Connect with us

পর্যটন

খুলে দেয়া হলো নায়াগ্রার নীচে থাকা শতাব্দী প্রাচীন সুড়ঙ্গ

Avatar of জাকির হোসাইন

Published

on

করোনায়

নায়াগ্রা জলপ্রপাতের নীচে থাকা একটি শতাব্দী প্রাচীন সুড়ঙ্গ আবারও খুলে দেয়া হয়েছে জনসাধারণের জন্য।

নায়াগ্রা জলপ্রপাতের নীচে থাকা এই সুড়ঙ্গটি ৮ মিটার লম্বা, ৬ মিটার চওড়া। সুড়ঙ্গটিতে প্রবেশ করতে হবে কানাডার দিকে জলপ্রপাতের যে অংশটি, তার কাছ দিয়ে। একটি কাচের লিফটে করে পর্যটকদের ওই সুড়ঙ্গের মুখ পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হবে। তার পরে অন্য একটি লিফটে করে সুড়ঙ্গের ১৮০ ফুট ভেতরে নিয়ে যাওয়া হলে একটি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে পৌছবেন তারা। এই সুড়ঙ্গটি আসলে ওই বিদ্যুৎ কেন্দ্রেরই অংশ। ১৯০৫ সালে জলপ্রপাতের কাছে জলশক্তি উৎপাদনের জন্য বিদ্যুৎকেন্দ্রটি বানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কানাডা সরকার। কয়েক হাজার কর্মী প্রায় চার বছর ধরে কাজ করে সেটির নির্মাণকাজ শেষ করেন।

সুড়ঙ্গের শেষে পৌঁছলে আধ কিলোমিটারেরও বেশি দীর্ঘ পথটি হেঁটেই পার হতে হবে পর্যটকদের। তবে মাঝেমধ্যেই বসার জন্য বেঞ্চ থাকবে। সুড়ঙ্গের একদম শেষ প্রান্তে পৌঁছলে, নায়াগ্রা জলপ্রপাত খুবই কাছ থেকে দেখতে পাবেন পর্যটকেরা।

কানাডা সরকার সুড়ঙ্গের শেষে ২০ মিটার দীর্ঘ একটি প্ল্যাটফর্ম বানিয়েছে। যাতে পর্যটকেরা সেখানে দাঁড়িয়ে জলপ্রপাতের দৃশ্য উপভোগ করতে পারেন। একটি লাইট অ্যান্ড সাউন্ড শো-র আয়োজনও করা হয়েছে যেখানে ওই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ইতিহাসের ব্যপারে জানতে পারবেন পর্যটকেরা। রাতের বেলাও সুড়ঙ্গ থেকে নায়াগ্রার শোভা দেখার সুযোগ পাওয়া যাবে

Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক করুন

রিপ্লাই দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আইন-বিচার

হজ করতে ৫৪০০ কিলোমিটার হাঁটছেন পাকিস্তানী যুবক

Avatar of আসাদ ভূঁইয়া

Published

on

করোনায়

গত ১ অক্টোবর থেকে ২৫ বছর বয়সী উসমান আরশাদ ২০২৩ সালের হজে অংশ নেওয়ার জন্য মক্কার উদ্দেশে হাঁটছেন। নিজ শহর পাকিস্তানের পাঞ্জাব জেলার ওকারা থেকে এই যাত্রা শুরু করেন তিনি, প্রায় আট মাসের মধ্যে তিনি গন্তব্যে পৌঁছাবেন বলে আশা করছেন।

প্রতিদিন গড়ে ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার হাঁটছেন আরশাদ। গত বছর ওকারা থেকে পাকিস্তান-চীন সীমান্তের খুঞ্জেরাব পাস পর্যন্ত ৩৪ দিনে ১ হাজার ২৭০ কিলোমিটার হাঁটার পর এবার হজযাত্রা শুরু করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

আরশাদ বলেন, ‘যখন আমি খুঞ্জেরাব থেকে ফিরে আসি, তখন আমি হজের জন্য মক্কার দিকে হেঁটে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। এটি সেই যাত্রা, যা প্রত্যেক মুসলমানের কাম্য। তাই আমি পায়ে হেঁটে এই স্বপ্নের যাত্রা শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারণ, আমি হাঁটতে ভালোবাসি’ বলেন উসমান আরশাদ।

আরশাদ আরো বলেন, খ্যাতি নিয়ে চিন্তিত নন তিনি। তবে পবিত্র শহরের দিকে হেঁটে নিজের ধর্মীয় দায়িত্ব সম্পন্ন করতে চান এবং শান্তি ও শুভেচ্ছার বার্তা ছড়িয়ে দিতে চান আরশাদ। মক্কা যাওয়ার পথে ইরান ও ইরাকের ধর্মীয় স্থানগুলো দেখারও পরিকল্পনা করেছেন তিনি। বিভিন্ন দেশের মধ্য দিয়ে হেঁটে যাওয়ার অর্থ হলো— ‘আমি পথে বিভিন্ন লোকের সঙ্গে দেখা করব এবং ইসলামের প্রকৃত বার্তা প্রচার করব, যা শান্তি ও সম্মানের।’

আরশাদ বলেন, ‘আমার যদি অন্য কিছুর প্রয়োজন হয়, তাহলে আমি তা কিনে নেব। তবে আমি ভারী জিনিস বহন করতে চাই না, যা আমার গতি কমিয়ে দেবে।’ এই যাত্রায় তার প্রায় ১৫ লাখ রুপি খরচ হবে। তিনি এক বছর ধরে তার পরিকল্পনায় কাজ করেছেন এবং ভিসা প্রক্রিয়া দ্রুত করার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানান। এ ছাড়া ইরানে পৌঁছানোর আগে সময়মতো ভিসা পাবেন বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।

Advertisement

ব্যাগের মধ্যে কয়েকটি কাপড়, মোবাইল ফোন, চার্জার ও পাওয়ার ব্যাংক, ছাতা, টর্চ, পানির বোতল এবং ওষুধ নিয়েছেন বলে জানান উসমান আরশাদ।

আরশাদ মিডিয়া কমিউনিকেশনের ছাত্র। তিনি নিজের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের অ্যাকাউন্টে পুরো যাত্রায় প্রতিদিনের ভিডিও-ছবি ও তথ্য প্রকাশ করছেন। এতে তার ৫০ হাজারেরও বেশি অনুসারী রয়েছে।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

ফিচার

বিশ্বের দীর্ঘতম যাত্রীবাহী ট্রেনের যাত্রা

Avatar of তাসনিয়া রহমান

Published

on

করোনায়

সুইজারল্যান্ডে যাত্রা শুরু করলো বিশ্বের দীর্ঘতম যাত্রীবাহী ট্রেন। চলাচল করবে আল্পস পর্বতের গা ঘেঁষে বিখ্যাত আলবুলা-বার্নিনা রুটে। ১ দশমিক ৯ কিলোমিটার দীর্ঘ ট্রেনে আছে ১০০টি কোচ। খবর এপির।

অনন্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরা সুইজারল্যান্ডের আকাবাঁকা পাহাড়ি রাস্তা ধরে চলছে বিশাল ট্রেন। প্রেদা শহর থেকে শুরু হয়েছে যাত্রা। কখনও টানেলের ভেতর দিয়ে, কখনও ব্রিজ পার হয়ে এগিয়ে চলছে গন্তব্য বারগেনের দিকে।

সুইস রেলওয়ের ১৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে রেলওয়ে কোম্পানি রিশেন তৈরি করেছে ১ দশমিক ৯ কিলোমিটারেরে এই ট্রেন। যা রেকর্ড গড়েছে বিশ্বের দীর্ঘতম যাত্রীবাহী ট্রেন হিসেবে। উদ্যোক্তাদের লক্ষ্য ছিল দেশের প্রযুক্তিগত অগ্রগতি তুলে ধরা।

বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি পাওয়া আলবুলা-বার্নিনা রুটে চলাচল করবে এই ট্রেন। প্রেদা থেকে বারগেনে যেতে পার হতে হবে ২২টি টানেল আর ৪৮টি ব্রিজ। ২৫ কিলোমিটারের এই ভ্রমণে সময় লাগবে ঘণ্টাখানেক।

পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

পর্যটন

এই শহরে পর্যটকদের দেয়া হচ্ছে বন্দুক!

Avatar of জাকির হোসাইন

Published

on

করোনায়

ইতালির ভেনিস নগরী। একটি প্রাচীন শহর। সমুদ্রের তীরে গড়ে উঠেছে এই নগরী। অসংখ্য খাল রয়েছে ভেনিসে। এইসব খালে নৌকা দিয়ে ঘুরাঘুরি পর্যটকদের বড় আকর্ষণ। দেখলে মনে হয় শহরের প্রতিটি দালানই যেনো নদীর মধ্যে নিমার্ণ করা হয়েছে। এই পুরনো স্থাপনা দেখতে বছরে লাখ লাখ পর্যটক আসেন এখানে।

তবে ইদানিংকালে পাখির জ্বালায় অতিষ্ঠ পর্যটকেরা। গাঙচিল এসে ছোঁ মেরে থালা থেকে খাবার নিয়ে যাচ্ছে। শুধু খাবার নিয়েই যে সন্তুষ্ট থাকছে, তা নয়। যা পাচ্ছে, তাই ছোঁ মেরে নিয়ে যাচ্ছে তারা। অসুবিধায় পড়ছেন পর্যটকেরা। আর এর থেকে বাঁচতেই পর্যটকদের দেওয়া হচ্ছে জল-বন্দুক। এই ঘটনা ঘটেছে ইতালির ভেনিসে।

পর্যটকদের হাতে জল-বন্দুক তুলে দেয়ার এই সিদ্ধান্ত হঠাৎ করে নেয়া হয়নি। ভেনিসের হোটেলমালিক ও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ রীতিমতো বৈঠক করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যে জল-বন্দুক দেয়া হচ্ছে তাতে কমলা রঙের জল ব্যবহার করা হচ্ছে।

জানা গেছে, গাঙচিলরাও নাকি ইতিমধ্যে বুঝতে পেরেছে তাদের ঠেকানোর জন্য এই জল-বন্দুক ব্যবহার করা হচ্ছে।

এক হোটেল কর্তৃপক্ষ বলেন, গাঙচিল যখনই দেখছে পর্যটকদের হাতে বন্দুক রয়েছে, তখনই দিক পরিবর্তন করছে তারা। তিনি বলেন, এই বন্দুক ব্যবহারেরও প্রয়োজন নেই। শুধু বন্দুকটি হাতের কাছে রাখলেই কাজ হচ্ছে। গাঙচিল আর কাছে ঘেঁষছে না।

Advertisement
পুরো প্রতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

করোনায় করোনায়
করোনা ভাইরাস11 mins ago

দেশে করোনায় শনাক্ত ১৮

সবশেষ হিসাব অনুযায়ী দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গেলো ২৪ ঘণ্টায় কেউ মারা যায় নি। এ সময়ে নতুন করে ১৮ জনের...

জিএম কাদের জিএম কাদের
আইন-বিচার3 hours ago

জি এম কাদের জাপার চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না

গঠনতন্ত্র অনুযায়ী জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদেরের দায়িত্ব পালনে নিষেধাজ্ঞা নিয়ে হাইকোর্টের আদেশ আগামী সোমবার পর্যন্ত স্থগিত...

করোনায় করোনায়
অপরাধ3 hours ago

আয়াতের খণ্ডিত পা দুটি উদ্ধার

চট্টগ্রামের ইপিজেডে ৫ বছরের শিশু আলীনা ইসলাম আয়াতকে হত্যার পর ছয় টুকরা করা শিশু আলিনা ইসলাম আয়াতের খণ্ডিত পা দুটি...

করোনায় করোনায়
জাতীয়3 hours ago

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন সাময়িকভাবে বন্ধ

পদ্মাসেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের আওতায় ঢাকা থেকে গেন্ডারিয়া অংশে ৩টি পৃথক রেল লাইনের নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। কাজটি দ্রুত সম্পন্ন...

করোনায় করোনায়
আইন-বিচার5 hours ago

রাজধানীতে এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, আসামির মৃত্যুদণ্ড

নগরীর বাড্ডায় সাড়ে তিন বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে আসামি শিপনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও ২০ হাজার টাকা...

করোনায় করোনায়
অপরাধ5 hours ago

জঙ্গি ছিনতাইকাণ্ডে আরও এক পুলিশ সদস্য বরখাস্ত

ঢাকার প্রাঙ্গণ থেকে পুলিশের চোখে-মুখে স্প্রে করে প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামিকে ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় পুলিশের আরও এক সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত...

করোনায় করোনায়
জাতীয়5 hours ago

বিএনপির নেতাকর্মীদের স্বাচ্ছন্দের ব্যবস্থা করছে সরকার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

১০ ডিসেম্বরের বিএনপির সমাবেশে খালেদা জিয়া যোগ দিলে আদালত ব্যবস্থা নেবেন। সমাবেশের নামে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নষ্ট করলে ভুল করবে। বিএনপির...

ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট
আইন-বিচার6 hours ago

ইসলামী ব্যাংকের ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ কাণ্ডে যা বললেন হাইকোর্ট

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড (আইবিবিএল) থেকে ভুয়া ঠিকানা ও কাগুজে কোম্পানির নাম ব্যবহার করে কয়েক হাজার কোটি টাকা উত্তোলন এবং...

করোনায় করোনায়
অপরাধ7 hours ago

আয়াত হত্যা: আরও ৭ দিনের রিমান্ডে আবির

চট্টগ্রামের ইপিজেডে ৫ বছরের শিশু আলীনা ইসলাম আয়াতকে অপহরণের পর হত্যায় মামলায় গ্রেপ্তার প্রধান আসামি আবির আলীর আরও ৭ দিনের...

করোনায় করোনায়
অপরাধ7 hours ago

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৩৮

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। অভিযানে মাদক বিক্রি ও...

Advertisement

আর্কাইভ

করোনায়
নিউজ2 mins ago

ডিআরইউর নব-নির্বাচিত সভাপতি নোমানী, সাধারণ সম্পাদক সোহেল

করোনায়
এশিয়া8 mins ago

বাংলাদেশ ভারতের কাছ থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায় : ভার্মা

করোনায়
করোনা ভাইরাস11 mins ago

দেশে করোনায় শনাক্ত ১৮

করোনায়
চাকরির খবর15 mins ago

৪৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

করোনায়
বলিউড38 mins ago

মালাইকা অন্তঃসত্ত্বা, যা বললেন অর্জুন

করোনায়
এশিয়া1 hour ago

চীনের সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াং জেমিনের মৃত্যু

করোনায়
অন্যান্য1 hour ago

সাড়ে ৪৮ হাজার বছরের পুরনো জম্বি ভাইরাস ফিরে এলো

করোনায়
চট্টগ্রাম1 hour ago

বেঙ্গল ইলেকট্রিসিটির বাণিজ্যিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ কাজের উদ্বোধন

করোনায়
চট্টগ্রাম2 hours ago

শিশু ধর্ষণচেষ্টায় বৃদ্ধের ১০ বছরের কারাদণ্ড

কৃতি শ্যানন
বলিউড2 hours ago

প্রেমের গুঞ্জনে সরব হলেন কৃতি শ্যানন

করোনায়
জাতীয়5 hours ago

বিএনপির নেতাকর্মীদের স্বাচ্ছন্দের ব্যবস্থা করছে সরকার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

করোনায়
জাতীয়21 hours ago

সীমান্তে নিরাপত্তায় যৌথ টহল দেবে বিজিবি-বিজিপি

করোনায়
জাতীয়2 days ago

সরকারকে জ্বালানির মূল্য নির্ধারণে সংশোধনী অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা

করোনায়
রংপুর2 days ago

পা দিয়ে লিখে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে সেই মানিক

সতর্ক
আওয়ামী লীগ4 days ago

বিএনপির সম্মেলন নিয়ে অফিসিয়ালি কিছু আসেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

করোনায়
জাতীয়4 days ago

খেতে খেতে চীনের প্রধানমন্ত্রীকে টানেলের প্রস্তাবটা দেই: প্রধানমন্ত্রী

করোনায়
জাতীয়5 days ago

ময়দার বস্তায় আটা বিক্রি

করোনায়
বলিউড6 days ago

উরফি এবার মদের গ্লাস দিয়ে শরীর ঢাকলেন

করোনায়
জাতীয়6 days ago

‘রাজনীতি করতে চাই না, রাজনীতিবীদদের সহযোগিতা চাই’

করোনায়
জাতীয়7 days ago

বিশ্বকাপে আমাদের টিম নেই এটা আসলে কষ্ট দেয় : প্রধানমন্ত্রী

সর্বাধিক পঠিত