Connect with us

বলিউড

ফাঁস হওয়া ভিডিও ঘিরে ক্যাটরিনার মা হতে যাওয়ার গুঞ্জন

Avatar of author

Published

on

আসছে সেপ্টেম্বরে মা হতে চলেছেন দীপিকা পাড়ুকোন। সোমবার ভোট দিতে যাওয়ার সময় অভিনেত্রীর ‘বেবি বাম্প’ দেখে উচ্ছ্বসিত ছিলেন অনুরাগীরা। এসবের মধ্যেই ভাইরাল ক্যাটরিনা কাইফের একটি ভিডিও। লন্ডনের রাস্তায় স্বামী ভিকি কৌশলের হাত ধরে ঘুরছিলেন অভিনেত্রী। সেই ভিডিও দেখেই নেটিজেনদের মনে প্রশ্ন জেগেছে, দীপিকার পর এবার কি ক্যাটরিনা অন্তঃসত্ত্বা?

ক্যাটরিনা ও ভিকির সম্পর্ক শুরুর দিন থেকেই তাদের নিয়ে প্রবল কৌতূহল ভক্ত অনুরাগীদের। পরে সম্পর্কের কথা স্বীকার করে নেন দু’জনই। ২০২১ সালের ডিসেম্বরে চার হাত এক হয় তারকা যুগলের। কিন্তু বিয়ের পরে মধুচন্দ্রিমায় যাওয়ার অবসরটুকুও ছিল না ব্যস্ত ক্যারিয়ারের দাপটে। এখন অবশ্য একে অন্যকে চোখে হারান এই তারকা দম্পতি।

কিছুদিন আগেই ‘ছাওয়া’ সিনেমার শুটিং শেষ করেছেন ভিকি। অবসর পেতেই ক্যাটরিনাকে নিয়ে লন্ডন পাড়ি দিয়েছেন। বেকার স্ট্রিটের রাস্তায় ক্যামেরাবন্দি হন তারকা দম্পতি।

নেটিজেনরা তাদের ছবি ও ভিডিও দেখে মন্তব্য করছেন, ক্যাটরিনা নিশ্চিতভাবে অন্তঃসত্ত্বা। যদিও ক্যাটরিনার ক্ষেত্রে এমন রটনা নতুন কিছু নয়। এর আগেও একাধিকবার তাঁর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার গুঞ্জন শোনা গেছে। তবে ভিকি-ক্যাটরিনা ভারতে ফিরে  বিষয়টি নিয়ে কোন মন্তব্য করেন কিনা সেদিকেই তাকিয়ে ভক্ত-অনুরাগীরা।

এসআই/

Advertisement
Advertisement

বলিউড

প্রযোজকের বিরুদ্ধে মামলা নিয়ে আদালতে করণ জোহর

Published

on

দেখুন কাণ্ড! শেষমেশ করণের সঙ্গে এমন ঘটনা। তাও আবার করণকে না জানিয়ে। আর ঘটনাটি নিয়ে এতটাই বিরক্ত যে করণ সোজা পৌঁছে গেলেন আদালতে। সোজা ঠুকলেন মামলা!

ব্যাপারটা একটু খোলসা করে বলা যাক। সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে ‘শাদি কে ডিরেক্টর করণ অউর জোহর’ একটি ছবির ট্রেলার। যা মুক্তি পাওয়ার কথা ১৪ জুন। কিন্তু তার আগেই আদালতে গেলেন করণ জোহর। করণের অভিযোগ, তাকে না জানিয়ে ছবির নির্মাতারা তার নাম ব্যবহার করেছেন। করণের করা মামলার কারণে ছবির মুক্তি নিয়ে এর মধ্যেই স্থগিতাদেশ দিয়েছে আদালত।

করণ জোহরের করা মামলার পিটিশনে দাবি করা হয়েছে, ছবির সঙ্গে তার কোনও সম্পর্ক নেই। তবুও তার নাম ব্যবহৃত হয়েছে অযাচিত ভাবে। এই পিটিশনে আরও দাবি করা হয়েছে, ছবির শিরোনামে তার নাম ব্যবহার করা হয়েছে সুনাম নষ্ট করার অভিসন্ধি নিয়েই। যা কিনা আইনত অপরাধ। তবে এই নিয়ে ছবির নির্মাতাদের তরফ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

সম্প্রতি শত্রুতা ভুলে কঙ্গনার চড় কাণ্ড নিয়ে মুখ খুলেছেন করণও। পরিচালক সাফ জানালেন, কাউকে মারধর করা এবং অপমানকে সমর্থন করেন না তিনি। নিরাপত্তারক্ষীর চড় মারাকে ‘উগ্রতা’ হিসাবেই দেখছেন। কোনও পরিস্থিতিতে নিরাপত্তারক্ষী কুলবিন্দরকে মোটেও সমর্থন করেন না বলেই জানান করণ।

জেএইচ

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

বলিউড

নাতাশার ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্ট! হার্দিকের সঙ্গে বিচ্ছেদ কি তবে আসন্ন?

Published

on

এই মুহূর্তে টি ২০ বিশ্বকাপ খেলতে নিউ ইর্য়কে রয়েছেন হার্দিক পাণ্ড্য। যদিও বেশ কয়েকদিন ধরেই টালমাটাল তার ব্যক্তিগত জীবন। স্ত্রী নাতাশা স্তানকোভিচের সঙ্গে তার সম্পর্কের সমীকরণ নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে।

বিয়ের চার বছরের মধ্যে দাম্পত্যে ফাটল হার্দিক-নাতাশার। নিজের পদবি থেকে আচমকাই ‘পাণ্ড্য’ ফেলে দিতেই যেন আরও বেশি জোরালো হয় বিচ্ছেদের জল্পনার।

যদিও কারো কারো দাবি, হার্দিক নাকি স্ত্রীকে খাড়া করে আইপিএলে খারাপ ফলের ব্যর্থতা ঢাকার চেষ্টা করছেন। চলছে চাপানউতোর। সামাজিকমাধ্যমে একের পর এক ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্ট করে সেই জল্পনায় ঘৃতাহুতি দিচ্ছেন নাতাশা। এবার ফের একটি পোস্ট, সেখানেই তিনি ‘অপেক্ষা করার’ কথা উল্লেখ করলেন। এখন প্রশ্ন, এই কথা বলে তিনি কী ইঙ্গিত দিতে চেয়েছেন?

নাতাশা একটি পোস্ট ইনস্টাগ্রামে ভাগ করে নিয়েছেন তার অনুরাগীদের সঙ্গে। সেখানে লেখা রয়েছে, ‘অনেক পুরানো স্টাইলই ফিরে আসছে ঠিকই, কিন্তু আমি অপেক্ষা করছি, কখন নৈতিকতা, সম্মান ও বুদ্ধিমত্তা আবার ফিরবে!’

হলিউডের খ্যাতনামা তারকা ডেনজল ওয়াশিংটনের অতি পরিচিত এই উদ্ধৃতি শেয়ার করে এবার কোন ইঙ্গিত দিতে চাইলেন নাতাশা! মাস কয়েক ধরেই হার্দিক-নাতাশাকে নিয়ে এই জল্পনা চলছে, তা থামার কোনও লক্ষণও আপাতত চোখে পড়ছে না।

Advertisement

এই মুহূর্তে ছেলে অগ্যস্তের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন নাতাশা। তার সামাজিকমাধ্যমের পাতায় চোখ রাখলেই দেখা যাবে সেই ছবি। অন্য দিকে, নিজের চুলের ‘কাট’ বদলে নতুন লুকে ধরা দিয়েছেন হার্দিকও।

দিন কয়েক ধরেই শোনা যাচ্ছে, হার্দিক-নাতাশার মাঝে নাকি এসেছেন তৃতীয় ব্যক্তি। তার কারণেই বুঝি ভাঙছে ক্রিকেট তারকার ঘর। তিনি হলেন শরীরচর্চা প্রশিক্ষক আলেকজ়ান্ডার অ্যালেক্স। বলিপাড়ায় যদিও গুঞ্জন, অ্যালেক্স নাকি অভিনেত্রী দিশা পটানির প্রেমিক।

তারকা-দম্পতির বিচ্ছেদের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ার পরই নেটাগরিকের একাংশ আক্রমণ করতে থাকেন আলেকজ়ান্ডারকে। তাদের দাবি, আলেকজ়ান্ডারই নাকি নাতাশা-হার্দিকের সম্পর্কে তৃতীয় ব্যক্তি হয়ে ঢুকে পড়েছেন, তাতেই ছন্দপতন। যদিও এই দাবি সম্পূর্ণ উড়িয়ে দিয়েছেন আলেকজ়ান্ডার

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

বলিউড

সালমানের বাড়িতে গুলিকাণ্ড : পুলিশের ১৫০ প্রশ্নের জবাবে যা বললেন ভাইজান

Published

on

১৪ এপ্রিল গুলির শব্দ ঘুম ভাঙে সালমান খানের। আচমকাই তার ফ্ল্যাটের বাইরে গুলি চালিয়ে চম্পট দেয় চার বন্দুকবাজ। যদিও একে একে পুলিশের জালে ধরা পড়েছে চার জনই। এ বার সলমনের বয়ান রেকর্ড করল পুলিশ। প্রায় চার ঘণ্টা ধরে চলল জিজ্ঞাসাবাদ। জানা গেছে, ১৫০টা প্রশ্ন করা হয় সালমানকে। একা সালমান নন, বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে ভাই আরবাজ় খানেরও। বয়সজনিত কারণে জিজ্ঞাসবাদে থাকতে পারেননি অভিনেতার বাবা সেলিম খান।

গুলিকাণ্ডের পর থেকেই কঠোর নিরাপত্তার ঘেরাটোপে রয়েছেন সালমান। সারা ক্ষণই ওয়াই ক্যাটেগরির নিরাপত্তার মধ্যে রয়েছেন ভাইজান। বাড়িতে এমন একটা ঘটনা ঘটে গেছে, তাই সালমানকে নিয়ে উদ্বেগে রয়েছেন তার অনুরাগীরাও। যদিও এই ঘটনার পর কখনওই প্রকাশ্যে কিছু বললেননি অভিনেতা। পুলিশি জিজ্ঞাসবাদে কী জানালেন তিনি?

সে দিনের ঘটনার প্রতি মিনিটের বিবরণ দিয়েছেন সালমান। পুলিশ জানায়, ১৪ এপ্রিলের ওই ঘটনার দিন পশ্চিম বান্দ্রার গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টের বাড়িতে উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা ও তার মা-বাবা। বন্দুকবাজরা পাঁচ থেকে ছয় রাউন্ড গুলি চালায় বলে অভিযোগ।

সালমান জানান, গুলির শব্দেই তিনি জেগে ওঠেন। কী হচ্ছে দেখার জন্য যখন বারান্দায় যান, তখন কাউকে আর দেখতে পাননি। ক্রমাগত প্রাণনাশের হুমকি, বাড়িতে হামলা, এ সব দেখে তিনি ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন এমনটাই জানান অভিনেতা।

পাশাপাশি আরবাজ় তার বয়ানে বলেন, এর আগেও একটা হুমকি চিঠি পাওয়া গিয়েছিল বাড়ির বাইরে। বিষ্ণোই গ্যাংয়ের সদস্যরা পানভেলের ফার্মহাউসে রেকি করেছিল। এবার গুলি চালাল। এই নিয়ে তৃতীয় হামলা, পুলিশের এই ঘটনায় গুরুত্ব দেওয়া উচিত।’

Advertisement

১৯৯৮ সালে কৃষ্ণসার হরিণ শিকারকাণ্ডে সালমান খানের নাম জড়িয়েছিল। এর বদলা নিতে সালমানকে খুনের হুমকি দেয় লরেন্স বিষ্ণোই গোষ্ঠী। গেলো বছর জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ) জানিয়েছিল, জেলবন্দি গ্যাংস্টার বিষ্ণোই যে ১০ জনকে খতম তালিকায় রেখেছে, তাদের মধ্যে প্রথমেই রয়েছে সালমানের নাম। তার পর থেকেই সালমানকে নানা ভাবে ভয় দেখানোর চেষ্টা করেছে এই গ্যাংস্টার।

জেএইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত