Connect with us

ঢালিউড

মায়ের শাড়ি দিয়ে পাঞ্জাবি; আবেগঘন স্ট্যাটাস আরিফিন শুভ’র

Avatar of author

Published

on

ছবি: আরিফিন শুভর ফেসবুক পেজ থেকে

মা–। এক অক্ষরের শব্দ হলেও এর মাঝেই লুকিয়ে রয়েছে বিশ্বের সবচাইতে নিরাপদ আশ্রয় আর অকৃত্রিম ভালবাসা।  মা হলেন এমন এক ব্যক্তি যিনি অন্য সবার স্থান অনায়াসে নিতে পারেন কিন্তু তার স্থান কেউ নিতে পারেন না।  পৃথিবীর সবচাইতে দামী এই মায়ের সঙ্গে কোনো কিছুর তুলনা চলে না। যার মা নেই সেই একমাত্র বোঝে মা হারানোর যন্ত্রণা।  নিজের এই ধরণের যন্ত্রণার কথা নিজের ভক্ত-অনুরাগীদের উদ্দেশ্য শেয়ার করেছেন বাংলাদেশি চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা আরিফিন শুভ।

জানুয়ারি মাসেই মা হারিয়েছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক আরিফিন শুভ।  মা ছিলেন তার কাছে সব কিছু।  তাকে নিয়ে প্রায়ই বিভিন্ন ছবি ও ভিডিও ফেসবুকে পোস্ট করতেন শুভ।  বিভিন্ন উৎসবে মাকে নিয়ে লিখতেন নানান কথা। প্রিয় মাকে ছাড়া শুভর জীবনে এবারের ঈদটিই হচ্ছে প্রথম।  তাই বেশ আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন এই অভিনেতা।  ঈদের আনন্দের মাঝে মায়ের শূন্যতা গভীরভাবে অনুভব করছেন।  মাকে ছাড়া প্রথমবার ঈদ উদযাপনে নিজের মনের অবস্থা শেয়ার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে দেওয়া স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, যখন অনেক কিছু বলার থাকে তখন হয়তো কিছুই বলা যায় না।  মাকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, দেখতে দেখতে তোমার যাবার প্রায় ৩ মাস, এখনো বোঝার চেষ্টা করছি যে কি হলো আসলে, আমি কী ঘুম থেকে উঠে দেখবো তুমি পাশের রুমটাতেই আছো। সব কিছু কেমন যেনো হয়ে গেলো। পেশায় অভিনয় শিল্পী হয়েও ‘আমি ঠিক আছি’ নামক অভিনয়টা হচ্ছে না একেবারেই, চেষ্টা চলছে।

ঈদের স্মৃতির কথা মনে করে শুভ লেখেন, তোমার শাড়ি দিয়ে পাঞ্জাবি বানিয়ে পরেছি এবারের ঈদে মা, যখন তোমার সাথে দেখা করতে যাচ্ছি নিচে  গার্ডরা বললো এটা আন্টির শাড়ি না স্যার? ভালো লাগলো এই ভেবে বিল্ডিংয়ের গার্ডরাও তোমাকে এই ৮-৯ বছর নোটিশ করেছে।

ঢাকাই চলচ্চিত্রের এই জনপ্রিয় অভিনেতা মাকে উদ্দেশ্য করে আরো লিখেন, এবার তোমার গলার চেইনটা নিজেই পড়লাম, কিন্তু আমাদের ওই কমেডিটা করা আর হলো না যে আমি চাইব আর তুমি বলবে নে, কিন্তু খুলে দেবে না। তোমার সাথে কতো গল্প করা হলো না,আর হবে না। ঈদ মোবারক মা।  পৃথিবীর সকল মাকে ঈদ মোবারক।

Advertisement

শুধু স্ট্যাটাস দিয়েই নিজের আবেগ প্রকাশ করেন নি এই অভিনেতা। মায়ের শাড়ি কেটে পাঞ্জাবি বানিয়েছেন।  সেই পাঞ্জাবি পড়েই ঈদের নামাজের পর ছুটেছেন মায়ের কবর জিয়ারত করতে।

Advertisement

ঢালিউড

আজীবন জবি ক্যাম্পাসে ফ্রি গান গাইবেন আকাশ

Published

on

সঙ্গীত-শিল্পী-ফতেহ-আলী-খান-আকাশ

হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত বাবার চিকিৎসার অর্থ জোগাড় করতে হিমশিম খাচ্ছিলেন তরুণ সঙ্গীত শিল্পী ফতেহ আলী খান আকাশ। নিজের একটি কিডনি বিক্রি করতে পোস্ট দিয়েছিলেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। সেই পোস্ট দেখে এগিয়ে এসেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকমন্ডলিসহ সহপাঠী, বন্ধু, চেনা অচেনা অনেকেই। তাদের সকলের  সহযোগীতায় অবশেষে সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে আকাশের বাবার হার্টের অপারেশন।

বাবার অপারেশনের আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আকাশ লিখেছেন, ‘আগামীকাল আব্বুর অপারেশন। আমার খারাপ সময়ে যারা পাশে ছিলেন সবার প্রতি আমি আজীবন কৃতজ্ঞ৷ বিশেষ করে আমার বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত শিক্ষক মন্ডলি, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ, আমার সহপাঠী ভাই ও বন্ধু,চেনা অচেনা সকলকে অনেক ধন্যবাদ জানাই। আমার আব্বুর পেইসমেকার লাগানোর জন্য প্রায় ৩ থেকে সাড়ে ৩ লক্ষ টাকা প্রয়োজন ছিলো তা আমি পেয়েছি৷

কিন্তু অপারেশন পরবর্তীতে অনেক খরচ আছে। আমাকে এখন আর টাকা দিয়ে সাহায্য না করে আমাকে কাজ দিন, গানের প্রোগ্রাম দিন। আশা করি বাকি খরচ আমি নিজেই ম্যানেজ করতে পারবো। সবার প্রতি অনেক অনেক ভালোবাসা। দয়া করে আর কেউ টাকা পাঠাবেন না। আর প্লিজ এই বিষয় নিয়ে আর কেউ কোনো নিউজ বা পোস্ট দিয়েন না। সবাই আমার আব্বুর জন্য দুয়া কইরেন।’

শুধু তাই নয় আরো একটি পোস্টে আকাশ জানান, ভবিষ্যতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কন্সার্টে তিনি ফ্রি গান গাইবেন।

Advertisement

উল্লেখ্য, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগীত বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থী ফতেহ আলী খান আকাশ। এছাড়াও নিয়মিত গান করেন আরটিভির ফোক স্টেশনে।

 

এসি//

 

Advertisement

 

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ঢালিউড

মন্দিরার সঙ্গে প্রেম নেই, গুঞ্জন ছড়িয়েছে মানুষ: রাজ

Published

on

শরিফুল-রাজ-ও-মন্দিরা-চক্রবর্তী

গেল ঈদে মুক্তি পেয়েছে গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ‘কাজলরেখা’ সিনেমা। এতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেন শরিফুল রাজ ও মন্দিরা চক্রবর্তী। এরপর থেকেই গুঞ্জন প্রেম করছেন তারা। বিষয়টি নিয়ে এবার মুখ খুললেন রাজ।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বলেন, নবাগত নায়িকা হিসেবে মন্দিরা অসাধারণ। সে স্মার্ট, গর্জিয়াস, গুণী ও মেধাবী একজন শিল্পী। প্রথম সিনেমাতেই সফলতা পেয়েছে। আর সেই সিনেমার প্রচারণায় আমাদেরকে একসঙ্গে বের হতে হয়েছে। মানুষ এগুলো অন্যভাবে নিয়েছে। গুঞ্জন ছড়িয়েছে প্রেম নিয়ে।

শরীফুল রাজ আরও বলেন, এমনটা সব সিনেমার সময়ই হয়ে থাকে। সব নায়ক-নায়িকাদের নিয়েই এমন গুঞ্জনের রেওয়াজ আছে।

এর আগে গণমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন মন্দিরা চক্রবর্তী।

তিনি বলেন, বিনোদন জগৎ বিনোদন পাচ্ছে, মানুষও বিনোদন পাচ্ছে। পেতে থাকুক, সমস্যা কী?

Advertisement

উল্লেখ্য, ‘কাজলরেখা’ সিনেমায় রাজ-মন্দিরা ছাড়াও রাফিয়াত রশিদ মিথিলা, সাদিয়া আয়মান, খায়রুল বাসার, ইরেশ যাকের, আজাদ আবুল কালাম প্রমুখ অভিনয় করেছেন। মুক্তির পর থেকেই সিনেমাটি রয়েছে দর্শকদের আলোচনায়।

 

এসি//

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ঢালিউড

‘নিপুণের পিছনে বড় শক্তি আছে’ পদ স্থগিতের পর ডিপজলের মন্তব্য

Published

on

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৫ মেয়াদের নির্বাচনে নিপুণ আক্তারকে হারিয়ে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল। নির্বাচনে ফল ঘোষণার পর বিজয়ী সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের গলায় মালা পড়িয়ে বরণও করেছিলেন পরাজিত নিপুণ।

তবে নির্বাচনের এক মাস যেতে না যেতেই অনিয়মের অভিযোগে আদালতে রিট করেন এই চিত্রনায়িকা। যার প্রেক্ষিতে সমিতির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালনে ডিপজলের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন আদালত।

সোমবার (২০ মে)  হাইকোর্টের আদেশের পর বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল। গণমাধ্যমে তিনি বলেন, ‘আমি সবসময় আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। হাইকোর্ট যেহেতু রায় দিয়েছেন এখানে কিছু বলার নাই। তবে বিষয়টি নিয়ে আমাদের কমিটির সঙ্গে আলোচনা করে দুই এক দিনের মধ্যে চেম্বার জজ আদালতে যাব।’

নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর ফুলের মালা দিয়ে নতুন কমিটিকে বরণ করে নেওয়ার পর আবার কমিটি বাতিল চাওয়ার পেছনে বড় শক্তি আছে বলে মনে করেন ডিপজল। ডিপজলের ভাষ্য, ‘এর পেছনে অবশ্যই বড় শক্তি আছে। যেহেতু সে দেশের বাইরে থেকে এসব করছে সেহেতু বুঝতে হবে তাঁর পেছনের হাত লম্বা।’

নিপুণের এমন আচরণ নিয়ে সিনিয়র শিল্পীদের সঙ্গে কথা বলেছেন ডিপজল। অভিনেতা বলেন, ‘সোহেল রানা ভাইসহ বেশ কয়েকজন সিনিয়র শিল্পীর সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। তারাও বিষয়টি নিয়ে বিরক্ত। এই দুই বছরে যে নোংরামি হয়েছে এর আগে এমন নজির নেই। বাংলাদেশের ফিল্মের মানুষ এমনটা করতে পারেন না। আমার মনে হয়, যারা হিন্দি ছবি বাংলাদেশে আনার জন্য পায়তারা করছে এটা তারই একটা অংশ হতে পারে।’

Advertisement

এর আগে ২০২২-২৪ সালের নির্বাচনেও সাধারণ সম্পাদকের পদ নিয়ে মামলা চলে উচ্চ আদালতে। পরে আদালতের হস্তক্ষেপে দায়িত্ব পালন করেন নিপুণ। তখন প্রাথমিক ফলে সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খানকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। তবে টাকা দিয়ে ভোট কেনাসহ নির্বাচনকে প্রভাবিত করার অভিযোগে আপিল বোর্ড জায়েদের প্রার্থিতা বাতিল করে এবং নিপুণকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী ঘোষণা করেন। ঐ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে জায়েদ খান হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নিপুণ সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করেন।

এসআই/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত