Connect with us

ইউরোপ

কারাবন্দী নার্গিসের পক্ষে সন্তানেরা নিলেন নোবেল শান্তি পুরষ্কার

Avatar of author

Published

on

চলতি বছর শান্তিতে নোবেল বিজয়ী ইরানের কারাবন্দী মানবাধিকারকর্মী নার্গিস মোহাম্মদীর পক্ষে তার দুই যমজ সন্তানের হাতে পুরষ্কার তুলে দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় সময় রোববার(১০ ডিসেম্বর)নরওয়ের অসলোতে এক অনুষ্ঠানে এই পুরষ্কার দেওয়া হয়।ইরানে নারী নিপীড়নের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের স্বীকৃতি হিসেবে এ বছর নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত হয়েছিলেন ৫১ বছর বয়সী নার্গিস মোহাম্মদী। আর খবরটি কারাগারে বসেই শুনতে পান ইরানের এই নারী নেত্রী।

নার্গিসের পাঠানো লিখিত বক্তব্যে কী আছে?

রোববার শান্তিতে নোবেল পুরষ্কার প্রদান অনুষ্ঠানে কারাবন্দী মায়ের লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনায় নার্গিসের ১৭ বছর বয়সী দুই যমজ সন্তান কিয়ানা রহমানি ও আলী রহমানি। ইরানের কুখ্যাত এভিন কারাগার থেকে নার্গিসের লেখা ওই বক্তব্যে বলা হয়, কারাগারের চরম পরিবেশ থেকে তিনি কথাগুলো তুলে ধরেছেন। তাঁর মতো ইরানের অনেক মানবাধিকারকর্মী বেঁচে থাকার জন্য নিরন্তর সংগ্রাম করে যাচ্ছেন। জনসমর্থন ও বৈধতা হারানো ইরান সরকার দেশটিতে যে কর্তৃত্ববাদী শাসনব্যবস্থা চাপিয়ে দিয়েছে, তা পরাস্ত করবে ইরানের জনগণ।

অসলোতে পাঠানো্ লিখিত বক্তব্যে নার্গিস মোহাম্মদী আরও বলেন,‘ইরানের নাগরিক সমাজের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আন্তর্জাতিক নাগরিক সমাজের কাছে এটিই উপযুক্ত সময়। এ কাজে আমি সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালাব।’

কে এই নার্গিস মোহাম্মদী?

Advertisement

চলতি বছর ১২২ বছর পুরনো নোবেল শান্তি পুরস্কারটি পেয়েছেন নার্গিস মোহাম্মদী। ২০০৩ সালের পর দ্বিতীয় ইরানি নারী হিসেবে তিনি পান এই পুরষ্কার।এর আগে ওই বছর(২০০৩) শান্তিতে নোবেল পুরষ্কার পান ইরানের আরেক মানবাধিকারকর্মী আইনজীবী শিরিন এবাদি। তার প্রতিষ্ঠিত বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা-ডিফেন্ডার হিউম্যান রাইটস সেন্টারের (ডিএইচআরসি)ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্বে রয়েছে বর্তমানে ইরানের কারাগারে থাকা এই নারী নেত্রী।

এবছর শান্তিতে নোবেল পুরষ্কারে জন্য মনোনীতি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ছিল ৩৫১ জন। প্রতি বছর মনোনীত সংখ্যার ক্ষেত্রে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।২০১৬ সালে সর্বোচ্চ সংখ্যা ছিল ৩৭১।তবে সাড়ে তিনশো ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে পেছনে ফেলে শেষ হাসি হাসেন ৫১ বছর বয়সী ইরানের এই ‘অগ্নিকন্যা’।নার্গিসকে নিয়ে এ পর্যন্ত ১৯ নারী নোবেল পুরস্কার পেলেন।আর নার্গিস পঞ্চম নোবেল বিজয়ী, যিনি কারাগারে বসে এ পুরস্কার পেলেন।

কেন তিনি নোবেল শান্তি পুরষ্কার পেলেন?

ব্ষিয়টি স্পষ্ট করেছেন নোবেল পুরষ্কার কর্তৃপক্ষ। নো্বেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ইরানে নারীদের নিপীড়নের বিরুদ্ধে এবং সবার জন্য মানবাধিকারের পক্ষে  সোচ্চার থাকার জন্য বর্তমানে কারাবন্দি এই মানবাধিকারকর্মীকে নোবেল শান্তি পুরস্কারে ভূষিত করা হয়েছে।

নার্গিস মোহাম্মদীর সংগ্রামী জীবন

Advertisement

২০১০ সালের ঘটনা।ওই বছরফেলিক্স এরমাকোরা মানবাধিকার পুরস্কার জিতেন শিরিন এবাদি। পুরষ্কার নেয়ার সময় তিনি এটি নার্গিসকে উৎসর্গ করেন। ওইসময় এবাদি বলেন,  ‘এ পুরস্কার আমার চেয়ে বেশি প্রাপ্য সাহসী নারী নার্গিস মোহাম্মদীর’।

১৯ তম নারী হিসেবে নোবেল শান্তি পুরষ্কার পাওয়া নার্গিস সত্যিই সাহসী।১৩ বার গ্রেফতার, আদালতে পাঁচবার দোষী সাব্যস্ত,সব মিলিয়ে ৩১ বছরের কারাদণ্ড, ১৫৪টি বেত্রাঘাত,বর্তমানে কারাগারের অন্ধকার প্রকোষ্ট-কোনো কিছুই তাকে দমাতে পারেনি।নার্গিস মানেই যেনো শাসকদের অন্যায়ের বিরুদ্বে ন্যায়ের,অসত্যের বিরুদ্ধে সত্যের আর অত্যাচারের বিরুদ্ধে অত্যাচারীর সাহসী লড়াই,তীব্র প্রতিবাদ।

ইমাম খোমেনি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে পদার্থবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেয়ার পর পেশাদার প্রকৌশলী হিসেবে চাকরি জীবনের শুরু নার্গিসের। তবে নারীর অধিকার নিয়ে গণমাধ্যমে লেখালেখি করে আসছেন সেই শিক্ষাজীবন থেকে।

মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও অধিকারের জন্য সাহসী লড়াইয়ের ফলে ব্যক্তিগত অনেক ত্যাগস্বীকার করতে হয়েছে। ইরান সরকারের সমালোচনা করায় ১৯৯৮ সালে গ্রেফতার হয়ে এক বছর কারাভোগ করেন। ২০১১ সালে জাতীয় নিরাপত্তার বিরুদ্ধে কাজ করার দায়ে তার ১১ বছরের সাজা হয়। পরের বছর আপিল করলে সাজা কমে হয় ৬ বছর। পরে ব্রিটিশ সরকারের আবেদনে একই বছরের ৩১ জুলাই মুক্তি পান।

২০১৫ সালের ৫ মে তাকে নতুন অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়। ২০২০ সালে কারাগারে কোভিডে আক্রান্ত হলে তিনি মুক্তি পান। ২০২১ সালে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও প্রকাশ করায় তাকে আবারো আটক করা হয়। তখন থেকেই কারাগারে আছেন শান্তিতে নোবেল জয়ী নার্গিস মোহাম্মদী।

Advertisement
Advertisement

আন্তর্জাতিক

স্ত্রীকে ২২৪ টুকরা, পরে গুগলে খোঁজেন ভূত হয়ে ভয় দেখাবে কিনা?

Avatar of author

Published

on

সংগৃহীত ছবি

বিয়ে হয়েছে মাত্র ১৬ মাস। এরইমধ্যে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেন স্বামী। তারপর স্ত্রীর মরদেহ কেটে টুকরো টুকরো করেন। দুই-তিন-চার –পাঁচ নয় দুই শতাধিক টুকরা করেন।  এরপর এক সপ্তাহ ধরে ওই টুকরাগুলো প্লাস্টিকের ব্যাগে মুড়ে  ফ্রিজে রেখে দেন।

নারকীয় তাণ্ডবের এখানেই শেষ নয়। এবার লাভ-লোকসানের উপায় খুঁজতে থাকেন তিনি। মোবাইলে গুগলে সার্চ করেন দুটি প্রশ্ন জানার জন্য। তা হলো-,স্ত্রী মারা গেলে স্বামী কী কী সুবিধা পেতে পারেন। আর দ্বিতীয়টি হলো-কেউ মরে যাওয়ার পর ভূত হয়ে ভয় দেখাতে আসে কিনা?

পরে বন্ধুর সাহায্যে স্ত্রীর মরদেহের টুকরাগুলো নদীতে ফেলে দিয়ে আসেন। একাজে সহায়তা করেন তারই এক বন্ধু।  এরজন্য ওই বন্ধুকে ৫০ পাউন্ড অর্থ দিয়েছিলেন।

যুক্তরাজ্যে লোমহর্ষক এ এঘটনার জন্ম দিয়েছেন নিকোলাস মেটসন (২৮) নামের এক ব্যক্তি। শনিবার (৬ এপ্রিল) ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা বিবিসি’র প্রতিবেদনে এ ভয়ঙ্কর তথ্য উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নিকোলাস মেটসন (২৮) নামের ওই ব্যক্তি প্রথমে স্ত্রী হলি ব্রামলিকে হত্যার কথা প্রথমদিকে অস্বীকার করলেও এক সপ্তাহ পর নিজের দোষ স্বীকার করেন। এর আগে অবশ্য তদন্ত কাজে  তার বাসায় আসলে হত্যাকাণ্ড নিয়ে পুলিশের সঙ্গে রসিকতা করেন। পুলিশকে মজা করে বলেন, তার স্ত্রী খাটের নিচে লুকিয়ে থাকতে পারে।

Advertisement

তবে এতকিছু করেও পার পায়নি ওই অভিযুক্ত স্বামী। ঘটনার বেশ কয়েকদিন পর ভিতাম নদীর পাশ দিয়ে হাঁটার সময় এক ব্যক্তি মরদেহ রাখা প্লাস্টিকের ব্যাগগুলো দেখতে পান। সেখানে একটি ব্যাগে হাত বেরিয়ে ছিল। পরে পুলিশকে খবর দিলে নদীতে নামানো হয় ডুবুরি। তারা  ব্রামলির শরীরের ২২৪টি টুকরা উদ্ধার করেন। এ ছাড়া এখনও কিছু অংশ খুঁজে পাওয়া যায়নি।

পুলিশ বোলছে স্ত্রীকে শোয়ার ঘরেই ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করেন যুবক। তার পর বাথরুমে নিয়ে গিয়ে তার দেহ টুকরা টুকরা করা হয়। বাড়ি থেকে রক্তমাখা কাপড়, বিছানার চাদর উদ্ধার করা হয়েছে। দেহ পচার গন্ধ ঢাকতে ঘরে অ্যামোনিয়ার কড়া গন্ধ ছড়িয়ে দিয়েছিলেন অভিযুক্ত। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আদালতকে জানান,মরদেহটি এমনভাবে টুকরা টুকরা করা হয়েছে যে মুত্যুর কারণ খুঁজে পাওয়া অসম্ভব ছিল।

স্বামীর বর্বরতায় নিহত ওই নারীর মা আদালতকে বলেন, তার মেয়ের মাত্র ১৬ মাস আগে বিয়ে হয়েছে। তার স্বামী একটা ‘দানব’ প্রকৃতির ছিলেন।  নিহত ব্রামলিকে তার মায়ের কাছে অনেকদিন আসতে দিত না। তার মেয়ে অনেকটা বিচ্ছেদের পর্যায়ে ছিলেন।  এমন সময়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে।

সনহতের পরিবারের অভিযোগ, এর আগে তরুণীর পোষ্য কুকুর এবং হ্যামস্টারগুলিকেও নৃশংস ভাবে খুন করেছেন ওই যুবক। শুক্রবার ব্রিটেনের আদালতে স্ত্রীকে খুনের কথা তিনি স্বীকার করে নেন। আদালত তার সাজা ঘোষণা স্থগিত রেখেছেন। অভিযুক্ত স্বামীর দাবি,  জটিল মানসিক রোগে আক্রান্ত হওয়ার কারণে  সে এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন।

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ইউরোপ

প্যান্ট ছাড়া রাস্তায় জার্মানির নারী পুলিশ

Avatar of author

Published

on

জার্মানির বাভেরিয়ার নারী পুলিশ সদস্যরা প্যান্ট ছাড়া রাস্তায় নেমেছেন। জানা গেছে, ইউনিফর্মের ঘাটতির দাবি আদায়ে এটি ভিন্নধর্মী প্রতিবাদের অংশ।

বৃহস্পতিবার (০৪ এপ্রিল) ডয়েচে ভেলের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জার্মানভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম ডয়চে ভেলে জানিয়েছে, জনসমক্ষে প্যান্ট ছাড়া ইউনিফর্ম পরে জার্মানির বাভেরিয়ার পুলিশ সদস্যরা ভিন্নধর্মী প্রতিবাদ জানিয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে বাভেরিয়ায় ইউনিফর্মের ঘাটতি চলমান থাকায় ক্ষোভ দেখা দিয়েছে পুলিশ সদস্যদের মধ্যে। তাই ইউনিফর্মের অপেক্ষায় থাকা পুলিশ সদস্যরা তাদের দাবি আদায়ে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে এমন প্রতিবাদের পথ বেছে নিয়েছেন।

স্টেট চ্যাপ্টার অব দ্য পুলিশ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইয়র্গ্যেন কোহলাইন মূল সমস্যা তুলে ধরেছেন। তিনি বলেন, এটা দেখে মনে হতে পারে এপ্রিল ফুলের একটা বাজে কৌতুক। কিন্তু আসলে এখানে হাসির কিছু নেই। ইউনিফর্মের ভয়াবহ অভাব পুলিশ কর্মকর্তাদের জন্য অসম্মানের।

তিনি বলেন, বাভেরিয়ার পুলিশরা অর্ধনগ্ন, এমনকি ট্রাউজার ছাড়া থাকতে বাধ্য হচ্ছে। ইউনিফর্মের ২১ ধরনের সামগ্রীর ঘাটতি রয়েছে। যেমন : ক্যাপ, জ্যাকেট এবং প্যান্ট… অনেক মাস অপেক্ষার পরও জানি না আদৌ এগুলো পাওয়া যাবে কিনা।’

Advertisement

জার্মানির পুলিশ ইউনিয়ন রাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে, যাতে দ্রুত এই সমস্যার সমাধান করা হয়। এজন্য অতিরিক্ত খরচ লাগলে তাও দিতে হবে বলে দাবি তাদের। তারা বলেছে, ২০২০ সাল থেকে ভালো ইউনিফর্মের ঘাটতি রয়েছে, যেটা নিয়ে কখনো কথা বলা হয়নি। কিন্তু এখন ইউনিফর্ম পাওয়াটা বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এ বিষয়ে বুধবার জার্মান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, তারা সমস্যা সম্পর্কে জানেন। সরবরাহ খাতে ব্যাঘাতের কারণে এই সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা আরও জানিয়েছেন, তারা এখন থেকে নিজেরা এগুলো পৌঁছে দেয়ার সব দায়দায়িত্ব পালন করবেন।

তবে, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ইয়ুর্গ্যান এখনও কোন আশার আলো দেখছেন না। তার মতে, এটা এখনো অনিশ্চিত, আসলেই সংকট সমাধান হবে নাকি পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে। নতুন নিয়োগপ্রাপ্তরা প্রশিক্ষণ শেষে যখন ইউনিফর্মের বদলে বেসামরিক পোশাক পাবেন তাদের মনোভাব কেমন হবে।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ইউরোপ

ইউক্রেন জড়িত না থাকলে তথ্য দিন, যুক্তরাষ্ট্রকে রাশিয়া

Avatar of author

Published

on

হামলার পর জ্বলছে মস্কোর ক্রোকাস সিটি হল: ছবি-রয়টার্স

মস্কোর অদূরে একটি কনসার্ট হলে বন্দুক হামলার ঘটনায় ইউক্রেন জড়িত না থাকলে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে থাকা যেকোনো তথ্য শেয়ার করার আহবান জানিয়েছে রাশিয়া। স্থানীয় সময় শুক্রবার রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা এ আহবান জানান।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা জানিয়েছেন,  মস্কোতে কনসার্ট হলে হামলার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে থাকা সব তথ্য শেয়ার করতে হবে। বন্দুক হামলার ঘটনার সঙ্গে ইউক্রেন বা ইউক্রেনিয়রা জড়িত ছিল এমন কোনো আলামত নেই-হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জন কিরবির এমন মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে মারিয়া জাখারোভা এ আহবান জানান।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, হোয়াইট হাউজ বলেছিলেন- মস্কোতে সন্ত্রাসী হামলার সঙ্গে ইউক্রেন বা ইউক্রেনীয়দের জড়িত থাকার কোনো লক্ষণ দেখছে না তারা। একটি শোকাবহ ঘটনার মাঝেই মার্কিন কর্মকর্তারা কীসের ভিত্তিতে কোনও ব্যক্তির নির্দোষিতা সম্পর্কে সিদ্ধান্তে পৌঁছান?

তিনি বলেন, ওয়াশিংটনের কাছে কোনো তথ্য থাকলে তা শেয়ার করা উচিত। আর তা না থাকলে তাদের এমনভাবে কথা বলা উচিত নয়।

প্রসঙ্গত, ক্রেমলিন থেকে  ২০ কিলোমিটার দূরে ক্রোকাস সিটি হলে শুক্রবার (২২ মার্চ) সন্ধ্যায় বন্দুক হামলা চালানো হয়।  হামলায় এখন পর্যন্ত ১১৫ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। নিহতের এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।  জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) এর দায় স্বীকার করলেও এই হামলার জন্য ইউক্রেনকে দায়ী করছে রাশিয়া।

Advertisement

এমতাবস্থায় হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জন কারবি বলেন, মস্কোয় ভয়াবহ ওই হামলার সঙ্গে ইউক্রেনের কিংবা ইউক্রেনের কোনো নাগরিকের সম্পৃক্ততার আভাস এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। তার  এই মন্তব্যের জবাবে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা মন্তব্য করেন।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

ক্রিকেট2 hours ago

পা ভাঙ্গার ভয়ে ২-৩ বছর বুমরাহ’র বল খেলেননি সূর্যকুমার!

‘জাসপ্রিত বুমরাহকে নিজেদের দলে পাওয়া সবসময়ই দারুণ। আর গত দুই-তিন বছরে নেটে কখনই আমি তার বল মোকাবিলা করিনি। কারণ সে...

ফায়ার-সার্ভিস ফায়ার-সার্ভিস
জাতীয়3 hours ago

নিয়ন্ত্রণে এসেছে বাড্ডার আগুন

নিয়ন্ত্রণে এসেছে রাজধানীর বাড্ডার সাঁতারকুল ইয়াসিন নগরে গ্যারেজে লাগা আগুন। ফায়ার সার্ভিসের আধা ঘণ্টার চেষ্টায় শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দুপুর পৌনে...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা4 hours ago

এবার বাড্ডায় আগুন

রাজধানীর বাড্ডায় একটি গ্যারেজে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে যাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এর...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা5 hours ago

হাজারীবাগে বস্তিতে আগুন

রাজধানীর হাজারীবাগ বেড়িবাঁধ এলাকায় একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৭টি ইউনিট। শুক্রবার (১২ এপ্রিল)...

বার্ণ ইউনিট বার্ণ ইউনিট
দুর্ঘটনা7 hours ago

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নারী-শিশুসহ দগ্ধ ৬

রাজধানীর মিরপুরের ভাসানটেকে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নারী-শিশুসহ ৬ জন দগ্ধ হয়েছেন। দগ্ধরা হলেন, মেহরুন্নেছা (৬৫), সূর্য বানু (৩০), লিজা(১৮), লামিয়া...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা7 hours ago

এস আলমের অয়েল মিলে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৪ ইউনিট

চট্টগ্রামে মইজ্জারটেক এলাকায় অবস্থিত এস আলম এডিবল অয়েল মিলে আগুন লেগেছে। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) সকাল ৮টা ২০ মিনিটের দিকে আগুনের...

জাতীয়20 hours ago

সম্প্রীতির বন্ধনকে যেন আরও দৃঢ় করতে পারি :পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা আমাদের দেশে যে সম্প্রীতি আছে, সেই সম্প্রীতির বন্ধনকে যেন আরও দৃঢ় করতে পারি। একই সঙ্গে আমাদের...

দুর্ঘটনা21 hours ago

ঈদের দিন মোটরসাইকেল কেড়ে নিলো ৮ প্রাণ

ঈদের আনন্দে মোটর সাইকেল নিয়ে ঘুরতে বেড়িয়ে সড়কে প্রাণ গেলো ৮ জনের। পঞ্চগড়, নেত্রকোনা, ও খাগড়াছড়ি জেলায়  মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার নিহতের...

দেশজুড়ে22 hours ago

ঈদে বিজিবি-বিএসএফ মিষ্টি বিনিময়

পবিত্র ঈদুল ফিতরের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে দিনাজপুরের হিলি সীমান্তে বিজিবি ও ভারতীয় সীমান্ত রক্ষীবাহিনী (বিএসএফ) একে অপরকে মিষ্টি উপহার...

গণভবনে-প্রধানমন্ত্রী গণভবনে-প্রধানমন্ত্রী
জাতীয়1 day ago

আওয়ামী লীগ নিতে নয় জনগণকে দিতে এসেছে: প্রধানমন্ত্রী

আওয়ামী লীগ নিতে আসেনি মানুষকে দিতে এসেছে। তাদের জন্য অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থানের ব্যবস্থা করা আওয়ামী লীগের অঙ্গীকার। বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ...

Advertisement
সিলেট11 mins ago

গরুর জন্য ঘাস কাটা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৪০

পর্যটন12 mins ago

বান্দরবানের তিন উপজেলায় ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা

লঞ্চের-দড়ি-ছিড়ে-মৃত্যু
ঢাকা42 mins ago

লঞ্চের দড়ি ছিড়ে মৃত্যু: আসামিদের ৩ দিনের রিমান্ড

দেশজুড়ে1 hour ago

ঘুমন্ত অবস্থায় আগুনে পুড়ে শিশু নিহত

বৈসাবি-উৎসব
চট্টগ্রাম1 hour ago

পাহাড়জুড়ে বাজছে বৈসাবির সুর

ক্রিকেট2 hours ago

পা ভাঙ্গার ভয়ে ২-৩ বছর বুমরাহ’র বল খেলেননি সূর্যকুমার!

ডলার
অর্থনীতি2 hours ago

রেমিট্যান্সে চাঙ্গা ভাব, বেড়েছে রিজার্ভ

আন্তর্জাতিক2 hours ago

ইসরাইলে কর্মরত নাগরিকদের সতর্ক করলো যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য

আন্তর্জাতিক2 hours ago

সংসদের ভেতরে বিউটি পার্লার চান নারী এমপিরা!

স্বাস্থ্য2 hours ago

ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ভাতা বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন

সৌদি আরব
আন্তর্জাতিক5 days ago

সৌদি আরবে ঈদ কবে- যা জানা গেলো

জনদুর্ভোগ5 days ago

ঢাকাকে আলোকিত করতে গ্রামের বিদ্যুৎ ছিনিয়ে নেয়া হচ্ছে

সৌদি আরব
আন্তর্জাতিক4 days ago

সৌদিতে ঈদ বুধবার

আন্তর্জাতিক2 days ago

বিড়াল বাঁচাতে গিয়ে একই পরিবারের ৫ জন নিহত

সেনাবাহিনী প্রধান
বাংলাদেশ5 days ago

বিচ্ছিন্নতাবাদীদের দমনে কম্বিং অপারেশন শুরু: সেনাপ্রধান

টুকিটাকি6 days ago

মহাকাশে তারার বিস্ফোরণ, জীবনে দেখা যাবে একবারই

আন্তর্জাতিক4 days ago

ঈদের তারিখ জানালো অস্ট্রেলিয়া

বিএনপি4 days ago

ব্যারিস্টার খোকনকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত পাঠানো হয়েছে লন্ডনে

আন্তর্জাতিক5 days ago

৬ মাসে হামাসকে কতটুকু ধ্বংস করতে পেরেছে ইসরায়েল

চাঁদপুর,-তরুণীর-লাশ
চট্টগ্রাম5 days ago

প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে এসে লাশ হলেন তরুণী

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসিনা
জাতীয়2 weeks ago

গায়ের চাদর না পুড়িয়ে বউদের ভারতীয় শাড়ি পোড়ান: প্রধানমন্ত্রী

ফুটবল3 weeks ago

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ব্রাজিল কোচ জানালেন এটা মাত্র শুরু

টুকিটাকি3 weeks ago

জিলাপির প্যাঁচে লুকিয়ে আছে যে রহস্য!

অর্থনীতি4 weeks ago

বাজারে লেবুর সরবরাহ বেশি, তবুও দাম চড়া

রেশমা
বাংলাদেশ1 month ago

রাজধানীতে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার কিশোরীর ঠিকানা খুঁজছে পুলিশ

হলিউড1 month ago

নীল দুনিয়ায় অভিনেত্রী সোফিয়ার রহস্যজনক মৃত্যু

ফুটবল1 month ago

জামালকে ঠিকঠাক বেতন দেয়নি আর্জেন্টাইন ক্লাব

টুকিটাকি1 month ago

রণবীরের ‘অ্যানিম্যাল’ দেখে শখ, মাইনাস ২৫ ডিগ্রিতে বসলো বিয়ের আসর

অর্থনীতি1 month ago

গরুর মাংসের দাম কেজি প্রতি পৌনে ৬ লাখ টাকা!

অপরাধ2 months ago

ডিবিতে যে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

সর্বাধিক পঠিত