Connect with us

জাতীয় পার্টি

সরকারের হাতে টাকাও নেই বিদেশি ডলারও নেই : জিএম কাদের

Avatar of author

Published

on

সরকার স্বীকার করুক আর না করুক, আমরা মনে করি সরকারের হাতে টাকাও নেই বিদেশি ডলারও নেই। বর্তমান পরিস্থিতিতে মানুষ ভালো নেই। সরকার যা করছে তাতে আমরা সন্তুষ্ট নই। বললেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় উপনেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

আজ বুধবার (১ মার্চ) সন্ধ্যায় রংপুর মহানগরীর সেনপাড়ায় প্রয়াত রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের স্কাই ভিউ বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, সরকার যা করছে তাতে আমরা সন্তুষ্ট নই। আমরা দেখছি ট্রাকের পেছনে হাজার হাজার মানুষ কমমূল্যের পণ্য কিনতে ছুটছে। মধ্যবিত্ত ঘরের অনেক ভদ্র মানুষ সেখানে যেতে পারছেন না। দেশের মানুষ কষ্টে আছে, সেই কষ্ট লাঘবে রেশনিং কার্ডের মাধ্যমে পণ্য দেয়া দরকার।

জিএম কাদের বলেন, সরকার স্বীকার করুক আর না করুক, আমরা মনে করি সরকারের হাতে টাকাও নেই বিদেশি ডলারও নেই। অর্থাৎ সরকার এখন অর্থকষ্টে ভুগছে। এ কারণে দিনে দিনে সবকিছুর দাম বাড়িয়ে ঘাটতি পূরণের চেষ্টা চলছে। এতে করে সাধারণ মানুষের ওপর চাপ বাড়ছে।

মানুষকে বাঁচাতে সরকারকে মেগা প্রকল্প বন্ধের আহ্বান জানিয়ে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, আমরা হাজার হাজার কোটি টাকার মেগা প্রকল্প করতে পারি আর দেশের মানুষকে বাঁচাতে কোনো উদ্যোগ নিতে পারব না, এটা হতে পারে না। মানুষ না বাঁচলে দেশের উন্নয়ন করে কী হবে। মেগা প্রকল্প বন্ধ করে মানুষকে বাঁচানোর চেষ্টা করতে হবে। সরকার যদি এখনই ব্যবস্থা না নেয় সামনের দিকে আরও খারাপ দিন আসতে পারে বলে আমরা আশঙ্কা করছি।

Advertisement

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনে প্রস্তুতির কথা জানিয়ে জিএম কাদের বলেন, আমরা ৩০০ আসনে নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। ইভিএমে ভোট জনগণ ভালোভাবে নেয়নি। আমরা সেটা সবসময় বলে আসছি। ইভিএমের নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্ভব নয়। যদিও রংপুর সিটির নির্বাচনে আমাদের প্রার্থী জিতেছি। অনেক স্থানে আমরা জয়ী হয়েছি, কিন্তু সেটি বিষয় না। আমরা চাই একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হোক। ব্যালটের মাধ্যমে হলে নির্বাচন স্বচ্ছ হবে।

জাপা চেয়ারম্যান আরও বলেন, দেশের ৮০ শতাংশ ভোটার নিশ্চিত করতে পারছে না, তারা কোথায় ভোট দেবেন। আমরা সেই ভোটারদের লক্ষ্য করেই কাজ করছি, তাদের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করছি। আমরা মানুষের রাজনীতি বোঝার চেষ্টা করছি। অতীতেও আমরা মানুষের জন্য রাজনীতি করেছি, বর্তমানেও করছি।

এ সময় রংপুর জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি রসিক মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, মহানগরের সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসীর, জেলার সদস্য সচিব হাজী আব্দুর রাজ্জাক, মহানগরের সহসভাপতি লোকমান হোসেনসহ জাতীয় পার্টির বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক রুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন লগিন

রিপ্লাই দিন

জাতীয় পার্টি

কেএনএফ নির্মূলে সরকারকে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জি এম কাদেরের

Avatar of author

Published

on

জিএম কাদের

জনগণের নিরাপত্তা রক্ষা অত্যন্ত জরুরি। ফলে পার্বত্য অঞ্চলে কেএনএফ সন্ত্রাসীদের নির্মূলে সরকারকে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের।

শনিবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন তিনি।

জি এম কাদের বলেন, মানুষের নিরাপত্তায় সরকারের ব্যর্থতায় হতাশা প্রকাশ করেন। এসময় বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের সন্ত্রাসী হামলায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন। পাশাপাশি এ ঘটনার কারণ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান।

তিনি আরও বলেন, ‘কেএনএফ পার্বত্য অঞ্চলে আতঙ্ক তৈরি করেছে। তাদের হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। পর্যটনশিল্পেও এর প্রভাব পড়ছে।’

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাতে তারাবি নামাজের সময় বান্দরবানের রুমা শাখা সোনালী ব্যাংক ও আশপাশের এলাকা ঘিরে ফেলে শতাধিক সশস্ত্র দুর্বৃত্ত। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মসজিদ থেকে ব্যাংক ম্যানেজার নেজাম উদ্দিনকে ধরে নিয়ে ব্যাংকের ভেতরে মারধর করে তারা। পরে তাঁকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ সময় ব্যাংকের নিরাপত্তায় নিয়োজিত ১০ পুলিশ ও ৪ আনসার সদস্যকে নিরস্ত্র করে ৮টি চাইনিজ অটোমেটিক রাইফেল, ২টি এসএমজি, ৪টি শটগান ও ৪১৫ রাউন্ড গুলি ছিনিয়ে নেওয়া হয়। এ সময় ২ পুলিশ সদস্য আহত হন। এ ঘটনার ১৬ ঘণ্টা পর থানচিতে আরও দুটি ব্যাংকে ডাকাতি হয়।

Advertisement

এএম/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয় পার্টি

‘স্বাধীনতার চেতনা নিয়ে ব্যবসা চলছে’

Avatar of author

Published

on

আজ ইতিহাস বিকৃত করা হচ্ছে। কিছু মানুষকে ওপরে ওঠানো হচ্ছে, আবার কিছু মানুষকে মুছে ফেলা হচ্ছে। এটা ঠিক নয়। এমনও দেখা যাচ্ছে বয়স ৫০ হয়নি, অথচ সেও মুক্তিযোদ্ধা। এগুলো কী মুক্তিযুদ্ধের চেতনা? স্বাধীনতার চেতনা নিয়ে ব্যবসা চলছে বলে মন্তব্য করেছেন সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির একাংশের চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টির কার্যালয়ে ‘স্বাধীনতা দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

বিভিন্ন ক্ষেত্রে সরকারের ব্যর্থতার কথা তুলে ধরে জাপা চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেন, দেশকে ডুবিয়ে দিয়ে আপনারা বাঁচতে পারবেন না, মানুষের অভিশাপ লাগবে। দ্রব্যমূল্যে, আগুন কোনো কিছুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না সরকার। কারণ তাদের ক্ষমতা থেকে সরানো যাচ্ছে না, তাই কোনোকিছুর জবাবদিহিতা নেই।

তিনি বলেন, সারাদেশে লুটপাটের রাজনীতি হচ্ছে। এসব বৈষম্যের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করেছিলেন এরশাদ।

জাপা চেয়ারম্যান আরও বলেন, আমরা বৈষম্যমুক্ত দেশ ও সমাজ চাই। বৈষম্য করে দেশকে বিভক্ত করা হয়েছে। আর এসবের কারণে একটা সুবিধাবাদী গোষ্ঠী তৈরি হয়েছে।

Advertisement

জিএম কাদের অভিযোগ করে বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলতে গেলে মামলা হয়। আইন করে বৈধভাবে দাবিয়ে রাখা হয়েছে। যেভাবে আইনকানুন করে বাধা দেয়া হচ্ছে বাংলাদেশে কোনো রাজনৈতিক দল টিকবে না। সরকার ঠিক থাকলেও, দল হিসেবে আওয়ামী লীগের অস্তিত্ব থাকবে না।

এএম/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয় পার্টি

জিএম কাদেরের বিরুদ্ধে শতকোটি টাকার মানহানির অভিযোগ

Avatar of author

Published

on

জিএম কাদের

জাতীয় পার্টি থেকে এরশাদপুত্র রাহগীর আল মাহিকে (সাদ এরশাদ) অব্যাহতি দেয়া জিএম কাদেরকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। দল থেকে অন্যায়ভাবে অব্যাহতি দেয়ার মাধ্যমে শতকোটি টাকার মানহানির অভিযোগ এনে চাচাকে এই নোটিশ পাঠিয়েছেন তার ভাতিজা।

শনিবার (২৩ মার্চ) ডাকযোগে খুলনা জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট এসএম মাসুদুর রহমান এ নোটিশ পাঠান। তিনি গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

লিগ্যাল নোটিশে বলা হয়, সাদ এরশাদ ৯ মার্চ জাতীয় পার্টির জাতীয় কাউন্সিলে কো-চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। সেখানে আপনি রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদকে কথিত অব্যাহতি নাটকপত্র সাজিয়ে মাহমুদ আলমকে দিয়ে স্বাক্ষর করিয়ে বিষয়টি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচার প্রকাশনা করে জনসম্মুখে হেয় প্রতিপন্ন করেছেন। যার ধারাবাহিকতা অদ্যাবধি পর্যন্ত বিদ্যমান রেখেছেন সাবেক চেয়ারম্যান হিসেবে। ওই কর্মকাণ্ড করে, আপনি এরশাদ পুত্র সাদ এরশাদের সামাজিক, রাজনৈতিক ও ব্যক্তি সম্মান নষ্ট করে চলেছেন। এই রকম মানহানিকর সংবাদ প্রচার করে আপনি ১০০ কোটি টাকার মান সম্মানের ক্ষতি সাধন করেছেন। সাথে সাথে পেনাল কোড এর ৪৯৯ ধারা ও মানহানিকর তথ্য প্রকাশ, প্রচার এর জন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে-২০১৮ এর ২৯ (১) (২) ধারার অপরাধ করেছেন।

নোটিশে আরও বলা হয়, কেন আপনার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে না তা লিগ্যাল নোটিশ প্রাপ্তির ১৫ দিনের মধ্যে জানাবেন। আরও জানাবেন আপনি কিভাবে জনবন্ধু হলেন। অন্যথায় যথা আদালতে আপনার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গেলো ২১ মার্চ সাদ এরশাদসহ ১০ সিনিয়র নেতাকে জাতীয় পার্টি থেকে অব্যাহতি দেন জিএম কাদের। এই অব্যাহতিপত্র অবৈধ আখ্যা দিয়ে জিএম কাদেরকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠান জাতীয় পার্টি (রওশন) কো-চেয়ারম্যান সাহিদুর রহমান টেপা।

Advertisement

এএম/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

ক্রিকেট1 hour ago

পা ভাঙ্গার ভয়ে ২-৩ বছর বুমরাহ’র বল খেলেননি সূর্যকুমার!

‘জাসপ্রিত বুমরাহকে নিজেদের দলে পাওয়া সবসময়ই দারুণ। আর গত দুই-তিন বছরে নেটে কখনই আমি তার বল মোকাবিলা করিনি। কারণ সে...

ফায়ার-সার্ভিস ফায়ার-সার্ভিস
জাতীয়2 hours ago

নিয়ন্ত্রণে এসেছে বাড্ডার আগুন

নিয়ন্ত্রণে এসেছে রাজধানীর বাড্ডার সাঁতারকুল ইয়াসিন নগরে গ্যারেজে লাগা আগুন। ফায়ার সার্ভিসের আধা ঘণ্টার চেষ্টায় শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দুপুর পৌনে...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা3 hours ago

এবার বাড্ডায় আগুন

রাজধানীর বাড্ডায় একটি গ্যারেজে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে যাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এর...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা5 hours ago

হাজারীবাগে বস্তিতে আগুন

রাজধানীর হাজারীবাগ বেড়িবাঁধ এলাকায় একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৭টি ইউনিট। শুক্রবার (১২ এপ্রিল)...

বার্ণ ইউনিট বার্ণ ইউনিট
দুর্ঘটনা7 hours ago

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নারী-শিশুসহ দগ্ধ ৬

রাজধানীর মিরপুরের ভাসানটেকে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নারী-শিশুসহ ৬ জন দগ্ধ হয়েছেন। দগ্ধরা হলেন, মেহরুন্নেছা (৬৫), সূর্য বানু (৩০), লিজা(১৮), লামিয়া...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা7 hours ago

এস আলমের অয়েল মিলে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৪ ইউনিট

চট্টগ্রামে মইজ্জারটেক এলাকায় অবস্থিত এস আলম এডিবল অয়েল মিলে আগুন লেগেছে। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) সকাল ৮টা ২০ মিনিটের দিকে আগুনের...

জাতীয়20 hours ago

সম্প্রীতির বন্ধনকে যেন আরও দৃঢ় করতে পারি :পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা আমাদের দেশে যে সম্প্রীতি আছে, সেই সম্প্রীতির বন্ধনকে যেন আরও দৃঢ় করতে পারি। একই সঙ্গে আমাদের...

দুর্ঘটনা21 hours ago

ঈদের দিন মোটরসাইকেল কেড়ে নিলো ৮ প্রাণ

ঈদের আনন্দে মোটর সাইকেল নিয়ে ঘুরতে বেড়িয়ে সড়কে প্রাণ গেলো ৮ জনের। পঞ্চগড়, নেত্রকোনা, ও খাগড়াছড়ি জেলায়  মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার নিহতের...

দেশজুড়ে22 hours ago

ঈদে বিজিবি-বিএসএফ মিষ্টি বিনিময়

পবিত্র ঈদুল ফিতরের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে দিনাজপুরের হিলি সীমান্তে বিজিবি ও ভারতীয় সীমান্ত রক্ষীবাহিনী (বিএসএফ) একে অপরকে মিষ্টি উপহার...

গণভবনে-প্রধানমন্ত্রী গণভবনে-প্রধানমন্ত্রী
জাতীয়1 day ago

আওয়ামী লীগ নিতে নয় জনগণকে দিতে এসেছে: প্রধানমন্ত্রী

আওয়ামী লীগ নিতে আসেনি মানুষকে দিতে এসেছে। তাদের জন্য অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থানের ব্যবস্থা করা আওয়ামী লীগের অঙ্গীকার। বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ...

Advertisement
সিলেট1 min ago

গরুর জন্য ঘাস কাটা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৪০

পর্যটন2 mins ago

বান্দরবানের তিন উপজেলায় ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা

লঞ্চের-দড়ি-ছিড়ে-মৃত্যু
ঢাকা32 mins ago

লঞ্চের দড়ি ছিড়ে মৃত্যু: আসামিদের ৩ দিনের রিমান্ড

দেশজুড়ে1 hour ago

ঘুমন্ত অবস্থায় আগুনে পুড়ে শিশু নিহত

বৈসাবি-উৎসব
চট্টগ্রাম1 hour ago

পাহাড়জুড়ে বাজছে বৈসাবির সুর

ক্রিকেট1 hour ago

পা ভাঙ্গার ভয়ে ২-৩ বছর বুমরাহ’র বল খেলেননি সূর্যকুমার!

ডলার
অর্থনীতি1 hour ago

রেমিট্যান্সে চাঙ্গা ভাব, বেড়েছে রিজার্ভ

আন্তর্জাতিক1 hour ago

ইসরাইলে কর্মরত নাগরিকদের সতর্ক করলো যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য

আন্তর্জাতিক2 hours ago

সংসদের ভেতরে বিউটি পার্লার চান নারী এমপিরা!

স্বাস্থ্য2 hours ago

ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ভাতা বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন

সৌদি আরব
আন্তর্জাতিক5 days ago

সৌদি আরবে ঈদ কবে- যা জানা গেলো

জনদুর্ভোগ5 days ago

ঢাকাকে আলোকিত করতে গ্রামের বিদ্যুৎ ছিনিয়ে নেয়া হচ্ছে

সৌদি আরব
আন্তর্জাতিক4 days ago

সৌদিতে ঈদ বুধবার

আন্তর্জাতিক2 days ago

বিড়াল বাঁচাতে গিয়ে একই পরিবারের ৫ জন নিহত

সেনাবাহিনী প্রধান
বাংলাদেশ5 days ago

বিচ্ছিন্নতাবাদীদের দমনে কম্বিং অপারেশন শুরু: সেনাপ্রধান

টুকিটাকি6 days ago

মহাকাশে তারার বিস্ফোরণ, জীবনে দেখা যাবে একবারই

আন্তর্জাতিক4 days ago

ঈদের তারিখ জানালো অস্ট্রেলিয়া

বিএনপি4 days ago

ব্যারিস্টার খোকনকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত পাঠানো হয়েছে লন্ডনে

আন্তর্জাতিক5 days ago

৬ মাসে হামাসকে কতটুকু ধ্বংস করতে পেরেছে ইসরায়েল

চাঁদপুর,-তরুণীর-লাশ
চট্টগ্রাম5 days ago

প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে এসে লাশ হলেন তরুণী

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসিনা
জাতীয়2 weeks ago

গায়ের চাদর না পুড়িয়ে বউদের ভারতীয় শাড়ি পোড়ান: প্রধানমন্ত্রী

ফুটবল3 weeks ago

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ব্রাজিল কোচ জানালেন এটা মাত্র শুরু

টুকিটাকি3 weeks ago

জিলাপির প্যাঁচে লুকিয়ে আছে যে রহস্য!

অর্থনীতি4 weeks ago

বাজারে লেবুর সরবরাহ বেশি, তবুও দাম চড়া

রেশমা
বাংলাদেশ1 month ago

রাজধানীতে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার কিশোরীর ঠিকানা খুঁজছে পুলিশ

হলিউড1 month ago

নীল দুনিয়ায় অভিনেত্রী সোফিয়ার রহস্যজনক মৃত্যু

ফুটবল1 month ago

জামালকে ঠিকঠাক বেতন দেয়নি আর্জেন্টাইন ক্লাব

টুকিটাকি1 month ago

রণবীরের ‘অ্যানিম্যাল’ দেখে শখ, মাইনাস ২৫ ডিগ্রিতে বসলো বিয়ের আসর

অর্থনীতি1 month ago

গরুর মাংসের দাম কেজি প্রতি পৌনে ৬ লাখ টাকা!

অপরাধ2 months ago

ডিবিতে যে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

সর্বাধিক পঠিত