ন সম্ভব নয়। সেজন্য ডিএসইর আজকের এ আয়োজন খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি বলেন, বর্তমানে উন্নত বিশ্বে সবাই সবার সঙ্গে ব্যবসা করছে। যা থেকে ফিরে আসা সম্ভব নয়। আমাদের দেশের মেগা প্রকল্পগুলো পুঁজিবাজারে আসার জন্য অপেক্ষা করছে। এতে দেশের অর্থনীতির সঙ্গে পুঁজিবাজারের অনেক উন্নতি হবে। যে দেশ যত বেশি উন্নত, সে দেশে তত বেশি বিদেশি বিনিয়োগ রয়েছে। যার একটি বাংলাদেশ, কারণ বাংলাদেশে বিদেশী বিনিয়োগের পরিবেশ ও সুবিধা দেয়া হয়। এতে বাংলাদেশের জিডিপি যেমন বাড়বে তেমনি মানুষের আয়ও বাড়বে‌। সুদৃড় অর্থনীতির সঙ্গে পুঁজিবাজারের উন্নয়ন ধরে রাখতে হবে। আর এ জন্য ফিন্যান্সিয়াল লিটারেসি ও পুঁজিবাজার সম্পর্কে পরিপূর্ণ জ্ঞান থাকা খুবই জরুরি।

Advertisement

 

 

Advertisement

আর্কাইভ

জাতীয়

জাতীয়32 seconds ago

মার্চ নয়, বিদ্যুতের নতুন দাম কার্যকর হবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকেই

মার্চ নয়, বিদ্যুতের নতুন দাম কার্যকর ১ ফেব্রুয়ারি থেকেই প্রতি ইউনিটে ক্ষুদ্রগ্রাহক পর্যায়ে ৩৪ পয়সা আর বৃহৎগ্রাহক পর্যায়ে ৭০ পয়সা...

বিএনপি-নেতা-ইশরাক বিএনপি-নেতা-ইশরাক
আইন-বিচার56 mins ago

বিএনপি নেতা ইশরাকের আগাম জামিন

রাজধানীর বিভিন্ন থানায় দায়ের করা নাশকতার ১২ মামলায় হাইকোর্ট থেকে আগাম জামিন পেয়েছেন বিএনপি নেতা ইশরাক হোসেন। গেলো ২৮ অক্টোবর...

জরিমানা জরিমানা
বাংলাদেশ2 hours ago

ভূয়া ডাক্তার ও কয়েল কারখানায় অভিযানে জরিমানা আদায়

পাবনায় ভূয়া ডাক্তার ও কয়েল কারখানায় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযানে এক লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। পাবনা জেলা  কার্যালয়ের...

জাতীয়2 hours ago

‘পুলিশকে যখনই যেটার দরকার সেই ভূমিকা পালন করতে হবে’

আগামীতে কেউ যেন আর এভাবে পুলিশের ওপর আক্রমণ করতে না পারে, সেটা ওই রাজনীতির নামে হোক, সন্ত্রাসের নামেই হোক। কেউ...

আইন-বিচার3 hours ago

জবি ছাত্রী খাদিজা দুই মামলাতেই অব্যাহতি পেলেন

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলায় অব্যাহতি পেয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ছাত্রী খাদিজাতুল কুবরাকে । এর আগে গত ২৮ জানুয়ারি কলাবাগায় থানায়...

একে আবদুল মোমেন একে আবদুল মোমেন
জাতীয়3 hours ago

 ইউরোপীয় ৫০ চিকিৎসককে জরিমানা, ক্ষুব্ধ মোমেন

বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিতে ইউরোপ থেকে বাংলাদেশে এসে জরিমানার শিকার হয়েছেন ৫০ জন চিকিৎসক। এ ঘটনায় বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেন্টাল...

হাইকোর্ট হাইকোর্ট
আইন-বিচার3 hours ago

সাজার মেয়াদ শেষ হওয়া বিদেশি কারাবন্দিদের ফেরত পাঠাতে হাইকোর্টের নির্দেশ

দেশের কারাগারগুলোতে বিভিন্ন অপরাধের সাজা খাটা শেষে প্রত্যাবাসনের অপেক্ষায় থাকা ১৫৭ জন বিদেশি কারাবন্দিকে নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে নির্দেশ...

ট্রেন ট্রেন
বাংলাদেশ5 hours ago

ঢাকার সঙ্গে উত্তরাঞ্চলের ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক

চার ঘণ্টা পর ঢাকার সঙ্গে স্বাভাবিক হয়েছে উত্তরাঞ্চলের ট্রেন চলাচল। বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টার দিকে টাঙ্গাইল কমিউটারের ইঞ্জিন বিকল...

আইন-বিচার6 hours ago

ড. ইউনূসকে ৫০ কোটি টাকা জমা দিয়েই আপিল করতে হবে

শান্তিতে নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনূসের গ্রামীণ টেলিকম ট্রাস্টকে ৫০ কোটি টাকা জমা দিয়েই আপিল করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।...

মাদকবিরোধী মাদকবিরোধী
অপরাধ6 hours ago

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৩৮ 

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। অভিযানে মাদক বিক্রি ও...

Advertisement
জাতীয়32 seconds ago

মার্চ নয়, বিদ্যুতের নতুন দাম কার্যকর হবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকেই

পরামর্শ12 mins ago

রোগ প্রতিরোধ করে সজনে ডাঁটা, আর কী কী গুণ রয়েছে এই সবজিতে?

স্বাস্থ্য33 mins ago

ওষুধের দাম কমানোর বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বিএনপি-নেতা-ইশরাক
আইন-বিচার56 mins ago

বিএনপি নেতা ইশরাকের আগাম জামিন

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ
আওয়ামী লীগ2 hours ago

বিএনপি-জামায়াত ইসরায়েলের দোসর : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জরিমানা
বাংলাদেশ2 hours ago

ভূয়া ডাক্তার ও কয়েল কারখানায় অভিযানে জরিমানা আদায়

এশিয়ান ফার্মা
ঢাকা2 hours ago

পূর্বাচলে এশিয়ান ফার্মা এক্সপো-২০২৪ অনুষ্ঠিত

জাতীয়2 hours ago

‘পুলিশকে যখনই যেটার দরকার সেই ভূমিকা পালন করতে হবে’

অর্থনীতি2 hours ago

৪২৪ কোটি টাকার তেল, ডাল ও গম কিনছে সরকার

ধর্ষণের
রংপুর3 hours ago

ছাত্রকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

টম-ক্রুজ,-আমিশা
বলিউড7 days ago

হলিউড অভিনেতা টম ক্রুজকে বিয়ে করেছেন আমিশা প্যাটেল!

প্রবাস6 days ago

দেশে ফিরলেন আটক হওয়া ১৪৪ বাংলাদেশি

ঢালিউড2 days ago

মাহি ইস্যুতে ইমনকে হুঁশিয়ারি ডি এ তায়েবের

ঢালিউড2 days ago

‘মাহি আস্থার আস্তানা’য়’ স্বামী রাকিব করলেন বিস্ফোরক মন্তব্য

বাংলাদেশ19 hours ago

আইসিইউতে গেলো রোগী, ফিরে এলো ধর্ষিত হয়ে

টুকিটাকি2 days ago

গর্ভনিরোধক বড়ি যেসব রোগের ঝুঁকি বাড়াচ্ছে

টুকিটাকি1 day ago

আম্বানির ছেলের বিয়েতে ২৫০০ পদ রাধঁবেন ২১ বাবুর্চি, মেনুতে যা থাকছে

নিপুণ
ঢালিউড1 day ago

শিল্পী সমিতির নির্বাচনে যে পদে লড়বেন নিপুণ

ধর্ম3 days ago

বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম মসজিদ উদ্বোধন

সালমান-খান
বলিউড2 days ago

৫৮ বছরে বিয়ের প্রস্তাব পেলেন সালমান, কে এই অপূর্ব সুন্দরী?

অপরাধ2 weeks ago

ডিবিতে যে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

ব্যারিস্টার-সৈয়দ-সায়েদুল-হক-সুমন
আওয়ামী লীগ3 weeks ago

‘আমি ফেসবুকের এমপি ঠিকই, ফসল হিসেবে তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী’

ওবায়দুল-কাদের
জাতীয়3 weeks ago

বাংলাদেশ কারো সঙ্গেই যুদ্ধে জড়াতে চায় না : কাদের

এশিয়া1 month ago

হামাসের ৮০ ভাগ টানেল অক্ষত, ঘুম হারাম ইসরায়েলের!

মঈন-খান
বিএনপি1 month ago

প্রতিহিংসার রাজনীতির শিকার হয়েছিলেন কোকো: মঈন খান

ফিচার2 months ago

শেখ হাসিনা-খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার করেও ঠেকানো যায়নি যে নির্বাচন (ভিডিও)

প্রধানমন্ত্রী.-সাকিব-আল-হাসান
আওয়ামী লীগ2 months ago

এইবারও ইলেকশনে ছক্কা মেরে দিও: সাকিবকে প্রধানমন্ত্রী

৭ম-জাতীয়-নির্বাচন
জাতীয়2 months ago

‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে প্রথম নির্বাচন’

জাতীয়2 months ago

৫ম জাতীয় নির্বাচন: প্রথমবারের মতো নারী প্রধানমন্ত্রী পায় বাংলাদেশ

জাতীয়2 months ago

তৃতীয় জাতীয় সংসদ যে কারণে ভেঙে দিতে বাধ্য হন এরশাদ

সর্বাধিক পঠিত