Connect with us

আইন-বিচার

সরকারি কর্মচারীদের গ্রেপ্তারে পূর্বানুমতি : আপিল শুনানি পেছাল

Avatar of অনন্যা চৈতী

Published

on

সহকারী শিক্ষক

ফৌজদারি মামলায় সরকারি কর্মচারীদের গ্রেপ্তারে সরকারের পূর্বানুমতি নেয়ার বিধান বাতিল করে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিলের শুনানির দিন পিছিয়ে আগামী ৬ নভেম্বর দিন ধার্য করেছেন আপিল বিভাগ।

রোববার (৩০ অক্টোবর) আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান ননীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে সময় আবেদন করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন। রিটের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ।

এর আগে ২৩ অক্টোবর প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বে আপিল বিভাগ এই লিভ টু আপিল শুনানি নিষ্পত্তি না পর্যন্ত স্থগিত করেন এবং শুনানির জন্য আজকে দিন ধার্য করেন।

প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন ৫ বিচারপতির পূর্ণাঙ্গ আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন।

Advertisement

গেলো ১ সেপ্টেম্বর সরকারি কর্মচারীদের গ্রেপ্তারে সরকারের পূর্বানুমতি নেয়ার বিধান বাতিল করে হাইকোর্টের রায় ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত স্থগিত করেন আপিল বিভাগ। একইসঙ্গে এই সময়ের মধ্যে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষকে লিভ টু আপিল করতে বলা হয়।

ওই দিন আদালতে রিটের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন।

পরে অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, হাইকোর্টের রায় আপিল বিভাগ স্থগিত করেছেন। এর ফলে সরকারি কর্মচারীদের গ্রেপ্তারে সরকারের পূর্বানুমতি নেয়ার বিধান, সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮ এর ৪১(১) ধারার কার্যকারিতা বহাল থাকবে।

গেলো ২৫ আগস্ট সরকারি কর্মচারীদের গ্রেপ্তারে সরকারের পূর্বানুমতি নেয়ার বিধান বাতিল করেন হাইকোর্ট। আদালত বলেন, সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮ এর ৪১(১) ধারা বেআইনি, সংবিধান পরিপন্থি ও মৌলিক অধিকার পরিপন্থি।

বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের হাইকোর্ট বেঞ্চ সেদিন এ রায় ঘোষণা করেন। পরে এই রায় স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ।

Advertisement

গেলো ২৫ আগস্ট রায়ের পর রায়ের পর আইনজীবী মনজিল মোরসেদ গণমাধ্যমকে বলেছিলেন, আদালত রায়ে সরকারি চাকরি আইন-২০১৮ এর ৪১(১) ধারা বেআইনি, সংবিধান পরিপন্থি, মৌলিক অধিকার পরিপন্থি বলে ঘোষণা করেছেন। আদালত বলেছেন যে, সংবিধানের ২৭ অনুচ্ছেদে আছে, আইনের দৃষ্টিতে সবাই সমান, তা সুনির্দিষ্টভাবে বলা আছে। তারপরও ৪১(১) ধারা করে সেখানে সরকারি কর্মচারীদের আলাদাভাবে একটি সুরক্ষা দেওয়া হয়েছে। তা কোনোভাবেই সংবিধান সম্মত নয়, এ আইনি একটি মেলাফাইড (অসৎ) উদ্দেশ্যে করা হয়েছে।

সরকারি কর্মচারীদের সুরক্ষা দিতে এ আইনের ৪১(১) ধারা সংযোজন করা হয়েছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ রায়ের ফলে তাদের গ্রেপ্তারে পূর্বানুমতির প্রয়োজন নেই।

তিনি বলেন, আদালতকে তারা দেখিয়েছেন এ আইন করার পেছনে একটাই উদ্দেশ্য, সেটা হলো- সরকারি কর্মচারীদের সাধারণ নাগরিক থেকে একটু আলাদা করে তাদের একটি বিশেষ শ্রেণি হিসেবে দেখিয়ে অনেক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা। অপরাধ করলেও যেন তারা অপরাধী হিসেবে শাস্তি না পায়। বিশেষ করে এ আইনের মাধ্যমে দুদকের যে স্বাধীনতা সেটা খর্ব করা হয়েছিল।

২০১৯ সালের ২১ অক্টোবর সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮ এর ৪১(১) ধারা কেন বেআইনি ও বাতিল ঘোষণা করা হবে না এবং সংবিধানের ২৬(১) (২), ২৭ ও ৩১ অনুচ্ছেদের পরিপন্থি ঘোষণা করা হবে না, এ মর্মে রুল জারি করেন হাইকোর্ট।

২০১৮ সালের ১৪ নভেম্বর সরকারি চাকরি আইনের গেজেট জারি হয়। এরপর ২০১৯ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর এক গেজেটে বলা হয় ১ অক্টোবর থেকে এ আইন কার্যকর হবে।

Advertisement

আইনের ৪১ (১) ধারায় বলা হয়েছে, ‘কোনো সরকারি কর্মচারীর দায়িত্ব পালনের সহিত সম্পর্কিত অভিযোগে দায়ের করা ফৌজদারি মামলায় আদালত কর্তৃক অভিযোগপত্র গৃহীত হওয়ার আগে, তাকে গ্রেপ্তার করিতে হইলে, সরকার বা নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের পূর্বানুমতি নিতে হবে।

আইন-বিচার

বেসিক ব্যাংক: ৩ মাসের মধ্যে তদন্ত শেষ না হলে ব্যবস্থা নিবে হাইকোর্ট

Published

on

বেসিক ব্যাংক

আগামী তিন মাসের মধ্যে বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারির মামলাগুলোর তদন্ত কাজ শেষ করতে হবে দুদককে। অন্যথায় দুদকের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও হাইকোর্টের নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়েছে।

এক আসামির জামিন প্রশ্নে জারি করা রুল শুনানিতে মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এমন মন্তব্য করে আদেশ দেন।

এ সময় আদালত আরও বলেন, তদন্ত সঠিক না হলে পৃথিবীর অনেক দেশে তদন্ত কর্মকর্তা পদত্যাগ করেন। দুদককে সঠিকভাবে তার তদন্ত কাজ শেষ করতে হবে।

২০১৫ সালে এই মামলাগুলো করা হয়। কিন্তু তদন্ত কাজ আজও শেষ করতে পারেনি দুদক। এ দীর্ঘ সময়ের কারণে মামলার আলামত নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলেও মনে করেন হাইকোর্ট।

আসামি মোহাম্মদ আলীর জামিন প্রশ্নে জারি করা রুল শুনানিতে এমন মন্তব্য করেন আদালত।

Advertisement

শুনানিতে আসামিপক্ষে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবুল হোসেন ও মো. জোবায়দুর রহমান। দুদকের পক্ষে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আন্না খানম কলী।

 

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

আইন-বিচার

চিত্রনায়িকা শিমু হত্যা: স্বামীসহ দুজনের বিচার শুরু

Published

on

বিশ্বকাপ

চিত্রনায়িকা রাইমা ইসলাম শিমু হত্যা মামলায় স্বামী সাখাওয়াত আলী নোবেল ও তার বন্ধু এস এম ফরহাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। সংশ্লিষ্ট আদালতের বেঞ্চ সহকারী রনি মজুমদার বিষয়টি জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) ঢাকার ৪র্থ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম আসামিদের উপস্থিতিতে এ অভিযোগ গঠন করেন।

সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ২৩ জানুয়ারি দিন ধার্য করা হয়েছে। এর মধ্যদিয়ে এ মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার কাজ শুরু হলো।

চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি সকাল ১০টার দিকে ঢাকার কেরানীগঞ্জ থেকে অজ্ঞাতপরিচয় হিসেবে চিত্রনায়িকা রাইমা ইসলাম শিমুর (৩৫) বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নামপরিচয় না পাওয়ায় ফিঙ্গারপ্রিন্ট নিয়ে নামপরিচয় শনাক্ত করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। পরদিন ১৮ জানুয়ারি কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় শিমুর স্বামী নোবেল ও তার বাল্যবন্ধু এস এম ফরহাদের বিরুদ্ধে মামলা করেন শিমুর ভাই হারুনুর রশীদ।

২০ জানুয়ারি মামলার প্রধান দুই আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। গত ৬ সেপ্টেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কেরানীগঞ্জ মডেল থানার পরিদর্শক শহীদুল ইসলাম উভয়ের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। পরে ১৮ সেপ্টেম্বর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. রাজিব হাসান মামলার নথি ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কাগজপত্র যাচাই-বাছাই শেষে ২ আসামির উপস্থিতিতে অভিযোগ গ্রহণ করেন।

Advertisement

স্বামী ও দুই সন্তানকে নিয়ে রাজধানীর কলাবাগানে থাকতেন শিমু। চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারি সকালে বাসা থেকে বেরিয়ে আর ফেরেননি এই চিত্রনায়িকা । তার মোবাইল ফোনও বন্ধ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় রাতেই কলাবাগান থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। পরদিন (১৭ জানুয়ারি) কেরানীগঞ্জের হযরতপুর ব্রিজের কাছে আলিয়াপুর এলাকায় রাস্তার পাশ থেকে শিমুর বস্তাবন্দি খণ্ডিত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

আইন-বিচার

জিএম কাদেরের দায়িত্ব পালনে নেই বাধা: হাইকোর্ট

Published

on

জিএম কাদের

জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদেরকে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী যে দায়িত্ব পালনে নিষেধাজ্ঞা ছিল সেটি স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। এর ফলে জিএম কাদেরের দায়িত্ব পালনে আর কোনো বাধা রইলো না।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি শেখ আবদুল আউয়ালের একক বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে এদিন জিএম কাদেরের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট শেখ মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম।

মামলায় বলা হয়, জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ২০১৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর মৃত্যুবরণ করেন। এরপর বিবাদী জি এম কাদের হাইকোর্ট বিভাগের একটি রিট মামলা বিচারাধীন থাকার পরও জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে ওই বছর ২৮ ডিসেম্বর কাউন্সিল করে নিজেকে চেয়ারম্যান হিসেবে ঘোষণা করেন।

গেলো ৫ মার্চ গাজীপুর মহানগর কমিটির উপদেষ্টা আতাউর রহমান সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক সবুর শিকদার, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ডা. মো. আজিজকে বহিষ্কার করেন।

Advertisement

গেলো ১৪ সেপ্টেম্বর বাদী মশিউর রহমান রাঙ্গাকে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়। গত ১৭ সেপ্টেম্বর অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধাকেও জাতীয় পার্টি থেকে বহিষ্কার করা হয়, যা অবৈধ— উল্লেখ করা হয় মামলায়।

২০১৯ সালের ২৮ ডিসেম্বরের কাউন্সিলসহ চলতি বছর ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বহিষ্কার আদেশ অবৈধ ঘোষণা করতে এবং হাইকোর্ট বিভাগের রিট ১৫০৫১/২০১৯ নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত জাতীয় পার্টির পরবর্তী কাউন্সিল স্থগিত রাখতে মামলায় আদেশ চাওয়া হয়।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

বিশ্বকাপ বিশ্বকাপ
বাংলাদেশ12 mins ago

বিশ্বকাপসহ টিভিতে যা দেখবেন আজ

ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপে আজ (২৯ নভেম্বর) ‘এ’ গ্রুপে রাত ৯টায় নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি হবে কাতার এবং ইকুয়েডরের প্রতিপক্ষ সেনেগাল। অন্যদিকে ‘বি’...

বিশ্বকাপ বিশ্বকাপ
জাতীয়27 mins ago

জঙ্গি তৎপরতা আর বিএনপির কার্যক্রম এক সূত্রে গাঁথা: তথ্যমন্ত্রী

জঙ্গি তৎপরতা আর বিএনপির কার্যক্রম এক সূত্রে গাঁথা। বলেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। আজ মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সচিবালয়ে...

বিশ্বকাপ বিশ্বকাপ
অপরাধ33 mins ago

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দ্বন্দ্বে বন্ধুকে হত্যা

ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে চাঁদপুরে দশম শ্রেণির ছাত্র মো. বরকত ছুরিকাঘাতে তার বন্ধু মো. মেহেদীকে হত্যা করে। ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার...

বেসিক ব্যাংক বেসিক ব্যাংক
আইন-বিচার37 mins ago

বেসিক ব্যাংক: ৩ মাসের মধ্যে তদন্ত শেষ না হলে ব্যবস্থা নিবে হাইকোর্ট

আগামী তিন মাসের মধ্যে বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারির মামলাগুলোর তদন্ত কাজ শেষ করতে হবে দুদককে। অন্যথায় দুদকের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী...

বিশ্বকাপ বিশ্বকাপ
আইন-বিচার53 mins ago

চিত্রনায়িকা শিমু হত্যা: স্বামীসহ দুজনের বিচার শুরু

চিত্রনায়িকা রাইমা ইসলাম শিমু হত্যা মামলায় স্বামী সাখাওয়াত আলী নোবেল ও তার বন্ধু এস এম ফরহাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন...

সতর্ক সতর্ক
জাতীয়2 hours ago

‘জঙ্গি ও শীর্ষ সন্ত্রাসীদের স্থানান্তরকালে অধিকতর সতর্ক হতে হবে’

কারা অভ্যন্তরে  জঙ্গি, শীর্ষ সন্ত্রাসীরা কোনো ধরনের সমাজ ও রাষ্ট্রবিরোধী তৎপরতা চালাতে না পারে সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। এমনকি...

বিশ্বকাপ বিশ্বকাপ
জাতীয়2 hours ago

টিকিট কেটে চোখের পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী

চোখের চিকিৎসা করাতে সাধারণ রোগীদের মতো ১০ টাকায় টিকিট কাটলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারপর করালেন চোখ পরীক্ষা। মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর)...

বিশ্বকাপ বিশ্বকাপ
অপরাধ2 hours ago

আয়াত হত্যা: ৩ দিনের রিমান্ডে আবীরের মা-বাবা-বোন

চট্টগ্রাম শহরের ইপিজেডে ৫ বছরের শিশু আলীনা ইসলাম আয়াতকে অপহরণের পর হত্যায় অভিযুক্ত আবীরের মা-বাবা ও বোন ৩ দিনের রিমান্ডে...

জিএম কাদের জিএম কাদের
আইন-বিচার3 hours ago

জিএম কাদেরের দায়িত্ব পালনে নেই বাধা: হাইকোর্ট

জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদেরকে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী যে দায়িত্ব পালনে নিষেধাজ্ঞা ছিল সেটি স্থগিত...

হাইকোর্ট হাইকোর্ট
আইন-বিচার3 hours ago

আমাদের লড়াইটা দুর্নীতির বিরুদ্ধে : হাইকোর্ট

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা থেকে দুর্নীতি নির্মূল করাই আমাদের লক্ষ্য। আমাদের লড়াইটা দুর্নীতির বিরুদ্ধে। বলেছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) দুর্নীতি দমন...

Advertisement

আর্কাইভ

বিশ্বকাপ
বাংলাদেশ12 mins ago

বিশ্বকাপসহ টিভিতে যা দেখবেন আজ

ব্রাজিল
ফুটবল19 mins ago

বিছানা ছেড়ে ব্রাজিল ম্যাচে গ্যালারিতে নেইমার!

বিশ্বকাপ
রোগব্যাধি19 mins ago

অবশেষে নতুন নামে এলো মাঙ্কিপক্স

বিশ্বকাপ
আন্তর্জাতিক21 mins ago

৪৫০ কোটি বছর আগে মঙ্গলে ছিল সমুদ্র

বিশ্বকাপ
জাতীয়27 mins ago

জঙ্গি তৎপরতা আর বিএনপির কার্যক্রম এক সূত্রে গাঁথা: তথ্যমন্ত্রী

বিশ্বকাপ
অপরাধ33 mins ago

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দ্বন্দ্বে বন্ধুকে হত্যা

বেসিক ব্যাংক
আইন-বিচার37 mins ago

বেসিক ব্যাংক: ৩ মাসের মধ্যে তদন্ত শেষ না হলে ব্যবস্থা নিবে হাইকোর্ট

বিশ্বকাপ
বিএনপি39 mins ago

সমাবেশে আ. লীগ আগুন দিয়ে বিএনপির ওপর দায় চাপাতে পারে

বিশ্বকাপ
ফুটবল52 mins ago

সৌদি টিমের রোলস-রয়েস উপহার পাওয়ার বিষয়টি গুজব

বিশ্বকাপ
আইন-বিচার53 mins ago

চিত্রনায়িকা শিমু হত্যা: স্বামীসহ দুজনের বিচার শুরু

বিশ্বকাপ
জাতীয়17 hours ago

সরকারকে জ্বালানির মূল্য নির্ধারণে সংশোধনী অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা

বিশ্বকাপ
রংপুর1 day ago

পা দিয়ে লিখে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে সেই মানিক

সতর্ক
আওয়ামী লীগ3 days ago

বিএনপির সম্মেলন নিয়ে অফিসিয়ালি কিছু আসেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিশ্বকাপ
জাতীয়3 days ago

খেতে খেতে চীনের প্রধানমন্ত্রীকে টানেলের প্রস্তাবটা দেই: প্রধানমন্ত্রী

বিশ্বকাপ
জাতীয়4 days ago

ময়দার বস্তায় আটা বিক্রি

বিশ্বকাপ
বলিউড5 days ago

উরফি এবার মদের গ্লাস দিয়ে শরীর ঢাকলেন

বিশ্বকাপ
জাতীয়5 days ago

‘রাজনীতি করতে চাই না, রাজনীতিবীদদের সহযোগিতা চাই’

বিশ্বকাপ
জাতীয়6 days ago

বিশ্বকাপে আমাদের টিম নেই এটা আসলে কষ্ট দেয় : প্রধানমন্ত্রী

হত্যা
অপরাধ6 days ago

প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে নানাকে হত্যা

বিশ্বকাপ
বিএনপি6 days ago

‘আদালত থেকে জঙ্গি ছিনতাই সরকারের নতুন নাটক’

সর্বাধিক পঠিত