Connect with us

আন্তর্জাতিক

ফাঁদে ফেলে ৪ ইসরায়েলি সেনাকে হত্যা করলো হামাস

Avatar of author

Published

on

ছবি: দ্য টাইমস অব ইসরায়েল

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজায় রাফা শহরের একটি ভবনে অভিযানের সময় হামাস যোদ্ধাদের ঘটানো বিস্ফোরণে চার ইসরায়েলি সেনা নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৭জন।

মঙ্গলবার (১১ জুন) নিহত ইসরায়েলি সেনাদের পরিচয় প্রকাশ করেছে দেশটির প্রতিরক্ষাবাহিনী (আইডিএফ)।

সোমবারের (১০ জুন) এক ঘটনায় তারা নিহত হন। আহতদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছে আইডিএফ। তবে বিয়টিকে ফাঁদ হিসেবে দেখছে ইসরায়েলি প্রতিরক্ষাবাহিনী।

নিহতরা হলেন- মেজর তাল পশেবিলস্কি শাওলভ (২৪), স্টাফ সার্জেন্ট এতিন কার্লসব্রান (২০), সার্জেন্ট আলমোগ শালম (১৯) ও সার্জেন্ট ইয়ার লেভিন (১৯)। এদর মধ্যে শালম ও লেভিন প্রশিক্ষণার্থী ছিলেন। আর শাওলভ ছিলেন তাদের কোম্পানি কমান্ডার।

আইডিএফ জানায়, দক্ষিণ গাজার রাফা শহরে একটি ভবনে অভিযানে যায় সেনারা। ওই ভবন থেকে হামাসের হামলার আশঙ্কা ছিল। তাই ইসরায়েলি সেনারা ভবনে সরাসরি প্রবেশ না করে প্রথমে বোমা ছোড়ে। এতে কোনো প্রতিক্রিয়া না পেয়ে ইসরায়েলি সেনারা তিনতলা ভবনটিতে প্রবেশের কিছুক্ষণের মধ্যে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। ভবনের ধ্বংসস্তূপে চাপা পড়েন কয়েকজন সেনা।

Advertisement

এ ঘটনাকে ফাঁদ হিসেবে দেখছে ইসরায়েলি প্রতিরক্ষাবাহিনী। তাদের দাবি, ভবনটিতে হামাসের সুড়ঙ্গ থাকার প্রমাণ মিলেছে। এর মানে এখানে হামাস যোদ্ধারা ছিল।

আইডিএফ আরও জানায়, নিহত চার সেনা ছাড়াও আরও সাতজন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা গুরুতর। এ নিয়ে গাজায় হামাসের বিরুদ্ধে স্থল অভিযান শুরুর পর ২৯৯ সেনা হারাল ইসরায়েল।

এদিকে, মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, হামাস যোদ্ধারা তিনতলা ওই ভবনে প্রবেশ করার জন্য ইসরায়েলি সেনাদের ফাঁদে ফেলেছিলো। ইসরায়েলি  সেনারা বোমা ছোড়ার পরও হামাস যোদ্ধারা চুপ ছিলো আর অপেক্ষা করছিলো কখন তারা ভবনের  ভেতর প্রবেশ করে। বোমা ছোড়ার পর হামাস যোদ্ধাদের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া না আসায় ইসরায়েলি সেনারা ওই ভবনে প্রবেশ করে। আর হামাস যোদ্ধারা এটাই চেয়েছিলেন। ইসরায়েলি সেনারা ভবনে প্রবেশ করার সঙ্গে সঙ্গে বিস্ফোরক দিয়ে ওই ভবনটি উড়িয়ে দেয়। ফলে হতাহত হয় ইসরায়েলি সেনারা।

হামাসের সামরিক শাখা কাসাম ব্রিগেড এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘ইসরায়েলি সেনারা যেখানে কাজ করছিল সেখানে তারা ফাঁদ তৈরি করে। ইহুদিবাদী বাহিনী যে ভবনটিতে নিজেদেরকে সুরক্ষিত করেছিলো আমাদের যোদ্ধারা বিস্ফোরক দিয়ে সেটি উড়িয়ে দিতে সক্ষম হয়।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে নজিরবিহীন হামলা চালিয়ে ১২ শতাধিক ইসরায়েলিকে হত্যার পাশাপাশি প্রায় চারশো ইসরায়েলি নাগরিককে জিম্মি হিসেবে গাজায় নিয়ে যায় হামাস যোদ্ধারা।  এর জবাবে ওইদিন থেকেই গাজায় হামলা শুরু করে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী। গাজার স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের মতে, ইসরায়েলের অব্যাহত হামলায় সাড়ে ৩৬ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। তাদের বেশিরভাগই নারী ও শিশু। আর ইসরায়েলি হামলায় আহত হয়েছেন আরও ৮৩ হাজারের বেশি।

Advertisement

এমআর//

Advertisement

আন্তর্জাতিক

আড়াই লাখের বেশি হজযাত্রীকে ফিরিয়ে দিয়েছে সৌদি আরব

Published

on

ফাইল ছবি

অবৈধ হজযাত্রী মোকাবিলায় সৌদি আরবের নেওয়া কঠোর পদক্ষেপের ফলে আড়াই লাখের বেশি মুসল্লি হজ করতে পারেননি। এসব হজযাত্রী ভিজিট ভিসা নিয়ে হজ পালনের চেষ্টা করছিলেন। হজের আনুষ্ঠিকতা শুরুর আগেই তাদের মক্কা থেকে ফেরত পাঠায় সৌদি কর্তৃপক্ষ।

সৌদি আরবের জেদ্দাভিত্তিক অনলাইন নিউজ পোর্টাল সৌদি গেজেটের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

হজ মৌসুমে সৌদি কর্তৃপক্ষ বারবার বলেছে, ভিজিট ভিসা নিয়ে কেউ হজ পালন করতে পারবেন না।

সৌদি আরবের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিরাপত্তা বিষয়ক মুখপাত্র  কর্নেল তালাল আল শালহুবের বরাত দিয়ে সৌদি গেজেটের প্রতিবেদনে বলা হয়,  এ বছর ভিজিট ভিসা নিয়ে অবৈধভাবে হজের চেষ্টা করা ২ লাখ ৫৬ হাজার ৪৮১ জনকে ফিরিয়ে দিয়েছে সৌদি আরব।

তিনি জানান, গত ২৯ এপ্রিল থেকে ১৬০টি ভুয়া হজ প্রচারাভিযান ধরা পড়েছে এবং ১ লাখ ৩৫ হাজার ৯৮টি অননুমোদিত গাড়ি মক্কার প্রবেশমুখ থেকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ২ লাখ ৫০ হাজার ৩৮১ জন অনাবাসীকে ইসলামের পবিত্রতম শহর মক্কায় প্রবেশ করতে বাধা দেওয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান।

Advertisement

সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই মুখপাত্র আরও বলেন, হজের আনুষ্ঠানিকতা চলা পবিত্র স্থানগুলোতে ইসলামি শরিয়ার সঙ্গে সম্পর্কহীন স্লোগান উঠতে দেবে না সৌদি আরব। তিনি বলেন, হজ মৌসুম শেষ না হওয়া পর্যন্ত সৌদি নিরাপত্তা সংস্থাগুলো পবিত্র স্থানগুলোর চারপাশে কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনী বজায় রাখবে।

প্রসঙ্গত, চলতি বছর হজ পালনকারীদের জন্য কঠোর  বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সৌদি সরকার। গত ২ জুন থেকে সৌদি আরবে কার্যকর হচ্ছে পবিত্র হজবিষয়ক আইন ও নির্দেশনা অমান্য করার শাস্তি। ২১ জুন পর্যন্ত এটি চলবে। হজ পালনের অনুমতি ছাড়া মক্কা ও মদিনায় কোনো হজযাত্রীকে পাওয়া গেলে কর্তৃপক্ষ তাকে ১০ হাজার সৌদি রিয়াল জরিমানা করছে। এর আওতায় রয়েছেন সৌদি নাগরিক ছাড়াও স্থানীয় বাসিন্দারাও।

এছাড়া, কেউ অনুমতি ছাড়া হজযাত্রীদের পরিবহন করলে তাকে ৬ মাস পর্যন্ত কারাদণ্ড দেওয়া হতে পারে এবং ৫০ হাজার সৌদি রিয়াল পর্যন্ত জরিমানা করা হতে পারে। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সাড়ে ১৫ লাখ টাকার বেশি।

পবিত্র হজবিষয়ক আইন ও নির্দেশনায় আরও বলা হয়, যদি কোনো ব্যক্তি যথাযথ অনুমতি ছাড়া হজযাত্রীদের পরিবহনে ধরা পড়ে, তবে তাকে শাস্তি ভোগ করার পরে নিজ দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হবে এবং সুনির্দিষ্ট সময়ের জন্য তাকে আর সৌদি আরবে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

এমআর//

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

হিজবুল্লাহর রকেট হামলায় জ্বলছে ইসরাইল

Published

on

খারকিভে রকেট হামলা

লেবাননের শক্তিশালী সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহর রকেট হামলায় ইসরাইলের উত্তরাঞ্চলের বার’আম এবং ‘ইয়া’রুনের বিভিন্ন জায়গায় বিশাল আগুন লেগেছে।

গেলো শুক্রবার রাতে টাইমস অব ইসরাইল জানায়, ঘটনাস্থলে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের চারটি দল। আগুন অন্যান্য এলাকায় ছড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছে তারা।

গেলো শুক্রবার ইসরাইলের বিভিন্ন জায়গায় নতুন করে রকেট হামলা চালায় হিজবুল্লাহ। তাদের এসব হামলায় আগুনের সূত্রপাত হয়। যা বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে।

এর আগে ইসরায়েলকে লক্ষ্য করে বুধবার সকালে একশরও বেশি রকেট ছোড়ে লেবাননের শক্তিশালী সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ।

এনএস/

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

আন্তর্জাতিক

সুইজারল্যান্ডে জড়ো হচ্ছেন বিশ্বনেতারা

Published

on

ছবি- এএফপি

ইউক্রেনে যুদ্ধ বন্ধে রাশিয়ার ওপর চাপ বৃদ্ধি করতে ইউরোপের দেশ সুইজারল্যান্ডে জড়ো হচ্ছেন বিশ্বনেতারা। খবর- আলজাজিরা 

শনিবার (১৫ জুন) থেকে শুরু হওয়া এই শীর্ষ সম্মেলনে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস এবং ব্রিটেন, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালির রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানরা যোগ দেবেন।

এ ছাড়া রাশিয়ার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখা ভারত, তুরস্ক এবং হাঙ্গেরিও এতে যোগ দেবে। তবে এই সম্মেলনে রাশিয়াকে দাওয়াত দেয়া হয়নি এবং চীন যোগ দেবে না।

জেলেনস্কির নির্দেশে এই শীর্ষ সম্মেলন আয়োজন করছে সুইজারল্যান্ড। দুইদিনের এই সম্মেলনে প্রায় ৯০টি দেশ ও সংস্থার যোগ দেয়ার কথা রয়েছে।

তবে রাশিয়ার প্রধান মিত্র চীন এতে অংশ না নেয়ায় সম্মেলনের প্রভাব কিছুটা ম্লান হয়ে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Advertisement

এনএস/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত