Connect with us

বিনোদন

একবার শাড়ি পরিয়েই আয় করেন লাখ টাকা

Avatar of author

Published

on

ডলি জৈন

তার আঙুলের ছোঁয়ায় নাকি সাধারণ শাড়িরও ভোল পাল্টে যায়! আর এভাবে শুধু শাড়ি পরিয়েই লাখ লাখ টাকা উপার্জন করেন কলকাতার গৃহবধূ ডলি জৈন।

যে ১২ হাত কাপড় সকাল-বিকাল অঙ্গে জড়ান মেয়েরা, ডলি সেই শাড়িই পরাতে কম করে ৩৫ হাজার টাকা নেন। স্টাইল যত বাড়ে, বাড়তে থাকে পরিষেবার মূল্যও। শাড়ি পরানোর বিনিময়ে দুই লাখ টাকা পর্যন্ত নেন ডলি।

ডলি জৈন

ডলির আঙুলের ছোঁয়ায় নাকি সাধারণ শাড়িও ভোল পাল্টে ফেলে! এমনই বিশ্বাস ফ্যাশন দুনিয়ায়। বলিউড তারকারা তাই ইদানীং নামি ব্র্যান্ডের ‘কুতুর’ গাউন ছেড়ে শাড়ি হাতে শরণাপন্ন হন ডলির।

দিন কয়েক আগে প্যারিসের কান চলচ্চিত্র উৎসবে শাড়ি পরে হাজির হয়েছিলেন বলিউডের নতুন প্রজন্মের অভিনেত্রী সারা আলি খান। ভারতীয় ডিজাইনার আবু জানি এবং সন্দীপ খোসলার হাতে তৈরি সরু পাড় সাদা শাড়িটি তাকে কানের রেড কার্পেটের জন্য পরিয়ে দিয়েছিলেন এই ডলিই। এর আগেও কানে দীপিকা পাড়ুকোনকে রেড কার্পেটের জন্য শাড়ি পরিয়েছিলেন ডলি।

এ ছাড়া কিয়ারা আদভানি ও সিদ্ধার্থ মালহোত্রা, প্রিয়াংকা চোপড়া, দীপিকা পাড়ুকান, আলিয়া ভাট, ক্যাটরিনা কাইফ, নয়নতারাকেও তাদের বিয়ের দিনে শাড়ি পরিয়েছিলেন ডলিই।

Advertisement

ডলি জৈন

ডলির নিয়মিত খদ্দেরদের তালিকা তারকাখচিত। শাহিদ কাপুরের স্ত্রী মীরা থেকে শুরু করে নীতা আম্বানি, নীতু সিংহ, কারিশমা কাপুরকেও বহুবার সাজিয়েছেন ডলি।

ভারতীয় ধনকুবের মুকেশ আম্বানির কন্যা ইশা আম্বানিকে বিয়ের শাড়ি পরিয়েছেন ডলি। শাড়ি পরিয়েছিলেন মুকেশের পুত্রবধূ শ্লোক মেহতা ও হবু পুত্রবধূ রাধিকা মার্চেন্টের বাগদানের অনুষ্ঠানেও। আবার ভারতীয় ক্রিকেটার হার্দিক পাণ্ডিয়ার বিয়েতে তার স্ত্রী নাতাশাকেও শাড়ি পরানোর জন্য ডাক পড়েছিল ডলির।

এ ছাড়া গত বছর মেট গালায় আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল সেরাম ইনস্টিটিউটের কর্ণধার ভারতীয় শিল্পপতি আদর পুনাওয়ালার স্ত্রী নাতাশা পুনাওয়ালাকে। মেট গালার জন্য নাতাশাকে পরিয়েছিলেন কলকাতার ডলি।

ডলি জৈন

ডলি অবশ্য নিজের পরিচয় দেন ‘ড্রেপিং আর্টিস্ট’ হিসাবে। ডলির দাবি— তিনি ১২ হাতের একটি কাপড়কে ৩৬০ রকম স্টাইলে পরাতে পারেন।

 

Advertisement
Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক রুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন লগিন

রিপ্লাই দিন

বিনোদন

১০০ কোটির মানহানির মামলা করলেন রাভিনা ট্যান্ডন

Published

on

বলিউড অভিনেত্রী রাভিনা ট্যান্ডন। ফাইল ছবি

বলিউড অভিনেত্রী রাভিনা ট্যান্ডনকে হেনস্তা করার  একটি ভিডিও কয়েকদিন আগে সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছিল।  ওই ভিডিওর নেপথ্যের ঘটনা নিয়ে সম্প্রতি মুখও খুলেছিলেন বলিউড ডিভা। আর এবার সেই কাণ্ডে নেটিজেনের বিরুদ্ধে ১০০ কোটির মানহানির মামলা করলেন রাভিনা ট্যান্ডন। যে ব্যক্তি রাভিনার ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন, তার নামেই মামলা ঠুকলেন অভিনেত্রী।

সম্প্রতি বান্দ্রার রাস্তায় রাভিনার গাড়ি পার্কিং নিয়ে একেবারে ধুন্ধুমার কাণ্ড ঘটে যায়। বলি ডিভার গাড়ি থামিয়ে তাঁর উপর চড়াও হন তিন জন মহিলা। তাদের অভিযোগ,  রাভিনা ট্যান্ডনের গাড়ির ধাক্কায় নাকি তাঁদের মধ্যে এক মহিলার রক্তপাত হয়েছে। তার জেরেই বচসা বাঁধে দু’পক্ষর। এদিন রাতে ঝামেলা শুরু হওয়ার পরই রাভিনা ট্যান্ডন গাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন। এদিকে অভিনেত্রীকে দেখেও ওই মহিলারা প্রায় রুদ্রমূর্তি ধারণ করেন। তখনই বাক-বিতণ্ডা শুরু হয়। রাভিনার দিকে তেড়ে যান তাঁরা। ভয় পেয়ে রাভিনা খানিক পিছিয়ে গিয়ে  কাতরভাবে আর্জি জানাতে থাকেন, “ধাক্কা দেবেন না দয়া করে, আমাকে মারবেন না।’ এই ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছাড়িয়ে দিলে মুহূর্তেই  ভাইরাল হয়ে যায়।

রাভিনার পরনে ছিলো সাদামাটা পোশাক। মেকআপের লেশমাত্র নেই! সেখানেই জনৈক মহিলাকে অভিনেত্রীর উদ্দেশে বলতে শোনা যায়, “দেখুন আমার নাক থেকে রক্ত বেরচ্ছে। আজকের রাতটা জেলেই কাটাতে হবে আপনাকে।”

রাভিনা ট্যান্ডনের বিরুদ্ধে মাতাল হওয়ার অভিযোগ এনে ওই ব্যক্তি বলেছিলেন, যে রাভিনা গাড়ি থেকে নামার সঙ্গে সঙ্গে মহিলাদের উপর হামলা শুরু করেছিলেন।

বেশ কয়েকদিন এই ঘটনায় একেবারে জেরবার হয়ে গিয়েছিলেন বলিউডের মস্ত মস্ত গার্ল রাভিনা ট্যান্ডন। ওই দিন রাভিনাকে যথেষ্ট হেনস্থা করা হয়। বিনা কারণে তাঁকে দোষী সাব্যস্ত করার চেষ্টা করা হয়। তারকা তকমা নিয়ে রবিনা যা ইচ্ছে তই করছেন এমন অপবাদও দেওয়া হয়। ঘটনার জেরে থানায় ছুটে যান রাভিনার স্বামী  জনপ্রিয় ফিল্ম ডিস্ট্রিবিউটর অনিল থাড়ানিও।

Advertisement

তবে খার থানার এক কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে বলেছেন, সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করা হয়েছে, কেউ গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা খায়নি এবং অভিনেত্রীও মত্ত অবস্থায় ছিলেন না। বরং ঘটনার ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর মুম্বাই  পুলিশের এই বিবৃতিটি শেয়ার করেছেন। ওই সময় রাভিনা ট্যান্ডন মানুষকে শান্ত থাকার অনুরোধ করেছেন এবং ‘আমাকে মারবেন না’ বলতেও শোনা যায়।

অবশেষে নির্দোষ প্রমাণিত হন রাভিনা ট্যান্ডন। আর নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করার পর প্রতিশোধ নিতে ওই নেটিজেনের বিরুদ্ধে ঠুকে দেন ১০০ কোটির মানহানি মামলা।  তবে মামলার বিষয়ে এখনও পর্যন্ত ওই ব্যক্তির কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

এমআর//

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ঢালিউড

খোলামেলা শাড়িতে ফের উত্তাপ ছড়ালেন রুনা খান

Published

on

ছবি অভিনেত্রী রুনা খানের ফেসবুক থেকে নেওয়া।

বর্তমান প্রজন্মের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রুনা খান। অসংখ্য নাটকে অভিনয় করে মন জয় করেছেন দর্শকদের। পাকাপোক্ত অবস্থান গড়েছেন শোবিজ ক্যারিয়ারে। তবে দিন দিন যেন বয়স কমছে রুনা খানের। ৪১ বছর বয়সে এসেও  রূপের দ্যুতি ছড়াচ্ছেন এই অভিনেত্রী।

গত বছর ওজন কমিয়ে ভক্ত অনুরাগীদের তাক লাগিয়ে দেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেত্রী। তবে অভিনয়ের বাইরে মাঝেমধ্যেই চমকে দেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগের পাতায় হাজির হন নতুনরূপে। কখনো ওজন কমানো আবার কখনো খোলামেলা পোশাকে ধরা দেন ৪১ বছর বয়সী এই অভিনেত্রী। তার একটি চমৎকার দিক হলো, যেকোনো লুকে তিনি নজর কাড়েন। এবার ফের ভক্তদের চমকে দিলেন রুনা।

শুক্রবার(১৪ জুন) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশকিছু ছবি পোস্ট করেছেন এ অভিনেত্রী। যেখানে ভক্ত-অনুরাগীদের মাঝে বেশ খোলামেলা ভাবে ধরা দিয়েছেন। রুনা খানকে ক্রিম কালারের মসলিন শাড়িতে উষ্ণতা ছড়াতে দেখা গেলো।কুরুশকাঁটার স্লিভলেস ব্লাউজে নিজেকে অন্যভাবে সাজিয়েছেন এ অভিনেত্রী।

আকর্ষণীয় শাড়িটিতে পুঁতি দিয়ে কারুকাজ করা হয়েছে। হালকা লো-মেকাপ লুকে খোলা চুলে রুনা খান ভক্ত-অনুরাগীদের মাঝে আলাদাভাবে নজর কেড়েছে।

অভিনেত্রীর কপালে রয়েছে ছোট্ট সাদা টিপ। এদিকে ব্লাউজের সঙ্গে ম্যাচিং করে কানে পরেছে দুল। ঠোঁটে রয়েছে হালকা গোলাপি রঙের লিপস্টিক। চোখের চাহনি ও উষ্ণ হাসি যেন অনুরাগীদের ঘায়েল করে ফেলবে।

Advertisement

সত্যিই তাই হয়েছে। মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। রুনা খানের সাহসী এই ছবিগুলোতে বিভিন্ন মন্তব্য করেছেন অনুসারীরা।

নজরকাড়া এই লুক নিয়ে ছোট পর্দার অভিনেত্রী রিমু রোজা খোন্দকার ছবির পোস্টে লিখেছেন, ‘আপনার অভিনয় তো Mashallah সেটা নিয়ে কোন সন্দেহ কারো নাই। কিন্তু আপনার এই transformation যে উদাহরণ তৈরী করেছেন body fitness নিয়ে “ কেউ না কেউ যেন আপনাকে নিয়ে এবং প্রধান নায়িকা হবেন আপনি ছবি বানাক,হোক সেটা দেশে বা বিদেশে”   জয়া আহসান আপুর মতো আপনাকেও সফল নায়িকা হিসাবে বড় পর্দায় দেখতে চাই।

শেখ শফিক নামে আরেকজন লিখেছেন, ‘নিজেকে এত সুন্দর রাখার জন্য নিশ্চয়ই অনেক কষ্ট হইছে।’ সঞ্জয় কান্ত নামে একজন লিখেছেন, ওগো রুনা বিবি…… ফেইসবুক খুললেই শুধু তোমার ছবি!

টেলিভিশন নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে শোবিজ অঙ্গনে পথচলা রুনা খানের।  ‘হালদা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও বাচসাস পুরস্কার পেয়েছেন।

এছাড়া, তিনি গহীন ‘বালুচর’ ও ‘ছিটকিনি’ ছবিতে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন। ছিটকিনি ছবিতে রুনা খান শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেত্রীর জন্য মেরিল-প্রথম আলো সমালোচক পুরস্কার পান।

Advertisement

এমআর//

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ঢালিউড

অভিনেতা জীবন ও শিমুল শর্মাকে আইনি নোটিশ

Published

on

অভিনয়শিল্পী শরাফ আহমেদ জীবন ও শিমুল শর্মা। সংগৃহীত ছবি

সম্প্রতি কোমলপানীয় ব্র্যান্ড কোকাকোলার একটি ‘বিতর্কিত’ বিজ্ঞাপন নিয়ে সমালোচনার ঝড় যেন থামছেই না। এবার এই ইস্যুতে অভিনয়শিল্পী শরাফ আহমেদ জীবন ও শিমুল শর্মাকে  লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন ময়মনসিংহের এক আইনজীবী।শুক্রবার (১৪ জুন) রাতে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানোর বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন এম. আহসান উদ্দিন নামে ওই আইনজীবি।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) দুপুরে ময়মনসিংহের বলাশপুর এলাকার বাসিন্দা সাকিব আহমেদ তুহিনের পক্ষে রেজিস্ট্রি ডাকযোগে এই আইনি নোটিশ পাঠানো হয়।

অভিনেতা শরাফ আহমেদ জীবন ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার লাউটিয়া গ্রামের বাসিন্দা আবুল হোসাইন ও আমেনা আক্তার দম্পতির ছেলে। তবে নোটিশে শিমুল শর্মার পারিবারিক পরিচয় অজ্ঞাত উল্লেখ করা হয়েছে।

আইনজীবী যা বললেন:

নোটিশে আইনজীবী বলেছেন,  ‘কোকাকোলার বিতর্কিত বিজ্ঞাপনে অংশ নিয়ে অভিনেতা শরাফ আহমেদ জীবন ও শিমুল শর্মা বাংলাদেশের সাধারণ জনগণের অনুভূতিতে আঘাত দিয়েছেন। সেই সঙ্গে তারা আর্থিকভাবে লাভবান হয়ে মানবতা বিরোধীদের পক্ষাবলম্বন করেছেন। এমন পরিস্থিতিতে দেশের আইনশৃঙ্খলা অবনতি হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এই অবস্থায় আগামী সাত (৭) দিনের মধ্যে অভিনেতা শরাফ আহমেদ জীবন ও শিমুল শর্মাকে সংবাদ সম্মেলন করে এই বিষয়ে গ্রহণযোগ্য ব্যাখ্য দিতে হবে। অন্যথায় কেন তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে না—তাও জানাতে হবে।’

Advertisement

নোটিশ দাতা যা বলেলেন:

নোটিশ দাতা সাকিব আহমেদ তুহিন বলেন, ‘শান্তিকামী ফিলিস্তিনের নিরীহ মানুষের ওপর ইসরায়েলের বর্বর হামলার প্রতিবাদে গত ৬ মে সারা দেশে একযোগে ফিলিস্তিনের পক্ষে পতাকা উত্তোলন করে সমর্থন ব্যক্ত করেছেন। এ কারণে বাংলাদেশের সাধারণ জনগণ ফিলিস্তিনের পক্ষে সহমর্মী হয়ে ইসরায়েলের সমর্থন পুষ্ট ও স্বার্থ সংশ্লিষ্ট কোমলপানীয় কোকাকোলা পণ্য বয়কট করেছে। এতে কোকাকোলা বিক্রি তলানিতে নেমে আসে। এমন পরিস্থিতিতে কোকাকোলার ৬০ সেকেন্ডের একটি প্রমোশনাল ভিডিও তৈরি করে স্যোস্যাল মিডিয়াসহ ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রচার করা হয়।’

বিজ্ঞাপনে কী ছিল:

কোমলপানীয় ব্র্যান্ড কোকাকোলার ওই বিজ্ঞাপনে শেষ সংলাপ ছিল- ‘একটা চুমুক দেন, তারপর সার্চ দেন’। অর্থাৎ গুজবে কান না দিয়ে দেখুন কোকাকোলা কোন দেশের প্রতিষ্ঠান। অথচ বাজার গবেষক নাদিয়া তাবাসসুম আল জাজিরাকে বলেছেন- গাজায় কোকাকোলার কারখানার বিষয়টি বিজ্ঞাপনে সঠিকভাবে উপস্থাপন করা হয়নি। এর মাধ‍্যমে ফিলিস্তিনের মানুষকে অপমান করা হয়েছে। এমন দাবি নোটিশ দাতার।

বিজ্ঞাপনটিতে যা দেখানো হয়েছে:

Advertisement

কোকাকোলার ওই  বিজ্ঞাপনটিতে দেখানো হয়, কোককে সবাই যে দেশের পণ্য মনে করছে, আসলে সেই দেশের পণ্য নয় কোকাকোলা। মানুষ সঠিক তথ্য না জেনেই এটি বয়কটের ডাক দিয়েছে। ১৯০টি দেশের মানুষ কোক খায়। এমনকি ফিলিস্তিনে কোকাকোলার ফ্যাক্টরি রয়েছে। তাই বিভ্রান্ত না হয়ে গুগলে সার্চ দিয়ে নিশ্চিত হওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে বিজ্ঞাপনটিতে।

সমালোচনার ঝড়ে বিজ্ঞাপনের অভিনেতারা:

কোকাকোলার এই বিজ্ঞাপনটি প্রচারের পরই তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন এতে অভিনয় করা শরাফ আহমেদ জীবন ও শিমুল শর্মা। সমালোচনার ঝড়ের  মধ্যেই নিজেদের অবস্থান তুলে ধরে সামাজিকমাধ্যমে বিবৃতি দিয়েছেন তারা।

অভিনেতা-নির্মাতা জীবন লিখেছেন, ‘বিজ্ঞাপনটি প্রচার হবার পর থেকে আমি আপনাদের অনেক মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করছি এবং আপনাদের প্রতি সম্মান জানিয়ে আমি আবারো বলতে চাই কাজটি শুধুই আমার পেশাগত জীবনের একটি অংশমাত্র। ব্যক্তিগত জীবনে আমি সবসময় মানবাধিকার বিরোধী যেকোনো আগ্রাসনের বিপক্ষে দাঁড়িয়েছি এবং আপনাদের অনুভূতি ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকেছি। এখানে আমি কোথাও ইসরায়েলের পক্ষ নিইনি এবং আমি কখনোই ইসরায়েলের পক্ষে নই। আমার হৃদয় সবসময় ন্যায়ের পক্ষে এবং মানবতার পাশে আছে, থাকবে।’

এমআর//

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত