Connect with us

ঢাকা

সদস্যদের কেউ বিদ্রোহ করলে গুলি করে হত্যা করতো জামাতুল আনসার : র‌্যাব

Avatar of author

Published

on

শাস্তিস্বরূপ

জামাতুল আনসারের মাহমুদের নির্দেশনায় ‘কেএনএফ’ প্রধান নাথান বমকে রাজধানীর বাসাবো এলাকায় সংগঠনের অর্থায়নে একটি বাসা ভাড়া করে দেয়া হয় যেখানে নাথাম বম পরিবারসহ মাঝে মধ্যে অবস্থান করত। তার নির্দেশনায় ‘কেএনএফ’ থেকে ১৭ লাখ টাকার বিভিন্ন ধরণের ভারী অস্ত্র ও বিদেশি অগ্নেয়াস্ত্র ক্রয় করা হয় যা প্রশিক্ষণের উদ্দেশ্যে ব্যবহৃত হচ্ছিল। দেশের বিভিন্নস্থানে আনসার হাউজ তৈরি এবং পরিচালিত হতো। ভুল ঝুঝিয়ে কিছু সদস্যকে পার্বত্য অঞ্চলে প্রশিক্ষণে নিয়ে যায় এবং প্রশিক্ষণ চলাকালীন তারা প্রশিক্ষণ করতে অসম্মতি জানায় ও পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে আমীর মাহমুদের নির্দেশনায় তাদেরকে শাস্তিস্বরূপ নিজস্ব তৈরী জেলখানায় বন্দি করে রাখা হয়। পরবর্তীতে প্রশিক্ষণরত সদস্যদের কেউ পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে বা বিদ্রোহ করলে গুলি করে হত্যা করার ঘোষণা দেয় গ্রেপ্তারকৃত মাহমুদ।

আজ সোমবার (২৪ জুলাই) দুপুরে কাওরান বাজারে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব সদর দপ্তরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ তথ্য জানান। জামাতুল আনসার ফীল হিন্দাল শারক্বীয়ার আমির মো. আনিসুর রহমান ওরফে মাহমুদসহ সংগঠনের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে এ সংবাদ সম্মেলন করে র‌্যাব।

গ্রেপ্তাররা হলো, মোঃ আনিসুর রহমান(৩২), কাজী সারাজ উদ্দিন (৩৪) এবং মাহফুজুর রহমান বিজয় (২৮)।

তিনি বিলেন, আনিসুর রহমান মাহমুদ ‘জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বীয়া’র আমীর ছিলেন। তিনি মাদ্রাসা হতে দাওরায়ে হাদিস সম্পন্ন করে কুমিল্লা সদর দক্ষিণের একটি সিএনজি রিফুয়েলিং পাম্পে ম্যানেজার হিসেবে চাকুরি করতেন। তিনি ইতোপূর্বে হুজি’র সদস্য ছিলেন। পরবর্তীতে তার সঙ্গে কুমিল্লার একটি রেস্টুরেন্টে আনসার আল ইসলামের রক্সি ও ফেলানীর সঙ্গে পরিচয় হয়। পরবর্তীতে তারা যাত্রাবাড়ীতে একটি মিটিং করে নতুন একটি সংগঠন তৈরি ও বিস্তারের পরিকল্পনা করে ‘জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বীয়া’র কার্যক্রম শুরু করে। তিনি কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় উক্ত সংগঠনের দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালনা করতে থাকেন। সে ২০১৬ সাল পরবর্তী বিভিন্ন সময় বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির বিভিন্ন মসজিদে গিয়ে সংগঠনের দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালনা করতেন।

কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, ২০২০ সালে বান্দরবানের গহীন এলাকায় প্রশিক্ষণের উদ্দেশ্যে গমন করেন। বান্দরবানে আসলাম নামক এক ব্যক্তির নিকট প্রায় এক মাস সামরিক বিভিন্ন কৌশল, অস্ত্র চালনা, প্রতিকূল পরিবেশে টিকে থাকা সহ বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। তিনি কুমিল্লার প্রতাপপুরে তার বাড়িসহ জমি এক ব্যক্তির নিকট ৫০ লাখ টাকায় বিক্রি করে দেন এবং তিনি জমি বিক্রির কিছু টাকা সংগঠনে প্রদান করেন। অবশিষ্ট টাকা দিয়ে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে সাড়ে তিন বিঘা জমি ক্রয় করে ওই বছরই সেখানে পরিবার নিয়ে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করে এবং পোল্ট্রি ফার্ম, চাষাবাদ ও গবাদি পশুর খামার পরিচালনা করতেন।

Advertisement

তিনি বলেন,  ‘জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বীয়া’র পূর্বের আমীর ছিল মাইনুল ইসলাম রক্সি। ২০২১ সালে রক্সি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক গ্রেপ্তার হলে সংগঠনের অন্যান্য সূরা সদস্য ও সদস্যদের সিদ্ধান্তে মাহমুদ’কে আমীর হিসেবে নির্বাচন করা হয়। পার্বত্য অঞ্চলে অবস্থানের সময় তার সঙ্গে ‘কেএনএফ’ সদস্যদের পরিচয় হয় এবং ‘কেএনএফ’ প্রধান নাথান বম ও সেকেন্ড ইন কমান্ড বাংচুং এর সঙ্গে সুসম্পর্ক তৈরি হয়। পরবর্তীতে ২০২১ সালে ‘কেএনএফ’ এর ছত্রছায়ায় বান্দরবানের গহীন পাহাড়ে জামাতুল আনসারের সদস্যদের সশস্ত্র প্রশিক্ষণ প্রদানের বিষয়ে তাদের মধ্যে চুক্তি হয়। চুক্তি অনুযায়ী কেএনএফ ২০২৩ সাল পর্যন্ত জামাতুল আনসারের সদস্যদের সশস্ত্র প্রশিক্ষণ প্রদান করবে এবং প্রতিমাসে ‘কেএনএফ’ সদস্যদের প্রশিক্ষণ ও খাবার খরচ বাবদ ৩-৪ লাখ টাকা বহন করা হতো। সংগ্রহকৃত অর্থ দিয়ে পার্বত্য অঞ্চলে প্রশিক্ষণের খরচ ও সারাদেশে অন্যান্য সাংগঠনিক কাজের জন্য অর্থ প্রদান করা হতো।

এছাড়াও, তার নির্দেশনায় ‘কেএনএফ’ থেকে ১৭ লাখ টাকার বিভিন্ন ধরণের ভারী অস্ত্র ও বিদেশি অগ্নেয়াস্ত্র ক্রয় করা হয় যা প্রশিক্ষণের উদ্দেশ্যে ব্যবহৃত হচ্ছিল। আমীর মাহমুদের নির্দেশনায় ‘কেএনএফ’ প্রধান নাথান বম’কে রাজধানীর বাসাবো এলাকায় সংগঠনের অর্থায়নে একটি বাসা ভাড়া করে দেয়া হয় যেখানে নাথাম বম পরিবারসহ মাঝে মধ্যে অবস্থান করত। তার নির্দেশে দেশের বিভিন্নস্থানে আনসার হাউজ তৈরি এবং পরিচালিত হতো। ভুল ঝুঝিয়ে কিছু সদস্যকে পার্বত্য অঞ্চলে প্রশিক্ষণে নিয়ে যায় এবং প্রশিক্ষণ চলাকালীন তারা প্রশিক্ষণ করতে অসম্মতি জানায় ও পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে আমীর মাহমুদের নির্দেশনায় তাদেরকে শাস্তিস্বরূপ নিজস্ব তৈরী জেলখানায় বন্দি করে রাখা হয়। পরবর্তীতে প্রশিক্ষণরত সদস্যদের কেউ পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে বা বিদ্রোহ করলে গুলি করে হত্যা করার ঘোষণা দেয় গ্রেপ্তারকৃত মাহমুদ।

তিনি আরও বলেন, আমীর মাহমুদের সঙ্গে আনসার আল ইসলামের নেতাদের সুসর্ম্পক ছিল। শীর্ষ জঙ্গি মেজর জিয়ার সঙ্গে তার বেশ কয়েকবার দেখা হয়েছিল। ২০২২ সালে কিশোরগঞ্জে আনসার আল ইসলাম এর সঙ্গে একটি মিটিং এ আমীর মাহমুদের সঙ্গে আনসার আল ইসলামের একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত ও আনসার আল ইসলাম আমীর মাহমুদ’কে ১৫ লাখ টাকা প্রদান করে এবং পরবর্তীতে আরও টাকা প্রদান করবে বলে জানা যায়। চুক্তি অনুযায়ী জামাতুল আনসারের সদস্যদের আনসার আল ইসলাম আইটি ও নিরাপত্তা বিষয়ক প্রশিক্ষণ প্রদান করবে। বিনিময়ে আনসার আল ইসলামের সদস্যদেরকে জামাতুল আনসার পার্বত্য অঞ্চলে অস্ত্র প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র সরবরাহ করবে। মাহমুদের সঙ্গে ‘কেএনএফ’ প্রধান নাথান বম ও সেকেন্ড ইন কমান্ড বাংচুং এর সঙ্গে বৈঠক করে আনসার আল ইসলামের সঙ্গে চুক্তির বিষয়ে অবহিত করেন।

লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, আনিসুর রহমান অরফে মাহমুদ পাহাড় থেকে পলায়ন করে এবং দেশের বিভিন্ন জায়গায় আত্মগোপনে থাকে। সংগঠনকে পুনরায় সংগঠিত করার জন্য তিনি পলায়নকৃত সূরা সদস্য ও অন্যান্য সদস্যদের সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে; ক্লোজ গ্রপের মাধ্যমে যোগাযোগ রক্ষা করছিল। এসময় ‘কেএনএফ’ এর শীর্ষ স্থানীয় নেতাদের সঙ্গে তার যোগাযোগ ছিল। ‘কেএনএফ’ প্রধান নাথান বম পার্শ্ববর্তী দেশের মিজোরামে অবস্থান করছে।

তিনি বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন সময়ে ‘কেএনএফ’ এর হামলা ও আক্রমণের বিষয়ে তার ইন্ধন থাকতে পারে বলে ধারণা করা যায়। টাংগাইল, নোয়াখালী, ময়মনসিংহ, বরিশাল ও ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে আত্মগোপনের পর ৭-১০ দিন পূর্বে তিনি মুন্সিগঞ্জের লৌহজং এ একটি বাসা ভাড়া নেয় ও সংগঠনের বেশ কিছু সদস্য নিয়মিত বাসায় আসা-যাওয়া করত বলে জানা যায়। নিরাপত্তার জন্য তিনি সবসময় তার সঙ্গে দুই জন সশস্ত্র দেহরক্ষী রাখতেন।

Advertisement
Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক রুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন লগিন

রিপ্লাই দিন

ঢাকা

ব্যাগে ফ্যান নিয়ে বের হওয়ার পরামর্শ দিলেন হিট অফিসার

Avatar of author

Published

on

তীব্র দাবদাহ থেকে রক্ষা পেতে নগরবাসীকে ব্যাগে পানির বোতল, টুপি, ফ্যান, ছাতার মতো জিনিসপত্র রাখার পরামর্শ দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ‘চিফ হিট অফিসার’ বুশরা আফরিন।

রোববার (২১ এপ্রিল) বিকেলে গণমাধ্যমকে এসব কথা বলেন চিফ হিট অফিসার।

চিফ হিট অফিসার জানান, খাবার পানির সুব্যবস্থা ও ছায়াযুক্ত স্থান বাড়াতে সিটি কর্পোরেশন যথাসাধ্য চেষ্টা করছে। ‘কুলিং স্পেস’-এর ব্যবস্থা করার হচ্ছে, যেন পথচারীরা বিশ্রাম নেওয়ার সুযোগ পায়।সকলকে অবশ্যই আরও বেশি করে গাছ লাগাতে হবে এবং পরিবেশবান্ধব অবকাঠামো নির্মাণে এগিয়ে আসতে হবে।

বুশরা আফরিন বলেন, আবহাওয়া অধিদপ্তরসহ আরও বেশ কিছু সরকারি-বেসরকারি ও এনজিওর সঙ্গে সিটি কর্পোরেশন যুক্ত হয়ে বেশ কিছু কার্যক্রম শিগগিরই চালু করতে যাচ্ছে। কল্যাণপুর ও বনানীতে পাইলট প্রজেক্ট হিসেবে  নগর বন তৈরি করতে যাচ্ছেন তাঁরা। যা একই সঙ্গে শীতলকরণ,বায়ু দূষণ রোধ ও মাটির গুণাগুণ বৃদ্ধি করবে।

গত এক বছরে বেশ কিছু উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে জানিয়ে বুশরা  বলেন, এর মধ্যে অন্যতম হলো বস্তি এলাকায় জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা। কারণ তারা অন্যতম প্রবল ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠী। সেসব জায়গায় গাছ লাগানোর মাধ্যমে তাদের সম্পৃক্ত করা হয়েছে, সেসব গাছের রক্ষণাবেক্ষণের জন্যও সচেতন করা হয়েছে।

Advertisement

তিনি বলেন, ঢাকা শহরের প্রায় ৮০ শতাংশ গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। এর ফলে নানা রকম সমস্যার সঙ্গে বাড়ছে তাপমাত্রাও। দিন দিন বাড়তে থাকা জনসংখ্যার ঘনত্বের কারণে সংকটে পড়া ঢাকার তাপমাত্রা গ্রামাঞ্চলের চেয়ে বেশি হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৩ মে ডিএনসিসি ও যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অ্যাড্রিয়েন আর্শট-রকফেলার ফাউন্ডেশনের মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তির মাধ্যমে নিয়োগ পান এশিয়ার প্রথম হিট অফিসার বুশরা আফরিন। আর ১২ দিন পরই তার নিয়োগের এক বছর পূর্ণ হবে। ওই নিয়োগ চুক্তির আওতায় ঢাকার তাপমাত্রা কমাতে যৌথভাবে কাজ করার কথা ডিএনসিসি ও রকফেলার ফাউন্ডেশনের।

আই/এ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ঢাকা

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২২

Avatar of author

Published

on

মাদকবিরোধী

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। অভিযানে মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে ২২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

রোববার (২১ এপ্রিল) সকালে ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

ডিএমপি পক্ষ থেকে বলা হয়, ডিএমপির নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে শনিবার (২০ এপ্রিল) সকাল ৬টা থেকে আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালানো হয়।

এ সময়  ১৭০ পিস ইয়াবা, ৪৩ কেজি ৫০০ গ্রাম গাঁজা, ১২০ গ্রাম হেরোইন, ১২০ বোতল ফেন্সিডিল ও ১০ লিটার দেশি উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে ডিএমপির সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ১৬টি মামলা রুজু হয়েছে।

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ঢাকা

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের স্ত্রী গ্রেপ্তার

Avatar of author

Published

on

সনদ বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. আলী আকবর খানের স্ত্রী শেহেলা পারভীনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। সনদ বিক্রির অভিযোগে সাইবার নিরাপত্তা আইনের মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

ডিবি সূত্র বলছে, আজ রোববার (২১ এপ্রিল) সকাল ১১টায় এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানানো হবে।

এর আগে শনিবার (২০ এপ্রিল) শেহেলা পারভীনকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে গোয়েন্দা পুলিশের সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র।

গেলো ১ এপ্রিল একই অভিযোগে গ্রেপ্তার হন কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সিস্টেম অ্যানালিস্ট প্রকৌশলী এ কে এম শামসুজ্জামান। শামসুজ্জামানকে জিজ্ঞাসাবাদে শেহেলা পারভীনের নাম উঠে আসে।

এ ছাড়া গেলো ৪ এপ্রিল এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের লালবাগ বিভাগের ডিসি মশিউর রহমান গ্রেপ্তার শামসুজ্জামানকে জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে বলেন, সনদ বাণিজ্যের নানা প্রক্রিয়ায় তার কাছে গ্রাহক নিয়ে আসতেন দেশের আনাচে কানাচে গড়ে ওঠা কারিগরি স্কুল ও কলেজের প্রধান শিক্ষক ও প্রিন্সিপালেরা। যেসব প্রধান শিক্ষক ও প্রিন্সিপাল মধ্যস্থতা করে গ্রাহক নিয়ে আসতেন, তাদের নামের দীর্ঘ তালিকা এসেছে গোয়েন্দা পুলিশের হাতে।

Advertisement

সনদ বাণিজ্যের বিষয়ে বোর্ডের ছোট–বড় সব কর্মকর্তা জানতেন বলেও উল্লেখ করেন এ গোয়েন্দা কর্মকর্তা।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

বাংলাদেশ7 hours ago

সারাদেশে হিট স্ট্রোকে আট জনের মৃত্যু

তীব্র দাবদাহে সারাদেশে হিট স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে ৮ জন মৃত্যুবরণ করেছেন । এর মধ্যে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে দুইজন, পাবনায় একজন, মেহেরপুরে...

তিতাস-গ্যাস তিতাস-গ্যাস
জাতীয়9 hours ago

সোমবার গ্যাস থাকবে না যেসব এলাকায়

গ্যাস পাইপলাইনের জরুরি কাজের জন্য সোমবার (২২ এপ্রিল) ঢাকা জেলার বিভিন্ন স্থানে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। রোববার (২১ এপ্রিল) গণমাধ্যমে...

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসনিা প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসনিা
বাংলাদেশ10 hours ago

দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বাংলাদেশ সর্বদা প্রস্তুত : প্রধানমন্ত্রী

যেকোনো বহিঃশত্রুর আক্রমণ থেকে দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বাংলাদেশ সর্বদা প্রস্তুত ও দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমাদের বৈদেশিক...

দেশজুড়ে13 hours ago

সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ ঘোষণা

প্রচন্ড তাপদাহে পুড়ছে চুয়াডাঙ্গা। জেলাটিতে আজ রোববার (২১ এপ্রিল) বিকাল ৩ টায়  সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪২ দশমিক ২...

দুর্ঘটনা13 hours ago

ঈদযাত্রায় সড়কে ঝরলো ৩২০ প্রাণ : বিআরটিএ

এবার ঈদযাত্রার ১৭ দিনে সারা দেশে ২৬৮টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৩২০ জন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ)।...

আমির আমির
জাতীয়14 hours ago

কাতারের আমির আসছেন কাল, সই হবে ৬ চুক্তি ও ৫ সমঝোতা

আগামীকাল সোমবার (২২এপ্রিল ) দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে বাংলাদেশে আসছেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল-থানি। একটি বিশেষ বিমানে...

অপরাধ14 hours ago

যেকোন সময় কারিগরি বোর্ডের চেয়ারম্যানকে জিজ্ঞাসাবাদ : ডিবি

তথ্য-উপাত্তে যদি জাল সার্টিফিকেট তৈরির সঙ্গে বাংলাদেশ কারিগরি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. আলী আকবর খানের সংশ্লিষ্টতা থাকার প্রমাণ পাওয়া যায়। তাহলে...

ব্যারিস্টার-সুমন ব্যারিস্টার-সুমন
আইন-বিচার14 hours ago

বেনজীরের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে যা বললেন ব্যারিস্টার সুমন

দুদকে ধাক্কা না দিলে কোনো কাজ হয় না। সাবেক পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজির আহমেদের বিরুদ্ধে ওঠা দুর্নীতির তদন্ত না হলে...

বাংলাদেশ14 hours ago

আজ দেশের আকাশে দেখা যাবে শিংওয়ালা ধূমকেতু

প্রায় ৭১ বছর পর আজ রোববার (২১ এপ্রিল) সূর্যের সবচেয়ে কাছে অবস্থান করবে ধূমকেতু ১২পি/পনস–ব্রুকস- যা ডেভিল ধূমকেতু বা শিংওয়ালা...

জাতীয়14 hours ago

হাসপাতাল প্রস্তুত রাখার নির্দেশ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

তীব্র দাবদাহের কারণে প্রতিকূল পরিস্থিতিতে সারা দেশের হাসপাতালগুলোকে প্রস্তুত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন। রোববার (২১ এপ্রিল)...

Advertisement
আন্তর্জাতিক7 hours ago

পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতের চার রাজ্যে রেড অ্যালার্ট জারি

বাংলাদেশ7 hours ago

সারাদেশে হিট স্ট্রোকে আট জনের মৃত্যু

ফুটবল8 hours ago

ম্যানসিটির কাছে হেরে থিয়াগো সিলভা কান্না

আওয়ামী লীগ8 hours ago

২৬ এপ্রিল কর্মসূচি দিলো আওয়ামী লীগ

ঢাকা8 hours ago

ব্যাগে ফ্যান নিয়ে বের হওয়ার পরামর্শ দিলেন হিট অফিসার

তথ্য-প্রযুক্তি9 hours ago

যুক্তরাষ্ট্রে টিকটক বন্ধের প্রস্তাব পাস

আন্তর্জাতিক9 hours ago

ইসরাইলি হামলায় ইরানের ক্ষয়ক্ষতির ছবি প্রকাশ

তিতাস-গ্যাস
জাতীয়9 hours ago

সোমবার গ্যাস থাকবে না যেসব এলাকায়

চট্টগ্রাম10 hours ago

বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করতে নাফ নদীর ওপাড়ে রোহিঙ্গাদের ঢল

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসনিা
বাংলাদেশ10 hours ago

দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বাংলাদেশ সর্বদা প্রস্তুত : প্রধানমন্ত্রী

ব্যারিস্টার-সুমন
আইন-বিচার14 hours ago

বেনজীরের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে যা বললেন ব্যারিস্টার সুমন

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসিনা
জাতীয়4 weeks ago

গায়ের চাদর না পুড়িয়ে বউদের ভারতীয় শাড়ি পোড়ান: প্রধানমন্ত্রী

ফুটবল4 weeks ago

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ব্রাজিল কোচ জানালেন এটা মাত্র শুরু

টুকিটাকি1 month ago

জিলাপির প্যাঁচে লুকিয়ে আছে যে রহস্য!

অর্থনীতি1 month ago

বাজারে লেবুর সরবরাহ বেশি, তবুও দাম চড়া

রেশমা
বাংলাদেশ1 month ago

রাজধানীতে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার কিশোরীর ঠিকানা খুঁজছে পুলিশ

হলিউড1 month ago

নীল দুনিয়ায় অভিনেত্রী সোফিয়ার রহস্যজনক মৃত্যু

ফুটবল2 months ago

জামালকে ঠিকঠাক বেতন দেয়নি আর্জেন্টাইন ক্লাব

টুকিটাকি2 months ago

রণবীরের ‘অ্যানিম্যাল’ দেখে শখ, মাইনাস ২৫ ডিগ্রিতে বসলো বিয়ের আসর

অর্থনীতি2 months ago

গরুর মাংসের দাম কেজি প্রতি পৌনে ৬ লাখ টাকা!

সর্বাধিক পঠিত