Connect with us

ফুটবল

ম্যাচে বড় অন্যায়ের শিকার হয়েছে বার্সেলোনা: জাভি

Avatar of author

Published

on

ম্যাচের ২৮ মিনিটে রাফিনিয়ার নেওয়া কর্নার  লামিনে ইয়ামালের আলতো টোকায় চলে যায় প্রায় গোললাইনের কাছে। রিয়াল গোলরক্ষক আন্দ্রে লুনিন কোনোমতে বলটি ঠেকান। বার্সার ফুটবলাররা সঙ্গে সঙ্গে গোল দাবি করলে ভিআরের সাহায্য নেন রেফারি।

তবে গোল লাইন প্রযুক্তি না থাকায় ক্যামেরার বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল দেখেও ঠিক নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলটি গোললাইন পেরিয়েছে কি না। শেষ পর্যন্ত গোল দেননি রেফারি।

লা লিগায় মৌসুমের শেষ এল ক্লাসিকোয় বার্সেলোনাকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। তবে ম্যাচ শেষে হারের কারণ হিসেবে রেফারির এই সিদ্ধান্তকেই দোষ দিচ্ছেন বার্সা সমর্থক, ফুটবলার ও কোচ জাভি হার্নান্দেজ।

লা লিগায় গোললাইন প্রযুক্তি না থাকাকে লজ্জাজনক বলে মন্তব্য করেছেন বার্সেলোনা গোলকিপার মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেন। জার্মান গোলরক্ষকের সাথে সুর মিলিয়ে কথা বলেছেন জাভিও। তবে এতটুকু বলেই চুপ থাকেননি বার্সা কোচ। রেফারির সিদ্ধান্তে ক্ষোভ জানিয়ে বলেছেন, রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে জয়টা প্রাপ্য ছিল তার দলেরই। ম্যাচে বড় অন্যায়ের শিকার হয়েছে বার্সেলোনা।

‘সবাই দেখেছে, কী হয়েছে। আমি আর কী বলব? লিগ কর্তৃপক্ষ আমাকে শাস্তি দিতে পারে। কিন্তু ছবি ও ভিডিও তো আছে। আজ মনে হচ্ছে আমরা পুরোপুরি অন্যায়ের শিকার হয়েছি। আমি ম্যাচের আগে বলেছিলাম, আশা করি রেফারিং নিয়ে ভাবতে হবে না এবং তিনি সঠিক সিদ্ধান্তই দেবেন। কিন্তু দিন শেষে কোনোটাই ঘটেনি।’

Advertisement

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে দুইবার এগিয়ে গিয়েছিলো বার্সেলোনা। তবে কাতালান ক্লাবটির লিড বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে দেয়নি রিয়াল মাদ্রিদ। ৯০ মিনিট পর্যন্ত স্কোর ছিলো ২-২ গোলের সমতায়। যোগ করা সময়ে ইংলিশ মিডফিল্ডার জুড বেলিংহাম গোল করলে নিশ্চিত হয় রিয়ালের জয়।

এই জয়ে ৩২ ম্যাচে ৮১ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে রিয়াল। সমান ম্যাচে ৭০ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় বার্সা। ৬৮ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় জিরোনা।

Advertisement

ফুটবল

লিগের শেষ ম্যাচে পিএসজির স্কোয়াডে নেই এমবাপ্পে

Published

on

মেসের বিপক্ষে মৌসুমের শেষ লিগ ম্যাচ খেলবে পিএসজি। এই ম্যাচ দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে লিগ আঁ বিদায় জানানোর কথা ছিলো কিলিয়ান এমবাপ্পের।

কিন্তু আজ রাতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ম্যাচটিতে প্যারিসের ক্লাবটির স্কোয়াডেই রাখা হয়নি তাকে।  ফলে তুলুজের বিপক্ষের ম্যাচটি ফরাসি তারকার শেষ ম্যাচ হয়ে থাকল। যে ম্যাচটি ৩-১ গোলে হারে পিএসজি।

Advertisement

পিএসজির হয়ে সাত মৌসুম খেলেছেন এমবাপ্পে। এই সময়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৩০৭ ম্যাচে করেছেন ২৫৬ গোল।  ক্লাবটির ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোল স্কোরার দলের সবশেষ ম্যাচে নিসের বিপক্ষেও খেলতে পারেননি। তখন জানানো হয়েছিল, হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে ভুগছেন এমবাপ্পে।

স্কোয়াড থেকে অবশ্য শুধু এমবাপ্পেই নন, বাদ পড়েছেন উসমান দেম্বেলে ও ফ্যাবিয়ান রুইজও। আগামী শনিবার ফ্রেঞ্চ কাপের ফাইনালে পিএসজির প্রতিপক্ষ লিলে। শিরোপা লড়াইয়ে সেই ম্যাচে এমবাপ্পেকে শেষ পর্যন্ত দেখা যাবে কি না, সেটাই দেখার অপেক্ষা।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ফুটবল

বক্সিং ম্যাচ দেখতে গিয়ে দেখা নেইমার ও রোনালদোর

Published

on

সৌদি আরবের রিয়াদে অনুষ্ঠিত একটি বক্সিং ম্যাচ দেখতে এসেছিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও নেইমার জুনিয়র। আর সেখানে দেখা হয় ফুটবল বিশ্বের এই দুই জনপ্রিয় তারকার।

দুজনের মধ্যে সাক্ষাতের সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

পর্তুগিজ তারকা তার বড় ছেলে রোনালদো জুনিয়রকে নিয়ে এসেছিলেন বক্সিং ম্যাচটি দেখতে। আর নেইমার এসেছিলেন তার বান্ধবী ব্রুনা বিয়ানকার্দিকে নিয়ে।

সাক্ষাতের পর দুজনই পর্তুগিজ ভাষায় কথা বলছিলেন। স্পষ্ট বুঝা না গেলেও, মনে হচ্ছিলো রোনালদো নেইমারের ইনজুরি সম্পর্কে খোঁজ নিচ্ছিলেন।

ইনজুরির কারণে গেলো বছরের অক্টোবর থেকেই মাঠের বাইরে আছেন নেইমার। আগামী মৌসুমের শুরুতেই মাঠে ফেরার কথা এই ব্রাজিলিয়ান তারকার।

Advertisement

নেইমার ও রোনালদো এক সময় লা লিগায় দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদে খেলেছেন। সেখানে অসংখ্যবার মাঠে মুখোমুখিও হয়েছেন তারা।

এখন দুজনে খেলছেন সৌদি লীগের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব আল হিলাল ও আল নাসরে। তবে ইনজুরিতে থাকায় রোনালদোর আল নাসরের বিপক্ষে এখনো মাঠে নামা হয়নি আল হিলালের হয়ে খেলা নেইমার জুনিয়রের।

 

 

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ফুটবল

মেসি ফেরার দিনে মায়ামির জয়

Published

on

ফ্লোরিডা ডার্বিতে অরল্যান্ডো সিটির বিপক্ষে ছিলেন না লিওনেল মেসি। সেই ম্যাচ জিততেও পারেনি ইন্টার মায়ামি।  ডিসি ইউনাইটেডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আবার মাঠে ফিরলেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। আর ইন্টার মায়ামি জয় পেলো ১–০ গোলে।

রোববার বাংলাদেশ সময় সকালে ম্যাচের বেশির ভাগ সময় ইন্টার মায়ামি দাপট দেখালেও নির্ধারিত সময় পর্যন্ত পায়নি গোলের দেখা। একপর্যায়ে মনে হচ্ছিল ম্যাচটা হয়তো গোলশূন্য ড্রয়েই শেষ হবে।

তবে যোগ করা সময়ের চতুর্থ মিনিটে সের্হিও বুসকেতসের দারুণভাবে বাড়ানো বলকে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দুর্দান্ত ভলিতে গোল করেন কাম্পানা।

এই জয়ে ১৫ ম্যাচ শেষে ইস্টার্ন কনফারেন্সের শীর্ষেই থাকল মায়ামি। ১৫ ম্যাচে ৯ জয় ৪ ড্র ও ২ হারে মায়ামির পয়েন্ট এখন ৩১।

 

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত