Connect with us

ফুটবল

ফের মেসির হাতেই ‘ফিফা দ্য বেস্ট’

Avatar of author

Published

on

কাতার বিশ্বকাপ জয়ের কীর্তিতে গত বছরের ফিফা ‘দ্য বেস্ট’ হয়েছিলেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা লিওনেল মেসি। এবার ভাবা হচ্ছিল ভাগ্যের শিঁকে ছিঁড়বে ট্রেবল জয়ী ম্যানসিটির নরওয়েজিয়ান স্ট্রাইকার আর্লিং হাল্যান্ডের। তিনি সিটির হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, ইংলিশ লিগ ও এফএ কাপ জিতেছেন। কিন্তু এবারও মেসির কাছেই হারলেন হাল্যান্ড।

বিশ্বের প্রতিটি দেশের কোচ, অধিনায়ক, সাংবাদিক এবং সমর্থকদের ভোটে টানা দ্বিতীয়বারের মত ফিফার ‘দ্য বেস্ট’ অ্যাওয়ার্ড জিতলেন মিয়ামি তারকা মেসি। সবমিলিয়ে তৃতীয়বারের মতো এই পুরস্কার ঘরে তুলে সবাইকে ছাড়িয়ে গেছেন এলএম-টেন।

এর আগে ২০১৯ সালে প্রথমবার ‘ফিফা দ্য বেস্ট’ জেতেন মেসি। তবে এবার পুরস্কার বিতরণীতে উপস্থিত ছিলেন না মেসি। তার বদলে উপস্থাপক থিয়েরি অঁরি পুরস্কারটি গ্রহণ করেন।

২০২২ বিশ্বকাপের পর থেকে ২০২৩-এর আগস্ট- এই সময়টার মধ্যেই সেরা পারফর্মার বেছে নেয়া হয়েছে এবারের ফিফা ‘দ্য বেস্ট’-এর জন্য। এতে লিগ ওয়ান জিতে আমেরিকায় পাড়ি জমানো মেসির চেয়ে হাল্যান্ডকেই এগিয়ে রেখেছিলেন অনেকে। ভোটে অবশ্য সমানে সমানে লড়াই হয়েছে দুজনের মধ্যে। দু’জনই পয়েন্ট ছিল সমান। তবে জাতীয় দলের অধিনায়কদের ভোটে প্রথম পছন্দের তালিকায় এগিয়ে ছিলেন মেসি। ফিফার ‘রুলস অব অ্যালোকেশন’র ১২ নম্বর অনুচ্ছেদ অনুযায়ী তাই মেসির হাতেই আবারও উঠলো ফিফার সেরার পুরস্কার। অন্যদিকে, এই দুই তারকার থেকে অনেক পিছিয়ে থেকে তৃতীয় হয়েছেন ফরাসি স্ট্রাইকার কিলিয়ান এমবাপ্পে।

হাল্যান্ড সেরা খেলোয়াড় না হলেও বর্ষসেরা কোচ হয়েছেন ম্যানচেস্টার সিটির পেপ গার্দিওলা। এমনকি সেরা একাদশেও ট্রেবলজয়ী ম্যানসিটির খেলোয়াড়দের জয়জয়কার। ১১ জনের ৬ জনই সিটির।

Advertisement

এদিকে, নারী ফুটবলার ক্যাটাগরিতে সেরা হয়েছেন স্পেনের বিশ্বকাপজয়ী আইতানা বোনমাতি। ফিফা’র ফেয়ারপ্লে খেতাব জিতেছে ব্রাজিলের পুরুষ জাতীয় ফুটবল বল। যার পুরস্কার গ্রহণ করেন দেশটির কিংবদন্তী রাইটব্যাক কাফু।

Advertisement

ফুটবল

এফএ কাপের শিরোপা জিতলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

Published

on

এফএ কাপের ফাইনালে টানা দুই মৌসুমে মুখোমুখি হয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। তবে টানা দ্বিতীয় শিরোপা ঘরে তোলা হলো না ম্যানসিটির। আলজান্দ্রো গারনাচো ও কোবি মাইনুর গোলে সিটির বিপক্ষে ২-১ গোলে জয়ী হয়েছে ইউনাইটেড। ফলে ১৩তম বারের মতো এফএ কাপের শিরোপা ঘরে তুললো দলটি।

ওয়েম্বলিতে শনিবার (২৫ মে) রাত ৮ ঘটিকায় মুখোমুখি হয় দুই দল। ম্যানচেস্টার ডার্বি নামে খ্যাত এই দুই দলের লড়াই। ম্যাচে বল ধরে রাখায় সিটি এগিয়ে ছিল ম্যাচ জুড়ে। তবে জয়টা ইউনাইটেডের কাছেই ভিড়েছে। যেখানে ৭০ শতাংশের বেশি সিটির অঞ্চলে বল ছিল। শট খেলাতেও এগিয়ে ছিল, কিন্তু অন-টার্গেটে শট করায় পিছিয়ে ছিল তারা। যেমনটি ইউনাইটেডের ক্ষেত্রেও হয়েছে।

তবে ২৯ মিনিটের মাথায় ইউনাইটেড প্রথম গোলটি করে। যেখানে সিটি ডিফেন্ডার গাভারদিওলের ভুলে গারনাচো গোল পেয়ে যায়। এর ঠিক ১০ মিনিট পর ৩৯ মিনিটের মাথায় গোল আসে মাইনুর দারুণ এক গোলে ২-০ তে এগিয়ে যায় এরিক টেন হাগের শিষ্যরা।

এই অবস্থাতেই বিরতিতে যায় দুই দল। বিরতির পর আর খুব বেশি সুবিধা করা হয়ে ওঠেনি সিটির। যখন মনে হচ্ছিল গোল আর আসছে না পেপ গার্দিওলার দলের কাছ থেকে, তখন ৮৭ মিনিটের মাথায় বদলি খেলোয়াড় হিসেবে নামা জেরেমি ডকু সিটির পক্ষে গোল করে বসেন।

শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলে শেষ হয় এফ এ কাপের রাত।

Advertisement

 

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ফুটবল

প্রথমবারের মতো কোপায় নারী রেফারি

Published

on

প্রথমবারের মতো কোপা আমেরিকায় নারী রেফারি দেখতে যাচ্ছে ক্রিকেট বিশ্ব। শুক্রবার (২৪ মে) সাউথ আমেরিকা সকারের গভর্নিং বডি (কনমেবল) একটি বিবৃতির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করে। আগামী ২০ জুন থেকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে টুর্নামেন্টটি। যেখানে ১০১ জন ম্যাচ অফিশিয়াল থাকবে, যার ৮ জন থাকছে নারী।

টুর্নামেন্টে নারী রেফারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন ব্রাজিলের এডিনা আলভেস এবং যুক্তরাষ্ট্রের মারিয়া ভিক্টোরিয়া পেনসো। তারা ভিডিও অ্যাসিস্টেন্ট রেফারি (ভার) নিকারাগুয়ার তাটিয়ানা গাজমান থেকে সহায়তা পাবেন।

ব্রাজিলের নিউজা ব্যাক, কলোম্বিয়ার ম্যারি ব্লাঙ্কো, ভেনিজুয়েলার মিগডালিয়া রদ্রিগেজ, যুক্তরাষ্ট্রের ব্রুক মায়ো এবং ক্যাথিরিন নেসবিট- যারা সহকারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

দক্ষিণ আফ্রিকা ফুটবলের গভর্নিং বডি জানিয়েছে, এটি একটি উল্লেখযোগ্য অঙ্গীকার, যা ২০১৬ সালে গ্রহণ করেছিল কনমেবল।

 

Advertisement

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ফুটবল

কোস্টারিকার হয়ে শেষ বললেন কেইলর নাভাস

Published

on

কোপা আমেরিকার আগেই আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে সরে দাঁড়ালেন কোস্টারিকা গোলরক্ষক কেইলর নাভাস। এখনো দল ঘোষণা করেনি তারা। তবে নাভাসের এই সিদ্ধান্ত কিছুটা হতাশ করতে পারে কোস্টারিকাকে। আগামী ২০ জুন থেকে শুরু হচ্ছে কোপা আমেরিকা।

কোস্টারিকার হয়ে ১১৪ ম্যাচে অংশ নিয়েছেন নাভাস। তার অভিষেক হয় ২০০৮ সালে। বিশ্বকাপ খেলেছেন ৩ টি। নাভাস ও কোস্টারিকার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময় এসেছিল ২০১৪ বিশ্বকাপে। সেবার কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছিল দলটি।

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে একতি ফ্রেন্ডলি ম্যাচে সর্বশেষ কোস্টারিকার হয়ে মাঠে নেমেছিলেন নাভাস। এই ফুটবলার বলেন, “জীবনের এই অধ্যায়ের শেষ দিকে এসেছি, আমি কৃতজ্ঞতা ভরা হৃদয় নিয়ে ছেড়ে যাচ্ছি। আমার চোখ এখন সামনের দিকে, আমার প্রিয় কোস্টারিকার নাম আমি সবসময় বহন করে যাব।“

প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি) এর হয়ে ২০১৯ সাল থেকে খেলছেন নাভাস। গত বছর লোনে প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব নটিংহ্যাম ফরেস্টের হয়ে খেলেছেন। এই গোলরক্ষক পিএসজির হয়ে ৩ টি লিগ-ওয়ান জিতেছেন। এর আগে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে খেলেছেন নাভাস, যেখানে ৩ টি চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন তিনি।

 

Advertisement

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত