Connect with us

ক্রিকেট

ঘরের মাঠে রংপুরের কাছে হার ম্যাশদের

Avatar of author

Published

on

বিপিএলে সিলেট পর্বের প্রথম খেলায় রংপুরের কাছে ৬ উইকেটে পরাজয় বরণ করেছে স্বাগতিক সিলেট স্ট্রাইকার্স। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৯২ রান তুলতে সক্ষম হয় ম্যাশরা। জবাবে ১৫.৪ ওভার খেলেই ৪ উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় রংপুর রাইডার্স।

শুক্রবার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টচ জিতে রংপুরের অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন। টচে হরে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই যাওয়া আসার মধ্যে ছিলেন সব ব্যাটার। নাজমুল শান্তর ৯ ও টম মোরেস ২ রানের পর, তৌহিদ হৃদয়, জাকির হাসান  ও মুশফিকুর রহিম ফেরেন খালি হাতে। ১৮ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে দল যখন অর্ধশত করতে পাবে কি না এমন শঙ্কায়, তখনি দলের হাল ধরেন অধিনায়াক মাশরাফি ও তানজিম সাকিব।

দুজনে মিলে গড়েন ৪৮ রানের জুটি। এরপর ব্যক্তিগত ২১ রানে ক্যাচ আউট হয়ে ফেরেন মাশরাফি। তখন ব্যাট চালাতে থাকেন সাকিব। কিন্তু দলীয় ৮৫ রানের মাথায় ৪১ রানে বোল্ড আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন এই পেসার। রংপুরের হয়ে হাসান মাহমুদ এবং আজমতউল্লাহ ওমরজাই সংগ্রহ করেন সর্বোচ্চ ৩ টি করে উইকেট।

 

আরও পড়ুনঃ গোল শূন্য রোনালদো, সুপার কাপ থেকে দলের বিদায়

Advertisement

 

জবাবে ৯৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই চাপ মুক্ত ভাবেই খেলে যায় রংপুর। দলের দুই ওপেনার নাইম শেখ ও রনি তালুকদার মিলে গড়েন ২৭ রানের ওপেনিং জুটি। ২১ বলে ১৮ করে নাইম ফিরে গেলে দলীয় ৪৪ রানের মাথায় ফিরে যায় আরও দুই ব্যাটার মেহেদী হাসান (৪) এবং শোয়েব মালিক (০)।

রংপুরের এক প্রান্তে উইকেট পড়তে থাকলেও অপর প্রান্তে ব্যাট হাতে অবিচল ছিলেন রনি তালুকদার। ২ টি করে চার ও ছক্কায় ৩৮ বলে ৪১ রান করে অপরাজিত ছিলেন দলের জয় পর্যন্ত। সিলেটের হয়ে অধিনায়ক মাশরাফি নেন সর্বচ্চো ২ টি উইকেট।

আর পড়ুনঃ মাদ্রিদ ডার্বিতে রিয়ালের ত্রাতা রদ্রিগো

Advertisement
Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক রুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন লগিন

রিপ্লাই দিন

ক্রিকেট

সেপ্টেম্বরে ভারত সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল

Published

on

২০১৯ সালের পর বাংলাদেশ দল আবারও ভারত সফর করতে যাচ্ছে। আগামী সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসে ২ টি টেস্ট, ৩ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে দুই দল। ভারতীয় দলের নতুন মৌসুম শুরু হচ্ছে বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার মাধ্যমে। আজ (বৃহস্পতিবার) ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই সূচি প্রকাশ করেছে।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে ১৯ সেপ্টেম্বর প্রথম টেস্ট ম্যাচটি খেলবে বাংলাদেশ ও ভারত। চেন্নাইয়ের এম চিদাম্বরম স্টেডিয়াম এই ম্যাচের ভেন্যু। দ্বিতীয় টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে কানপুরে, ২৭ সেপ্টেম্বর।

দুই দল ৬, ৯ ও ১৯ অক্টোবর ৩ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে। এই ম্যাচ তিনটির ভেন্যু হিসেবে থাকছে ধর্মশালা, দিল্লি ও হায়দ্রাবাদ।

 

এম/এইচ

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ক্রিকেট

পাকিস্তানের নির্বাচক প্যানেলে আবারও পরিবর্তনের আভাস

Published

on

বিশ্বকাপে আবারও বাজে পারফরম্যান্স, পাকিস্তানের আবারও ম্যানেজমেন্টে বদল! এই চিত্র যেন এখন খুব পরিচিত। চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব পেরোতে পারেনি পাকিস্তান দল। আর তাতেই নতুন করে আলোচনা উঠছে নির্বাচক প্যানেল নিয়ে। পরিবর্তন হতে পারে পাকিস্তানের ৭ সদস্যের নির্বাচক প্যানেল।

ওয়াহাব রিয়াজকে প্রধান নির্বাচক করে পাকিস্তানের নির্বাচক প্যানেল কাজ করে যাচ্ছিল। ওয়াহাবকে তার জায়াগায় রাখছে না পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। এখন পর্যন্ত এতটুকু জানা গেছে ক্রিকেট-ভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘ক্রিকইনফো’র বরাতে।

এদিকে বাবর আজমের অধিনায়কত্ব নিয়েও নতুন করে আলোচনা উঠছে। যে বাবর ওডিআই বিশ্বকাপের পর নেতৃত্ব ছেড়েছেন, আবার নতুন করে তাকে নেতৃত্ব দেওয়া হয়েছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে। বোর্ড অবশ্য বাবরকে নিয়ে এখনই নতুন কিছু ভাবছেন না।

 

এম/এইচ

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ক্রিকেট

ভারতের সাবেক পেসার ডেভিড জনসনের মৃত্যু!

Published

on

ভারতের সাবেক ফাস্ট বোলার ডেভিড জনসন মারা গেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫২ বছর। তার এই মৃত্যু নিয়ে কিছুটা ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। ভারতীয় বেশ কিছু গণমাধ্যম দাবি করছে, ব্যালকনি থেকে নিচে পড়ে মৃত্যু ঘটেছে তার। তিনি তার সময়ে গতি দিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটে বেশ পরিচিত ছিলেন।

ঘরোয়া ক্রিকেটে কর্নাটকের হয়ে পারফরম্যান্সের মাধ্যমে ভারতীয় দলে সুযোগ হয় জনসনের। ঘরোয়া ক্রিকেটেই মূলত উজ্জ্বল ছিলেন তিনি। জাতীয় দলে মাত্র ২ টি টেস্ট খেলার সুযোগ হয়েছিল। ১৯৯৫-৯৬ রঞ্জি ট্রফিতে ১৫২ রান দিয়ে ১০ উইকেট সংগ্রহ করেন এই বোলার।

দিল্লিতে ১৯৯৬ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় জনসনের। দক্ষিণ আফ্রিকতেও সফর করেছিলেন তিনি। সুযোগ হয়েছিল একটি ম্যাচ খেলার। এই ম্যাচে ৩ উইকেট সংগ্রহ করেন তিনি। মূলত বোলিংয়ে নিয়ন্ত্রণের অভাব ছিল বলে জানা যায়। ফলে জাতীয় দলে আর সেভাবে সুযোগ হয়নি জনসনের।

Advertisement

প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ৩৯ ম্যাচ খেলে ১২৫ টি উইকেট সংগ্রহ করেন তিনি। যেখানে তার গড় ছিল ২৮৬৩ এবং স্ট্রাইক রেট ছিল ৪৭ ৪। লোয়ার অর্ডার ব্যাটার হিসেবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে একটি সেঞ্চুরিও আছে তার।

Advertisement

জনসন ৩৩ টি লিস্ট এ ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে উইকেট সংগ্রহ করেছেন ৪১ টি। ২০১৫ সালে কর্নাটক প্রিমিয়ার লিগে সর্বশেষ ম্যাচটি খেলেছেন এই ফাস্ট বোলার। জনসনের মৃত্যুতে ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট ভারতীয় ব্যক্তিবর্গ শোক জানিয়েছেন।

 

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত