Connect with us

ক্রিকেট

আইপিএলে নিজের ভবিষ্যত ডিসেম্বরে জানাবেন ধোনি

Avatar of author

Published

on

আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের সঙ্গে মহেন্দ্র সিং ধোনির সম্পর্ক শুরু সেই ২০০৮ সাল থেকে। এরপর হয়ে উঠেছেন দলের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। মাঝে ম্যাচ ফিক্সিং-সংক্রান্ত ঘটনায় চেন্নাই দুই মৌসুমের জন্য আইপিএল থেকে নিষিদ্ধ হয়েছিল। সেই সময় ধোনি খেলেছেন রাইজিং পুনে সুপার জায়ান্টসের হয়ে। চেন্নাই আইপিএলে ফিরলে ধোনিও আবার ফেরেন চেন্নাইয়ের জার্সিতে।

গত মৌসুমের শুরুতে চেন্নাইয়ের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিয়েছিলেন ধোনি। তবে ধোনির নেতৃত্বের অভাব হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছিল চেন্নাই সুপার কিংস। সেবার পয়েন্ট তালিকায় ৯ নম্বরে থেকে আসর শেষ করেছিল চারবারের চ্যাম্পিয়ন সিএসকে ফ্রাঞ্চাইজি।

তবে চলতি মৌসুমে ধোনির নেতৃত্বে আবারও ঘুরে দাঁড়িয়েছে চেন্নাই। প্রথম কোয়ালিফায়ারে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন গুজরাট টাইটান্সকে ১৫ রানে হারিয়ে ১৬ আসরের মধ্যে ১০ বারই ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে চেন্নাই।

এদিকে এবারের আইপিএল মৌসুম শুরুর আগে থেকেই ধোনির বিদায়ের সুরটা যেন ভেসে বেড়াচ্ছিল। বেশ কয়েকটি ম্যাচে প্রতিপক্ষের মাঠে ধোনিকে তো রীতিমতো বিদায় সংবর্ধনাই দেওয়া হয়েছে।

তবে ধোনি নিজে জানিয়েছেন, এটাই তার শেষ আইপিএল কি না, সে ব্যাপারে আগামী ডিসেম্বরে আইপিএলের নিলাম শুরুর আগে সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি।

Advertisement

গুজরাটের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে টেলিভিশন ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলে ধোনিকে জিজ্ঞাসা করেন, চেন্নাইয়ে তিনি শেষ ম্যাচটি খেলে ফেললেন কি না! তার উত্তর, ‘আমি ঠিক জানি না। আমার হাতে এখনো সাত-আট মাস আছে সিদ্ধান্ত নেওয়ার।’

তাহলে নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তটা ধোনি কবে নেবেন? চেন্নাই অধিনায়ক বলেছেন, ‘ডিসেম্বরে আইপিএলের একটা ছোট নিলাম হবে। তাই এখনই এসব নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছি না। আমার হাতে নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার যথেষ্ট সময় আছে।’

Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক রুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন লগিন

রিপ্লাই দিন

ক্রিকেট

সেপ্টেম্বরে ভারত সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল

Published

on

২০১৯ সালের পর বাংলাদেশ দল আবারও ভারত সফর করতে যাচ্ছে। আগামী সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসে ২ টি টেস্ট, ৩ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে দুই দল। ভারতীয় দলের নতুন মৌসুম শুরু হচ্ছে বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার মাধ্যমে। আজ (বৃহস্পতিবার) ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই সূচি প্রকাশ করেছে।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে ১৯ সেপ্টেম্বর প্রথম টেস্ট ম্যাচটি খেলবে বাংলাদেশ ও ভারত। চেন্নাইয়ের এম চিদাম্বরম স্টেডিয়াম এই ম্যাচের ভেন্যু। দ্বিতীয় টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে কানপুরে, ২৭ সেপ্টেম্বর।

দুই দল ৬, ৯ ও ১৯ অক্টোবর ৩ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে। এই ম্যাচ তিনটির ভেন্যু হিসেবে থাকছে ধর্মশালা, দিল্লি ও হায়দ্রাবাদ।

 

এম/এইচ

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ক্রিকেট

পাকিস্তানের নির্বাচক প্যানেলে আবারও পরিবর্তনের আভাস

Published

on

বিশ্বকাপে আবারও বাজে পারফরম্যান্স, পাকিস্তানের আবারও ম্যানেজমেন্টে বদল! এই চিত্র যেন এখন খুব পরিচিত। চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব পেরোতে পারেনি পাকিস্তান দল। আর তাতেই নতুন করে আলোচনা উঠছে নির্বাচক প্যানেল নিয়ে। পরিবর্তন হতে পারে পাকিস্তানের ৭ সদস্যের নির্বাচক প্যানেল।

ওয়াহাব রিয়াজকে প্রধান নির্বাচক করে পাকিস্তানের নির্বাচক প্যানেল কাজ করে যাচ্ছিল। ওয়াহাবকে তার জায়াগায় রাখছে না পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। এখন পর্যন্ত এতটুকু জানা গেছে ক্রিকেট-ভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘ক্রিকইনফো’র বরাতে।

এদিকে বাবর আজমের অধিনায়কত্ব নিয়েও নতুন করে আলোচনা উঠছে। যে বাবর ওডিআই বিশ্বকাপের পর নেতৃত্ব ছেড়েছেন, আবার নতুন করে তাকে নেতৃত্ব দেওয়া হয়েছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে। বোর্ড অবশ্য বাবরকে নিয়ে এখনই নতুন কিছু ভাবছেন না।

 

এম/এইচ

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ক্রিকেট

ভারতের সাবেক পেসার ডেভিড জনসনের মৃত্যু!

Published

on

ভারতের সাবেক ফাস্ট বোলার ডেভিড জনসন মারা গেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫২ বছর। তার এই মৃত্যু নিয়ে কিছুটা ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। ভারতীয় বেশ কিছু গণমাধ্যম দাবি করছে, ব্যালকনি থেকে নিচে পড়ে মৃত্যু ঘটেছে তার। তিনি তার সময়ে গতি দিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটে বেশ পরিচিত ছিলেন।

ঘরোয়া ক্রিকেটে কর্নাটকের হয়ে পারফরম্যান্সের মাধ্যমে ভারতীয় দলে সুযোগ হয় জনসনের। ঘরোয়া ক্রিকেটেই মূলত উজ্জ্বল ছিলেন তিনি। জাতীয় দলে মাত্র ২ টি টেস্ট খেলার সুযোগ হয়েছিল। ১৯৯৫-৯৬ রঞ্জি ট্রফিতে ১৫২ রান দিয়ে ১০ উইকেট সংগ্রহ করেন এই বোলার।

দিল্লিতে ১৯৯৬ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় জনসনের। দক্ষিণ আফ্রিকতেও সফর করেছিলেন তিনি। সুযোগ হয়েছিল একটি ম্যাচ খেলার। এই ম্যাচে ৩ উইকেট সংগ্রহ করেন তিনি। মূলত বোলিংয়ে নিয়ন্ত্রণের অভাব ছিল বলে জানা যায়। ফলে জাতীয় দলে আর সেভাবে সুযোগ হয়নি জনসনের।

Advertisement

প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ৩৯ ম্যাচ খেলে ১২৫ টি উইকেট সংগ্রহ করেন তিনি। যেখানে তার গড় ছিল ২৮৬৩ এবং স্ট্রাইক রেট ছিল ৪৭ ৪। লোয়ার অর্ডার ব্যাটার হিসেবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে একটি সেঞ্চুরিও আছে তার।

Advertisement

জনসন ৩৩ টি লিস্ট এ ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে উইকেট সংগ্রহ করেছেন ৪১ টি। ২০১৫ সালে কর্নাটক প্রিমিয়ার লিগে সর্বশেষ ম্যাচটি খেলেছেন এই ফাস্ট বোলার। জনসনের মৃত্যুতে ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট ভারতীয় ব্যক্তিবর্গ শোক জানিয়েছেন।

 

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত