Connect with us

জনদুর্ভোগ

৩য় দিনের মতো যান চলাচল বন্ধ পোস্তগোলা সেতুতে

Avatar of author

Published

on

পোস্তগোলা-সেতু

সংস্কার কাজ শুরু হওয়ার ৩য় দিনের মতো রাজধানীর পোস্তগোলা সেতুর ওপর দিয়ে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। রাজধানীতে প্রবেশে ও বের হওয়ার জন্য পদ্মা সেতু হয়ে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলায় যাওয়ার অন্যতম মাধ্যম পোস্তগোলা সেতু।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সেতু দিয়ে যান চলাচলের ক্ষেত্রে এ নির্দেশনা দিয়েছে সেতু কর্তৃপক্ষ। যদিও গেলো বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) থেকে শুরু হওয়া সংস্কার কাজ শুরুর সময়ে হালকা যান চলাচলের অনুমতি ছিল।

আগামী ৮ মার্চ পর্যন্ত এই ১৬ দিন সেতু দিয়ে চলাচলকারী যানবাহনগুলোকে বিকল্প পথ ব্যবহার করতে অনুরোধ করেছে সংস্থাটি। একই অনুরোধ জানিয়ে বিকল্প রুটের নির্দেশনাও দিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক বিভাগ।

ভারী যানবাহনের জন্য নির্দেশনা বিকল্প সড়ক

এ বিষয়ে সওজের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. সবুজ উদ্দিন খান সই করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে আগামী ৮ মার্চ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান (এন-৮ ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ে) মহাসড়কের তৃতীয় কিলোমিটারে অবস্থিত বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী বুড়িগঙ্গা সেতু-১ এর (পোস্তগোলা সেতু) দুটি গার্ডারের মেরামত ও রেট্রোফিটিং কাজ করা হবে।

এজন্য ভারী যানবাহন (ট্রাক-পিকআপ ভ্যান, কাভার্ডভ্যান, কনটেইনারবাহী লরি) ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৮ মার্চ পর্যন্ত এবং হালকা যানবাহন (বাস, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, সিএনজি, অটোরিকশা ইত্যাদি) ২৪ ও ২৬ এবং ১, ৪ ও ৮ মার্চ- এই পাঁচদিন বিকল্প সড়ক ব্যবহার করতে বলা হয়েছে ।

Advertisement

আর যাত্রাবাড়ী থেকে ছেড়ে আসা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়কগামী যানবাহন ধোলাইপাড় বাসস্ট্যান্ড ও বাবুবাজার সেতু ব্যবহার করে তেঘড়িয়া ইন্টারসেকশন হয়ে মহাসড়কে প্রবেশ করবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়ক হতে যাত্রাবাড়ীগামী যানবাহন তেঘড়িয়া ইন্টারসেকশন-বাবুবাজার সেতু ব্যবহার করে ধোলাইপাড় হয়ে যাত্রাবাড়ী প্রবেশ করবে। গাবতলী থেকে ছেড়ে আসা দক্ষিণ অঞ্চলগামী যানবাহন পাটুরিয়া দৌলতদিয়া ফেরিঘাট হয়ে যাতায়াত করবে। দেশের পূর্বাঞ্চলদক্ষিণ পূর্বাঞ্চল হতে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলদক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলগামী যানবাহন চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরিঘাট হয়ে যাতায়াত করবে। দেশের উত্তরাঞ্চল হতে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলগামী যানবাহন বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে যাতায়াত করবে।

হালকা যানবাহনের জন্য বিকল্প সড়ক

পদ্মা সেতু হতে নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামমুখী যানবাহন শ্রীনগর-মুন্সীগঞ্জ- মুক্তারপুর সেতু- তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু- মদনপুর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে। সিলেট, চট্টগ্রাম হতে পদ্মা সেতুমুখী যানবাহন মদনপুর হতে তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু- মুক্তারপুর সেতু মুন্সীগঞ্জ- শ্রীনগর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে। পদ্মা সেতু হতে ঢাকাগামী যানবাহন শ্রীনগর দোহার- নবাবগঞ্জ- কেরানীগঞ্জ (আর-৮২০) সড়ক, তুরাগ-রোহিতপুর (জেড-৫০৬৯), আব্দুল্লাহপুর- রাজাবাড়ী বাজার-কোনা খোলা মোড়-বছিলা সেতু- মোহাম্মদপুর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে।

Advertisement

জনদুর্ভোগ

জলাবদ্ধতা নিরসনে নতুন প্রকল্প ডিএসসিসির

Avatar of author

Published

on

আশা করি এবার আর জলাবদ্ধতা থাকবে না। নিউমার্কেট এলাকার জন্য নতুন প্রকল্প নিয়েছি। নিউমার্কেট এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে নতুন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) সকালে রাজধানীর পান্থপথে বক্স কালভার্টের পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

মেয়র তাপস বলেন, গেলো বছর যেসব জায়গায় জলাবদ্ধতা হয়েছে, বিশেষ করে নিউমার্কেটের সামনে ও শান্তিনগরে; যেসব কারণে পানিপ্রবাহ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল, আমরা সেগুলো পরিষ্কার করেছি। আশা করি এবার আর জলাবদ্ধতা থাকবে না। নিউমার্কেট এলাকার জন্য নতুন প্রকল্প নিয়েছি। এর মূল কারণ হচ্ছে পিলখানার ভেতর দিয়ে আগে যে পানিপ্রবাহের নর্দমা ছিল, সেগুলো বন্ধ হয়ে যায় ২০০৯ সালে। এ জন্য দেখেছি গেলো বছর সেখানে বড় জলাবদ্ধতা হয়েছে। তাদের সঙ্গে আলাপ করেছি এবং সম্মতিও পেয়েছি। পিলখানার ভেতর দিয়ে পানিপ্রবাহের বড় নর্দমা করবে ডিএসসিসি। এটা করতে পারলে ওই এলাকায় আর জলাবদ্ধতা থাকবে না। এভাবে প্রতিটি এলাকায় বিচার-বিশ্লেষণ ও পর্যালোচনা করে পানিনিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

ঢাকায় বিচ্ছিন্ন কয়েকটি জায়গা ছাড়া তেমন কোথাও দীর্ঘ সময় জলাবদ্ধতা থাকে না উল্লেখ করে মেয়র বলেন, ‘প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমের আগে সূচি অনুযায়ী বক্স কালভার্ট, খাল ও নর্দমাগুলো পরিষ্কার করে ডিএসসিসি। এতে বর্ষার সময় পানিপ্রবাহ স্বাভাবিক থাকে। এছাড়া ঢাকা শহরে ব্যাপকভাবে নর্দমা অবকাঠামো উন্নয়নের কাজ চলমান রেখেছি।

শেখ ফজলে নূর তাপস আরও বলেন, ২০২০ সালের আগে অল্প বৃষ্টিতে ঢাকার ৭০ ভাগ প্লাবিত হতো। এখন সেটা কমে এসেছে। এছাড়া পানিপ্রবাহ ও নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করতে পেরেছি। আঞ্চলিক কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে বাহিনী প্রস্তুত থাকে, যাতে কোথাও পানি জমে থাকলে দ্রুত সরানো যায়। সেই হিসাবে পান্থপথের বক্স কালভার্ট পরিষ্কার করার কাজ শুরু করলাম।

Advertisement

এএম/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জনদুর্ভোগ

ঢাকাকে আলোকিত করতে গ্রামের বিদ্যুৎ ছিনিয়ে নেয়া হচ্ছে

Published

on

রোজায় একদিকে গরম অপরদিকে লোডশেডিংয়ের কষ্ট পোহাতে হচ্ছে গ্রামের মানুষকে। লোডশেডিংয়ের যন্ত্রণার যেনো শেষ নেই। দিন দিন পরিস্থিতি আরও অসহনীয় হয়ে উঠছে। । বিশেষ করে ইফতার, তারাবি আর সেহরির সময় লোডশেডিং অবর্ণনীয় কষ্ট দিচ্ছে। গ্রামে এই পরিস্থিতি আরও অসহনীয়। এখনই অনেক গ্রামে ৮ থেকে ১০ ঘণ্টা লোডশেডিং হচ্ছে।

ঈদের ছুটিতে যখন ৭ থেকে ৮ কোটি মানুষ গ্রামে যাবেন তখন এই পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে তা নিয়ে চিন্তিত খোদ বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিগুলোর শীর্ষ কর্মকর্তারা।

তাদের বক্তব্য, ঢাকাকে আলোকিত করতে গ্রামের বিদ্যুৎ ছিনিয়ে নেয়া হচ্ছে। তাদের শঙ্কা এভাবে চলতে থাকলে সাধারণ মানুষ ফুঁসে উঠতে পারেন।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, টানা দাবদাহে দেশজুড়ে গরমের তীব্রতা বাড়ার সঙ্গে বিদ্যুতের চাহিদা ও জোগানের পার্থক্যও বাড়ছে গত কয়েকদিন ধরে। এর প্রভাবও বেশি পড়ছে গ্রামীণ ও পল্লি এলাকাতে। বিদ্যুতের জন্য হাহাকার থেকে কেন্দ্রে হামলা, মিছিল বের করার খবর এসেছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের এক শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, জ্বালানির অভাবে বা আমদানি করতে না পারায় গত ২ বছর গরমের সময় লোডশেডিং বেড়েছিল। শহরের দু-তিন ঘণ্টার লোডশেডিং হলেও গ্রামে ৮-১০ ঘণ্টার বেশি লোডশেডিংয়ের অভিযোগ ছিল গ্রাহকদের। এবারও তেমন পরিস্থিতি হতে পারে। কেননা পর্যাপ্ত জ্বালানি আমদানির জন্য প্রয়োজনীয় টাকা-ডলারের সংস্থান নেই। বিদ্যুতের দাম বাড়িয়ে অর্থের জোগান বাড়ানো হয়েছে। সেটাও যথেষ্ট হবে না এবার।

Advertisement

গ্রামীণ এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহকারী সংস্থা পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (আরইবি) সূত্র জানায়, তারা চাহিদা অনুযায়ী বিদ্যুৎ সরবরাহ পাচ্ছে না। তাই বিতরণেও ঘাটতি দেখা দিয়েছে। গত সপ্তাহে দিনে সংস্থাটি চাহিদার চেয়ে ঘণ্টায় প্রায় ১৫শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কম পেয়েছে। এখন এটি দ্বিগুণ হয়ে গেছে। ঈদের সময় আরও বাড়বে। বিশেষ করে ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, শেরপুর, জামালপুর, টাঙ্গাইল এবং কুমিল্লায় কিছু স্থানে ১২ থেকে ১৫ ঘণ্টাও লোডশেডিং হচ্ছে। বাকি এলাকাগুলোতে দৈনিক ৭ থেকে ১০ ঘণ্টা লোডশেডিং হচ্ছে।

ইতোমধ্যে মন্ত্রী, এমপি ও সরকারের প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতারা গ্রামে আসা শুরু করেছেন। আগামীতে এসব ভিআইপিদের গ্রামে বিদ্যুৎ দিতে গিয়ে অন্য এলাকাগুলোর অবস্থা আরও ভয়ংকর হবে।

গ্রামে এখন ছোট ছোট শিল্পকারখানা গড়ে উঠেছে। ঈদকে কেন্দ্র করে এসব কারখানা দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা সচল থাকার কথা। কিন্তু ঘণ্টায় ঘণ্টায় লোডশেডিংয়ে বন্ধ হয়ে গেছে অধিকাংশ ক্ষুদ্র কারখানা। একই অবস্থা শিল্পকলকারখানা বিশেষ করে গার্মেন্টস ও ডায়িং শিল্পের। একের পর এক লোডশেডিংয়ে ধস নেমেছে এসব কারখানায়।

গত ৪-৫ দিন ধরে দেশের বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহের খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, গ্রামাঞ্চলে দিনে ১০ থেকে ১২ ঘণ্টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ থাকছে না। রোজার মধ্যে সেহরি ও ইফতারের সময়েও অনেক এলাকার বাসিন্দারা লোডশেডিংয়ের ভোগান্তিতে পড়ছেন।

দেশে বর্তমানে বিদ্যুতের সর্বোচ্চ চাহিদা উৎপাদন সক্ষমতার অর্ধেকের কম। বেশকিছু বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ থাকছে। সক্ষমতার অর্ধেকেরও কম উৎপাদন করছে অনেক কেন্দ্র। দেশীয় উৎস থেকে জ্বালানির চাহিদা মেটাতে না পারায় এবং জ্বালানি আমদানির জন্য প্রয়োজনীয় টাকা ও মার্কিন ডলারের জোগান না থাকায় তেল-গ্যাস-কয়লা আমদানিতে ভাটা পড়েছে।

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

চট্টগ্রাম

নাফনদীর ওপারে যুদ্ধজাহাজ, বিস্ফোরণের শব্দে কাঁপছে এপার

Avatar of author

Published

on

কক্সবাজারের টেকনাফের শাহপরীরদ্বীপ সীমান্তে নাফনদীর ওপারে দেখা মিলেছে মিয়ানমারের ১টি যুদ্ধজাহাজ। এটি সকাল থেকে বেলা ১১ টা পর্যন্ত দেখা যায়। পরে তা অন্যত্র সরে গেছে। একই সঙ্গে থেমে থেমে বিস্ফোরণের বিকট শব্দ শোনা যাচ্ছে। মিয়ানমারের রাখাইনে দেশটির সশস্ত্র বাহিনী ও বিদ্রোহী আরাকান আর্মির মধ্যে সংঘর্ষ চলছে। ওপারের বিস্ফোরণের শব্দ কেঁপে উঠছে কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার সেন্ট মার্টিন দ্বীপ।

শুক্রবার (২৯ মার্চ) বিকেল ৩টার পর থেকে গোলাগুলি ও বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পারছেন সেন্ট মার্টিনের বাসিন্দারা। বিকট শব্দে সেন্ট মার্টিনের বাড়িঘর পর্যন্ত কাঁপছে বলে জানিয়েছেন তারা।

সেন্ট মার্টিনের বাসিন্দা জসিম উদ্দিন শুভ বলেন, বিকেল ৩টার পর থেকে একের পর এক গোলাগুলি ও বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যাচ্ছে। বিস্ফোরণের শব্দে সেন্ট মার্টিনের মাটি পর্যন্ত কেঁপে উঠছে।

আব্দুল মালেক নামে আরেকজন বলেন, বিকট শব্দে মনে হচ্ছে গুলিগুলো বাড়ির ওপরে পড়ছে। জেলেরা ভয়ে মাছ শিকার না করে সাগর থেকে ফিরে আসছেন।

সেন্ট মার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান বলেন, গোলাগুলি ও বিস্ফোরণের শব্দে স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। তবে বিজিবি ও কোস্ট গার্ড সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।

Advertisement

টেকনাফ ২ বিজিবি’র অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. মহিউদ্দিন আহমেদ গণমাধ্যমে জানিয়েছেন, সকালে শাহপরীরদ্বীপ সীমান্তে নাফনদীর ওপারে মিয়ানমারের জলসীমায় একটি বড় ধরণের জাহাজ দেখা গিয়েছিল। এটি যুদ্ধ জাহাজ নাকি দেশটির অন্য কোন জাহাজ তার নিশ্চিত হওয়া যায়নি। পরে দুপুরের আগেই জাহাজটি সেখান থেকে সরে গেছে।

এএম/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

গর্ভবতী মহিলা গর্ভবতী মহিলা
বাংলাদেশ7 mins ago

গরমে গর্ভবতীদের পেট ফেঁপে যেতে পারে, যা করনীয়

তীব্র দাবদাহে পুড়ছে সারা দেশ। আর এমন তাপদাহ পরিস্থিতিতে একটু উল্টোপাল্টা খাবার খেলে যে অচিরেই পেট ফেঁপে যাবে, তা তো...

দুর্ঘটনা20 mins ago

টোলপ্লাজায় অটোরিকশা ও প্রাইভেটকারকে ট্রাকের ধাক্কা, নিহত বেড়ে ১৪

ঝালকাঠির গাবখান সেতুর টোল প্লাজায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ জনে। নিহত ১৪ জনের মধ্যে ৭ জন পুরুষ,...

পররাষ্ট্রমন্ত্রী পররাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়34 mins ago

জীববৈচিত্র্য পুনরুদ্ধারে তহবিল চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বিবিএনজে চুক্তি অনুমোদন এবং মহাসাগরের জীববৈচিত্র্য পুনরুদ্ধারে তহবিল বরাদ্দের জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর হাছান মাহমুদ। গ্রিসের...

জাতীয়37 mins ago

ইরান-ইসরায়েল হামলা : প্রভাব মোকাবিলায় প্রস্তুতির নির্দেশ

ইরান-ইসরায়েল হামলার সম্ভাব্য প্রভাব মোকাবিলায় প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে যুদ্ধ পরিস্থিতির ঘটনা প্রবাহের দিকে সংশ্লিষ্টদের...

জাতীয়58 mins ago

তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা

তৃতীয় ধাপের ১১২টি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এসব উপজেলা পরিষদে আগামী ২৯ মে নির্বাচন অনুষ্ঠিত...

জনদুর্ভোগ1 hour ago

জলাবদ্ধতা নিরসনে নতুন প্রকল্প ডিএসসিসির

আশা করি এবার আর জলাবদ্ধতা থাকবে না। নিউমার্কেট এলাকার জন্য নতুন প্রকল্প নিয়েছি। নিউমার্কেট এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে নতুন প্রকল্প গ্রহণ...

নির্বাচন-কমিশন নির্বাচন-কমিশন
জাতীয়3 hours ago

উপজেলা নির্বাচনে ৩য় ধাপের তফসিল ঘোষণা

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তৃতীয় ধাপের তফসিল ঘোষণা করছেন নির্বাচন কমিশন। বুধবার (১৭ এপ্রিল) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে দ্বিতীয়...

দুর্ঘটনা3 hours ago

ট্রাক-প্রাইভেটকার-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ১২

ঝালকাঠিতে ট্রাক-প্রাইভেটকার-অটোরিকশার সংঘর্ষে ১২ নিহত হয়েছেন। সিমেন্টবাহী ওই ট্রাকের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কয়েকটি গাড়িকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তার পাশে চলে যায়।...

জাতীয়4 hours ago

তেজগাঁওয়ে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক

জামালপুরের তারাকান্দি থেকে ছেড়ে আসা ঢাকা অভিমুখী যমুনা এক্সপ্রেসের একটি ট্রেন রাজধানীর তেজগাঁওয়ে লাইনচ্যুতের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উদ্ধার কার্যক্রম...

দুর্ঘটনা4 hours ago

ট্রাক-প্রাইভেটকার-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ১১

ঝালকাঠিতে ট্রাক-প্রাইভেটকার-অটোরিকশার সংঘর্ষে ১১ নিহত হয়েছেন। সিমেন্টবাহী ওই ট্রাকের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কয়েকটি গাড়িকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তার পাশে চলে যায়।...

Advertisement
গর্ভবতী মহিলা
বাংলাদেশ7 mins ago

গরমে গর্ভবতীদের পেট ফেঁপে যেতে পারে, যা করনীয়

সালমান-খান,-রাখি
বলিউড20 mins ago

সালমানের জন্য কেঁদেই চলেছেন রাখি

দুর্ঘটনা20 mins ago

টোলপ্লাজায় অটোরিকশা ও প্রাইভেটকারকে ট্রাকের ধাক্কা, নিহত বেড়ে ১৪

প্রিয়াঙ্কা
বিনোদন21 mins ago

শুটিং ফ্লোর থেকে রক্তাক্ত ছবি পোস্ট প্রিয়াঙ্কার!

পররাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়34 mins ago

জীববৈচিত্র্য পুনরুদ্ধারে তহবিল চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জাতীয়37 mins ago

ইরান-ইসরায়েল হামলা : প্রভাব মোকাবিলায় প্রস্তুতির নির্দেশ

ঝলমলে
লাইফস্টাইল41 mins ago

৪০-এর পরেও ত্বক ঝলমলে থাকবে যেভাবে

জাতীয়58 mins ago

তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা

খুলনা1 hour ago

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

জনদুর্ভোগ1 hour ago

জলাবদ্ধতা নিরসনে নতুন প্রকল্প ডিএসসিসির

আন্তর্জাতিক7 days ago

বিড়াল বাঁচাতে গিয়ে একই পরিবারের ৫ জন নিহত

সৌদি-পতাকা
আন্তর্জাতিক6 hours ago

ইরান-ইসরায়েল প্রসঙ্গে অবস্থান স্পষ্ট করলো সৌদি

বাংলাদেশ4 days ago

ইসরাইল থেকে সরাসরি ঢাকায় বিমানের অবতরণ- যা জানা গেলো

ডাকসুর-সাবেক-ভিপি-নুরুল-হক
আইন-বিচার2 days ago

নুরের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

ফায়ার-সার্ভিস
জাতীয়5 days ago

নিয়ন্ত্রণে এসেছে বাড্ডার আগুন

দেশজুড়ে4 days ago

যুবকের পায়ুপথ থেকে বের করা হলো ৬ ইঞ্চি ডাব

আন্তর্জাতিক3 days ago

ইসরাইলে ইরানের হামলা: ভূমধ্যসাগরে ঢুকলো রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ

আন্তর্জাতিক3 days ago

ইরানে পাল্টা হামলার বিষয়ে যা জানালো বাইডেন

বাংলাদেশ7 days ago

যাত্রীদের মারধরে নয়, চালক-কন্ডাক্টরের মৃত্যু হয় যেভাবে

আন্তর্জাতিক3 days ago

ইসরাইলে ইরানের হামলা: প্রতিক্রিয়া জানালো ভারত ও চীন

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসিনা
জাতীয়3 weeks ago

গায়ের চাদর না পুড়িয়ে বউদের ভারতীয় শাড়ি পোড়ান: প্রধানমন্ত্রী

ফুটবল3 weeks ago

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ব্রাজিল কোচ জানালেন এটা মাত্র শুরু

টুকিটাকি4 weeks ago

জিলাপির প্যাঁচে লুকিয়ে আছে যে রহস্য!

অর্থনীতি1 month ago

বাজারে লেবুর সরবরাহ বেশি, তবুও দাম চড়া

রেশমা
বাংলাদেশ1 month ago

রাজধানীতে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার কিশোরীর ঠিকানা খুঁজছে পুলিশ

হলিউড1 month ago

নীল দুনিয়ায় অভিনেত্রী সোফিয়ার রহস্যজনক মৃত্যু

ফুটবল1 month ago

জামালকে ঠিকঠাক বেতন দেয়নি আর্জেন্টাইন ক্লাব

টুকিটাকি2 months ago

রণবীরের ‘অ্যানিম্যাল’ দেখে শখ, মাইনাস ২৫ ডিগ্রিতে বসলো বিয়ের আসর

অর্থনীতি2 months ago

গরুর মাংসের দাম কেজি প্রতি পৌনে ৬ লাখ টাকা!

অপরাধ2 months ago

ডিবিতে যে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

সর্বাধিক পঠিত