Connect with us

ঢালিউড

শাকিবের বিয়ে: পরিবারের সিদ্ধান্ত নিয়ে মুখ খুললেন অপু বিশ্বাস

Avatar of author

Published

on

অপু বিশ্বাস, শাকিব খান ও তাদের সন্তান জয়। ফাইল ছবি

ঢাকাই চলচ্চিত্রের বর্তমানে ‘নাম্বার ওয়ান’ অভিনেতা  শাকিব খানের বিয়ে। চলতি বছরেই তৃতীয় বিয়ে করতে চলেছেন- এরকম খবরই এখন টক অব দ্য ঢালিউড। বর্তমান ও সাবেক স্ত্রীর কারণে বিরক্ত হয়েই নাকি শাকিব খানকে বিয়ে করাতে উঠে পড়ে লেগেছে তার পরিবার। যদিও বিয়ের ব্যাপারে এখনও মুখে কুলুপ এঁটে রয়েছেন ঢালিউড সুপারস্টার।

শাকিব খান বিয়ের ব্যাপারে কিছু না জানালেও তার ঘনিষ্টজনরা শাকিবের বিয়ের ব্যাপারে ইঙ্গিত দিয়ে মুখ খুলছেন। শাকিব খানের অত্যন্ত ঘনিষ্ট হিসেবে পরিচিত এবং শাকিব খান অভিনীত ‘প্রিয়তমা’ ও ‘রাজকুমার’ ছবির প্রয়োজক আরশাদ আদনানের বক্তব্যেই মিলেছে বিয়ের বিষয়টি।

একটি বেসরকারি টেলিভিশনে দেওয়া সাক্ষাতকারে শাকিব খানের বিয়ের প্রসঙ্গে কথা বলেন তিনি। ওই অনুষ্ঠানে উপস্থাপকের এক প্রশ্নের জবাবে ঢাকাই চলচ্চিত্রের এই প্রয়োজক বলেন, ‘বিয়ে নিয়ে শাকিবের মন্তব্য না অসা পর্যন্ত আমি কিছু বলতে চাইছি না। তবে শাকিব বিয়ে করছেন কি না, এটি আমি জানি।আগে শাকিব এ বিষয়ে নিজের স্টেটমেন্টস দিবে, তারপরই অমি বলবো।’

এরপরই উপস্থাপকের প্রশ্ন ছিলো তাহলে কী শাকিবের জীবনে স্থিতিশীলতা আসছে? এমন প্রশ্নের জবাবে আরশাদ অদনান বলেন,  ‘শাকিবের জীবনে স্থিতিশীলতা আসবে। সেটা এ বছরই আসবে। আমিও দায়িত্ব নিয়েছি। শাকিবিয়ানদের উদ্দেশ্যে বলতে পারি, নায়কের জীবনে এ বছরই স্থিতিশীলতা আসছে।’

শনিবার (২৭ এপ্রিল) হঠাৎ করেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে খবর ছড়িয়ে পড়ে এক ডাক্তার মেয়ের সঙ্গে বিয়ের কথাবার্তা এগোচ্ছে শাকিবের। ওই সময় গুঞ্জণ ওঠে, তৃতীয় বিয়ের কারণেই নাকি শাকিব খানের বাসায়অপু বিশ্বাস ও বুবলীকে প্রবেশ বন্ধ। এ অবস্থায় বেশ কয়েকদিন চুপ ছিলেন নায়িকা অপু বিশ্বাস।

Advertisement

তবে নিরবতা ভেঙ্গে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ইস্যুগুলো নিয়ে একটি বেসরকারি টেলিভিশনে এক অনুষ্ঠানে খোলামেলা কথা বলেছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। সেখানে উপস্থাপকের এক প্রশ্নের  জবাবে অপু জানান, অনেকটা বিরক্ত হয়েই শাকিবের পরিবার এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ওই অনুষ্ঠানে শাকিবের বাড়িতে যাতায়াত বন্ধ হওয়া প্রসঙ্গটি তুলে ধরেন উপস্থাপক। এর জবাবে ঢালিউডের এই নায়িকা বুবলীকে ইঙ্গিত করে বলেন, ‘মানুষ যখন অতিরিক্ত কিছু করে ফেলেন, তখন একজনের দোষ অন্যজনের কাঁধে চলে আসে। বিষয়টা ঠিক এরকমই হয়েছে। বিরক্ত হয়েই শাকিবের পরিবার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

এ সময় অভিনেত্রী বুবলীর কাণ্ডকীর্তি তুলে ধরে অপু বিশ্বাস আরও বলেন, ‘আমি শাকিবের সঙ্গে কোয়ালিটি টাইম পার করি; আমাদের বাচ্চা অনেক সময় সেই সুযোগ করে দেয়। এরপর কৌশলে শাকিবের সঙ্গে ছবি তুলে এনে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করে সম্পর্ক টিকে আছে, প্রমাণ করতে চায়- সেসবে অবশ্যই শাকিব ও শাকিবের পরিবার বিরক্ত হবেনই।’

শাকিব খানের বিয়ে প্রসঙ্গে চিত্রনায়িকা অপু বলেন, ‘যাদের বিষয়ে কথা হচ্ছে, তারা সবাই অ্যাডাল্ট। প্রত্যেকেরই নিজের সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার আছে। ভালো লাগা আছে। তবে আমার আচরণে শাকিবের পরিবার এমন সিদ্ধান্ত নেবে, এটা বিশ্বাস করি না। শাকিবকে নিয়ে অন্য একজনের (বুবলী) কথাবার্তা কেমন, তা এখন সবার জানা। তার কারণে শাকিবের পরিবার বিরক্ত হতে পারে।

এমআর

Advertisement
Advertisement

ঢালিউড

গোপনে রাজ-বুবলীর বিয়ে!

Published

on

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী। ২০১৮ সালে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খানকে। তবে শাকিব খান এখন এই অভিনেত্রীর জীবনে অতীত। বিবাহবিচ্ছেদ হয়নি বুবলী এমনটা দাবি করলেও শাকিব খান অনেক আগেই বুবলীকে বাদ দিয়ে দিয়েছেন বলে জানান।

এবার জানা গেল আরেক চিত্রনায়ক শরিফুল রাজকে বিয়ে করেছেন বুবলি।  উইকিপিডিয়ায় উল্লেখিত তথ্যে এমনটাই দাবি করা হচ্ছে।

উইকিপিডিয়ায় বিশ্বের নানা প্রান্তের বিখ্যাত ব্যক্তি এবং বিভিন্ন মাধ্যমের তারকা ব্যক্তিদের যাবতীয় তথ্যাদি লিপিবদ্ধ থাকে, সেই উইকিপিডিয়ার তথ্যেই সম্প্রতি দেখা যায় বুবলীকে বিয়ে করেছেন রাজ!

শনিবার রাজের নামের উইকিপিডিয়াতে ঢুকে দেখা যায়, গেল ১৩ মে সোমবার বুবলীকে বিয়ে করেছেন তিনি। বৈবাহিক তথ্যের জায়গায় রাজের স্ত্রীর তালিকায় প্রাক্তন পরীমনির পরই বুবলীর নামটি জ্বলজ্বল করছে।

একই দিন একই তথ্য মেলে বুবলীর প্রোফাইলেও। তার বৈবাহিক তথ্যের জায়গায় প্রাক্তন স্বামী শাকিব খানের পর রাজের নামটি উল্লেখ করা আছে। তারিখ একই, ১৩ মে। অর্থাৎ, ঐ দিনে শরীফুল রাজকে বিয়ে করেছেন বুবলী।

Advertisement

তবে খবরটি একেবারেই সত্য নয়। কারণ, যে কেউ এই অনলাইন তথ্যকোষের তথ্য সংযোজন-বিয়োজন করতে পারেন যে কোনো সময়। রাজ বুবলীর ক্ষেত্রেও বিষয়টি তাই হয়েছে।

সোমবার (২৭ মে) রাজ-বুবলী দুজনের উইকিপিডিয়া থেকেই সম্পর্কের বিষয়টি মুছে ফেলা হয়েছে। এমনিতে ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বেশ ঝামেলায় আছেন রাজ-বুবলী। কয়েক মাস আগেই পরীমিণির সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে রাজের। বুবলীও শাকিব খানের জীবন-সংসারের বাইরে। এসবের মধ্যে এমন কাণ্ড কে বা কারা করেছে, তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে তর্ক-বিতর্ক।

এসআই/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ঢালিউড

নিষিদ্ধ কর্মকাণ্ডে জড়ালেন অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি!

Published

on

ঢালিউডের আলোচিত অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি। সংগৃহীত ছবি

সময়টা খুব একটা ভালো যাচ্ছে না ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত অভিনেত্রী মাহিয়া মাহির। হাতে নেই কোনো সিনেমা, চলতি বছরের ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত সংসদ নির্বাচনেও হেরেছেন, অনেক চেষ্টার পরেও টিকিয়ে রাখতে পারেননি দ্বিতীয় সংসারও।  তবে ঢালিউডে আবারও দুর্দান্ত কামব্যাক করতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।  এজন্য নিয়মিত জিমে গিয়ে নিজেকে ফিট রাখছেন।

কিছুদিন আগে একটি ফটোশুটে অংশ নিয়েছিলেন মাহিয়া মাহি। পরে নিজের ফেসবুকে ওই ফটোশুটের মাত্র এক মিনিটের নাচের ভিডিও শেয়ার করেন। মুহুর্তেই এটি দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে নেট দুনিয়ায়। নেটিজেনদের বেশিরভাগই মাহিকে এমন রূপে দেখে প্রশংসা করেন।

তবে সম্প্রতি একটি অনলাইন জুয়া কোম্পানির শুভেচ্ছাদূত হওয়ার কারণে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে সমালোচিত হচ্ছেন এই ঢালিউডের আলোচিত এই নায়িকা। অনলাইন জুয়া কোম্পানির সঙ্গে যুক্ত হওয়ার বিষয়টি নিজেই নিশ্চিত করেছেন মাহি।

তবে আন্তর্জাতিকভাবে নিষিদ্ধ এমন সাইটের শুভেচ্ছা দূত হওয়াদের মধ্যে মাহিয়া মাহি-ই প্রথম নন। এর আগে এমন সাইটের বিজ্ঞাপন ও শুভেচ্ছাদূত হিসেবে নাম জড়িয়েছে জয়া আহসান, অপু বিশ্বাস ও নুসরাত ফারিয়ার।  এদের মধ্যে জয়া ও ফারিয়াকে শুধু বিজ্ঞাপনে পাওয়া গেলেও অপু কাজ করেছেন শুভেচ্ছাদূত হিসেবে!

এনিয়ে দর্শক ও ভক্তদের মাঝে কঠোর সমালোচনার ঝড় শুরু হলে তাদের বেশিরভাগই দাবি করেন, ভুল তথ্যে তাঁরা এগুলোতে জড়িয়ে পড়েছিলেন।  তবে মাহি তাদের কাতারে না থেকে সব জেনে-বুঝেই জুয়ার কোম্পানির প্রচার করছেন। এমনটাই মনে করছেন মাহির ভক্ত ও নেটিজেনদের অনেকে।

Advertisement

বাংলাদেশের সংবিধান ও আইনে জুয়া খেলা একেবারেই নিষিদ্ধ।  সংবিধানের ১৮ (২) অনুচ্ছেদে নৈতিকতা রক্ষায় রাষ্ট্রের দায়িত্ব সম্পর্কে বলা হয়েছে, জুয়াখেলা নিরোধের জন্য রাষ্ট্র কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।তবে সাম্প্রতিক সময়ে অনলাইন জুয়ার প্রসার উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে।

এ ধরনের নিষিদ্ধ বেটিং প্রতিষ্ঠানের শুভেচ্ছাদূত হওয়ায় মাহির নৈতিকতা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। তবে বিষয়টি নিয়ে মাহি মুখে কুলুপ এঁটেছেন। একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। প্রতিবারই মোবাইল কল কেটে দিয়েছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত এই অভিনেত্রী।

এমআর//

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ঢালিউড

আফ্রিকান ভক্তের কাণ্ডে চমকে গেলেন নুসরাত ফারিয়া

Published

on

ভারতের গুজরাটের পারুল বিশ্ববিদ্যালয়ের শুভেচ্ছাদূত হয়েছেন বাংলাদেশের নায়িকা নুসরাত ফারিয়া। ইতোমধ্যে খবরটা জানাজানি হয়ে গেছে। তবে একই অনুষ্ঠানে এক আফ্রিকান ছাত্রের কাণ্ডে চমকে যান ফারিয়া। পেন্সিলে আঁকা ফারিয়ার ছবি নায়িকাকে উপহার দিয়েছেন সেই ভক্ত।

গেল শুক্রবার (২৪ মে) বিশ্ববিদ্যালয়টির একটি প্রি-কনভোকেশন অনুষ্ঠান ছিল। সেখানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফারিয়া। তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সম্মাননা ক্রেস্ট দেয়া হয়। সেখানে ফারিয়া শুনিয়েছেন নিজের জীবনের গল্প, সাফল্যের গল্প।

ভক্তের থেকে পাওয়া উপহার প্রসঙ্গে নুসরাত ফারিয়া বলেন, ‘সে মূলত আফ্রিকান তরুণ, এই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে। আমাকে দেখে তাৎক্ষণিক ছবিটি এঁকেছিল। এরপর মঞ্চে উঠে এসে আমাকে উপহার দিয়েছে। এমন প্রাপ্তিতে দারুণ অনুভূতি হয়েছিল।’

প্রশ্ন হতে পারে, ভারতে এত এত তারকা থাকতে ফারিয়াকে কেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়টি শুভেচ্ছাদূত হিসেবে বাছাই করলো? উত্তরে নায়িকা জানান, এর কৃতিত্ব শিক্ষার্থীদের। অভিনেত্রী বলেন, ‘এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অনেকে পশ্চিমবঙ্গের, বাংলাদেশেরও আছে কিছু। তো আমিসহ কয়েকজন তারকাকে নিয়ে সেখানে জরিপ চালানো হয়েছিল। তাতে আমার নামটি সবার ওপরে আসে। এরপর থেকেই তারা আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে। অবশেষে গত মাসে আমি শুভেচ্ছাদূত হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছি।’

অনুষ্ঠানের কিছু স্থিরচিত্র নিজের সোশ্যাল হ্যান্ডেলে শেয়ার করেছেন ফারিয়া। লিখেছেন, ‘এটা সত্যিই অনবদ্য অভিজ্ঞতা। এটি গুজরাটের সবচেয়ে বড় বিশ্ববিদ্যালয়। যেখানে ৭০টির বেশি দেশের ৫০ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী পড়াশোনা করেন। সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের গেস্ট অব অনার হওয়া আমার জন্য খুবই আনন্দের।’

Advertisement

নুসরাত ফারিয়াকে সর্বশেষ বড় পর্দায় দেখা গেছে গত বছর ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ ছবিতে। মুক্তির অপেক্ষায় আছে ‘ফুটবল ৭১’, ‘রকস্টার’সহ একাধিক ছবি।

এসআই/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত