Connect with us

চট্টগ্রাম

ঘুমধুম সীমান্তের ওপারে থেমে থেমে গুলি ও মর্টার শেল, আতঙ্কে মানুষ

Avatar of author

Published

on

ঘুমধুম

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তের ওপারে সাত ঘণ্টা বিরতির পর আবারও গোলাগুলি হয়েছে।

সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল আটটা পর্যন্ত থেমে থেমে গুলি ও মর্টার শেল নিক্ষেপ চলে। এর আগে রোববার (৪ ফেব্রুয়ারি) রাত ১১টায় ঘুমধুম ইউনিয়নের কোনারপাড়ার কাছাকাছি মিয়ানমারের ঢেঁকিবনিয়া সীমান্তচৌকি ঘিরে গোলাগুলি শুরু হয়।

গেলো শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত তিনটা থেকে ঢেঁকিবনিয়ার পাশে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) তুমব্রু রাইট ক্যাম্প দখলকে কেন্দ্র করে মিয়ানমারের বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরকান আর্মির সঙ্গে গোলাগুলি চলে। গতকাল বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত একটানা গোলাগুলি, মর্টার শেল নিক্ষেপ চলে।

স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, গতকাল বিকেল পাঁচটার দিকে তুমব্রু রাইট ক্যাম্প দখল করে নেয় আরকান আর্মি। এরপর গোলাগুলি বন্ধ হয়। তবে সীমান্তের ৩৪ নম্বর পিলারের কাছাকাছি ঢেঁকিবনিয়া সীমান্তচৌকির দখল নিয়ে গতকাল রাত ১১টার দিকে গোলাগুলি শুরু হয়। মুহুর্মুহু গোলাগুলি ও মর্টার শেল নিক্ষেপে প্রকম্পিত হয়ে ওঠে বাংলাদেশের সীমান্ত এলাকা। এতে নতুন করে আতঙ্ক দেখা দেয় ঢেঁকিবনিয়ার আশপাশের এলাকায়।

স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তুমব্রু রাইট ক্যাম্প সীমান্তচৌকিটি বাংলাদেশের লোকালয়ের একদম কাছাকাছি। ঢেঁকিবনিয়া সীমান্তচৌকি থেকে বাংলাদেশের লোকালয় প্রায় ৮০০ মিটার দূরে। ঢেঁকিবনিয়া ও বাংলাদেশের লোকালয়ের মাঝখানে নাফ নদী ও প্যারাবন রয়েছে। এ কারণে তুমব্রু রাইট ক্যাম্পে গোলাগুলির সময় যেভাবে মানুষের বসতঘরে গুলি ও মর্টার শেল এসে পড়েছে, ঢেঁকিবনিয়ায় সেভাবে পড়েনি।

Advertisement

উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান গফুর উদ্দিন চৌধুরী বলেন, গতকাল রাত ১১টার দিকে মিয়ানমারের ঢেঁকিবনিয়া সীমান্তচৌকি ঘিরে গোলাগুলি শুরু হয়ে রাত তিনটা পর্যন্ত একটানা গোলাগুলি চলে। এতে উখিয়ার ঘাট, পূর্ব ফাঁড়ির বিল, নলবনিয়া, আনজুমানপাড়া, বালুখালী ও দক্ষিণ বালুখালী গ্রামের মানুষ আতঙ্কে ছোটাছুটি করেছেন। এসব এলাকার মানুষ নির্ঘুম রাত কাটিয়েছেন।

আজও ঘুমধুমের সাত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ

সীমান্তের ওপারে হঠাৎ গোলাগুলি বেড়ে যাওয়ায় ঘুমধুম ও তুমব্রু সীমান্তের কাছে পাঁচটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ সাতটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রোববার বন্ধ ঘোষণা করা হয়। আজও এই সাত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ আছে।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ত্রিরতন চাকমা বলেন, বাইশফাঁড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ভাজাবনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তুমব্রু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তুমব্রু পশ্চিমকুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও দক্ষিণ ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘুমধুম উচ্চবিদ্যালয় ও মিশকাতুন্নবী দাখিল মাদ্রাসা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে জেলা প্রশাসক, ইউএনওর সঙ্গে আলোচনা করে এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু করা হবে।

তুমব্রু পশ্চিমকুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হেলাল উদ্দিন বলেন, নিরাপত্তার অভাবে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে আসছে না।

Advertisement

গতকাল জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন বলেছিলেন, ঘুমধুম ও তুমব্রু সীমান্ত ঘেঁষে যে সড়কগুলো গেছে, সেগুলোয় ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচল নিষেধ করা হয়েছে। গণপরিবহন চলাচলও সীমিত করা হয়েছে।

আতঙ্কে ঘরে ফেরেননি বাসিন্দারা

গতকাল ভোর থেকে ঘরবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে গিয়েছিলেন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের পাঁচ গ্রামের মানুষ। হিন্দুপাড়া, কোনারপাড়া, পশ্চিমকুল, উত্তরপাড়া ও মধ্যমপাড়ার বেশির ভাগ মানুষ উখিয়া সদরসহ বিভিন্ন এলাকার আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে চলে যান। তারা এখনো বাড়ি ফেরেননি।

স্থানীয় ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য দিল মোহাম্মদ ভুট্টো বলেন, তুমরু রাইট ক্যাম্প সীমান্তচৌকিতে গোলাগুলি নেই। পরিবেশ শান্ত। তবে লোকজনের মধ্যে এখনো আতঙ্ক কাটেনি।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সূত্র জানায়, মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলমান সংঘর্ষের জেরে এখন পর্যন্ত মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) ৯৫ জন সদস্য অস্ত্রসহ বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছেন। বিজিবি তাদের নিরস্ত্রীকরণ করে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়েছে। এর মধ্যে আহত ১৫ জনের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

Advertisement
Advertisement

আর্কাইভ

শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯ 

জাতীয়

জাতীয়9 hours ago

‘সাধারণ পরিষদের সিদ্ধান্তেই বাংলা হতে পারে দাপ্তরিক ভাষা’

বাংলাভাষা জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা হবে কিনা তা নির্ভর করছে সংস্থাটির সাধারণ পরিষদের সিদ্ধান্তের ওপর-এমনটাই জানালেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের মুখপাত্র...

জাতীয়9 hours ago

একুশে ফেব্রয়ারি নিয়ে যা বললেন পিটার হাস-সারাহ কুক

একুশে ফেব্রুয়ারি শুধুমাত্র আন্তর্জাতিক মার্তৃভাষা দিবস নয়। এটি বিশ্বের প্রতিটি ভাষার আত্মরক্ষার প্রতীক-এমন মন্তব্য করেছেন ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার...

অপরাধ9 hours ago

দুই শিশু সন্তানসহ বিষপান, মায়ের মৃত্যু

দুই শিশু সন্তানসহ বিষপানের অভিযোগ উঠেছে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে এক মায়ের বিরুদ্ধে। এরপর তিনি নিজেও বিষপান করেন। হাসপাতালে নেয়ার পর তানিয়া...

অপরাধ9 hours ago

অর্থ আত্মসাতের মামলায় যুব মহিলা লীগ নেত্রী গ্রেপ্তার

পাবনা জেলা যুব মহিলা লীগের সদস্য মিম খাতুন ওরফে আফসানা মিম (২৬) ও তার স্বামী ওবায়দুল্লাহকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। যুবলীগ...

জাতীয়10 hours ago

ভাষা আন্দোলন দমাতে পাকিস্তান সরকার বঙ্গবন্ধুকে কারান্তরীণ রাখে : জয়

ভাষা আন্দোলনের গতিবেগ দমিয়ে রাখতে পাকিস্তান সরকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে কারান্তরীণ করে রাখে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য...

দুর্ঘটনা10 hours ago

সড়ক দুর্ঘটনায় সাংবাদিকের মৃত্যু

নীলফামারীর সদরে রাকিবুল ইসলাম রকি (৩৮) নামে এক সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি দৈনিক আলোকিত নিউজ পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত...

অপরাধ11 hours ago

বাবা-মায়ের ঝগড়া, মেয়েকে হত্যার পর আত্মহত্যার চেষ্টা বাবার

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে মেয়েকে জবাই করে হত্যার পর বাবা নিজেরে পেটে ছুরি মেরে আত্মহত্যার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত বাবাকে মুমূর্ষু অবস্থায়...

জাতীয়11 hours ago

‘খতনায় শিশুর মৃত্যু, হাসপাতালটির কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা’

রাজধানীর মালিবাগের জেএস ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড মেডিকেল সেন্টারে খতনা করাতে গিয়ে আহনাফ তাহমিন আয়মান নামে এক শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ...

জাতীয়12 hours ago

যেকারণে বাংলা এখনও হয়নি জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা

২১ ফেব্রুয়ারি রক্তাক্ত  ঘটনার দুই বছরের বেশি সময় পর ১৯৫৪ সালের ৭মে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকার করে একটি প্রস্তাব গ্রহণ...

জাতীয়12 hours ago

‘দেশে ৩০ শতাংশ খাদ্য অপচয় হয়’

বাংলাদেশে ফসল সংগ্রহের পর বিভিন্ন পর্যায়ে প্রায় ৩০ শতাংশ ফসল ও খাদ্য নষ্ট এবং অপচয় হয়। খাদ্য নষ্ট ও অপচয়ের...

Advertisement
জাতীয়9 hours ago

‘সাধারণ পরিষদের সিদ্ধান্তেই বাংলা হতে পারে দাপ্তরিক ভাষা’

জাতীয়9 hours ago

একুশে ফেব্রয়ারি নিয়ে যা বললেন পিটার হাস-সারাহ কুক

অপরাধ9 hours ago

দুই শিশু সন্তানসহ বিষপান, মায়ের মৃত্যু

অপরাধ9 hours ago

অর্থ আত্মসাতের মামলায় যুব মহিলা লীগ নেত্রী গ্রেপ্তার

জাতীয়10 hours ago

ভাষা আন্দোলন দমাতে পাকিস্তান সরকার বঙ্গবন্ধুকে কারান্তরীণ রাখে : জয়

দুর্ঘটনা10 hours ago

সড়ক দুর্ঘটনায় সাংবাদিকের মৃত্যু

অপরাধ11 hours ago

বাবা-মায়ের ঝগড়া, মেয়েকে হত্যার পর আত্মহত্যার চেষ্টা বাবার

জাতীয়11 hours ago

‘খতনায় শিশুর মৃত্যু, হাসপাতালটির কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা’

ঢালিউড11 hours ago

এবার বইমেলা থেকে ‘বিতাড়িত’ হিরো আলম

জাতীয়12 hours ago

যেকারণে বাংলা এখনও হয়নি জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা

অপরাধ4 days ago

ডিবিতে যে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

ব্যারিস্টার-সৈয়দ-সায়েদুল-হক-সুমন
আওয়ামী লীগ2 weeks ago

‘আমি ফেসবুকের এমপি ঠিকই, ফসল হিসেবে তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী’

ওবায়দুল-কাদের
জাতীয়2 weeks ago

বাংলাদেশ কারো সঙ্গেই যুদ্ধে জড়াতে চায় না : কাদের

এশিয়া3 weeks ago

হামাসের ৮০ ভাগ টানেল অক্ষত, ঘুম হারাম ইসরায়েলের!

মঈন-খান
বিএনপি4 weeks ago

প্রতিহিংসার রাজনীতির শিকার হয়েছিলেন কোকো: মঈন খান

ফিচার2 months ago

শেখ হাসিনা-খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার করেও ঠেকানো যায়নি যে নির্বাচন (ভিডিও)

প্রধানমন্ত্রী.-সাকিব-আল-হাসান
আওয়ামী লীগ2 months ago

এইবারও ইলেকশনে ছক্কা মেরে দিও: সাকিবকে প্রধানমন্ত্রী

৭ম-জাতীয়-নির্বাচন
জাতীয়2 months ago

‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে প্রথম নির্বাচন’

জাতীয়2 months ago

৫ম জাতীয় নির্বাচন: প্রথমবারের মতো নারী প্রধানমন্ত্রী পায় বাংলাদেশ

জাতীয়2 months ago

তৃতীয় জাতীয় সংসদ যে কারণে ভেঙে দিতে বাধ্য হন এরশাদ

সর্বাধিক পঠিত