Connect with us

চট্টগ্রাম

রোহিঙ্গাদের মাঝে ইফতার বিতরণ করলেন এপিবিএন

Avatar of author

Published

on

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আশ্রিত গরিব ও দুঃস্থ রোহিঙ্গা পরিবারের মাঝে পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে পুলিশের সহযোগিতায় ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটলিয়ান (এপিবিএন) খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) দুপুরে নিরাপত্তা দায়িত্বে নিয়োজিত ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটলিয়ানের অধিনায়ক ও অ্যাডিশনাল ডিআইজি মো. আমির জাফর প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উখিয়ার বিভিন্ন ক্যাম্পের অপেক্ষাকৃত গরিব ও দুঃস্থ রোহিঙ্গাদের মাঝে এ ইফতার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন ।

এপিবিএন পুলিশ জানান, গরিব রোহিঙ্গাদের মাঝে চাল, ডাল, ছোলা, চিনি ও সয়াবিন তৈল বিতরণ করা হয়।

এ সময় ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটলিয়ানের পুলিশ সুপার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সহকারী পুলিশ সুপারসহ পুলিশ ক্যাম্পের কমান্ডারগণ উপস্থিত ছিলেন।

এএম/

Advertisement
Advertisement

চট্টগ্রাম

শায়েস্তা করতেই বন কর্মকর্তাকে হত্যা : র‍্যাব

Avatar of author

Published

on

পাহাড় কেটে মাটি পাচার রোধে কক্সবাজারের উখিয়ায় ধারাবাহিক অভিযান চালান বন বিট কর্মকর্তা সাজ্জাদুজ্জামান। আর এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে শায়েস্তা করার পরিকল্পনা করে মাটি খেকোরা।  সর্বশেষ অভিযানের দিনই  পরিকল্পনা অনুযায়ী তাকে হত্যা করে মাটি খেকোরা। সাজ্জাদুল হতাকাণ্ডের ঘটনায় আরও দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব ১৫।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) কক্সবাজারে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১৫ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল এইচ এম সাজ্জাদ হোসেন বায়ান্ন টিভিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

লে. কর্নেল এইচ এম সাজ্জাদ হোসেন জানান, নিহত বন কর্মকর্তা সাজ্জাদুজ্জামান হরিণমারা বন অঞ্চলের দায়িত্বপূর্ণ বিট কর্মকর্তা ছিলেন। গত নভেম্বর থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত বন কর্মকর্তা সাজ্জাদুজ্জামান অনেকগুলো অভিযান পরিচালনা করে পাঁচটি মাটি কাটার ড্রেজারসহ কয়েকটি ডাম্পার আটক করেছেন এবং সংশ্লিষ্ট অপরাধীদের বিরুদ্ধে বন আইনে কয়েকটি মামলা দায়ের করেছেন।

তিনি জানান, গত ২৯ মার্চ বন কর্মকর্তা সাজ্জাদ তার নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে বন বিভাগের আরও কয়েকজন সদস্য নিয়ে একটি অভিযান পরিচালনা করে পাহাড়ের মাটি বোঝাই করা অবস্থায় হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী ড্রাইভার কামালের একটি ডাম্পার আটক করেন এবং এই ঘটনায় কামালসহ চারজনের বিরুদ্ধে বন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। ফলে কামালসহ অন্যান্য আসামীরা বন কর্মকর্তা সাজ্জাদের উপর চরমভাবে ক্ষিপ্ত হন। এ চক্র আরও কয়েকজন বন কর্মকর্তাকে হত্যা করার পরিকল্পনা করে।’

এ র‍্যাব কর্মকর্তা বলেন, ওই পরিকল্পনা অনুযায়ী ৩১ মার্চ রাতে চালক বাপ্পি হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী ড্রাইভার কামালসহ দুজন হেল্পারকে সঙ্গে করে সৈয়দ আলমের মালিকানাধীন একটি ডাম্পার নিয়ে পাহাড়ের মাটি কাটার উদ্দেশ্যে বের হন। ডাম্পারের মালিক সৈয়দ আলম বন কর্মকর্তাদের আগমনের উপর নজরদারি রাখার জন্য একটি বাজারে অপেক্ষা করতে থাকে। ইতোমধ্যে পাহাড় কাটার সংবাদ পেয়ে সাহসী বন কর্মকর্তা সাজ্জাদ বন বিভাগের আরেক সদস্য মো. আলীকে সঙ্গে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে ঘটনাস্থলের উদ্দেশে রওনা দেন। বাপ্পি ও কামাল মাটিবোঝাই ডাম্পার নিয়ে ফেরত আসার সময় স্থানীয় ফরিদ আহম্মদের দোকানের সামনে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে বন কর্মকর্তা সাজ্জাদকে আসতে দেখে। তখন ডাম্পারের ড্রাইভার বাপ্পির পাশে বসে থাকা কামাল পূর্ববর্তী ঘটনার আক্রোশের জেরে এবং পূর্বপরিকল্পনা মোতাবেক গাড়ি না থামিয়ে বন কর্মকর্তাকে গাড়িচাপা দেয়ার জন্য বাপ্পীকে নির্দেশ দেন। বাপ্পি গাড়ি না থামিয়ে মোটরসাইকেল আরোহী সাজ্জাদ ও তার সহযোগীকে গাড়ি চাপা দেয়। ফলে ডাম্পারের চাপায় মাথায় গুরতর আঘাত পেয়ে ঘটনাস্থলেই সাজ্জাদ মৃত্যুবরণ করেন এবং সাথে থাকা সহযোগী মোহাম্মদ আলী আহত হন।

Advertisement

র‍্যাব জানায়, সোমবার (১৫ এপ্রিল) বিকেলে  সাজ্জাদুজ্জামান হত্যার পরিকল্পনাকারী মো. কামাল উদ্দিনকে (৩৯) চট্টগ্রামের সীতাকুন্ড এলাকা থেকে এবং সহযোগী হেলাল উদ্দিনকে (২৭) উখিয়ার কোটবাজার এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর তারা সাজ্জাদুজ্জামানকে হত্যার কথা স্বীকার করেন এবং কীভাবে হত্যার পরিকল্পনা করে তাও জানান।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, হরিণমারা এলাকায় স্থানীয় হেলাল, গফুর ও বাবুলের নেতৃত্বে গড়ে ওঠা একটি চক্র দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে সংরক্ষিত বনাঞ্চলের পাহাড় কেটে মাটি বিক্রি করে আসছে। চক্রের অধীনে প্রায় ১০ থেকে ১২টি ডাম্পার ও কয়েকটি মাটিকাটা ড্রেজার রয়েছে। তারা রাতের অন্ধকারে বন কর্মকর্তাদের অগোচরে পাহাড়ের মাটি কেটে এনে প্রতি ডাম্পার ৯০০ থেকে ১২০০ টাকা দরে বিভিন্ন লোকজনের নিকট জমি ভরাট করার জন্য বিক্রি করে থাকে।

প্রসঙ্গত, বন কর্মকর্তা হত্যার ঘটনায় বনবিভাগের উখিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. শফিউল আলম বাদী হয়ে  ১৫ জনকে আসামি করে উখিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় দুজনই এজাহারনামীয় আসামি এবং দুজনকে উখিয়া থানায় সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানান র‌্যাব ১৫ এর অধিনায়ক।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

চট্টগ্রাম

কেএনএফের আরও ৯ সদস্যকে আটক করেছে সেনাবাহিনী

Avatar of author

Published

on

বান্দরবানে কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) আরও ৮ সদস্যকে অস্ত্রসহ আটক করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) বান্দরবান রিজিয়নের ১৬ ইস্ট বেঙ্গল ধুপানিছড়া পাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। অভিযানে নেতৃত্ব দেন সুংসাং পাড়া সেনা ক্যাম্পের মেজর রাজীব। সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বার্তায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)।

জানা যায়,  কেএনএফ সন্ত্রাসীদের অবস্থানের গোপন খবর পেয়ে এলাকাটি ঘেরাও করে সেনা সদস্যরা। পরে অভিযান চালিয়ে আটজনকে আটক করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৯টি এলজি, ১৯টি এলজি কার্টিজ, ২টি মোবাইল ফোন ও ২টি আইডি কার্ড উদ্ধার হয়।

এর আগে ২ এপ্রিল রাতে রুমায় সোনালী ব্যাংকে সশস্ত্র হামলা চালিয়ে পুলিশ ও আনসার সদস্যদের অস্ত্র লুট করে কেএনএফ। ওই সময় ব্যাংক ম্যানেজার নেজাম উদ্দিন রাসেলকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরদিন ৩ এপ্রিল দুপুরে তিনটি গাড়িতে চড়ে কেএনএফের সশস্ত্র সদস্যরা থানচি উপজেলা সদরে অবস্থিত সোনালী ব্যাংক ও কৃষি ব্যাংকে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ক্যাশ কাউন্টারে থাকা প্রায় ১০ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যায়।

এসব ঘটনার প্রেক্ষিতে রুমা ও থানচি থানায় আটটি এবং সদর থানায় একটি মামলা  করা হয়। এসব মামলায় এ পর্যন্ত ৭০ জনের অধিক কেএনএফ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ১৮ জন নারী সদস্য রয়েছে।

Advertisement

 

 

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

চট্টগ্রাম

মসজিদের বারান্দায় মিললো যুবকের ঝুলন্ত দেহ

Avatar of author

Published

on

ঝুলন্ত

কক্সবাজারের টেকনাফে মসজিদের বারান্দা থেকে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় মোহাম্মদ  আব্দুল্লাহ (৩৫) নামের এক যুবকের দেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) সকালে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের পশ্চিম মহেশখালীয়া পাড়ার উম্মে হামজা জামে মসজিদের বারান্দা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত আবদুল্লাহ ওই ইউনিয়নের মহেশখালীয়া পাড়ার শফর আহাম্মদের ছেলে।

স্থানীয়দের থেকে জানা যায়, ফজরের নামাজ আদায় করতে মুসল্লীরা মসজিদে গেলে বারান্দায় লুঙ্গি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো এক ব্যক্তির ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পান। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে স্থানীয় ইউপি সদস্য পৌঁছে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে সুরতহাল তৈরি করে ময়না তদন্তের মরদেহটি কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহাদাত হোসেন সিরাজী বলেন, মৃত আবদুল্লাহ দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মানসিক ভারসাম্যহীনভাবে চলাফেরা করতেন এবং মাদকাসক্ত ছিলেন। তার থাকার নির্দিষ্ট কোনো স্থান ছিল না। মৃত ব্যক্তির পূর্বপুরুষ এই এলাকার বাসিন্দা হলেও তারা দীর্ঘ ৪৫ বছর পূর্বে দেশ ছেড়ে সৌদি আরব চলে যান।

বর্তমানে তার দূর-সম্পর্কের আত্মীয় ওই এলাকায় আছে এবং স্থানীয় ইউপি সদস্যের উপস্থিতিতে তারাই মরদেহ শনাক্ত করেছেন। তবে মরদেহ ময়না তদন্তের প্রতিবেদন হাতে পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে বলে জানান শাহাদাত হোসেন সিরাজী।

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

জাতীয়45 mins ago

‘কুকি-চিন সদস্যরা আত্মসমর্পণ না করা পর্যন্ত অভিযান চলবে’

কেএনএফ (কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের) সদস্যরা শান্তির পথে ফিরে না আসা পর্যন্ত পাহাড়ে যৌথ অভিযান অব্যাহত থাকবে। তবে আলোচনার পথ এখনও...

জাতীয়59 mins ago

১ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল

দেশের দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল (সি-মি-উই-৫) রক্ষণাবেক্ষণ কাজের জন্য জন্য এক ঘণ্টা বন্ধ থাকবে। এজন্য ইন্টারনেটের ধীরগতির কারণে ভোগান্তিতে পড়বেন গ্রাহকরা।...

গর্ভবতী মহিলা গর্ভবতী মহিলা
বাংলাদেশ1 hour ago

গরমে গর্ভবতীদের পেট ফেঁপে যেতে পারে, যা করনীয়

তীব্র দাবদাহে পুড়ছে সারা দেশ। আর এমন তাপদাহ পরিস্থিতিতে একটু উল্টোপাল্টা খাবার খেলে যে অচিরেই পেট ফেঁপে যাবে, তা তো...

দুর্ঘটনা1 hour ago

টোলপ্লাজায় অটোরিকশা ও প্রাইভেটকারকে ট্রাকের ধাক্কা, নিহত বেড়ে ১৪

ঝালকাঠির গাবখান সেতুর টোল প্লাজায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ জনে। নিহত ১৪ জনের মধ্যে ৭ জন পুরুষ,...

পররাষ্ট্রমন্ত্রী পররাষ্ট্রমন্ত্রী
জাতীয়2 hours ago

জীববৈচিত্র্য পুনরুদ্ধারে তহবিল চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বিবিএনজে চুক্তি অনুমোদন এবং মহাসাগরের জীববৈচিত্র্য পুনরুদ্ধারে তহবিল বরাদ্দের জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর হাছান মাহমুদ। গ্রিসের...

জাতীয়2 hours ago

ইরান-ইসরায়েল হামলা : প্রভাব মোকাবিলায় প্রস্তুতির নির্দেশ

ইরান-ইসরায়েল হামলার সম্ভাব্য প্রভাব মোকাবিলায় প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে যুদ্ধ পরিস্থিতির ঘটনা প্রবাহের দিকে সংশ্লিষ্টদের...

জাতীয়2 hours ago

তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা

তৃতীয় ধাপের ১১২টি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এসব উপজেলা পরিষদে আগামী ২৯ মে নির্বাচন অনুষ্ঠিত...

জনদুর্ভোগ2 hours ago

জলাবদ্ধতা নিরসনে নতুন প্রকল্প ডিএসসিসির

আশা করি এবার আর জলাবদ্ধতা থাকবে না। নিউমার্কেট এলাকার জন্য নতুন প্রকল্প নিয়েছি। নিউমার্কেট এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে নতুন প্রকল্প গ্রহণ...

নির্বাচন-কমিশন নির্বাচন-কমিশন
জাতীয়4 hours ago

উপজেলা নির্বাচনে ৩য় ধাপের তফসিল ঘোষণা

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তৃতীয় ধাপের তফসিল ঘোষণা করছেন নির্বাচন কমিশন। বুধবার (১৭ এপ্রিল) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে দ্বিতীয়...

দুর্ঘটনা4 hours ago

ট্রাক-প্রাইভেটকার-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ১২

ঝালকাঠিতে ট্রাক-প্রাইভেটকার-অটোরিকশার সংঘর্ষে ১২ নিহত হয়েছেন। সিমেন্টবাহী ওই ট্রাকের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কয়েকটি গাড়িকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তার পাশে চলে যায়।...

Advertisement
আন্তর্জাতিক1 min ago

ইরানের যে অস্ত্র গোটা বিশ্বকে চোখ রাঙাচ্ছে

দেশজুড়ে6 mins ago

আট হাজার ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনাক্ত!

জাতীয়45 mins ago

‘কুকি-চিন সদস্যরা আত্মসমর্পণ না করা পর্যন্ত অভিযান চলবে’

সৌন্দর্য
লাইফস্টাইল45 mins ago

চড়-থাপ্পড়েই বাড়বে নারীদের সৌন্দর্য!

জাতীয়59 mins ago

১ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল

বিনোদন1 hour ago

শিল্পীদের নির্বাচনে লড়ছেন যেসব তারকা

গর্ভবতী মহিলা
বাংলাদেশ1 hour ago

গরমে গর্ভবতীদের পেট ফেঁপে যেতে পারে, যা করনীয়

সালমান-খান,-রাখি
বলিউড1 hour ago

সালমানের জন্য কেঁদেই চলেছেন রাখি

দুর্ঘটনা1 hour ago

টোলপ্লাজায় অটোরিকশা ও প্রাইভেটকারকে ট্রাকের ধাক্কা, নিহত বেড়ে ১৪

প্রিয়াঙ্কা
বিনোদন1 hour ago

শুটিং ফ্লোর থেকে রক্তাক্ত ছবি পোস্ট প্রিয়াঙ্কার!

আন্তর্জাতিক7 days ago

বিড়াল বাঁচাতে গিয়ে একই পরিবারের ৫ জন নিহত

সৌদি-পতাকা
আন্তর্জাতিক7 hours ago

ইরান-ইসরায়েল প্রসঙ্গে অবস্থান স্পষ্ট করলো সৌদি

ডাকসুর-সাবেক-ভিপি-নুরুল-হক
আইন-বিচার2 days ago

নুরের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

বাংলাদেশ4 days ago

ইসরাইল থেকে সরাসরি ঢাকায় বিমানের অবতরণ- যা জানা গেলো

ফায়ার-সার্ভিস
জাতীয়5 days ago

নিয়ন্ত্রণে এসেছে বাড্ডার আগুন

দেশজুড়ে4 days ago

যুবকের পায়ুপথ থেকে বের করা হলো ৬ ইঞ্চি ডাব

আন্তর্জাতিক3 days ago

ইসরাইলে ইরানের হামলা: ভূমধ্যসাগরে ঢুকলো রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ

আন্তর্জাতিক3 days ago

ইরানে পাল্টা হামলার বিষয়ে যা জানালো বাইডেন

বাংলাদেশ7 days ago

যাত্রীদের মারধরে নয়, চালক-কন্ডাক্টরের মৃত্যু হয় যেভাবে

আন্তর্জাতিক3 days ago

ইসরাইলে ইরানের হামলা: প্রতিক্রিয়া জানালো ভারত ও চীন

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসিনা
জাতীয়3 weeks ago

গায়ের চাদর না পুড়িয়ে বউদের ভারতীয় শাড়ি পোড়ান: প্রধানমন্ত্রী

ফুটবল3 weeks ago

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ব্রাজিল কোচ জানালেন এটা মাত্র শুরু

টুকিটাকি4 weeks ago

জিলাপির প্যাঁচে লুকিয়ে আছে যে রহস্য!

অর্থনীতি1 month ago

বাজারে লেবুর সরবরাহ বেশি, তবুও দাম চড়া

রেশমা
বাংলাদেশ1 month ago

রাজধানীতে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার কিশোরীর ঠিকানা খুঁজছে পুলিশ

হলিউড1 month ago

নীল দুনিয়ায় অভিনেত্রী সোফিয়ার রহস্যজনক মৃত্যু

ফুটবল1 month ago

জামালকে ঠিকঠাক বেতন দেয়নি আর্জেন্টাইন ক্লাব

টুকিটাকি2 months ago

রণবীরের ‘অ্যানিম্যাল’ দেখে শখ, মাইনাস ২৫ ডিগ্রিতে বসলো বিয়ের আসর

অর্থনীতি2 months ago

গরুর মাংসের দাম কেজি প্রতি পৌনে ৬ লাখ টাকা!

অপরাধ2 months ago

ডিবিতে যে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

সর্বাধিক পঠিত