Connect with us

লাইফস্টাইল

ডায়াবেটিসে আক্রান্তরা কোন ধরনের কলা খেতে পারবেন?

Avatar of author

Published

on

কলা

স্বাস্থ্য সুরক্ষার ক্ষেত্রে আসলে কলার উপকারিতার শেষ নেই। এই ফলটি পটাশিয়ামের উৎস তাই রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে। হার্ট ভাল রাখতে এবং পেশি মজবুত রাখতেও পটাশিয়াম খুব গুরুত্বপূর্ণ। কলায় থাকে প্রচুর পরিমাণ ফাইবার যা হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। কলায় রয়েছে প্রাকৃতিক শর্করা, কমপ্লেক্স কার্বোহাইড্রেট এবং বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন যা সঙ্গে সঙ্গে শক্তি যোগায়। কলা পেশি মজবুত করে। কলা হাড়ের জন্য ভাল। ক্যালশিয়াম শোষণ করতে সাহায্য করে, ফলে অস্টিয়োপোরোসিসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমায়। কিন্তু প্রশ্ন হল, ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হলে কোন ধরনের কলা খাওয়া যায়?

যখন রক্তে ইনসুলিনের পরিমাণ কমে যায়, তখনই ডায়াবেটিস হয়। এজন্য প্রথম থেকে সতর্ক না হলে, ডায়াবেটিস হার্ট, কিডনি ও চোখের উপর খারাপ প্রভাব ফেলে। ব্লাড-সুগার রোগীদের খাবার বিষয়ে খুব সচেতন থাকতে হয়। ডায়াবিটিস রোগীরা কী খেতে পারেন আর কী খেতে পারেন না, তার অনেকটাই নির্ভর করছে সংশ্লিষ্ট খাবারটি রক্তে শর্করার মাত্রার উপর কতটা প্রভাব ফেলে, তার উপর। এই বিষয়টি সাধারণত ‘গ্লাইসেমিক লোড’ ও ‘গ্লাইসেমিক ইনডেক্স’ -এর উপর ভিত্তি করে নির্ধারিত হয় বলে এমন প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম নিউজ ১৮।

টাইপ টু ডায়াবেটিসের রোগীদের এমন খাবার খেতে হয়, যার গ্লাইসেমিক ইনডেক্স কম। যে সব খাবারের গ্লাইসেমিক ইনডেক্স কম, সেসব খাবার ধীরে ধীরে শরীরে শোষিত হয় এবং দ্রুত ব্লাডসুগার না বাড়িয়ে ধীরে ধীরে বৃদ্ধি করে। এইদিক থেকে দেখতে গেলে কলার গ্লাইসেমিক ইনডেক্স কম থেকে মাঝারি, ৪২-৬২-র মধ্যে।

কাঁচা কলা খাওয়া যেতেই পারে, কারণ এটির গ্লাইসেমিক ইনডেক্স কম। কাঁচা কলায় থাকে ‘রেসিস্ট্যান্ট স্টার্চ’ যা ক্ষুদ্রান্ত্রে দ্রুত পাচিত হয় না। উলটে নিয়ন্ত্রণে থাকে শর্করার বিপাক। পাশাপাশি পেটের সমস্যায় উপকারী কাঁচা কলা।

পাকা কলাতে থাকে পটাশিয়াম ও ভিটামিন বি৬। কিন্তু পাকা কলাতে কিছু প্রাকৃতিক ‘সুইটনার’ থাকে। এই কলার গ্লাইসেমিক ইনডেক্স-ও কাঁচা কলার থেকে বেশি। তাই এই ধরনের কলা খাওয়ার আগে নিতে হবে চিকিৎসকের পরামর্শ।

Advertisement

কলা যখন বেশি পেকে যায় ও কিছুটা খয়েরি রঙের হয়ে যায়, তখন তা ডায়াবিটিস রোগীদের খাওয়া উচিত নয়। এর ‘গ্লাইসেমিক ইনডেক্স’ অনেক বেশি। এই ধরনের কলায় স্টার্চ ভেঙে সরল শর্করাতে রূপান্তরিত হয়, যা খুব সহজেই বিপাক হয়ে যায়। ফলে রক্তে শর্করার পরিমাণ দ্রুত বেড়ে যেতে পারে, যা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য বিপজ্জনক।

Advertisement

রেসিপি

বৈচিত্র্য আনতে করল্লা দিয়ে রাঁধতে পারেন অন্য খাবার

Avatar of author

Published

on

করল্লা

আজকাল বাজার করে ফিরলেই ব্যাগ থেকে উঁকি মারে কচি কচি সবুজ করল্লা। গরমকাল মানেই নানা ধরনের সংক্রমণের ভয়। তাই বাঙালি গ্রীষ্মকালীন রোগবালাইয়ের সঙ্গে লড়াই করতে ভরসা রাখে করল্লার উপর। করল্লা ভাজা, করল্লা সেদ্ধ বাঙালির হেঁশেলে হয়েই থাকে। তবে পদে বৈচিত্র্য আনতে করল্লা দিয়ে রাঁধতে পারেন অন্য খাবার।

উচ্ছে-আলুর-বাটি-চচ্চড়ি

করল্লা-আলুর বাটি চচ্চড়ি

ডুমো ডুমো করে আলু আর করল্লাকেটে নিন। এবার কড়াইয়ে তেল গরম করে জিরে আর কাঁচা মরিচ ফোড়ন দিন। তারপরে আলু আর করল্লার টুকরোগুলি তাতে ছেড়ে দিন। হালকা ভাজা হলে তাতে পেঁয়াজ বাটা দিয়ে দিন। নাড়তে থাকুন ভাল ভাবে। তার ফাঁকেই স্বাদমতো লবন আর এক চামচ হলুদ গুঁড়ো দিন। সব্জিটা হালকা ভাজা হলে তাতে আধ কাপ পানি দিয়ে দিন। আর একটু নেড়েচেড়ে নিয়ে কড়াইটা ঢেকে রাখুন। ঢাকা সরিয়ে মাঝেমাঝেই নাড়তে থাকতে হবে, যাতে চচ্চড়িটা কড়াইয়ে লেগে না যায়। করল্লা-আলুর বাটি একেবারে শুকনো হয় না। একটু মাখা মাখা হতে হবে। ফলে সময় থাকতে নামিয়ে নিন। গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন।

করল্লা-ডাল

করল্লার ডাল

পাতলা আর চাকা চাকা করে কেটে সামান্য লবন ও হলুদ দিয়ে ভেজে রাখুন। মুগ ডাল শুকনো খোলায় হালকা লালচে করে ভেজে নিন। প্রেশার কুকারে মুগ ডাল সামান্য লবন আর হলুদ দিয়ে সেদ্ধ করে নিন। এবার কড়াইতে ঘি গরম করে শুকনো মরিচ, পাঁচফোড়ন আর রাঁধুনি ফোড়ন দিন। তাতে সেদ্ধ ডাল দিয়ে দিন। এবার ভাজা করল্লার টুকরো আর স্বাদ মতো লবন দিয়ে ডাল ফুটতে নিন। ডাল ফুটে উঠলে আর এক চামচ ঘি দিয়ে নামিয়ে নিন।

সর্ষে-উচ্ছে

সর্ষে মাখা করল্লা

প্রথমে করল্লাগুলি ধুয়ে ছোট ছোট করে কেটে নিন। একই মাপমতো আলু এবং পটলও কেটে নিন। এবার কড়াইয়ে তেল দিয়ে পাঁচফোড়ন ও কাঁচালঙ্কা দিন। তারপর আলু, করল্লা এবং পটল দিয়ে নাড়াচাড়া করতে থাকুন। লবন আর হলুদ দিয়ে কম আঁচে ভাল করে নাড়ুন যত ক্ষণ না সব্জি থেকে জল বেরোয়। সব্জি সেদ্ধ হয়ে এলে নাড়াচাড়া করে সর্ষেবাটা দিয়ে উপর থেকে একটু তেল ছড়িয়ে ঢাকা দিয়ে রাখুন। মাখোমাখো হয়ে এলে নামিয়ে নিন।

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

পরামর্শ

ফ্রোজেন শোল্ডারের সমস্যা থেকে মুক্তির উপায়

Avatar of author

Published

on

রাতে ভালো ঘুমিয়েছেন। কিন্তু সকালবেলা চোখ খোলার পর আর হাত নাড়তে পারছেন না। কাঁধ এমন শক্ত হয়ে গেছে যে, নড়চড়া করার উপায় নেই। রোগটি সম্পর্কে অনেকেই জানেন। ‘ফ্রোজেন শোল্ডার’ নামে বেশি পরিচিত হলেও চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় একে ‘অ্যাডহেসিভ ক্যাপসুলাইটিস’ বলা হয়। এই রোগে আক্রান্ত হলে ঘাড়, কাঁধের পেশি এবং অস্থিসন্ধির কার্যক্ষমতা নষ্ট হয়। চিকিৎসকেরা বলছেন, যে অস্থিসন্ধি দ্বারা বাহু ও কাঁধ সংযুক্ত থাকে, সেই অস্থিসন্ধিতে অবস্থিত হাড়, লিগামেন্ট ও টেনডনগুলি কিছুটা ক্যাপসুলের মতো এক প্রকার টিস্যু দ্বারা আবৃত থাকে। এই ক্যাপসুল ফুললে বা শক্ত হয়ে গেলে ফ্রোজেন শোল্ডার দেখা দিতে পারে। তবে ঠিক কী কারণে এই ঘটনা ঘটে, তা নিয়ে অবশ্য নিশ্চিত নন বিশেষজ্ঞরা।

যেভাবে দেখে চিনবেন

ফ্রোজেন শোল্ডারের ব্যথা শুরু হয় কাঁধ থেকে। তার পর ক্রমে সেই ব্যথা নেমে আসে হাত পর্যন্ত। হাত নাড়তে বা তুলতে অসুবিধা হয়। আবার, অনেকের এই ব্যথা কমে এলেও একটা পর্যায়ের পর হাত আর উপর দিকে ওঠে না কিংবা পেছন দিকে ঘোরানো যায় না। মোট কথা, পেশির নমনীয়তা একেবারেই নষ্ট হয়ে আসে।

যে ভাবে মিলবে মুক্তি

সাধারণত কিছু সময় পর নিজে থেকেই এই ধরনের ব্যথা কমে আসে। কিন্তু তা সময়সাপেক্ষ। ক্ষেত্র বিশেষে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যথা কমানোর ওষুধ কিংবা ফিজিয়োথেরাপির সাহায্য নিতে হয়। ব্যথা কমলে সাধারণ কিছু ব্যায়াম করা যেতে পারে।

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

রেসিপি

ইফতারে মিষ্টিমুখ করতে বানিয়ে ফেলুন ছানার পোলাও

Avatar of author

Published

on

ছানার-পোলাও

সন্ধ্যার ইফতারের জন্য প্রস্তুতি চলছে জোরকদমে। গেলো এক মাস ধরে ইফতারিতে ভাজাভুজি, মিষ্টির নানা পদ নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ফেলেছেন অনেকেই। বাড়ির লোকজন ছাড়াও মাঝেমাঝেই ঘরোয়া ইফতার পার্টিতে বন্ধুবান্ধব এসেছেন। আজও কি তেমন কিছু পরিকল্পনা আছে? তা হলে জমাটি ভূরিভোজ শেষে মিষ্টিমুখ করতে বানাতে পারেন ছানার পোলাও। রইল প্রণালী।

উপকরণ

ছানা: ১ কাপ

ময়দা: ১ টেবিল চামচ

চালের গুঁড়ো: ৩ টেবিল চামচ

বেকিং সোডা: আধ টেবিল চামচ

Advertisement

অ্যারারুট: ১ চা চামচ

চিনি: ১ কাপ

দারচিনি: ২টি

এলাচ: ৩টি

তেজপাতা: ২টি

Advertisement

ঘি: ১ টেবিল চামচ

প্রণালী

একটি পাত্রে ৪-৫ কাপ মতো পানি নিয়ে তাতে তেজপাতা, দারচিনি, এলাচ, বেকিং সোডা, অ্যারারুট মিশিয়ে ৫ মিনিট মতো জ্বাল দিয়ে নামিয়ে নিন। তবে দেখবেন, যেন রস বেশি পাতলা না হয়ে যায়।

এবার অন্য একটি পাত্রে অর্ধেক ছানা, ময়দা এবং পরিমাণ মতো ঘি ঢেলে ভাল করে মেখে নিন। চানাচুর তৈরির যন্ত্র দিয়ে বাকি ছানা দিয়ে অল্প তেলে ভেজে ছানার ঝুরি বানিয়ে নিন। চানাচুর তৈরির যন্ত্র না থাকলে ঝাঁঝরি হাতা ব্যবহার করে ছানার ঝুরি বানিয়ে নিতে পারেন। দেখতে অনেকটা সীতাভোগের মতো হবে। তবে খেয়াল রাখতে হবে, ছানা যেন মচমচে না হয়ে যায়। নরম থাকতে থাকতেই কড়াই থেকে তুলে আলাদা করে রাখুন।

এরপর আগে থেকে তৈরি করে রাখা রসের মধ্যে ছানার ঝুরিগুলি দিয়ে ঢেকে রাখুন। আধ ঘণ্টা পরে রস থেকে ছানার ঝুরি তুলে উপর থেকে কাজু, কিশমিশ আর ছোট ছোট গোলাপজামুন দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

জাতীয়3 mins ago

দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী

বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ  উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী রোববার (১৪ এপ্রিল) দেশজুড়ে উদযাপিত হবে বাংলা নববর্ষ।...

ক্রিকেট2 hours ago

পা ভাঙ্গার ভয়ে ২-৩ বছর বুমরাহ’র বল খেলেননি সূর্যকুমার!

‘জাসপ্রিত বুমরাহকে নিজেদের দলে পাওয়া সবসময়ই দারুণ। আর গত দুই-তিন বছরে নেটে কখনই আমি তার বল মোকাবিলা করিনি। কারণ সে...

ফায়ার-সার্ভিস ফায়ার-সার্ভিস
জাতীয়3 hours ago

নিয়ন্ত্রণে এসেছে বাড্ডার আগুন

নিয়ন্ত্রণে এসেছে রাজধানীর বাড্ডার সাঁতারকুল ইয়াসিন নগরে গ্যারেজে লাগা আগুন। ফায়ার সার্ভিসের আধা ঘণ্টার চেষ্টায় শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দুপুর পৌনে...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা4 hours ago

এবার বাড্ডায় আগুন

রাজধানীর বাড্ডায় একটি গ্যারেজে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে যাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এর...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা6 hours ago

হাজারীবাগে বস্তিতে আগুন

রাজধানীর হাজারীবাগ বেড়িবাঁধ এলাকায় একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৭টি ইউনিট। শুক্রবার (১২ এপ্রিল)...

বার্ণ ইউনিট বার্ণ ইউনিট
দুর্ঘটনা7 hours ago

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নারী-শিশুসহ দগ্ধ ৬

রাজধানীর মিরপুরের ভাসানটেকে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নারী-শিশুসহ ৬ জন দগ্ধ হয়েছেন। দগ্ধরা হলেন, মেহরুন্নেছা (৬৫), সূর্য বানু (৩০), লিজা(১৮), লামিয়া...

আগুন আগুন
দুর্ঘটনা8 hours ago

এস আলমের অয়েল মিলে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৪ ইউনিট

চট্টগ্রামে মইজ্জারটেক এলাকায় অবস্থিত এস আলম এডিবল অয়েল মিলে আগুন লেগেছে। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) সকাল ৮টা ২০ মিনিটের দিকে আগুনের...

জাতীয়21 hours ago

সম্প্রীতির বন্ধনকে যেন আরও দৃঢ় করতে পারি :পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা আমাদের দেশে যে সম্প্রীতি আছে, সেই সম্প্রীতির বন্ধনকে যেন আরও দৃঢ় করতে পারি। একই সঙ্গে আমাদের...

দুর্ঘটনা21 hours ago

ঈদের দিন মোটরসাইকেল কেড়ে নিলো ৮ প্রাণ

ঈদের আনন্দে মোটর সাইকেল নিয়ে ঘুরতে বেড়িয়ে সড়কে প্রাণ গেলো ৮ জনের। পঞ্চগড়, নেত্রকোনা, ও খাগড়াছড়ি জেলায়  মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার নিহতের...

দেশজুড়ে23 hours ago

ঈদে বিজিবি-বিএসএফ মিষ্টি বিনিময়

পবিত্র ঈদুল ফিতরের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে দিনাজপুরের হিলি সীমান্তে বিজিবি ও ভারতীয় সীমান্ত রক্ষীবাহিনী (বিএসএফ) একে অপরকে মিষ্টি উপহার...

Advertisement
জাতীয়3 mins ago

দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী

দেশজুড়ে31 mins ago

বাংলা মদপানে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

সিলেট50 mins ago

গরুর জন্য ঘাস কাটা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৪০

পর্যটন51 mins ago

বান্দরবানের তিন উপজেলায় ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা

লঞ্চের-দড়ি-ছিড়ে-মৃত্যু
ঢাকা1 hour ago

লঞ্চের দড়ি ছিড়ে মৃত্যু: আসামিদের ৩ দিনের রিমান্ড

দেশজুড়ে2 hours ago

ঘুমন্ত অবস্থায় আগুনে পুড়ে শিশু নিহত

বৈসাবি-উৎসব
চট্টগ্রাম2 hours ago

পাহাড়জুড়ে বাজছে বৈসাবির সুর

ক্রিকেট2 hours ago

পা ভাঙ্গার ভয়ে ২-৩ বছর বুমরাহ’র বল খেলেননি সূর্যকুমার!

ডলার
অর্থনীতি2 hours ago

রেমিট্যান্সে চাঙ্গা ভাব, বেড়েছে রিজার্ভ

আন্তর্জাতিক2 hours ago

ইসরাইলে কর্মরত নাগরিকদের সতর্ক করলো যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য

সৌদি আরব
আন্তর্জাতিক5 days ago

সৌদি আরবে ঈদ কবে- যা জানা গেলো

জনদুর্ভোগ5 days ago

ঢাকাকে আলোকিত করতে গ্রামের বিদ্যুৎ ছিনিয়ে নেয়া হচ্ছে

সৌদি আরব
আন্তর্জাতিক4 days ago

সৌদিতে ঈদ বুধবার

আন্তর্জাতিক2 days ago

বিড়াল বাঁচাতে গিয়ে একই পরিবারের ৫ জন নিহত

সেনাবাহিনী প্রধান
বাংলাদেশ5 days ago

বিচ্ছিন্নতাবাদীদের দমনে কম্বিং অপারেশন শুরু: সেনাপ্রধান

টুকিটাকি6 days ago

মহাকাশে তারার বিস্ফোরণ, জীবনে দেখা যাবে একবারই

আন্তর্জাতিক4 days ago

ঈদের তারিখ জানালো অস্ট্রেলিয়া

বিএনপি4 days ago

ব্যারিস্টার খোকনকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত পাঠানো হয়েছে লন্ডনে

আন্তর্জাতিক5 days ago

৬ মাসে হামাসকে কতটুকু ধ্বংস করতে পেরেছে ইসরায়েল

চাঁদপুর,-তরুণীর-লাশ
চট্টগ্রাম5 days ago

প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে এসে লাশ হলেন তরুণী

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসিনা
জাতীয়2 weeks ago

গায়ের চাদর না পুড়িয়ে বউদের ভারতীয় শাড়ি পোড়ান: প্রধানমন্ত্রী

ফুটবল3 weeks ago

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ব্রাজিল কোচ জানালেন এটা মাত্র শুরু

টুকিটাকি3 weeks ago

জিলাপির প্যাঁচে লুকিয়ে আছে যে রহস্য!

অর্থনীতি4 weeks ago

বাজারে লেবুর সরবরাহ বেশি, তবুও দাম চড়া

রেশমা
বাংলাদেশ1 month ago

রাজধানীতে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার কিশোরীর ঠিকানা খুঁজছে পুলিশ

হলিউড1 month ago

নীল দুনিয়ায় অভিনেত্রী সোফিয়ার রহস্যজনক মৃত্যু

ফুটবল1 month ago

জামালকে ঠিকঠাক বেতন দেয়নি আর্জেন্টাইন ক্লাব

টুকিটাকি1 month ago

রণবীরের ‘অ্যানিম্যাল’ দেখে শখ, মাইনাস ২৫ ডিগ্রিতে বসলো বিয়ের আসর

অর্থনীতি1 month ago

গরুর মাংসের দাম কেজি প্রতি পৌনে ৬ লাখ টাকা!

অপরাধ2 months ago

ডিবিতে যে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

সর্বাধিক পঠিত