Connect with us

লাইফস্টাইল

থাইরয়েড ডেকে আনতে পারে ক্যানসারও!

Avatar of author

Published

on

থাইরয়েড

থাইরয়েড মানবদেহের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি গ্রন্থি। গলা এবং ঘাড়ের মাঝামাঝি স্থানে অবস্থিত এই গ্রন্থিটি বিভিন্ন ধরনের হরমোন নিঃসরণ করে এবং দেহের প্রায় সব ধরনের বিপাক প্রক্রিয়ায় একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সময় থাকতে থাইরয়েডের চিকিৎসা না করালে, শারীরিক সমস্যা বাড়তে পারে। ঝুঁকি থেকে যায় ক্যানসারেরও। থাইরয়েডের চিকিৎসা দীর্ঘ মেয়াদি, কিন্তু খাওয়াদাওয়ার বিষয়ে সামান্য খেয়াল রাখলেই এই সমস্যার মোকাবিলা করা যেতে পারে। জেনে নিন থাইরয়েডের সমস্যা থাকলে রোজকার ডায়েটে কী কী রাখবেন।

থাইরয়েড গ্রন্থির কার্যকারিতা বৃদ্ধি করতে কিছু উপাদানের মাত্রা বেশি হওয়া প্রয়োজন। থাইরয়েডের সমস্যা থাকলে ডায়েটে জিঙ্ক, আয়োডিন, কপার, আয়রন, ভিটামিন সি, ম্যাগনেশিয়াম, সেলেনিয়াম, ভিটামিন ই- এর সঠিক ভারসাম্য জরুরি।

থাইরয়েড থাকলে কোন খাবার খাবেন?

কপার এবং আয়রন দুটোই থাইরডের মোকাবিলা করতে জরুরি। টাটকা মাংস, ওয়েস্টার, কাজু, গমের আটায় প্রচুর পরিমাণে কপার রয়েছে। সবুজ শাকসবজি, বিন, বিভিন্ন ধরনের ডাল, সামুদ্রিক মাছ, পোলট্রির ডিমে রয়েছে আয়রন। সেই সঙ্গেই ভিটামিন সি-এর ভারসাম্য বজায় রাখতে খান লেবু, টোম্যাটো, ক্যাপসিকাম খান। থাইরয়েডের সমস্যা থাকলে সূর্যমুখীর তেল কিংবা বাদাম তেলে রান্না করতে পারেন, এতে ভিটামিন ই থাকে। বিভিন্ন রকম বাদাম, সূর্যমুখীর বীজ, মাশরুমে থাকে সেলেনিয়াম, যা থাইরয়েডের সমস্যা মোকাবিলা করতে প্রয়োজনীয়।

কোন খাবার এড়িয়ে চলবেন?

Advertisement

বাঁধাকপি, ফুলকপি, ব্রকোলি, ছোলা জাতীয় খাবার থাইরয়েড বৃদ্ধি করে। এ ছাড়াও সর্ষে, মুলো, রাঙা আলু এড়িয়ে চলাই ভাল। থাইরয়েড বেড়ে গেলে দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার যেমন পনির, চিজ ডায়েট থেকে বাদ দিন। চিনি, রান্না করা গাজর, পাকা কলা, শুকনো ফল, মধু, ময়দার রুটি, সাদা ভাত, আলু, সাদা পাস্তা, মিষ্টি শরীরে কার্বহাইড্রেটের মাত্রা বৃদ্ধি করে। থাইরয়েড থাকলে কার্বহাইড্রেট কম খাওয়াই ভাল। চা, কফি, চকোলেট, নরম পানীয়, প্রক্রিয়াজাত খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন।

প্রতিবেদনটি সচেতনতার উদ্দেশ্যে লেখা হয়েছে। ডায়েটে কোনও রকম বদল আনার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া জরুরি।

Advertisement

রূপচর্চা

তীব্র দাবদাহে ত্বকের যত্নে সাথে রাখুন এই ৫ প্রসাধনী

Avatar of author

Published

on

গরমে-ত্বকের-যত্ন

সারাদেশের তাপমাত্রার পারদ ছাড়িয়েছে ৪০ ডিগ্রি। বাইরে বেরোলেই ঝলসে যাচ্ছে চোখমুখ। সেই সঙ্গে ঘামে ভিজে চুপচুপে হয়ে যাচ্ছে শরীর। এই তীব্র দহনেও বাড়ি থেকে বেরোতে হচ্ছে অনেককেই। নিয়মিত অফিস যেতে হচ্ছে।

চিকিৎসকেরা ব্যাগে একটা পানির বোতল রাখার কথা বলছেন। তবে শুধু শরীর নয় পাশাপাশি খেয়াল রাখতে ত্বকেরও। আর এ কারণে সঙ্গে রাখতে হবে প্রয়োজনীয় কিছু প্রসাধনী। যা দিয়ে খানিকটা হলেও তাপপ্রবাহের সঙ্গে লড়াই করা সম্ভব হবে।

ফুট স্প্রে

রোদচশমা পরে, মাথা সহ মুখে ওড়না জড়িয়ে, ছাতার তলায় আশ্রয় নিয়ে ত্বকের খেয়াল তো রাখছেন। এদিকে গরমে পায়েরও যে ক্ষতি হচ্ছে, সে কথা মাথায় থাকে না। ঘাম জমে পায়ের পাতায় সংক্রমণ হতে পারে। তেমনই পায়ের পাতার ত্বকও শুষ্ক হয়ে যেতে পারে। তাছাড়া পা ঘেমে দুর্গন্ধ তো আছেই। সেক্ষেত্রে ফুট স্প্রে ব্যবহার করুন। উপকার পাবেন।

ফেস-মিস্ট,-ত্বকের-যত্ন

ফেস মিস্ট

গরমে ঘেমে মুখ তেলেতেলে হয়ে যায়। ফলে চটচট ভাব দূর করতে সব সময় মুখ ধুতে ইচ্ছা করে। আবার অত্যাধিক রোদে ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক হয়ে গিয়ে জ্বালা করে। ত্বকের আর্দ্রতা কমে যা। তাই ব্যাগে রেখে দিন ফেস মিস্ট। প্রয়োজনে মুখে স্প্রে করে নিন। ত্বক তরতাজা দেখাবে।

অ্যালোভেরা জেল

গরমে ব্যাগে অ্যালোভেরা জেল না রাখলেই নয়। ত্বক একটু শুষ্ক হয়ে গিয়েছে মনে হলেই মেখে নিন। তাছাড়া রোদে পোড়া, র‌্যাশ, ব্রণ— গরমের যে কোনও সমস্যায় ত্বকের জ্বালা ভাব কমিয়ে ঠান্ডা রাখতে পারে অ্যালোভেরা জেল। তাই ব্যাগে অবশ্যই এটা রাখুন।

Advertisement

অ্যালোভেরা জেল

সানস্ক্রিন

গরমের অত্যন্ত প্রয়োজনীয় প্রসাধনী। বাইরে বেরোনোর আগে ত্বকে সানস্ক্রিন লাগাবেন তো বটেই। তবে সঙ্গেও রাখতে ভুলবেন না। রোদের ক্ষতিকারক প্রভাব থেকে ত্বক সুরক্ষিত রাখতে সানস্ক্রিন ব্যবহার করা জরুরি।

সুগন্ধি

বাইরে বেরোলেই ঘামে ভিজে যাচ্ছে শরীর। ঘাম জমে দুর্গন্ধও হচ্ছে। ঘাম এবং দুর্গন্ধের অস্বস্তি কাটাতে সুগন্ধি ব্যবহার করতে ভুলবেন না। বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় তো মেখে আসবেন বটেই। তবে সঙ্গেও রাখতে হবে।

 

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

লাইফস্টাইল

গরমে ফলের রস নাকি স্যালাইন?

Avatar of author

Published

on

গরমে

গত কয়েকদিনে ধরে দেশ জুড়ে শুরু হয়েছে তাপদাহ। এই সময়ে শরীরে পানির ঘাটতি তৈরি হয়। ফলে শরীর দ্রুত ক্লান্ত হয়। শরীরের পানিশূন্যতা পূরণ করে ক্লান্তি দূরতে পানি এবং পানীয় জাতীয় খাবারের কোনো বিকল্প নেই।

তবে অনেকেই মনে করেন দ্রুত পানিশূন্যতা পূরণে স্যালাইন খেলে ভালো ফল পাওয়া যায়। আবার অনেকে ভরসা রাখেন ফলের রসের ওপর। যার কারণে গরমের শুরু থেকেই ওআরএস এবং ফলের রস খাওয়ার প্রবণতা বেড়েছে।

কিন্তু প্রশ্ন হল, এই দুই ধরনের পানীয়ের মধ্যে কোনটা খেলে শরীরকে সুস্থ-সবল রাখতে পারবেন?

ফলের রস মহৌষধি

পুষ্টিবিদদের মতে, গরমে তাজা ফলের রস নিয়মিত খাওয়া যেতেই পারে। তাতে যেমন পানির ঘাটতি মিটে যায়, ঠিক তেমনই শরীরে প্রবেশ করবে অত্যন্ত উপকারী সব অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। শুধু তাই নয়, যে কোনও ফলের রস থেকেই পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন এবং খনিজ মেলে। তাই এই গরমে শরীর ও স্বাস্থ্যের জন্য নিয়মিত যেকোন ফলের রস পান করা ভালো। তাতেই শরীরে উপকার পাবেন হাতেনাতে।

Advertisement

স্যালাইনের উপকারিতা

প্রতিদিন অসংখ্য মানুষের প্রাণ বাঁচিয়ে এসেছে ওরাল রিহাইড্রেশন সলিউশন বা স্যালাইন। কোনও কারণে ডিহাইড্রেশন হলে শরীর থেকে পানির পাশাপাশি সোডিয়াম-পটাশিয়াম এবং অন্যান্য খনিজ উপাদান দ্রুত গতিতে বাইরে বেরিয়ে যায়। আর সেই সুবাদে আক্রান্তের স্বাস্থ্যের দ্রুত অবনতি হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। আর এমন সংকটময় পরিস্থিতিতে দেহে পানি এবং অন্যান্য খনিজের ভারসাম্য ফেরানোর কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ওআরএস। তাই সারা পৃথিবী জুড়েই ওআরএস-এর এতটা চাহিদা।

ফলের রস নাকি স্যালাইন?

পুষ্টিবিদরা বলছেন, গরমের এই সময়ে, এই দুই পানীয়ই শরীরের জন্য খুবই উপকারী। তাই প্রচণ্ড গরমে সুস্থ থাকতে চাইলে ফলের রস এবং স্যালাইন, এই দুই পানীয়ই ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেতে হবে। তবে ডিহাইড্রেশন হলে বা ডায়রিয়ার কবলে পড়লে তখন আর ফলের রসে কাজ হবে না। তখন অবশ্যই নিয়ম মেনে স্যালাইন খেতে হবে।

বাড়িতেই বানান ফলের রস

Advertisement

ফলের রস খেতে চাইলে ঘরেই তাজা ফল থেকে রস করে খাওয়া উচিত। বাজারজাত যে কোনও বোতলবন্দি ফলের রস খেলে কিন্তু কোন লাভ পাবেন না। কারণ এইসব ফলের রসে চিনি এবং ফ্লেভার মিশ্রিত থাকে যা কিনা শরীরের উপকারের বদলে ক্ষতি করে বেশি।

তার চেয়ে বরং গরমে সুস্থ থাকতে টাটকা ফল কিনে এনে বাড়িতে রস করে খান। তবে ডায়াবেটিস, হার্টের অসুখ বা অন্য কোনও ক্রনিক রোগ থাকলে নিয়মিত ফলের রস খাওয়ার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

তবে ফলের রস আর স্যালাইন যেটাই খান না কেনো, নিয়মমাফিক অবশ্যই প্রতিদিন অন্তত দুই লিটার করে পানি পান করতে ভুলবেন না।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

রেসিপি

ওজন ঝরাতে নাস্তায় যে ৫ খাবার খাবেন

Avatar of author

Published

on

সকালের নাস্তা

সময় মেনে অফিসে ঢুকলেও বেরোনোর কোনও ঠিক থাকে না। ফলে ঠিক সময়ে খাওয়াদাওয়াও হয় না। কিন্তু দিনভর কাজ করতে হলে শরীর তো চাঙ্গা রাখতেই হবে। তাই ঠিকঠাক খাবার খাওয়া জরুরি। এক্ষেত্রে সকালের নাস্তাটাই খেতে হবে পেট ভরে।

অফিসে বেরোনোর তাড়াহুড়োয় সকালে অনেকেই ইনস্ট্যান্ট নুডল্‌স, পাস্তা, কিংবা আগের দিনের বেঁচে যাওয়া কোনও খাবার খেয়ে নেন, যা মোটেই স্বাস্থ্যকর নয়। অনেকেই আবার খালি পেটেই অফিসে চলে যান, যা শরীরের পক্ষে আরও খারাপ। ওজন বাগে রাখতে পেট ভরবে অথচ ক্যালোরিও বাড়বে না, এমন প্রাতরাশ করতে হবে। অল্প ক্যালোরির মধ্যে সুস্বাদু কোন খাবার রাখতেই পারেন সকালের নাস্তার টেবিলে।

মুগ ডাল চাট

অঙ্কুরিত গোটা মুগ ডালে পেঁয়াজ, কাঁচা মরিচ, ধনেপাতা, টম্যাটো, লেবু মিশিয়ে চাট বানিয়েও খেতে পারেন। এক বাটি চাটে ১০০ ক্যালোরি যায় শরীরে।

মশলা অমলেট

তিনটে ডিমের সাদা অংশ এবং একটা ডিমের হলুদ অংশ ভাল করে ফেটিয়ে নিন। এ বার সেই মিশ্রণে মিশিয়ে দিন পালং শাক কুচি, পেঁয়াজ কুঁচি, টম্যাটো কুচি, লবন, গোলমরিচ। খুব ভাল করে ফেটিয়ে নিয়ে নিন মিশ্রণটি। ফ্রায়িং প্যানে খুব সামান্য তেলে ভেজে নিন অমলেট। এতে প্রায় ২৫০ ক্যালোরি থাকে। সঙ্গে একটা মাল্টিগ্রেড পাউরুটি খেতে পারেন।

ওটস উত্থাপম

ওটসের গুঁড়ো, সামান্য সুজি, দই, পানি মিশিয়ে একটি ঘোল তৈরি করে নিন। আধ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখার পর সেই মিশ্রণে পেঁয়াজ কুচি, কাঁচা মরিচ কুচি, টমেটো কুচি, ক্যাপসিকাম কুচি, ধনেপাতা কুচি আর লবন মিশিয়ে একটি ঘন মিশ্রণ বানিয়ে নিন। এবার অল্প তেলে প্যান কেকের মতো ভেজে নিন। একটা ওটস উত্থাপমে প্রায় ১২৫ ক্যালোরি থাকে।

Advertisement

ওটস

মুগ ডালের চিলা

সবুজ মুগ ডাল সারা রাত ভিজিয়ে রেখে পরের দিন পানি ঝরিয়ে বেটে নিন। এবার ডালের মিশ্রণে পেঁয়াজ কুচি, কাঁচা মরিচ কুচি, ধনেপাতা কুচি, নুন, ক্যাপসিকাম কুচি আর সামান্য পানি দিয়ে ভাল করে ফেটিয়ে নিন। এবার অল্প তেলে প্যান কেকের মতো ভেজে নিন। পুদিনার চাটনির সঙ্গে গরম গরম খেতে পারেন মুগ ডালের চিলা। একটা চিলা খেলে প্রায় ১৫০ ক্যালোরি শরীরে যায়।

ওটসের কাটলেট

ওটস খানিকটা পানিতে ভিজিয়ে সেই মিশ্রণটি মিক্সিতে বেটে নিন, তারপর তাতে পেঁয়াজ, কাঁচা মরিচ, ধনেপাতা, টমেটো সব ধরনের মশলা দিয়ে টিক্কির আকারে গড়ে নিন। অল্প তেলে ভাল করে ভেজে নিলেই তৈরি সুস্বাদু খাবার। একটি মাঝারি মাপের টিক্কিতে ৮৬ ক্যালোরি থাকে।

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

জাতীয়

বাংলাদেশ7 hours ago

সারাদেশে হিট স্ট্রোকে আট জনের মৃত্যু

তীব্র দাবদাহে সারাদেশে হিট স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে ৮ জন মৃত্যুবরণ করেছেন । এর মধ্যে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে দুইজন, পাবনায় একজন, মেহেরপুরে...

তিতাস-গ্যাস তিতাস-গ্যাস
জাতীয়9 hours ago

সোমবার গ্যাস থাকবে না যেসব এলাকায়

গ্যাস পাইপলাইনের জরুরি কাজের জন্য সোমবার (২২ এপ্রিল) ঢাকা জেলার বিভিন্ন স্থানে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। রোববার (২১ এপ্রিল) গণমাধ্যমে...

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসনিা প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসনিা
বাংলাদেশ10 hours ago

দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বাংলাদেশ সর্বদা প্রস্তুত : প্রধানমন্ত্রী

যেকোনো বহিঃশত্রুর আক্রমণ থেকে দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বাংলাদেশ সর্বদা প্রস্তুত ও দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমাদের বৈদেশিক...

দেশজুড়ে13 hours ago

সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ ঘোষণা

প্রচন্ড তাপদাহে পুড়ছে চুয়াডাঙ্গা। জেলাটিতে আজ রোববার (২১ এপ্রিল) বিকাল ৩ টায়  সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪২ দশমিক ২...

দুর্ঘটনা13 hours ago

ঈদযাত্রায় সড়কে ঝরলো ৩২০ প্রাণ : বিআরটিএ

এবার ঈদযাত্রার ১৭ দিনে সারা দেশে ২৬৮টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৩২০ জন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ)।...

আমির আমির
জাতীয়13 hours ago

কাতারের আমির আসছেন কাল, সই হবে ৬ চুক্তি ও ৫ সমঝোতা

আগামীকাল সোমবার (২২এপ্রিল ) দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে বাংলাদেশে আসছেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল-থানি। একটি বিশেষ বিমানে...

অপরাধ13 hours ago

যেকোন সময় কারিগরি বোর্ডের চেয়ারম্যানকে জিজ্ঞাসাবাদ : ডিবি

তথ্য-উপাত্তে যদি জাল সার্টিফিকেট তৈরির সঙ্গে বাংলাদেশ কারিগরি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. আলী আকবর খানের সংশ্লিষ্টতা থাকার প্রমাণ পাওয়া যায়। তাহলে...

ব্যারিস্টার-সুমন ব্যারিস্টার-সুমন
আইন-বিচার14 hours ago

বেনজীরের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে যা বললেন ব্যারিস্টার সুমন

দুদকে ধাক্কা না দিলে কোনো কাজ হয় না। সাবেক পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজির আহমেদের বিরুদ্ধে ওঠা দুর্নীতির তদন্ত না হলে...

বাংলাদেশ14 hours ago

আজ দেশের আকাশে দেখা যাবে শিংওয়ালা ধূমকেতু

প্রায় ৭১ বছর পর আজ রোববার (২১ এপ্রিল) সূর্যের সবচেয়ে কাছে অবস্থান করবে ধূমকেতু ১২পি/পনস–ব্রুকস- যা ডেভিল ধূমকেতু বা শিংওয়ালা...

জাতীয়14 hours ago

হাসপাতাল প্রস্তুত রাখার নির্দেশ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

তীব্র দাবদাহের কারণে প্রতিকূল পরিস্থিতিতে সারা দেশের হাসপাতালগুলোকে প্রস্তুত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন। রোববার (২১ এপ্রিল)...

Advertisement
আন্তর্জাতিক6 hours ago

পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতের চার রাজ্যে রেড অ্যালার্ট জারি

বাংলাদেশ7 hours ago

সারাদেশে হিট স্ট্রোকে আট জনের মৃত্যু

ফুটবল7 hours ago

ম্যানসিটির কাছে হেরে থিয়াগো সিলভা কান্না

আওয়ামী লীগ7 hours ago

২৬ এপ্রিল কর্মসূচি দিলো আওয়ামী লীগ

ঢাকা8 hours ago

ব্যাগে ফ্যান নিয়ে বের হওয়ার পরামর্শ দিলেন হিট অফিসার

তথ্য-প্রযুক্তি8 hours ago

যুক্তরাষ্ট্রে টিকটক বন্ধের প্রস্তাব পাস

আন্তর্জাতিক9 hours ago

ইসরাইলি হামলায় ইরানের ক্ষয়ক্ষতির ছবি প্রকাশ

তিতাস-গ্যাস
জাতীয়9 hours ago

সোমবার গ্যাস থাকবে না যেসব এলাকায়

চট্টগ্রাম9 hours ago

বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করতে নাফ নদীর ওপাড়ে রোহিঙ্গাদের ঢল

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসনিা
বাংলাদেশ10 hours ago

দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বাংলাদেশ সর্বদা প্রস্তুত : প্রধানমন্ত্রী

ব্যারিস্টার-সুমন
আইন-বিচার14 hours ago

বেনজীরের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে যা বললেন ব্যারিস্টার সুমন

প্রধানমন্ত্রী-শেখ-হাসিনা
জাতীয়4 weeks ago

গায়ের চাদর না পুড়িয়ে বউদের ভারতীয় শাড়ি পোড়ান: প্রধানমন্ত্রী

ফুটবল4 weeks ago

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ব্রাজিল কোচ জানালেন এটা মাত্র শুরু

টুকিটাকি1 month ago

জিলাপির প্যাঁচে লুকিয়ে আছে যে রহস্য!

অর্থনীতি1 month ago

বাজারে লেবুর সরবরাহ বেশি, তবুও দাম চড়া

রেশমা
বাংলাদেশ1 month ago

রাজধানীতে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার কিশোরীর ঠিকানা খুঁজছে পুলিশ

হলিউড1 month ago

নীল দুনিয়ায় অভিনেত্রী সোফিয়ার রহস্যজনক মৃত্যু

ফুটবল2 months ago

জামালকে ঠিকঠাক বেতন দেয়নি আর্জেন্টাইন ক্লাব

টুকিটাকি2 months ago

রণবীরের ‘অ্যানিম্যাল’ দেখে শখ, মাইনাস ২৫ ডিগ্রিতে বসলো বিয়ের আসর

অর্থনীতি2 months ago

গরুর মাংসের দাম কেজি প্রতি পৌনে ৬ লাখ টাকা!

সর্বাধিক পঠিত