Connect with us

রংপুর

সোহান হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

Avatar of author

Published

on

মানববন্ধন

কুড়িগ্রামে মটর মালিক সমিতির সদস্য ও ব্যবসায়ী শরিফুল ইসলাম সোহানকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নিহত শরিফুল ইসলাম সোহান জেলা শহরের ঘোষপাড়ার হাটিরপাড় এলাকার মৃত আমজাদ হোসেন বুলুর পুত্র। নিহত সোহান কুড়িগ্রাম পৌর আওয়ামীলীগের কোষাধ্যক্ষ ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়রি) দুপুরে কুড়িগ্রাম কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের সামনে জেলা মটর মালিক সমিতি ও জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়ন ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন করে।

এতে বক্তব্য রাখেন জেলা মটর মালিক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কফিল উদ্দিন, মোস্তাফিজার রহমান সাজু, সদস্য রুহুল আমিন দুলালসহ অন্যান্যরা।

বক্তারা সোহান হত্যাকান্ডে জড়িত সকল চিহ্নিত দুর্বৃত্তদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তুমূলক শাস্তির দাবি জানান।

Advertisement

গেলো ৯ ফেব্রুয়ারি সন্ধায় কুড়িগ্রাম জেলা শহরের খলিলগন্জ এলাকায় কনভেনশন সেন্টারের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা একটি জিপগাড়ীতে ধাক্কা লেগে মটরসাইকেলে থাকা দুই ছাত্রলীগ নেতা আহত হয়। পরে খবর পেয়ে সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজভী কবির বিন্দু ও পলিটেকনিক ছাত্রলীগ সভাপতি ঝিনুক মিয়া ঘটনাস্থলে এসে জিপে থাকা শরিফুল ইসলাম সোহানকে বেধরক পিটিয়ে হত্যা করে।

এ ঘটনায় নিহত শরিফুল ইসলাম সোহানের স্ত্রী রোজিনা পারভীন বাদি হয়ে সদর থানায় ৪ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরও ৭-৮ জনের নামে মামলা করে। পরে পুলিশ সেদিনই রেজভী কবির বিন্দু ও ঝিনুক মিয়াকে গ্রেপ্তার করে। পরে আদালতে প্রেরণ করে রিমান্ড আবেদন করলে ৩ দিনের রিমান্ড মন্জুর করে আদালতের বিচারক।

এ ঘটনায় আর কোন আসামীকে এখন পর্যন্ত গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

 

Advertisement
Advertisement

দেশজুড়ে

টিকটক করতে গিয়ে নদীতে ডুবে প্রাণ গেলো কিশোরের

Avatar of author

Published

on

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে টিকটক ভিডিও বানাতে গিয়ে  তিস্তা নদীতে ডুবে সোহাগ (১২) নামের এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) রাজারহাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান বায়ান্ন টিভিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ  জানায়, নিহত সোহাগ তার ফুপাতো বোনকে নিয়ে টিকটক বানানোর উদ্দেশ্যে নদীতে গোসল করতে নামে। এসময় সাথে আরও দুই বন্ধু ছিল। টিকটকের ভিডিও ধারণের সময় সোহাগ পানিতে নেমে গোসল করতে ছিল। গোসলের এক পর্যায়ে অন্যরা নিজেদের মত তীরে চলে এলেও সোহাগকে খুজে পাওয়া যাচ্ছিলো না।

স্থানীয়রা জানান, নদীর পাড়ে গিয়ে তাকে খুজে না পেয়ে ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ২ ঘন্টা পর তিস্তা নদী থেকে সোহাগের মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহত সোহাগ রাজারহাট উপজেলার ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের খিতাব গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে।

Advertisement

প্রসঙ্গত, এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

দেশজুড়ে

পরকীয়ার জেরে প্রেমিকের হাতে দুই সন্তানের জননী খুন

Avatar of author

Published

on

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে পরকীয়া প্রেমের জেরে প্রেমিকের হাতে শাহনাজ পারভীন (২৫) নামে দুই সন্তানের জননী খুন হয়েছেন। নিহত শাহনাজ পারভীন দেবীগঞ্জ উপজেলার চিলাহাটি ইউনিয়নের আব্দুল মজিদের স্ত্রী। এ ঘটনায় অভিযুক্ত রাজু পলাতক রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) সকালে দেবীগঞ্জ উপজেলার চিলাহাটি ইউনিয়নের মতিয়ারপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে বলে বায়ান্ন টিভিকে নিশ্চিত করেছেন দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরকার ইফতেখারুল মোকাদ্দেম।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে নিহত শাহনাজের স্বামী মজিদ গার্মেন্টসসহ বিভিন্ন স্থানে কাজ করার সুবাদে ঢাকায় থাকতো। দুই বছর আগে প্রতিবেশী আইনুলের ছেলে রাজুর (২৭) সাথে পরকীয় প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে শাহনাজ। এক সময় কোন এক কারণে তাদের পরকীয়া প্রেম ভেঙ্গে যায়।

এদিকে ঈদের দিন  সকালে স্বামীসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা ঈদের নামাজ পড়তে ঈদগাহে গেলে। আগে থেকে  উৎপেতে থাকা রাজু শাহনাজের বাড়িতে যায়। এর মাঝে শাহনাজের বড় মেয়ের সামনে শোবার ঘরে ধারালো দেশী অস্ত্র (ছুরি) দিয়ে এলোপাতারি আঘাত করে গলা কেটে পালিয়ে যায়।

নিহতের মেয়ে মাইশা আক্তার জানান,তাঁর মাকে ছুরি দিয়ে মারে। সে চিৎকার দিলে দৌড়ে পালিয়ে যান রাজু।

Advertisement

এসময়ে  কান্না ও চিৎকারে স্থানিয়রা এগিয়ে এলে শাহনাজের গলাকাটা মরদেহ দেখতে পেয়ে থানা পুলিশ ও ইউনিয়ন পরিষদে খবর দেয়।

পুলিশ জানায়, ৮/৯ মাস আগে কিছুদিন অভিযুক্ত রাজু ও নিহত শাহনাজ নিখোঁজও ছিলেন। এ ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। কিছুদিন পর বাড়ি ফিরলে প্রথমে স্বামী তাকে গ্রহণ করতে রাজি হননি। একপর্যায়ে দুজনে সমঝোতায় আবারও সংসার শুরু হয়।

গৃহবধূর স্বামী আব্দুল মজিদ বলেন, রাজুর সঙ্গে তাঁর স্ত্রী মোবাইলে কথা বলতো। চলেও গেছিল রাজুর সঙ্গে। সন্তানদের দিকে চেয়ে শাহনাজকে  নিয়ে ঢাকায় চলে যান। রাজু দীর্ঘদিন ধরেই তাকে হুমকি দিয়ে আসছিলো, যে তাকে ও শাহনাজের সঙ্গে সংসার করতে দিবে না।

দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরকার ইফতেখারুল মোকাদ্দেম জানান, মরদেহের পাশ থেকে একটি রক্তমাখা ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য  মরদেহ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। পলাকত রাজুকে আটকের চেষ্টা চলছে।

প্রসঙ্গত, ভুক্তভোগী দম্পত্তির ৬ বছরের একটি মেয়ে ও একটি ৪ মাস বয়সী ছেলে সন্তান রয়েছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

রংপুর

দেশের সর্ববৃহৎ ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত গোর-এ-শহীদ ময়দানে

Avatar of author

Published

on

সর্ববৃহৎ-ঈদ-জামাত-অনুষ্ঠিত-দিনাজপুরে

দিনাজপুরের ঐতিহাসিক গোর-এ-শহীদ ঈদগাহ ময়দানে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ঈদের নামাজ পড়তে আসেন লাখ লাখ মানুষ। ঈদের জামাতকে ঘিরে এখানে সৌহার্দ্যের পরিবেশের সৃষ্টি হয়। পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন ৬ লাখ মুসল্লি।

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) সকাল ৯টায় লাখ লাখ মুসল্লির অংশগ্রহণে ঈদের এ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন মাওলানা শামসুল আলম কাশেমী। নামাজ শেষে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

এ দিকে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে নামাজ আদায় করতে পেরে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা মুসল্লিরা।

জানা যায়, বৃহৎ এ জামাতকে ঘিরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ছিল কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা। সিসিটিভি ক্যামেরার পাশাপাশি ছিল কঠোর গোয়েন্দা নজরদারি। মাঠের আশপাশে র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ, আনসার ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অন্যান্য সদস্যরাও তৎপর ছিলেন।

নামাজে অংশ নেন স্থানীয় সংসদ সদস্য হুইপ ইকবালুর রহিম ও প্রধান বিচারপতি (ভারপ্রাপ্ত) এনায়েতুর রহিম, জেলা প্রশাসক শাকিল আহমেদ, পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহমেদ, দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র (ভারপ্রাপ্ত) তৌয়বুল আলম দুলাল, দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলতাফুজ্জামান মিতাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সর্বস্তরের জনগণ।

Advertisement

নামাজ শেষে ঈদগাহ মাঠের সমন্বয়ক, পৃষ্ঠপোষক ও জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, আয়তনের দিক দিয়ে এটি উপমহাদেশের সবচেয়ে বড় ঈদগাহ মাঠ। এর আয়তন প্রায় ২২ একর। এবার দিনাজপুর জেলাসহ পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন জেলার প্রায় ছয় লাখ মুসল্লি এখানে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অর্থায়নে এ মাঠের সুন্দর মিনারটি নির্মিত হয়েছে। ভবিষ্যতে এটিকে আরও সুন্দর করার পরিকল্পনা রয়েছে।

ঈদের নামাজের আগে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র (ভারপ্রাপ্ত) তৌয়বুল আলম দুলাল, পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহমে, জেলা প্রশাসক শাকিল আহমেদ এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম।

বিভিন্ন স্থান থেকে বড় বড় ঈদগাহ মাঠের চিত্র নিয়ে এসে এ মাঠের নির্মাণ পরিকল্পনা করা হয়। সর্বপ্রথম মাঠের পশ্চিম প্রান্তে গত ২০১৫ সালে এ ঈদগাহ মাঠের নির্মাণ কাজ শুরু হয়। প্রায় দেড় বছর পর এটি নামাজের জন্য পুরো প্রস্তুত করা হয়। এ ঈদগাহে রয়েছে ৫২টি গম্বুজের দুই ধারে ৬০ ফুট করে দু’টি মিনার, এর মধ্যের দুটি মিনার ৫০ ফুট করে এবং প্রধান মিনারের উচ্চতা ৫৫ ফুট। এসব মিনার আর গম্বুজের প্রস্থ হলো ৫১৬ ফুট। দেশের বড় ঐতিহাসিক গোর-এ শহীদ ময়দানের পশ্চিম দিকে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এ ঈদগাহ মিনারটি। প্রত্যেকটি গম্বুজে দেওয়া হয়েছে বৈদ্যুতিক বাতি সংযোগ। ৫২টি গম্বুজ ২০ ফুট উচ্চতায় স্থাপন করা হয়েছে। গেট দুটির উচ্চতা ৩০ ফুট নির্মাণে নান্দনিক স্থাপনা দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।

উল্লেখ্য, আগে দেশের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হতো কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায়। এখন দিনাজপুরেও ৫২ গম্বুজের ঈদগাহ মাঠে সবচেয়ে বড় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

Advertisement

 

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

বাংলাদেশ4 hours ago

মুক্তিপণ নিয়ে যা জানালো এমভি আব্দুল্লাহর মালিকপক্ষ

ছিনতাইয়ের ৩১ দিন পরে মুক্তিপণের বিনিময়ে মুক্ত হয়েছে বাংলাদেশি পতাকাবাহী জাহাজ এমভি আব্দুল্লাহ। তবে মুক্তিপণ নিয়ে নানা গুঞ্জন উঠলেও মালিকপক্ষ...

জাতীয়5 hours ago

আবারও মিয়ানমারের ৯ বিজিপি সদস্য আশ্রয় নিলো বাংলাদেশে

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সশস্ত্র গোষ্ঠী আরাকান আর্মি ও দেশটির সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) সঙ্গে চলমান সংঘাতের কারণে  কক্সবাজারের...

এমভি আবদুল্লাহ জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ জাহাজ
জাতীয়6 hours ago

দেশের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে দস্যুমুক্ত এমভি আবদুল্লাহ

অপহরণের ৩১ দিন পর মুক্ত হয়েছেন এমভি আবদুল্লাহ’র ২৩ নাবিক। সোমালিয়ার জলদস্যুদের কবল থেকে মুক্তির পর আগামী ১৯ এপ্রিলের দিকে...

নববর্ষে-ঢাবিতে-শ্লীলতাহানি,-বিচার-অসমাপ্ত নববর্ষে-ঢাবিতে-শ্লীলতাহানি,-বিচার-অসমাপ্ত
আইন-বিচার6 hours ago

নববর্ষে ঢাবিতে শ্লীলতাহানি, ৯ বছর ধরে ঝুলে আছে বিচার

গেলো ৯ বছরে শেষ হয়নি নববর্ষের উৎসবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় বেশ কয়েকজন নারীকে শ্লীলতাহানি করায় মামলার বিচার। ২০১৫ সালের...

বর্ষবরণ বর্ষবরণ
জাতীয়7 hours ago

সুরের মুর্ছনায় বর্ষবরণ

ভোরের আলো ফুটতেই রমনার বটমূলে শুরু হয় বাঙালির চিরায়ত বর্ষবরণ অনুষ্ঠান। নতুন ১৪৩১ এর প্রথম সকালটিকে এক কণ্ঠে বরণ করে...

এমভি-আব্দুল্লাহর-২৩-নাবিক এমভি-আব্দুল্লাহর-২৩-নাবিক
জাতীয়8 hours ago

কত ডলার মুক্তিপণে ছাড়া পেলেন ২৩ নাবিক?

অবশেষে সোমালিয়ান জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্তি পেয়েছেন এমভি আব্দুল্লাহর ২৩ নাবিক। ৩১ দিন জিম্মি থাকার পর সোমালিয়ার উপকূল থেকে মুক্ত...

মঙ্গল-শোভাযাত্রা মঙ্গল-শোভাযাত্রা
জাতীয়9 hours ago

শুরু হয়েছে মঙ্গল শোভাযাত্রা

বাংলা নতুন বছরকে বরণ করে নিতে মানুষের ঢল নেমেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদে। ইতোমধ্যেই শুরু হয়েছে মঙ্গল শোভাযাত্রা। রোববার (১৪...

জাতীয়20 hours ago

পহেলা বৈশাখ আজ, উদযাপনে মেতে উঠবে গোটা দেশ

আজ রোববার, ১৪ এপ্রিল- পহেলা বৈশাখ। শুভ বাংলা নববর্ষ। ষড়ঋতুর বাংলাদেশে বছর ঘুরে আসলো বাংলা নববর্ষ। পুরনোকে বিদায় করে এলো...

জাতীয়21 hours ago

জিম্মি নাবিকদের নিয়ে শীঘ্রই সুখবর : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সোমালিয়ার জলদস্যুদের হাতে ছিনতাই হওয়া জাহাজ ও নাবিকদের উদ্ধারে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি আছে। খুব সহসাই আপনারা সুখবর পাবেন। বললেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী...

জাতীয়22 hours ago

বাঙালির মুক্তি সাধনায় পহেলা বৈশাখ এক অবিনাশী শক্তি : রাষ্ট্রপতি

বাঙালি সংস্কৃতির বিকাশ,আত্মনিয়ন্ত্রণ ও মুক্তি সাধনায় পহেলা বৈশাখ এক অবিনাশী শক্তি। বাংলাদেশের অভ্যুদয় ও গণতন্ত্রের বিকাশে সংস্কৃতির এই শক্তি রাজনৈতিক...

Advertisement
আন্তর্জাতিক2 mins ago

মুক্তিপণ আদায়ের পর আট সোমালিয়ান জলদস্যু আটক

আন্তর্জাতিক14 mins ago

ইসরাইলে ইরানের হামলা: প্রতিক্রিয়া জানালো ভারত ও চীন

ঢাকা1 hour ago

আলপনায় রঙিন হাওরের ১৪ কিলোমিটার সড়ক

বিএনপি1 hour ago

সরকারের লোকজন বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে : রিজভী

মৃত্যু
চট্টগ্রাম1 hour ago

পালিয়েছেন দুই স্ত্রী, পুড়িয়ে মারলেন তৃতীয় স্ত্রীকে

আখাউড়া
চট্টগ্রাম2 hours ago

মাদকাসক্ত ছেলেকে পুলিশে দিলেন বাবা

দেশজুড়ে3 hours ago

বর্ণাঢ্য আয়োজনে পাবনায় বর্ষবরণ উদযাপিত

আবহাওয়া
আবহাওয়া3 hours ago

তাপমাত্রায় নিজের আগমনী বার্তা দিলো গ্রীষ্ম

চট্টগ্রাম3 hours ago

কেএনএফের আরও ৪ সহযোগী গ্রেপ্তার

আন্তর্জাতিক3 hours ago

ইসরাইলে ইরানের হামলা: ভূমধ্যসাগরে ঢুকলো রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ

সৌদি আরব
আন্তর্জাতিক7 days ago

সৌদি আরবে ঈদ কবে- যা জানা গেলো

সৌদি আরব
আন্তর্জাতিক6 days ago

সৌদিতে ঈদ বুধবার

আন্তর্জাতিক4 days ago

বিড়াল বাঁচাতে গিয়ে একই পরিবারের ৫ জন নিহত

আন্তর্জাতিক6 days ago

ঈদের তারিখ জানালো অস্ট্রেলিয়া

বিএনপি6 days ago

ব্যারিস্টার খোকনকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত পাঠানো হয়েছে লন্ডনে

আন্তর্জাতিক7 days ago

৬ মাসে হামাসকে কতটুকু ধ্বংস করতে পেরেছে ইসরায়েল

আন্তর্জাতিক6 days ago

এবার পাকিস্তান জানালো কবে হতে পারে ঈদ

বাংলাদেশ4 days ago

যাত্রীদের মারধরে নয়, চালক-কন্ডাক্টরের মৃত্যু হয় যেভাবে

আন্তর্জাতিক5 days ago

রাতে নয়, দেশটিতে দিনে দেখা গেলো ঈদের চাঁদ!

বাংলাদেশ1 day ago

ইসরাইল থেকে সরাসরি ঢাকায় বিমানের অবতরণ- যা জানা গেলো

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসিনা
জাতীয়3 weeks ago

গায়ের চাদর না পুড়িয়ে বউদের ভারতীয় শাড়ি পোড়ান: প্রধানমন্ত্রী

ফুটবল3 weeks ago

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ব্রাজিল কোচ জানালেন এটা মাত্র শুরু

টুকিটাকি3 weeks ago

জিলাপির প্যাঁচে লুকিয়ে আছে যে রহস্য!

অর্থনীতি1 month ago

বাজারে লেবুর সরবরাহ বেশি, তবুও দাম চড়া

রেশমা
বাংলাদেশ1 month ago

রাজধানীতে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার কিশোরীর ঠিকানা খুঁজছে পুলিশ

হলিউড1 month ago

নীল দুনিয়ায় অভিনেত্রী সোফিয়ার রহস্যজনক মৃত্যু

ফুটবল1 month ago

জামালকে ঠিকঠাক বেতন দেয়নি আর্জেন্টাইন ক্লাব

টুকিটাকি1 month ago

রণবীরের ‘অ্যানিম্যাল’ দেখে শখ, মাইনাস ২৫ ডিগ্রিতে বসলো বিয়ের আসর

অর্থনীতি2 months ago

গরুর মাংসের দাম কেজি প্রতি পৌনে ৬ লাখ টাকা!

অপরাধ2 months ago

ডিবিতে যে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

সর্বাধিক পঠিত