Connect with us

আইন-বিচার

শ্লীলতাহানির অভিযোগ মামলায় ক্যামেরা ট্রায়ালে সাক্ষ্য দেবেন পরীমণি

Avatar of author

Published

on

পরীমণি

হত্যা ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে দায়ের করা মামলায় জাতীয় পার্টির নেতা ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে ক্যামেরা ট্রায়ালে সাক্ষ্য দেবেন চিত্রনায়িকা পরীমণি।

সোমবার (২৪ জুলাই) ঢাকার ৯ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহিনা হক সিদ্দিকা আদালতে তার সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ধার্য ছিল। এদিন সাক্ষ্য দিতে এসে পরীমণি ঘটনার বিবরণ দেয়ার সময় আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। এসময় পরীমণির আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত সুরভী বিচারকের খাস কামরায় রুদ্ধদ্বার কক্ষে গোপনে সাক্ষ্য (ক্যামেরা ট্রায়াল) গ্রহণের আবেদন করলে বিচারক তা মঞ্জুর করেন। আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর সাক্ষ্য গ্রহণের নতুন দিন ধার্য করা হয়েছে।

এদিন সকালে আদালতে আসেন পরীমণি। এ সময় মামলার আসামি নাসির উদ্দিন, তুহিন সিদ্দিকী অমি ও শহীদুল আলম আদালতে হাজিরা দেন।

এর আগে গেলো বছরের ১৯ এপ্রিল নাসির ও অমির পক্ষে এ মামলার দায় থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করেন তাদের আইনজীবী। অন্যদিকে অব্যাহতির আবেদনের বিরোধিতা করেন বাদীপক্ষ। এছাড়া অভিযোগ গঠনের পক্ষে শুনানি করেন রাষ্ট্রপক্ষ। এরপর ১৮ মে আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত।

২০২১ সালের ১৪ জুন নাসির উদ্দিন ও তার বন্ধু অমির নাম উল্লেখ করে এবং চারজনকে অজ্ঞাত আসামি করে ঢাকার সাভার থানায় মামলা দায়ের করেন পরীমণি।

Advertisement

তদন্ত শেষে ২০২১ সালের ৬ সেপ্টেম্বর আদালতে নাসিরসহ তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কামাল হোসেন। অপর দুই আসামি হলেন-তুহিন সিদ্দিকী অমি ও শহীদুল আলম। এরপর গেলো বছরের ১৩ ডিসেম্বর এ মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৯ এর বিচারক হেমায়েত উদ্দিন।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ৮ জুন রাতে ঢাকার অদূরের বিরুলিয়ার ঢাকা বোট ক্লাবে যান পরিমণি। সেদিন রাতে সেখানে তাকে ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে বলে ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমির বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন পরীমণি। পরে ১৪ জুন নাসির ও অমি ছাড়াও অজ্ঞাতনামা আরও চারজনের বিরুদ্ধে সাভার থানায় মামলা দায়ের করেন তিনি।

Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক রুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন লগিন

রিপ্লাই দিন

আইন-বিচার

নববর্ষে ঢাবিতে শ্লীলতাহানি, ৯ বছর ধরে ঝুলে আছে বিচার

Avatar of author

Published

on

নববর্ষে-ঢাবিতে-শ্লীলতাহানি,-বিচার-অসমাপ্ত

গেলো ৯ বছরে শেষ হয়নি নববর্ষের উৎসবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় বেশ কয়েকজন নারীকে শ্লীলতাহানি করায় মামলার বিচার। ২০১৫ সালের এই দিনে ঘটেছিল ঘটনাটি। ওই ঘটনার পর রাজধানীর শাহবাগ থানায় মামলা করা হয়। কিন্তু সাক্ষীর অভাবে আজও ওই মামলার বিচার শেষ হয়নি। নানা আইনি মারপ্যাঁচে মামলার বিচার কার্যক্রম ঝুলে আছে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, মামলাটির রায় ঘোষণার জন্য একাধিক বার দিন ধার্য হলেও তা হয়নি। তবে, মামলার গুরুত্বপূর্ণ বেশ কিছু সাক্ষী বাদ যাওয়ায় পুনরায় সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য করা হয়। মামলাটি বর্তমানে ঢাকার আট নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন।

সংশ্লিষ্টরা জানান, মামলায় নয়জনের সাক্ষী নেয়ার পর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ ঘোষণা করে রাষ্ট্রপক্ষ। এরপর রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য গত ৩১ জানুয়ারি দিন ধার্য করেন আদালত। সেদিন রায় প্রস্তুত না হওয়ায় আদালত ১৩ ফেব্রুয়ারি পরবর্তী দিন ধার্য করেন। এদিন রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি মামলার রায় ঘোষণা থেকে উত্তোলন করে পুনরায় সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আবেদন করেন। আদালত রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন মঞ্জুর করে আগামী ১৫ এপ্রিল সাক্ষ্যগ্রহণে নতুন দিন ধার্য করেন।

৯ বছর আগে এই দিনে বাংলা নববর্ষের উৎসবে নারীর শ্লীলতাহানির ঘটনায় করা মামলায় কয়েক জন পুলিশ সদস্য সাক্ষ্য দিতে না আসায় তাদের সাক্ষ্য দেয়ার জন্য সমন জারি করা হবে। তাদের সাক্ষ্য শেষে দ্রুতসময়ের মধ্যে মামলার বিচারিক কার্যক্রম শেষ করা হবে বলে জানিয়েছেন ওই ট্রাইব্যুনালের পিপি মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

জানা যায়, ওই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও ভিডিও ফুটেজ বিশ্লেষণ করে আট লাঞ্ছনাকারীকে শনাক্ত করা হয়। তাদের ধরিয়ে দিতে পুরস্কারের ঘোষণাও করা হয়েছিল। মামলার সাত আসামিকে খুঁজে না পেয়ে পরের বছর কামাল নামে জনৈক এক ব্যবসায়ীকে আসামি করে চার্জশিট দাখিল করে পিবিআই। পরের বছরের জুন মাসে আসামি কামালের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন নির্ধারণ করেন আদালত। কিন্তু অভিযোগ গঠনের প্রায় ছয় বছর পরও ৩৪ জন সাক্ষীর মধ্যে নয়জন আদালতে সাক্ষ্য দেন। সাক্ষীদের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির পরও তারা সাক্ষ্য দিতে আদালতে আসেনি। তারা আদালতে হাজির না হওয়ায় আলোচিত এ মামলার বিচারিক কার্যক্রম ঝুলে রয়েছে।

Advertisement

রাষ্ট্রপক্ষ বলছে, চলতি বছর মামলাটি নিষ্পত্তি করা হবে। ২০১৫ সালের ওই ঘটনায় সেদিন সন্ধ্যায় শাহবাগ থানার উপ-পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। নারীদের লাঞ্ছনার প্রত্যক্ষদর্শী ও ভিডিও ফুটেজ বিশ্লেষণ করে আটজনকে শনাক্তের পর গণমাধ্যমে ছবি প্রকাশ করে পুলিশ। তাদের ধরিয়ে দিতে লাখ টাকা পুরস্কারও ঘোষণা করে পুলিশ প্রশাসন।

২০১৫ সালের ৯ ডিসেম্বর এ মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক দীপক কুমার দাস। প্রতিবেদনে আসামি খুঁজে না পাওয়ার কথা বলা হয়। তবে ওই প্রতিবেদন গ্রহণ না করে মামলাটি পুনরায় তদন্তের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন ঢাকার তিন নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক।

পরের বছর ২০১৬ সালের ১৫ ডিসেম্বর পিবিআইয়ের পুলিশ পরিদর্শক আব্দুর রাজ্জাক জনৈক ব্যবসায়ী কামালকে একমাত্র আসামি করে চার্জশিট দাখিল করেন। এরপর ২০১৭ সালের ১৯ জুন আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ (চার্জ) গঠন করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল।

চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়, তদন্তে আট লাঞ্ছনাকারীর মধ্যে একজনকে খুঁজে পাওয়া গেছে। অন্য সাতজনকে খুঁজে না পাওয়ায় তাদের চার্জশিটে নাম অন্তর্ভুক্ত করা সম্ভব হয়নি। তাদের খুঁজে পাওয়া গেলে সম্পূরক চার্জশিট দেওয়া হবে। এ মামলায় ৩৪ জনকে সাক্ষী করা হয়।

এ বিষয়ে ঢাকার ৮ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি মোহাম্মদ রেজাউল করিম জানান, বাংলা নববর্ষের উৎসবে নারীর শ্লীলতাহানির ঘটনায় করা মামলাটির সাক্ষ্যগ্রহণ সমাপ্ত করে রায় ঘোষণার জন্য দিন ধার্য করেছিলেন ট্রাইব্যুনাল। তবে মামলাটির কিছু গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষী বাদ পড়ায় আমরা রায় ঘোষণা থেকে উত্তোলন করে আবার সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আবেদন করি। আদালত ন্যায়বিচারের স্বার্থে মামলাটির পুনরায় সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেন।

Advertisement

অভিযোগ গঠনের প্রায় ৬ বছর পরও ৩৪ জন সাক্ষীর মধ্যে নয়জন আদালতে সাক্ষ্য দেন। সাক্ষীদের প্রতি জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির পরও তারা সাক্ষ্য দিতে আদালতে আসছেন না।

ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান কৌঁসুলি আব্দুল্লাহ আবু গণমাধ্যমকে বলেন, মামলাটি যেহেতু রায়ের পর্যায়ে চলে গিয়েছিল সেখান থেকে আবার সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য এসেছে। ধরে নিতে হবে মামলাটি গুরুত্ব সহকারে বিচার কাজ চলছে।

তিনি বলেন, সাক্ষী যদি যথাসময়ে আসে মামলাটি দ্রুত শেষ করা উচিত। ভাইটাল সাক্ষী হলে সব সাক্ষীর আর দরকার হবে না। সে ক্ষেত্রে সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হলে এ বছরের মধ্যে রায় দেয়া সম্ভব বলে মনে করেন রাষ্ট্রপক্ষের এই কৌঁসুলি।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

আইন-বিচার

আবারও পিছিয়েছে ভিকারুননিসার ছাত্রী অরিত্রী হত্যা মামলার রায়

Avatar of author

Published

on

অরিত্রি

চতুর্থ দফায় পেছানো হলো  ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণীর ছাত্রী অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে ওই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষিকা নাজনীন ফেরদৌস ও জিন্নাত আরার বিরুদ্ধে করা মামলার রায়। আগামী ৩ জুন রায়ের তারিখ ধার্য করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ-১২ এর বিচারক আব্দুল্লাহ আল মামুনের আদালতে মামলাটি রায় ঘোষণার জন্য দিন ধার্য ছিল। এদিন রায় প্রস্তুত না হওয়ায় ঘোষণার জন্য আগামী ৩ জুন নতুন দিন ধার্য করেন আদালত।

গেলো ২৭ নভেম্বর রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষের যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন শেষে আদালত রায়ের তারিখ ২১ জানুয়ারি ধার্য করেন। তবে, ওই দিন রায় প্রস্তুত না হওয়ায় তা পিছিয়ে ৮ ফেব্রুয়ারি ধার্য করা হয়। ওই দিনেও রায় প্রস্তুত না হওয়ায় তারিখ পিছিয়ে ৩ মার্চ ধার্য করা হয়। একই কারণে রায় ঘোষণার দিন পিছিয়ে ৯ এপ্রিল ধার্য করেন আদালত।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ৪ ডিসেম্বর অরিত্রীর আত্মহত্যার ঘটনায় রাজধানীর পল্টন থানায় তার বাবা দিলীপ অধিকারী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

২০১৯ সালের ২০ মার্চ এ দুই শিক্ষককে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক কামরুল হাসান তালুকদার। আসামিদের নির্দয় ব্যবহারে অরিত্রী আত্মহত্যায় প্ররোচিত হয় বলে অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেন তদন্ত কর্মকর্তা। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় শ্রেণিশিক্ষক হাসনা হেনাকে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন করা হয়।

Advertisement

একই বছরের ১০ জুলাই এ দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত। ২৫ নভেম্বর এ মামলার বাদী ও অরিত্রীর বাবা দিলীপ অধিকারীর জবানবন্দির মধ্য দিয়ে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। এরপর ২০২০ সালের ২৩ আগস্ট অরিত্রী মা বিউটি অধিকারী আদালতে সাক্ষ্য দেন। এ মামলার ১৮ সাক্ষীর মধ্যে ১৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০১৮ সালের ৩ ডিসেম্বর পরীক্ষা চলাকালে অরিত্রীর কাছে মোবাইলফোন পান শিক্ষক। মোবাইলফোনে নকল করেছে-এমন অভিযোগে অরিত্রীর মা-বাবাকে নিয়ে স্কুলে যেতে বলা হয়। দিলীপ অধিকারী তার স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে স্কুলে গেলে ভাইস প্রিন্সিপাল তাদের অপমান করে কক্ষ থেকে বের হয়ে যেতে বলেন। অধ্যক্ষের কক্ষে গেলে তিনিও একই রকম আচরণ করেন। এসময় অরিত্রী দ্রুত অধ্যক্ষের কক্ষ থেকে বের হয়ে যায়। পরে শান্তিনগরে বাসায় গিয়ে তিনি দেখেন, অরিত্রী তার কক্ষে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়নায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় ঝুলছে।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

আইন-বিচার

বুয়েটের শিক্ষার্থী রাব্বীর সিট বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত

Avatar of author

Published

on

হাইকোর্ট

বুয়েটের পুরকৌশল বিভাগের ছাত্র ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা ইমতিয়াজ হোসেন রাব্বীর হলের সিট বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে বুয়েটের এ সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করেছেন আদালত। এছাড়া বুয়েটের ভিসিসহ সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে আদালত বলেছেন, এ বিষয়ে বুয়েট গঠিত তদন্ত কমিটির তদন্ত চলমান থাকবে।

সোমবার (৮ এপ্রিল) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারওয়ার কাজলের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে বুয়েট শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে ক্যাম্পাসে ছাত্ররাজনীতির সঙ্গে জড়িত পুরকৌশল বিভাগের ছাত্র ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা ইমতিয়াজ হোসেনের হলের সিট বাতিল করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনার সার্বিক বিষয় তদন্তের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানানো হয়।

এএম/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

জাতীয়40 mins ago

‘জাহাজে আর্মড গার্ড থাকলে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটত না’

আর্মড গার্ড ভাড়া করে নিয়ে গেলে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটত না। যারা জলদস্যু তারাও খবর রাখে কোন জাহাজের মধ্যে আর্মড গার্ড...

বাংলাদেশ5 hours ago

মুক্তিপণ নিয়ে যা জানালো এমভি আব্দুল্লাহর মালিকপক্ষ

ছিনতাইয়ের ৩১ দিন পরে মুক্তিপণের বিনিময়ে মুক্ত হয়েছে বাংলাদেশি পতাকাবাহী জাহাজ এমভি আব্দুল্লাহ। তবে মুক্তিপণ নিয়ে নানা গুঞ্জন উঠলেও মালিকপক্ষ...

জাতীয়6 hours ago

আবারও মিয়ানমারের ৯ বিজিপি সদস্য আশ্রয় নিলো বাংলাদেশে

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সশস্ত্র গোষ্ঠী আরাকান আর্মি ও দেশটির সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) সঙ্গে চলমান সংঘাতের কারণে  কক্সবাজারের...

এমভি আবদুল্লাহ জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ জাহাজ
জাতীয়7 hours ago

দেশের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে দস্যুমুক্ত এমভি আবদুল্লাহ

অপহরণের ৩১ দিন পর মুক্ত হয়েছেন এমভি আবদুল্লাহ’র ২৩ নাবিক। সোমালিয়ার জলদস্যুদের কবল থেকে মুক্তির পর আগামী ১৯ এপ্রিলের দিকে...

নববর্ষে-ঢাবিতে-শ্লীলতাহানি,-বিচার-অসমাপ্ত নববর্ষে-ঢাবিতে-শ্লীলতাহানি,-বিচার-অসমাপ্ত
আইন-বিচার7 hours ago

নববর্ষে ঢাবিতে শ্লীলতাহানি, ৯ বছর ধরে ঝুলে আছে বিচার

গেলো ৯ বছরে শেষ হয়নি নববর্ষের উৎসবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় বেশ কয়েকজন নারীকে শ্লীলতাহানি করায় মামলার বিচার। ২০১৫ সালের...

বর্ষবরণ বর্ষবরণ
জাতীয়8 hours ago

সুরের মুর্ছনায় বর্ষবরণ

ভোরের আলো ফুটতেই রমনার বটমূলে শুরু হয় বাঙালির চিরায়ত বর্ষবরণ অনুষ্ঠান। নতুন ১৪৩১ এর প্রথম সকালটিকে এক কণ্ঠে বরণ করে...

এমভি-আব্দুল্লাহর-২৩-নাবিক এমভি-আব্দুল্লাহর-২৩-নাবিক
জাতীয়9 hours ago

কত ডলার মুক্তিপণে ছাড়া পেলেন ২৩ নাবিক?

অবশেষে সোমালিয়ান জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্তি পেয়েছেন এমভি আব্দুল্লাহর ২৩ নাবিক। ৩১ দিন জিম্মি থাকার পর সোমালিয়ার উপকূল থেকে মুক্ত...

মঙ্গল-শোভাযাত্রা মঙ্গল-শোভাযাত্রা
জাতীয়10 hours ago

শুরু হয়েছে মঙ্গল শোভাযাত্রা

বাংলা নতুন বছরকে বরণ করে নিতে মানুষের ঢল নেমেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদে। ইতোমধ্যেই শুরু হয়েছে মঙ্গল শোভাযাত্রা। রোববার (১৪...

জাতীয়21 hours ago

পহেলা বৈশাখ আজ, উদযাপনে মেতে উঠবে গোটা দেশ

আজ রোববার, ১৪ এপ্রিল- পহেলা বৈশাখ। শুভ বাংলা নববর্ষ। ষড়ঋতুর বাংলাদেশে বছর ঘুরে আসলো বাংলা নববর্ষ। পুরনোকে বিদায় করে এলো...

জাতীয়22 hours ago

জিম্মি নাবিকদের নিয়ে শীঘ্রই সুখবর : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সোমালিয়ার জলদস্যুদের হাতে ছিনতাই হওয়া জাহাজ ও নাবিকদের উদ্ধারে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি আছে। খুব সহসাই আপনারা সুখবর পাবেন। বললেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী...

Advertisement
আন্তর্জাতিক38 mins ago

ইরানি হামলা ঠেকাতে ইসরাইলকে সাহায্য করেছে যেসব দেশ

জাতীয়40 mins ago

‘জাহাজে আর্মড গার্ড থাকলে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটত না’

আন্তর্জাতিক1 hour ago

মুক্তিপণ আদায়ের পর আট সোমালিয়ান জলদস্যু আটক

আন্তর্জাতিক2 hours ago

ইসরাইলে ইরানের হামলা: প্রতিক্রিয়া জানালো ভারত ও চীন

ঢাকা2 hours ago

আলপনায় রঙিন হাওরের ১৪ কিলোমিটার সড়ক

বিএনপি3 hours ago

সরকারের লোকজন বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে : রিজভী

মৃত্যু
চট্টগ্রাম3 hours ago

পালিয়েছেন দুই স্ত্রী, পুড়িয়ে মারলেন তৃতীয় স্ত্রীকে

আখাউড়া
চট্টগ্রাম3 hours ago

মাদকাসক্ত ছেলেকে পুলিশে দিলেন বাবা

দেশজুড়ে4 hours ago

বর্ণাঢ্য আয়োজনে পাবনায় বর্ষবরণ উদযাপিত

আবহাওয়া
আবহাওয়া4 hours ago

তাপমাত্রায় নিজের আগমনী বার্তা দিলো গ্রীষ্ম

সৌদি আরব
আন্তর্জাতিক6 days ago

সৌদিতে ঈদ বুধবার

আন্তর্জাতিক4 days ago

বিড়াল বাঁচাতে গিয়ে একই পরিবারের ৫ জন নিহত

আন্তর্জাতিক6 days ago

ঈদের তারিখ জানালো অস্ট্রেলিয়া

বিএনপি6 days ago

ব্যারিস্টার খোকনকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত পাঠানো হয়েছে লন্ডনে

আন্তর্জাতিক7 days ago

৬ মাসে হামাসকে কতটুকু ধ্বংস করতে পেরেছে ইসরায়েল

বাংলাদেশ4 days ago

যাত্রীদের মারধরে নয়, চালক-কন্ডাক্টরের মৃত্যু হয় যেভাবে

আন্তর্জাতিক6 days ago

এবার পাকিস্তান জানালো কবে হতে পারে ঈদ

আন্তর্জাতিক5 days ago

রাতে নয়, দেশটিতে দিনে দেখা গেলো ঈদের চাঁদ!

বাংলাদেশ1 day ago

ইসরাইল থেকে সরাসরি ঢাকায় বিমানের অবতরণ- যা জানা গেলো

জয়পুরহাটে-প্রেমিক-প্রেমিকার-বিষপান
রাজশাহী5 days ago

একসঙ্গে বিষপান, ২২ ঘন্টার ব্যবধানে প্রেমিক প্রেমিকার মৃত্যু

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসিনা
জাতীয়3 weeks ago

গায়ের চাদর না পুড়িয়ে বউদের ভারতীয় শাড়ি পোড়ান: প্রধানমন্ত্রী

ফুটবল3 weeks ago

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ব্রাজিল কোচ জানালেন এটা মাত্র শুরু

টুকিটাকি3 weeks ago

জিলাপির প্যাঁচে লুকিয়ে আছে যে রহস্য!

অর্থনীতি1 month ago

বাজারে লেবুর সরবরাহ বেশি, তবুও দাম চড়া

রেশমা
বাংলাদেশ1 month ago

রাজধানীতে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার কিশোরীর ঠিকানা খুঁজছে পুলিশ

হলিউড1 month ago

নীল দুনিয়ায় অভিনেত্রী সোফিয়ার রহস্যজনক মৃত্যু

ফুটবল1 month ago

জামালকে ঠিকঠাক বেতন দেয়নি আর্জেন্টাইন ক্লাব

টুকিটাকি1 month ago

রণবীরের ‘অ্যানিম্যাল’ দেখে শখ, মাইনাস ২৫ ডিগ্রিতে বসলো বিয়ের আসর

অর্থনীতি2 months ago

গরুর মাংসের দাম কেজি প্রতি পৌনে ৬ লাখ টাকা!

অপরাধ2 months ago

ডিবিতে যে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

সর্বাধিক পঠিত