Connect with us

এশিয়া

বিয়ের দাবিতে ১০০ কিমি পদযাত্রা শেষে মন্দিরে প্রার্থনা!

Avatar of author

Published

on

বিয়ের জন্য পদযাত্রা

বিয়ের বয়সও গেছে পার হয়ে আবার মিলছে না যোগ্য পাত্রীর সন্ধান। এলাকায় পুরুষের অনুপাতে মেয়েদের সংখ্যও কমছে ক্রমশই। অবস্থা বেগতিক দেখে শেষ পর্যন্ত ব্রহ্মচারিগাল নামে একটি পদযাত্রায় নেমেছে একদল পাত্র। প্রায় একশ কিলোমিটার পথ পদযাত্রা করে একটি মন্দিরে গিয়ে প্রার্থনা করেছে যাতে করে তাদের ভাগ্যে বউ জোটে। সম্প্রতি এমনই এক ঘটনা হইচই ফেলেছে দক্ষিণ ভারতের কর্নাটকে।

শনিবার (১১ মার্চ) আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা বিবিসি’র এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কয়েক দশক ধরেই কর্নাটকে নারী পুরুষের অনুপাতের পার্থক্য বেড়েই চলেছিলো এবং যে কারণে অনেক পুরুষই বিয়ের করার জন্য পাত্রী খুঁজে পায় না। এছাড়া অনেকে আয় কম থাকা কিংবা নারীদের মধ্যে ভিন্ন গোত্রে পছন্দ করার ঘটনার কারণেও পাত্রী সংকট তৈরি হয়েছে। শুরুতে ৩০ জন অংশগ্রহণকারী থাকলেও পরে তা ৬০ জনের সঙ্গে শেষ হয়। দলটির বেশিরভাগ কর্নাটকের মান্ডা জেলার কৃষক ছিলেন।

প্রচারকারীরা বলছেন, এর কারণে অনেক পুরুষের বিয়ে করা কঠিন হয়ে গেছে। এ ছাড়া খামারের আয় কমে যাওয়া, নারীদের ক্ষেত্রে পছন্দ নিজ গোত্র থেকে অন্য গোত্রের দিকে যাওয়া এমনকি তাদের পুরুষবিদ্বেষী মনোভাবের কারণেও বিয়ে করতে সমস্যা দেখা দিচ্ছে।

পদযাত্রায় অংশগ্রহণকারী মালেশা ডিপি বিবিসিকে বলেন, গেলো কয়েক বছরে প্রায় ৩০ জন মহিলা তাকে প্রত্যাখ্যান করেছেন। যখন আমার প্রেমে পড়া উচিত ছিল, আমি কাজে ব্যস্ত ছিলাম। আমি অর্থ উপার্জন করেছি।

Advertisement

তিনি আরও বলেন, এখন যেহেতু আমার জীবনের সব কিছু আছে আমি বিয়ে করার জন্য একটি পাত্রী খুঁজে পাচ্ছি না। আমার বয়স মাত্র ৩৩। কিন্তু মনে হচ্ছে ইতোমধ্যে এলাকায় বিয়ের জন্য আদর্শ বয়স পার করে ফেলেছি আমি।

মালেশা আরও যোগ করেন, আমাদের পরিবারের মহিলাদের গবাদিপশু এবং একটি বড় পরিবারের যত্ন নিতে হবে না। এমনকি তার নববধূকে চারজনেরও কম সদস্যের একটি পরিবারের জন্য রান্না করতে হবে। পদযাত্রার পর প্রতিবেশী রাজ্য অন্ধ্রপ্রদেশ এবং কেরালার মতো কৃষকদের কাছ থেকে মালেশা বার্তা পেয়েছেন, তারা ভাবছেন অংশগ্রহণকারীরা এখন তাদের ভাগ্যের পরিবর্তনের আশা রাখতে পারে।

তিনি আরও বলেন, এটি ছিল খুবই কঠিন পথচলা। আমরা প্রার্থনা করেছিলাম যেন আমরা সবাই শিগগিরই বিয়ে করতে পারি।

পদযাত্রার অন্যতম আয়োজক শিবপ্রসাদ কেএম বলেন, যখন তারা পদযাত্রার জন্য প্রথম ঘোষণা করেছিল তখন ২০০ জনেরও বেশি পুরুষ অংশ নেয়ার জন্য নিবন্ধন করেছিল। কিন্তু রাজ্যের স্থানীয় মিডিয়া আমাদের কেসটি নেতিবাচকভাবে উপস্থাপন করার কারণে অনেকেই পিছিয়ে পড়েন।

তিনি আরও বলেন, আমাদের এলাকায় জমির পরিমাণ কম এবং উপার্জন খুব বেশি নয়। তাই কৃষি ছাড়া যাদের ব্যবসার মতো অন্য আয়ের উৎস আছে, তারা পাত্রী পেতে কিছুটা এগিয়ে রয়েছেন।

Advertisement

স্থানীয় এক কর্মী নাগরেভাক্কা বলেন, এখনো আশপাশের বাচ্চাদের স্কুলে আপনি দেখতে পাবেন ২০ জন মেয়ের মধ্যে প্রায় ৮০ জন ছেলে আছে।

আরও একজন অংশগ্রহণকারী কৃষ্ণা (৩১) বলেন, মান্ডা একটি উর্বর ভালো সেচযুক্ত অঞ্চল। এখানে আখ প্রধান ফসলগুলোর মধ্যে একটি। কিন্তু সম্প্রতি খামারের আয় কমে যাওয়ায় এ পেশাটিকে মর্যাদাহীন করে তুলেছে। পাত্রীর পরিবারের লোকেরা মনে করেন, কৃষক পরিবারের যুবকদের আয় অনিশ্চিত।

জয়শীলা প্রকাশ, যিনি মূলত মান্ডিয়ার বাসিন্দা কিন্তু এখন তার পরিবারের সঙ্গে বেঙ্গালুরের শহরে থাকেন। তিনি বলেছেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে গ্রামে থাকতে পছন্দ করি। কারণ এটি প্রকৃতির কাছাকাছি এবং মানুষের সঙ্গে বন্ধন তৈরি করা সহজ। কিন্তু মহিলারা পছন্দ করেন শহুরে এলাকায় চলে যাওয়া। যেন তারা আরও স্বাধীনভাবে চলতে পারেন।

 

 

Advertisement
Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক রুন

Warning: Undefined variable $user_ID in /home/bayanno.com/public_html/wp-content/themes/zox-news-github/comments.php on line 49

মন্তব্য করতে লগিন করুন লগিন

রিপ্লাই দিন

আর্কাইভ

শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯ 

জাতীয়

পোস্তগোলা-সেতু পোস্তগোলা-সেতু
জনদুর্ভোগ57 seconds ago

৩য় দিনের মতো যান চলাচল বন্ধ পোস্তগোলা সেতুতে

সংস্কার কাজ শুরু হওয়ার ৩য় দিনের মতো রাজধানীর পোস্তগোলা সেতুর ওপর দিয়ে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। রাজধানীতে প্রবেশে ও বের...

সড়ক দুর্ঘটনা সড়ক দুর্ঘটনা
ঢাকা4 mins ago

রাজধানীতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ৩

রাজধানীর দক্ষিণখানের আসিয়ান সিটি এলাকায় মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তিনজন নিহত হয়েছেন। নিহত তিনজন একই মোটরসাইকেলে ছিলেন। শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) রাত...

জাতীয়22 mins ago

৭৫ এর পর ক্ষমতা জনগণের হাতে নয়, ক্যান্টনমেন্টে বন্দি হয় : প্রধানমন্ত্রী

পঁচাত্তরের পর ক্ষমতা জনগণের হাতে নয়, ক্যান্টনমেন্টে বন্দি হয়ে যায়। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক...

মাদকবিরোধী মাদকবিরোধী
অপরাধ54 mins ago

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৫

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। অভিযানে মাদক বিক্রি ও...

সড়ক দুর্ঘটনা সড়ক দুর্ঘটনা
দুর্ঘটনা3 hours ago

বাস-কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে ২ গাড়িচালক নিহত

নরসিংদীর পলাশে যাত্রীবাহী বাস এনা পরিবহনের সঙ্গে মালবাহী কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই গাড়িচালক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও ৬ জন...

আফরিন আফরিন
জাতীয়3 hours ago

আজ ঢাকা আসছেন মার্কিন উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আফরিন

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আফরিন আক্তার ঢাকা সফরে আসছেন আজ। দু’দেশের সম্পর্ক এগিয়ে নেয়ার বিষয়ে আলোচনা করতে...

অপরাধ14 hours ago

মসজিদে নববীর ইমাম পরিচয়ে প্রতারণা, ১৯ জনকে গ্রেপ্তার সিআইডির

সৌদি আরবের পবিত্র মসজিদে নববীর ইমামের পরিচয়ে প্রতারণা করা একটি চক্রের ১৯ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।...

জাতীয়14 hours ago

‘স্বাস্থ্যসেবার পরিধি গ্রাম পর্যায়ে পৌঁছাতে কাজ করছি’

স্বাস্থ্যসেবা শুধু শহর কেন্দ্রিক নয়, এর পরিধি একেবারে গ্রাম পর্যায়ে পৌঁছে দিতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও সেটাই চান। আমরা স্বাস্থ্যসেবার...

জাতীয়14 hours ago

‘আর কোনো রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেয়া সম্ভব নয়’

বাংলাদেশ ১২ লাখের বেশি রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়েছে। প্রতি বছর ৩৫ হাজার নতুন রোহিঙ্গা শিশু জন্মগ্রহণ করে। আমাদের পক্ষে আর কোনো...

জাতীয়15 hours ago

‘অবৈধ মজুতদাররা বিএনপির দোসর’

অবৈধভাবে পণ্য মজুত করে যারা সংকট তৈরি করে তারা দেশের শত্রু ও বিএনপির দোসর। তারা শেখ হাসিনাকে উৎখাত করতে চায়।...

Advertisement
পোস্তগোলা-সেতু
জনদুর্ভোগ57 seconds ago

৩য় দিনের মতো যান চলাচল বন্ধ পোস্তগোলা সেতুতে

সড়ক দুর্ঘটনা
ঢাকা4 mins ago

রাজধানীতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ৩

আওয়ামী লীগ15 mins ago

‘পাঁচ বছরে ৯ বার বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে বিএনপি’

জাতীয়22 mins ago

৭৫ এর পর ক্ষমতা জনগণের হাতে নয়, ক্যান্টনমেন্টে বন্দি হয় : প্রধানমন্ত্রী

বৃষ্টি
আবহাওয়া44 mins ago

দেশের চার বিভাগে বৃষ্টির আভাস

মাদারীপুরে-ইন্দোনেশিয়ার-মেয়ে
ঢাকা44 mins ago

প্রেমের টানে মাদারীপুরে ইন্দোনেশীয় তরুণী

মাদকবিরোধী
অপরাধ54 mins ago

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৫

রোজকার-ডায়েট
লাইফস্টাইল59 mins ago

মধ্যবয়সে পৌঁছতেই পরিবর্তন আনুন রোজকার ডায়েটে

পিটিআই
আন্তর্জাতিক1 hour ago

ফলাফল চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে ইমরানের পিটিআই

মিমি-চক্রবর্তী
টলিউড2 hours ago

সংসদ থেকে পদত্যাগ নিয়ে যা বললেন অভিনেত্রী মিমি

অপরাধ6 days ago

ডিবিতে যে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

ব্যারিস্টার-সৈয়দ-সায়েদুল-হক-সুমন
আওয়ামী লীগ2 weeks ago

‘আমি ফেসবুকের এমপি ঠিকই, ফসল হিসেবে তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী’

ওবায়দুল-কাদের
জাতীয়3 weeks ago

বাংলাদেশ কারো সঙ্গেই যুদ্ধে জড়াতে চায় না : কাদের

এশিয়া4 weeks ago

হামাসের ৮০ ভাগ টানেল অক্ষত, ঘুম হারাম ইসরায়েলের!

মঈন-খান
বিএনপি1 month ago

প্রতিহিংসার রাজনীতির শিকার হয়েছিলেন কোকো: মঈন খান

ফিচার2 months ago

শেখ হাসিনা-খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার করেও ঠেকানো যায়নি যে নির্বাচন (ভিডিও)

প্রধানমন্ত্রী.-সাকিব-আল-হাসান
আওয়ামী লীগ2 months ago

এইবারও ইলেকশনে ছক্কা মেরে দিও: সাকিবকে প্রধানমন্ত্রী

৭ম-জাতীয়-নির্বাচন
জাতীয়2 months ago

‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে প্রথম নির্বাচন’

জাতীয়2 months ago

৫ম জাতীয় নির্বাচন: প্রথমবারের মতো নারী প্রধানমন্ত্রী পায় বাংলাদেশ

জাতীয়2 months ago

তৃতীয় জাতীয় সংসদ যে কারণে ভেঙে দিতে বাধ্য হন এরশাদ

সর্বাধিক পঠিত