Connect with us

ফুটবল

কোয়ার্টার নিশ্চিতের মিশনে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ প্যারাগুয়ে

Published

on

কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিতে কাল প্যারাগুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে আর্জেন্টিনা। ব্রাসিলিয়ার মানে গারিঞ্চায় ম্যাচটি শুরু হবে ভোর ছয়টায়। এ ম্যাচের আগে অধিনায়ক লিওনেল মেসিকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন কোচ লিওনেল স্ক্যালোনি।
 
প্যারাগুয়ের বিপক্ষে ম্যাচের আগে আলবিসেলেস্তেদের শেষ অনুশীলন ছিলো মানে গারিঞ্চার আউটার স্টেডিয়ামে। গোল করে আগের ম্যাচে নিজেকে প্রমাণ করা গুইদো রদ্রিগুয়েজ এ ম্যাচের শুরুর একাদশে থাকছেন। ডিফেন্সে ওতামেন্দির সঙ্গী ক্রিস্তিয়ান রোমেরোও নজর কেড়েছেন কোচের। 

মুখোমুখি ১০৮ দেখায় আর্জেন্টিনার ৫৮ জয়ের বিপরীতে প্যারাগুয়ে জিতেছে মাত্র ১৬ ম্যাচ। তবে সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান অবশ্য প্যারাগুয়ের পক্ষে। শেষ চার ম্যাচে দলটিকে হারাতে পারেনি স্ক্যালোনি শীষ্যরা। উল্টো হেরেছে একটায়।
 
আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্ক্যালোনি বলেন, প্যারাগুয়ে খুবই শক্তিশালী প্রতিপক্ষ। কোচ হওয়ার পর যতবার ওদের বিপক্ষে খেলেছি, সংগ্রাম করতে হয়েছে। তাদের একঝাঁক দারুন ফুটবলার রয়েছে। তবে শেষ ম্যাচে জয়ে আমাদের আত্মবিশ্বাস ফিরেছে।
 
শেষ ম্যাচ জিতেছে প্যারাগুয়েও। বলিভিয়াকে ৩-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছে লস গুয়ারানিসরা। 

এএ

Advertisement

ফুটবল

আর্জেন্টিনা-কানাডা ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠছে কোপা আমেরিকার

Published

on

সংগৃহীত ছবি

কোপা আমেরিকার ৪৮তম আয়োজন শুরু হতে যাচ্ছে। বাংলাদেশ সময় শুক্রবার (২১ জুন) ভোর ৬ ঘটিকায় আর্জেন্টিনা-কানাডা ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠবে কোপার। ফুটবলের প্রাচীনতম এই আয়োজন ঘিরে দর্শকদের আগ্রহ থাকে আকাশচুম্বী। বিশেষ করে আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের মতো দল এখানে অংশ নেয়, যে দলগুলোর সমর্থক তো বিশ্বজোড়া।

যুক্তরাষ্ট্র আয়োজন করতে যাচ্ছে এবারের কোপা আমেরিকা। ২০২৬ বিশ্বকাপ মাথায় রেখেই যুক্তরাষ্ট্রকে আয়োজকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। কারণ যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো ও কানাডার আয়োজনে অনুষ্ঠিত হবে আগামী বিশ্বকাপ।

কোপা আমেরিকার শিরোপার অন্যতম দাবিদার আর্জেন্টিনা। ২০২১ সালের সর্বশেষ আয়োজনে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারা। এরপর তো ২০২২ ফুটবল বিশ্বকাপের কাঙ্ক্ষিত শিরোপাও নিজেদের করে নেয়। কোপা আমেরিকার সবচেয়ে সফল দুই দল আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ে। উভয় দলই ১৫ বার এই টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেছে।

দক্ষিণ আমেরিকা থেকে ১০ টি, উত্তর আমেরিকা থেকে ৬ টি দেশ নিয়ে আয়োজন করা হবে এবারের আসর। এই ১৬ দল যুক্তরাষ্ট্রের ১৪ টি ভেন্যুতে লড়বে। দর্শকদের অন্যতম আকাঙ্ক্ষা আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল নিয়ে।

আর্জেন্টিনার গ্রুপে কানাডা, চিলি ও পেরু এবং ব্রাজিলের গ্রুপে আছে কলম্বিয়া, প্যারাগুয়ে ও কোস্টারিকা। মোত ২৬ দিনের এই আসরের শিরোপা কার হাতে উঠবে, তা জানতে অপেক্ষা করতে হবে আগামী ১৪ জুলাই পর্যন্ত।

Advertisement

 

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ফুটবল

নাকে অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হচ্ছে এমবাপ্পের

Published

on

ইউরোর ম্যাচে অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে জয় পেয়েছিল ফ্রান্স। জয়ের দিনে ঘটেছে এক দুর্ঘটনাও। ফ্রান্স অধিনায়ক কিলিয়ান এমবাপ্পে প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারের সঙ্গে সংঘর্ষে গিয়ে নাকে বড় আঘাত পান। এরপর নানারকম শঙ্কা দানা বাঁধে। শেষ পর্যন্ত ফ্রান্সের কোচ দিদিয়ের দেশম এই তারকা ফুটবলারের ব্যাপারে সর্বশেষ খবর জানিয়েছেন। এমবাপ্পেকে যেতে হবে নাকের অস্ত্রোপচারের মধ্য দিয়ে।

ফ্রান্সের পরবর্তী ম্যাচ নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে। সেই ম্যাচে এমবাপ্পের খেলা নিয়ে শঙ্কা আছে। পরিস্থিতি এমনও শোনা যাচ্ছিল, টুর্নামেন্ট থেকেই ছিটকে যেতে পারেন তিনি। অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের ৯০ মিনিটের দিকে প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডার কেভিন দানসোর সঙ্গে সংঘর্ষ ঘটে এমবাপ্পের। মাঠেই রক্ত ঝড়ছিল তার। স্থানীয় এক হাসপাতালে নেওয়ার পর জানা যায়, তার নাক ভেঙে গেছে।

এমবাপ্পের নাকে অস্ত্রোপচার লাগবে না, এমন খবর প্রকাশিত হয়েছিল ঘটনার পরপর। তবে ফ্রান্স কোচ দেশম নতুন করে জানিয়েছেন, এই তারকা ফুটবলারকে যেতে হবে অস্ত্রোপচারের মধ্য দিয়ে। দেশম বলেন, ‘বুধবার (আজ) বেশ কিছু পরীক্ষা করে দেখা হবে ওর কী অবস্থা। এটা দলের জন্য বেশ হতাশার। চিকিৎসকেরা ওকে সুস্থ করে তুলতে সবরকম চেষ্টাই করে যাচ্ছে।’

এমন হতে পারে যে এখন অস্ত্রোপচার লাগছে না, তবুও পরে এমবাপ্পেকে তা করাতে হবে। এতে বোঝা যাচ্ছে নাকের আঘাতে বেশ কাবু হয়েছেন এই ফরাসি স্ট্রাইকার।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ফুটবল

শেষ মুহূর্তের গোলে জয় দিয়ে ইউরো শুরু পর্তুগালের

Published

on

ষষ্ঠ ইউরো খেলতে নেমেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। পর্তুগিজ এই মহাতারকার অভিযান শুরু হলো জয় দিয়েই।  শেষ মুহূর্তের গোলে চেকিয়ার বিপক্ষে জয় দিয়ে ইউরো শুরু করেছে পর্তুগাল।

তবে এই জয়ে খুব একটা আত্মতৃপ্তি পাওয়ার কথা নয় পর্তুগালের।  এবারের ইউরোতে অন্যতম ফেভারিট পর্তুগাল লাইপজিগে প্রথমে পিছিয়ে পরে।  ৬২ মিনিটে লুকাস প্রোভডের দারুণ এক শটে পর্তুগালকে স্তব্ধ করে দেয়।

তবে চেকিয়ার উছ্বাস অবশ্য খুব বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। মিনিট সাতেক পরেই পর্তুগালের নুনো মেন্ডেসের করা হেড ঝাপিয়ে পড়ে ঠেকান চেকিয়ার গোলরক্ষক জিন্দ্রিচ স্টানেক। তবে ফিরতি বল সামনে থাকা ডিফেন্ডার রবিন হ্রানাচের পায়ে লেগে চলে যায় জালে।

নির্ধারিত ৯০ মিনিটের শেষ দিকে দিয়েগো জোতার চেকের জালে বল পাঠালেও রোনালদো অফসাইড থাকায় বাতিল হয়ে যায় সেই গোল। তারপর যোগ হওয়া সময়ে কনসেইসাওয়ের সেই গোল।

 

Advertisement

 

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত