Connect with us

এশিয়া

একই মণ্ডপে দুই প্রেমিকার গলায় মালা দিলেন যুবক!

Avatar of author

Published

on

দুই প্রেমিকাকে একই সঙ্গে বিয়ে

দু’জনের প্রতিই প্রগাঢ় ভালবাসা। জীবন কাটাতে চান দু’জনের সঙ্গেই। আর তাই একই মণ্ডপে দুই প্রেমিকার গলায় মালা দিলেন এক যুবক। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ভারতের তেলঙ্গানায়।

তেলঙ্গানার বাসিন্দা ওই যুবকের নাম মাথিভি সাথীবাবু। দুই প্রেমিকার সম্মতিতেই এ ঘটনা সম্ভব হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সাথীবাবুর দুই প্রেমিকার নাম স্বপ্না এবং সুনীতা। স্বপ্না আর সাথীবাবুর বেশ অনেক বছরের প্রেম। দুই বাড়ির সদস্যরা এ সম্পর্কের কথা জানতেন। তাদের বিয়েও ঠিক হয়ে গিয়েছিল। বছর খানেক আগে সুনীতার সঙ্গে আলাপ হয় সাথীবাবুর। প্রথম দেখাতেই সুনীতাকে মনে ধরে তার। স্বপ্নার কথা ভেবে বেশ কিছু দিন সেই অনুভূতি চেপে রেখেছিলেন। ধীরে ধীরে সুনীতার সঙ্গে প্রায়ই দেখা হতে থাকে। তিনি যে সুনীতাকে ভালবেসে ফেলেছিলেন, তা বেশ বুঝতে পারছিলেন। তবে একটা সম্পর্কে থাকাকালীন অন্য কাউকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়া যায় কি না, তা নিয়ে মনে একটা অস্বস্তি কাজ করছিল।

সুনীতাকে ভাল লাগলেও কখনও স্বপ্নার সঙ্গে বিচ্ছেদের কথা মনে আসেনি তার। তবে দোটানা কাটিয়ে তিনি সুনীতার কাছে তার অনুভূতির কথা প্রকাশ করেন। সেই সঙ্গে তিনি যে ইতিমধ্যে একটা সম্পর্কে রয়েছেন, সেটাও জানান সুনীতাকে। সাথীবাবুর আগের সম্পর্ক নিয়ে সুনীতার কোনও সমস্যা ছিল না। তবে সাথীবাবু অন্য সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন শুনে প্রথমে বেশ ভেঙে পড়েছিলেন স্বপ্না। পরে সাথীবাবু তাকে জানান, দু’জনের সঙ্গেই সুখে সংসার করতে চান তিনি। একই দিনে দু’জনের সঙ্গে নতুন জীবন শুরু করতে চান। স্বপ্না সাথীবাবুর এ সিদ্ধান্ত প্রথমে মানতে চাননি। পরে রাজি হন। দুই পাত্রীর বাড়ির লোকের পূর্ণ সম্মতিতে এবং সকলের উপস্থিতিতে এক হয় ছয় হাত।

Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক রুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন লগিন

রিপ্লাই দিন

এশিয়া

সৌদিতে চালু হলো চালক বিহীন উড়ন্ত ট্যাক্সি

Published

on

এবারের হজে যাত্রীদের পরিবহনে চালক বিহীন উড়ন্ত ট্যাক্সির উদ্বোধন করেছে সৌদি আরব। পবিত্র নগরী মক্কায় যাত্রীদের পরিসেবায় এই ইলেকট্রিক উড়ন্ত ট্যাক্সি ব্যবহৃত হবে। এর মাধ্যমে জরুরি ভিত্তিতে মেডিকেল উপকরণ সরবরাহ করা হবে। এছাড়া পাঠানো হবে পণ্য।

দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের (এসপিএ) প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) আরব নিউজের প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

সৌদির ট্রান্সপোর্ট ও লজিস্টিক সার্ভিসেস মন্ত্রী সালেহ বিন নাসের আল-জাসের বলেন, বিশ্বে এই প্রথম এ ধরনের উড়ন্ত ট্যাক্সির লাইসেন্স দিয়েছে সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ।

বুধবার (১২ জুন) এ যানটি উদ্বোধন করা হয়। এটি উদ্বোধনের সময় সিভিল এভিয়েশনের জেনারেল প্রেসিডেন্ট আব্দুল আজিজ আল দুয়াইলেজ, ট্রান্সপোর্ট ও লজিস্টিক সার্ভিসেস মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী রুমিয়াহ আল-রুমিসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তারা চালকবিহীন উড়ন্ত ট্যাক্সির উড্ডয়ন প্রত্যক্ষ করেন।

Advertisement

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মন্ত্রী সালে বিন নাসের আল জাসের বলেন, আগামী দিনের যোগাযোগের যানবাহন উদ্বোধন করা হলো। এটি পরিবেশ বান্ধব এবং এতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা যুক্ত করা হয়েছে।

নতুন এই যানবাহন উদ্বোধনের ফলে যাত্রী পরিবহনে সময় কমবে। এছাড়া জরুরি প্রয়োজনে মেডিকেল সুবিধা এবং পণ্য সরবরাহ করা যাবে। এ বছর হজ যাত্রীদের সেবায় প্রযুক্তি সম্বলিত ৩২ সুবিধা যুক্ত করার মধ্যে এই এয়ার ট্যাক্সি অন্যতম।

টিআর/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

এশিয়া

জম্মু-কাশ্মীরে সেনা ঘাঁটিতে হামলা, পাঁচ সেনাসহ আহত ৬

Published

on

ভারতের জম্মু ও কাশ্মীরের দোদারের একটি সেনা ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছে বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। এতে পাঁচ সেনা ও একজন বিশেষ পুলিশ কর্মকর্তা (এসপিও) আহত হয়েছেন।

বুধবার (১২ জুন) রাতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির দেয়া প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

এডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, এই নিয়ে গত তিনদিনে কাশ্মীরে তিনবার সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়েছে। তিন দিন আগে রিয়াসিতে তীর্থযাত্রীদের বহনকারী একটি বাসে গুলি চালায় সন্ত্রাসবাদীরা। ওই সময় বাসচালক নিয়ন্ত্রণ হারালে বাসটি একটি গিরিখাদে পড়ে যায়। এতে ৯ জন নিহত হন, যাদের সবাই তীর্থযাত্রী ছিলেন। আর দোদারে হামলার কয়েক ঘণ্টা আগে কাথুয়ায় বিচ্ছিন্নতাবাদীদের হামলায় একজন নিহত ও দুইজন আহত হন।

জম্মু জোনের পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিচালক আনন্দ জৈন, দোদার চত্তরগোলার সেনা ঘাঁটিতে গভীর রাতে পুলিশ এবং রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের একটি যৌথ দলের ওপর গুলি ছোড়ে বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। এরপর নিরাপত্তা বাহিনী এবং বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যে গোলাগুলি শুরু হয়।

টিআর/

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

এশিয়া

ঘরের টাকা চুরি করায় ছেলেকে হত্যা করলেন মা

Published

on

মাত্র ৯ বছর বয়সেই মায়ের অবাধ্য হয়েছে সন্তান। পড়াশোনা ঠিকমতো করে না আবার ঘর থেকে করে টাকা চুরি। মায়ের অশান্তির কারণ হয়ে ওঠায় নিজের সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করলেন মা। এ ঘটনায় ওই মা কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১১ জুন) ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য ত্রিপুরার আগরতলায় ঘটনাটি ঘতে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, অভিযুক্ত ওই নারীর নাম সুপ্রভা বাল। তিনি তার এই ছেলের সঙ্গে একাই থাকতেন। অভিযুক্ত সুপ্রভা তার দায় স্বীকার করেছেন এবং হত্যাকাণ্ডের  পর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে তাকে তার ছেলের মরদেহের কাছে বসে থাকতে দেখে।

পুলিশ জানায়, ওই নারী একটি নির্মাণ সাইটে দিনমজুর হিসেবে কাজ করেন। তার স্বামী নিখোঁজ এবং তার মেয়েও বিবাহিত। আর তাই তিনি নিজের ছেলের সঙ্গেই থাকতেন এবং তাকে লালন-পালন করতেন।

অপরাধ স্বীকার করে ওই নারী বলেন, ছেলের এসব কর্মকাণ্ডের কারণে তিনি কাজ করতে যেতে পারতেন না বা শান্তিতে থাকতেও পারতেন না। তাই তিনি তাঁর সন্তানকে হত্যা করেছেন এবং এর জন্য জেলে যেতেও তিনি প্রস্তুত।

Advertisement

প্রসঙ্গত, পুলিশ তার বাড়ি থেকে এক টুকরো দড়ি এবং একটি বাঁশের লাঠি উদ্ধার করেছে যেগুলো হত্যায় ব্যবহৃত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আই/এ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত