Connect with us

ক্রিকেট

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ

Avatar of author

Published

on

আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে ঘরের মাঠে দুই ভেন্যুতে সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

আজ শুক্রবার (৩ মে) চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা ৬টায়। সিরিজের দ্বিতীয় ও তৃতীয় ম্যাচও হবে বন্দর নগরী চট্টগ্রামে। তবে সিরিজের শেষ দুই ম্যাচ মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলবে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে।

২০২২ সালে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে বাংলাদেশের বিপক্ষে মুখোমুখি হওয়া নিজেদের সর্বশেষ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতেছিল জিম্বাবুয়ে। তবে ঐ সিরিজ হেরে যাওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাকফুটে আছে বলে মনে করেন না টাইগার অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে শান্ত বলেন, এই ফরম্যাটে বড় বা ছোট দল বলে কিছু নেই। আপনি যেমন বলেছেন উগান্ডার কাছে সিরিজ হেরেছে জিম্বাবুয়ে, কিন্তু কিছুদিন আগে শ্রীলঙ্কার মতো শক্তিশালী দলকে হারিয়েছে তারা। এজন্য এই ফরম্যাটে পার্থক্য খুব বেশি নয়।

তিনি আরও বলেন, এই সিরিজ দিয়ে আমরা কিভাবে তৈরি হচ্ছি, এটাই গুরুত্বপূর্ণ। দরজায় কড়া নাড়ছে বিশ^কাপ। ফলে এই সিরিজটি আমাদের প্রস্তুতির বড় মঞ্চ। গুরুত্বপূর্ণ হল, আমরা কিভাবে নিজেদের প্রস্তুত করবো এবং কিভাবে আমরা নিজেদের আত্মবিশ্বাসী করে তুলতে পারবো। আমি বলতে পারি, এই সিরিজটি অনেক বেশি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে। কারণ জিম্বাবুয়ে অনেক ভালো দল।

Advertisement

পূর্ব আফ্রিকার দেশ জিম্বাবুয়ের কাছে সর্বশেষ সিরিজ হেরে গেলেও, দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২০বারের মোকাবেলায় টাইগাররা ১৩টি জিতেছে এবং ৭টিতে হেরেছে।

দলের দুই সেরা তারকা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ও পেসার মুস্তাফিজুর রহমানকে ছাড়াই সিরিজের প্রথম তিন ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফিরে ম্যাচ খেলার ফিটনেস অর্জনের জন্য চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) অংশ নিয়েছেন সাকিব। চলতি ইন্ডিয়ার প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) মাঝপথে আজ দেশে ফিরছেন চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে খেলা মুস্তাফিজ। কিন্তু ক্লান্তির বিষয়টি মাথায় রেখে ফিজকে সিরিজের প্রথম তিন ম্যাচ খেলাতে রাজি নয় নির্বাচকরা।

শান্ত বলেন, আমরা সিরিজ জিততে চাই এবং এটাই আমাদের প্রথম লক্ষ্য। একই সাথে, বিশ্বকাপের প্রস্তুতির বিষয়টি আমাদের মাথায় আছে। কিন্তু এমনটা নয়, আমরা বড় ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবো। কোন পরীক্ষা-নিরীক্ষার দরকার নেই, কারণ এই দলে যে ১৫ জন খেলোয়াড় আছে, তারা জিম্বাবুয়েকে হারানোর সামর্থ্য রাখে। আমি মনে করি, এই সিরিজ দিয়ে আমাদের ভুলগুলো বুঝতে পারবো এবং ভুল সংশোধন করার জন্য আমাদের সেখানেই বেশি নজর দেওয়া উচিত।

বড় দলগুলোর বিপক্ষে সেরা পারফরমেন্স দেখাতে পারলেও শেষ পর্যন্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে জায়গা করে নিতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। তবে ২০২২ সালে ঘরের মাঠে বাংলাদেশকে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি সিরিজে হারাতে যেভাবে খেলেছিলো, সেভাবে আবারও জ¦লে উঠার প্রত্যাশা জিম্বাবুয়ের। ওয়ানডে সিরিজে জয় পেলেও ২০০১ সালের পর বাংলাদেশের মাটিতে সাদা বলের ফরম্যাটে কোন সিরিজ জিততে পারেনি জিম্বাবুয়ে।

জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক সিকান্দার রাজা বলেন, ‘সিরিজ জিতে দেশে যাওয়াটা হবে দারুণ স্মৃতি। আমি ভবিষ্যদ্বাণী করতে পারি না। কিন্তু আমরা এখানে ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে এসেছি এবং আমরা এই সিরিজের জন্য সত্যিই ভালো প্রস্তুতি নিয়ে এখানে এসেছি। আমরা বাংলাদেশে জিততেই এসেছি।’

Advertisement

বাংলাদেশ দল : নাজমুল হোসেন শান্ত (অধিনায়ক), লিটন দাস, তানজিদ হাসান তামিম, তওহিদ হৃদয়, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, জাকের আলী অনিক, শেখ মাহেদি, রিশাদ হোসেন, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, তানজিম হাসান সাকিব, পারভেজ হোসেন ইমন, তানভির ইসলাম, আফিফ হোসেন ও মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।

জিম্বাবুয়ের দল : সিকান্দার রাজা (অধিনায়ক), ফারাজ আকরাম, ব্রায়ান বেনেট, রায়ান বার্ল, জোনাথন ক্যাম্পবেল, ক্রেগ আরভিন, জয়লর্ড গাম্বি, লুক জঙ্গি, ক্লাইভ মাদান্দে, তাদিওয়ানাশে মারুমানি, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা, ব্লেসিং মুজারাবানি, এন্সলি এন্দলোভু, রিচার্ড এনগারাভা ও সিন উইলিয়ামস।

জেএইচ

Advertisement

ক্রিকেট

দল বাড়তে যাচ্ছে পিএসএলে

Published

on

পাকিস্তান প্রিমিয়ার লিগের (পিএসএল) ২০২৬ আসর থেকে নতুন দুই দল যুক্ত হচ্ছে। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। আগামী বছরের আসরটি হতে যাচ্ছে শেষ ৬ দলের টুর্নামেন্ট।

পিএসএল নিয়মিত এগিয়ে যাচ্ছে। এর উন্নতি ভোগ করছে পাকিস্তান ক্রিকেট। ফলে আরও বেশি ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য দল বাড়ানোর প্রতি যোগ দিয়েছে পিএসএল ও পিসবি প্রশাসন। পিএসএল এর সাথে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আগামী আসর একসাথে হতে যাচ্ছে। পিসিবি মনে করছে, এটা ক্রিকেটের জন্য ভালো।

পিএসএল জানিয়েছে, তারা এক দলের খেলোয়াড় থেকে অন্য দলের খেলোয়াড়ের ‘ডিরেক্ট সাইনিং’ নীতিতে আসতে চায়। অন্যদিকে ভেন্যু হিসেবে পেশওয়ার ও কোয়েটাকে সম্ভাব্য ভেন্যু হিসেবে পিএসএলে আনতে চায় পিসিবি। এই দুই ভেন্যুতে ২০২৪-২৫ ঘরোয়া লিগ করার সম্ভাবনাও রয়েছে।

 

এম/এইচ

Advertisement

 

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ক্রিকেট

নাইট রাইডার্সের সাথে যুক্ত হলেন সাকিব

Published

on

নাইট রাইডার্স- দলটির সাথে সাকিব আল হাসানের সম্পর্ক পুরোনো। আরো খোলাসা করে বললে কোলকাতা নাইট রাইডার্স। শাহরুখ খানের মালিকানায় আইপিএল খেলে থাকে দলটি। অন্যান্য লিগেও শাহরুখের মালিকানায় দল রয়েছে। আমেরিকার মেজর লিগ ক্রিকেটে (এমএলসি) লস অ্যাঞ্জেলস নাইট রাইডার্স নামে যে দল আছে, সেখানে যোগ দিয়েছেন সাকিব।

এমএলসি’র পরবর্তী আসর খেলার কথা রয়েছে সাকিবের। যেখানে শাহরুখের মালিকানায় থাকা লস অ্যাঞ্জেলসে যুক্ত হলেন এই বাংলাদেশি অলরাউন্ডার। আজ (শুক্রবার) নিজেদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্ট দিয়েছে এই ফ্র্যাঞ্চাইজি। যেখানে তারা লিখেছে, “আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার হিসেবে সাকিব আল হাসান এলএ নাইট রাইডার্সের সাথে ২০২৪ মেজর লিগ ক্রিকেটের জন্য যুক্ত হচ্ছেন। শীঘ্রই দেখা হচ্ছে, সাকিব।”

নাইট রাইডার্স গ্রুপ থেকে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। যেখানে বলা হয়, “সাকিব, অবশ্যই নাইট রাইডার্স পরিবারের সাথে একটা লম্বা সময় ধরে সম্পর্ক আছে তার। এরমধ্যে আছে ২০১২ ও ২০১৪ সালের দুই শিরোপা-জয়ী বছর।”

“এই জুলাইয়ে, বেগুনি ও সোনালী রঙের জার্সিতে আবারও তাকে দেখার জন্য আমরা আর অপেক্ষা করতে পারছি না।”

Advertisement

মেজর লিগ ক্রিকেটের দ্বিতীয় মৌসুম আগামী জুনের ৫ তারিখ শুরু হচ্ছে। ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে জুলাইয়ের ২৯ তারিখ।

 

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ক্রিকেট

বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে আমিরকে চান মিসবাহ

Published

on

মোহাম্মদ আমির আবারও ফিরেছেন পাকিস্তান দলে। সামনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। সেখানে আমিরের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চাইবে পাকিস্তান। দলটির সাবেক অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক সম্প্রতি এই পেসারের উপর ভরসা রেখে আলোচনা করেছেন। বিশেষ করে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে আমিরকে চান তিনি।

সম্প্রতি স্টার স্পোর্টস এর ‘প্রেস রুম শো’তে কথা বলেন মিসবাহ। যেখানে তিনি স্মরণ করেন ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির কথা। এই সাবেক ক্রিকেটার স্বীকার করেছেন, আমির হয়তো আগের মতো পেস বা সেই আক্রমণাত্মক জায়গা থেকে ডেলিভার করতে পারবেন না- তবে সাম্প্রতিক সময়ের পারফরম্যান্স নিয়ে সন্তোষের জায়গা দেখছেন তিনি।

“আমি কথা বলবো ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি নিয়ে। যে মোহাম্মদ আমিরকে আমরা তখন দেখেছি এবং এখন আসন্ন আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যাকে দেখবো।”

“আমরা অবশ্যই ভিন্ন কিছু দেখবো তখনকার সময় থেকে। আগে তার আরো বেশি পেস ছিল, সুইং ছিল, জিপ ছিল- এখন সেটা তার চেয়ে কিছুটা কম।”

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল ম্যাচে দারুণ এক স্পেল করেন আমির। ভারতের বিপক্ষে সেই ম্যাচে রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান ও ভিরাট কোহলির উইকেট তুলে নেন এই পেসার। ম্যাচটি ১৮০ রান জিতেছিল পাকিস্তান।

Advertisement

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে আলাদা চাপ থাকে। মিসবাহ সে প্রসঙ্গ তুলেছেন। সেই চাপ সামলানোর মতো ক্ষমতা সব খেলোয়াড়দের থাকে না। যেখানে আমিরকে আলাদা করতে পারেন এই সাবেক অধিনায়ক। তিনি বলেন, “কিন্তু আমরা আমিরের মধ্যে কী দেখি, সে আউটসাইড অফ স্টাম্পে স্লোয়ার দিচ্ছে, ইয়র্কার করছে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে ব্যাপার, ভারতের মতো বড় ম্যাচে চাপ সামলানো। যেখানে আপনি আগে ভালো পারফর্ম করেছেন। গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় ম্যাচ জিতিয়েছেন, বড় ব্যাটসম্যানদের বল করেছেন। এটাই ভারত বনাম পাকিস্তান ম্যাচে আমিরের একটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গা এবং অন্যান্য ম্যাচগুলোর জন্যেও।”

আমির ভারতের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত ২ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে তিনি ৪ উইকেট সংগ্রহ করেন। দুই দল আগামী ৯ জুন, নিউ ইয়র্কে বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে মুখোমুখি হবে।

 

এম/এইচ

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত