Connect with us

আন্তর্জাতিক

ঈদের দিনে ইসরায়েলের হামলা: ইসমাইল হানিয়ার ৩ ছেলেসহ নিহত ১২২

Avatar of author

Published

on

ইসমাইল-হানিয়া

গত ২৪ ঘণ্টায় গাজার শাসকগোষ্ঠী সশস্ত্র হামাসের শীর্ষ নেতা ইসমাইল হানিয়ার তিন ছেলে ও এক নাতিসহ ১২২ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৫৬ জন। বুধবার (১০ এপ্রিল) গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে।

স্থানীয় সময় বুধবার (১০ এপ্রিল) আল জাজিরা আরবিকে দেয়া এক সাক্ষাত্কারে, হানিয়াহ জানিয়েছেন, তার সন্তান হাজেম, আমির এবং মোহাম্মদসহ তার এক নাতি হামলায় প্রাণ হারিয়েছে।এর আগে, গত বছর ১৬ নভেম্বর গাজায় হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়ার বাড়িতে বিমান হামলা চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। খবর জিও নিউজ।

সামাজিক মাধ্যম এক্স প্ল্যাটফর্মে এক ঘোষণায় ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) জানায়, তারা হামাসের রাজনৈতিক ব্যুরো প্রধানের বাড়িতে হামলা চালাতে জঙ্গি বিমান ব্যবহার করেছে।

হানিয়াকে ব্যাপকভাবে হামাসের সামগ্রিক নেতা বলে বিবেচনা করা হয়। ২০১৭ সালে তিনি হামাসের রাজনৈতিক ব্যুরোর প্রধান নির্বাচিত হন। তবে কয়েক বছর ধরে তিনি কাতারে বসবাস করছেন।

Advertisement

উত্তর আমেরিকা

যুক্তরাষ্ট্রে সুপারমার্কেটে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ৩

Published

on

যুক্তরাষ্ট্রের আর্কানসাস সুপারমার্কেটে এক বন্দুকধারীর গুলিতে তিনজন নিহত এবং ১১ জন আহত হয়েছে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার এ হামলা হয়। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে।

আর্কানসাস রাজ্য পুলিশ পরিচালক মিকা হাগার জানান, আহতদের মধ্যে দুইজন পুলিশ সদস্য রয়েছে। বন্দুকধারীও পুলিশের পাল্টা গুলিতে আহত হয়েছে।

হাগার বলেন, পুলিশের গুলিকে বন্দুকধারী আহত হয়েছে, তাকে আদালতে নেয়া হয়েছে। তবে কী কারণে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে সে সম্পর্কে হাগার কিছু জানায়নি।

ফার্ডিসের মাড বাটচার সুপারশপে এ হামলার ঘটনা ঘটে। শহরটিতে ৩ হাজার ২০০ মানুষ বসবাস করে। এটি দক্ষিণ লিটল রক থেকে ৭০ কিলোটিমার দূরে অবস্থিত।

Advertisement

জেএইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

এশিয়া

পাকিস্তানে সেনাবাহিনীর গাড়িতে বিস্ফোরণ, নিহত ৫ সেনা

Published

on

পাকিস্তানে স্থানীয় সময় শুক্রবার (২১ জুন) আফগানিস্তানের সীমান্তবর্তী উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের মধ্য দিয়ে যাওয়ার সময় সেনা বাহিনীর একটি গাড়িতে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে ৫ সেনা নিহত হয়েছেন।

দেশটির সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। বিবৃতিতে সেনাবাহিনী জানিয়েছে, নিরাপত্তা বাহিনীর একটি গাড়িতে একটি বিস্ফোরক ডিভাইস থেকে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে পাঁচ সাহসী বীর প্রাণ হারিয়েছেন। খবর বার্তা সংস্থা এএফপির।

তবে এখনো পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী শুক্রবারের ওই হামলার দায় স্বীকার করেনি। যদিও বেশ আগে থেকেই ওই এলাকায় সবচেয়ে সক্রিয় জঙ্গি গোষ্ঠী তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান (টিটিপি), নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে নিয়মিত হামলা চালিয়ে আসছে।

এদিকে ২০২১ সালে তালেবান আফগানিস্তানে ক্ষমতায় বসার পর থেকেই পাকিস্তানে হামলার ঘটনা বেড়ে গেছে। পাকিস্তান ইনস্টিটিউট ফর কনফ্লিক্ট অ্যান্ড সিকিউরিটি স্টাডিজ-এর তথ্য মতে, গেলো বছর পাকিস্তানে ২৯টি আত্মঘাতী হামলায় মোট ৩২৯ জন নিহত হয়েছে।

চলতি মাসের শুরুতে একই ধরনের হামলায় একই প্রদেশের লাকি মারওয়াত জেলায় ছয়জন সেনা সদস্য এবং এক সেনা কর্মকর্তা নিহত হন। সে সময় একটি উন্নত বিস্ফোরক ডিভাইস দিয়ে হামলা চালানো হয়।

Advertisement

জিএমএম/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

এশিয়া

গাজায় রেড ক্রিসেন্ট অফিসের সামনে ইসরায়েলের হামলা, নিহত ২২

Published

on

আন্তর্জাতিক মানবিক সহায়তা সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অব রেড ক্রিসেন্টের (আইআরআইসি) দপ্তরের কাছে গোলা হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। এতে নিহত হয়েছেন অন্তত ২২ জন, আহত হয়েছেন আরও ৪৫ জন। নিহতদের সবাই ওই কার্যালয় চত্বরের আশপাশে আশ্রয় নিয়েছিলেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় এই গোলা হামলা ঘটেছে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে আইআরআইসি।

বিবৃতিতে বলা হয়, এ হামলায় আইসিআরসি কার্যালয়ের কাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই কার্যালয় চত্বরের আশপাশে শত শত বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনি আশ্রয় নিয়েছিলেন। তাদের মধ্যে অনেকে আমাদের সহকর্মীও ছিলেন। হতাহতদের রেড ক্রিসেন্ট ফিল্ড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) সংক্ষিপ্ত এক বিবৃতিতে দাবি করেছে এই হামলা ইসরায়েলি সেনাবাহিনী ঘটায়নি। তবে একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, ঘটনাটি তদন্ত করছে আইডিএফ।

গেলো ৭ অক্টোবর ইসরায়েলি ভূখণ্ডে হামাস যোদ্ধাদের অতর্কিত হামলার পর ওই দিন থেকেই গাজায় অভিযান শুরু করে আইডিএফ, যা এখনও চলছে। আইডিএফের গত আট মাসের অভিযানে গাজায় নিহত হয়েছেন প্রায় ৩৮ হাজার ফিলিস্তিনি। এই নিহতদের শতকরা ৫৬ ভাগ নারী ও শিশু।

Advertisement

অন্যদিকে, গেলো ৭ অক্টোবরের হামলায় হামাস যোদ্ধাদের গুলিতে ইসরায়েলে নিহত হয়েছিলেন ১ হাজার ২০০ জন।

জেএইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত