Connect with us

ফুটবল

শুভ জন্মদিন নেইমার জুনিয়র ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো

Published

on

৫ ফেব্রুয়ারি ফুটবল সমর্থকদের জন্য অন্যতম একটি সেরা দিন। আজকের এই দিনেই আগমন ঘটেছিল সময়ের অন্যতম সেরা দুই তারকা নেইমার জুনিয়র ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর।

পেলের পর ফুটবলারের কারখানা ব্রাজিলে জন্ম নিয়েছে জিকো, কাফু, রোনালডো, রোনালদিনহো, রবার্ত কার্লোস কিংবা কাকা। এদের প্রত্যেকের হাতেই রয়েছে এক বা একাধিক বিশ্বকাপ। কিন্তু এতো তারকাদের ভীড়ে যাকে বলা হতো আগামীর পেলে, পেলের একমাত্র উত্তরসূরি সেই নেইমার জুনিয়র।

এক দশকের বেশি সময় ধরে ৫ তারকা ওজনের জার্সিটার প্রতিনিধিত্ব করে আসছে নেইমার। ব্যক্তিগত কিংবা দলীয় ভাবে অর্জনের ঝুলিটা খুব বেশি ভারী নয় তার। তবুও সেলেসাও ছন্দে কোটি কোটি ফুটবল প্রেমীর হৃদয় অর্জন করে নিয়েছেন নেইমার ডা সিলভা সান্তোস জুনিয়র।

১৯৯২ সালের আজকের দিনে ব্রাজিলের মগি দাস ক্রুজেসে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। মাত্র ৯ বছর বয়সে ফুটবল সম্রাট পেলের স্মৃতিবিজড়িত ক্লাব সান্তোসে নাম লিখিয়েছিলেন।  ২০১৩ মৌসুমে যোগ দেন স্বপ্নের ক্লাব বার্সেলোনায়। এরপর ২০১৭ সালে রেকর্ড পরিমাণ অর্থে জমান পিএসজিতে।

আরেক ইউরোপীয়ান ফুটবলের জাদুকর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ৫ বারের ব্যালন বিজয়ী এই তারকার রয়েছে পাঁচটি উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ  এবং একটি উয়েফা নেশম লিগ শিরোপা। পর্তুগালের মাদেইরা শহরে ১৯৮৫ সালে ফেব্রুয়ারির আজকের দিনে জন্মগ্রহণ করেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগানের সঙ্গে মিল রেখে মা-বাবা নাম রেখেছিলেন রোনালদো।

Advertisement

সিআর সেভেন খ্যাত রোনালদোর পর্তুগাল জাতীয় দলের ২০০৩ সালের আগস্ট মাসে কাজাকিস্তানের বিরুদ্ধে তার অভিষেক ঘটে। তিনি জাতীয় দলের হয়ে ১০০ এর অধিক ম্যাচ খেলেছেন এবং পর্তুগালের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের অধিকারী।

Happy birthday, Neymar and Ronaldo! | UEFA Champions League | UEFA.com

ফুটবল বিশ্বের অন্যতম সেরা দুই তারকাই জন্মদিন আজ। একজন পা রাখলেন ৩৮ বছরে আর অন্যজন ৩১ বছরে।

‘শুভ জন্মদিন’ বর্তমান ফুটবলের অন্যতম সেরা দুই মহাতারকা।

Advertisement
মন্তব্য করতে ক্লিক রুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন লগিন

রিপ্লাই দিন

ফুটবল

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়েই থাকছেন টেন হাগ

Published

on

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ম্যানেজার হিসেবে এরিক টেন হাগ থাকছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। ক্লাবটি টেন হাগের সাথে চুক্তি বাড়ানোর জন্য আলাপ-আলোচনা শুরু করেছে। পরের মৌসুমে যে দলের সাথে থাকছেন তিনি, সেটা এখন পর্যন্ত ঠিকঠাক হয়েছে।

প্রিমিয়ার লিগের চলতি মৌসুমে ৮ নম্বরে অবস্থান করে লিগ শেষ করেছে ইউনাইটেড। আশাব্যঞ্জক কিছুই হয়নি। ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে কেবল এফএ কাপের ফাইনাল ম্যাচটি জিতে সাফল্য দেখিয়েছে তারা। এর বাইরে আর কোনো তৃপ্তি নেই তাদের।

টেন হাগকে নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছিল। এমন মৌসুম কাটানোর পর সাধারণত যেকোনো কোচ নিয়েই কথা ওঠে। বিভিন্ন প্রতিবেদনের মাধ্যমে দেখা যাচ্ছিল, হাগের সাথে আর নতুন কোনো চুক্তিতে যাবে না ইউনাইটেড।

তবে সব আলোচনা উড়ে গেল মুহূর্তে। ৫৪ বছর বয়সী নেদারল্যান্ডস কোচ আরও এক মৌসুম থাকছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে। তার সাথে চুক্তি বাড়ানোর চেষ্টা চালিয়ে যাবে ক্লাবটি, এমনটিও জানা যায়।

 

Advertisement

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

খেলাধুলা

সাব্কে ফুটবলার ডেভিড বেকহ্যাম এখন ‘বাগানের মালি’

Published

on

শেষ কবে ফুটবলে পা ঠেকিয়েছেন তা হয়তো অনেকের পক্ষেই বলা মুশকিল। তবে শিরোনামে থাকতে কষ্ট করতে হয় না ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক ডেভিড বেকহ্যামকে।  কখনও ছেলে, কখনও বিখ্যাত ফ্যাশনডিজাইনার ও গায়িকা বউ বা নিজের চোখ ধাঁধানো ফ্যাশনের বদৌলতে সবসময় মিডিয়ায় আলোচনায় থাকেন মার্কিন ক্লাব ইন্টার মিয়ামির এই মালিক। এবার বেকহ্যাম শিরোনাম হলেন `গোলাপ বাগানের মালি’ হয়ে।

ফুটবল ভালোবাসে তবে ডেভিড বেকহ্যামকে চেনেন না এমন সমর্থক পাওয়া মুশকিল। ক্যারিয়ারের প্রথম থেকেই তার খেলায় মুগ্ধ সকলে। অবিশ্বাস্য সব ফ্রি-কিকে ফুটবল দুনিয়ায় মন মাতাতেন তিনি।এবারও দর্শকদের মন মাতালেন। তবে ফুটবল মাঠে নয়, গোলাপ বাগানে কাজ করে। গোলাপ বাগানে কাজ করার একটি ভিডিও চিত্র নিজের ইনষ্টাগ্র্যামে পোষ্ট করেই নেট দুনিয়ায় রীতিমতো  ভাইরাল তিনি।

অনেকের কাছে বেকহ্যাম সর্বকালের সবচেয়ে সুদর্শন ফুটবলার। আবার মেসি – রোনালদো কিংবা কাকাদের আগে সবচেয়ে বড় ব্র্যান্ডও ছিলেন তিনি। এখনো বেকহ্যাম নিজেই একটা ব্র্যান্ড । এবার ‘মালি দেব’ রূপে নতুন ব্রান্ড অ্যাম্বাডেসর হিসেবে আবির্ভুত হলেন ডেভিড বেকহ্যাম।

স্ত্রী ভিক্টোরিয়ার উৎসাহে ৪৯ বছর বয়সী সাবেক এই ফুটবলার গত শনিবার ‘কুইন অব সুইডেন’ নামক গোলাপের চারা রোপনের একটি ভিডিও চিত্র শেয়ার করেন। এসময় বেকহ্যাম যেখানে ভুল করছিলেন, স্টার স্পোর্টসম্যানের অনুরাগীরা তার ওই ভুল শুধরে দিচ্ছিলেন এবং পরের দিন আরেকটি গোলাপের চারা রোপনের ভিডিও শেয়ার করতে অনুরোধ করেন। ভক্ত অনুরাগীদের পরামর্শের জন্য বেকহ্যাম ধন্যবাদ জানান।

গোলাপের চারা রোপনের সময় স্ত্রী ভিক্টোরিয়াকে বলতে শোনা যায়, ‘বেকহ্যাম বাগান করার জায়গাটি পছন্দ করেছেন’। বেকহ্যাম এসময় ভিক্টোরিয়াকে প্রশ্ন করেন-‘তুমি কী মনে করো গর্তটি এটি যথেষ্ট গভীর হয়েছে। জবাবে ভিক্টোরিয়া বলেন-দেখ, আমি বলতে চাচ্ছি সত্যিকার অর্থে তোমার জিজ্ঞাসা করার মতো আমি কেউ নই। চেষ্টা করে দেখো।’

Advertisement

ডেভিড বেকহ্যামের এই ভিডিওগুলো নেট দুনিয়ায় দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে।  শুধু লাইকই পড়েছে এক মিলিয়নের বেশি।ভিক্কিকরণ নামে এক নেটিজেন লিখেছেন- সোশ্যাল মিডিয়াতে ‘ডেভিড বেকহ্যাম বাগান’ কন্টেন্টটি আমার কাছে খুবই প্রিয় হয়ে উঠেছে।  বিশ্বকে একটি ভাল জায়গা হিসেবে গড়ে তোলা এবং ইতিবাচক হয়ে এধরণের ভিডিও শেয়ার করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।’ জনি ফরেষ্ট নামে আরেকজন লিখেছেন, ডেভিড বেকহ্যাম গার্ডেনিং শো দুর্দান্ত হিট হবে।

শুধু তাই নয়, নেটিজনদের অনেকে বিবিসি কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেছেন তারা যেনো ডেভিড বেকহ্যামস গার্ডেনিং বা  ‘ডেভেড বেকহ্যামের বাগান পরিচর্যা’ নামে একটি টিভি শো চালু করে। নেটিজেনরা মনে করছেন, ডেভিড বেকহ্যামের ভিডিওটি একটি টিভি সিরিজের টিজারের মতো  যেখানে কেউ জানতো না এটি তাদের প্রয়োজন হতে পারে। এর মাধ্যমে ডেভিড বেকহ্যাম বাগানের প্রভাবক হিসেবে আবির্ভূত হয়েছেন। আমরা কখনও জানতাম না যে এতে আমাদের প্রয়োজন রয়েছে।’

এমআর//

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ফুটবল

দি মারিয়ার গোলে আর্জেন্টিনার জয়, ফিরেছেন মেসি

Published

on

কোপা আমেরিকার আগে আর্জেন্টিনা জয় পেল ইউকুয়েডরের বিপক্ষে। প্রস্তুতিটা বেশ ভালোই হলো বলতেই হবে। আনহেল ডি মারিয়ার একমাত্র গোলে এগিয়ে যাওয়া দলটি শেষ পর্যন্ত সেই গোলেই জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে। দলীয় অধিনায়ক লিওনেল মেসি শুরুতে মাঠে না থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নেমেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সোলজার ফিল্ডে মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা ও ইকুয়েডর। ম্যাচের শুরুর দিকে আর্জেন্টিনাকে কিছুটা অগোছালো মনে হয়েছে। তবে নিজেদের সামলিয়ে উঠতে সময় লাগেনি খুব বেশি। সেই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ৪০ মিনিটে দি মারিয়া’র গোলে এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা।

আর কোনো গোল হজম করতে হয়নি ইকুয়েডরকে। আর এদিকে আর্জেন্টিনার জালেও কোনো গোল দিতে পারেনি তারা। প্রথমার্ধে মেসিকে ছাড়াই মাঠে নেমেছে আর্জেন্টিনা। কোচ লিওনেল স্কালোনি অবশ্য সুযোগ দিতে চেয়েছিলেন অন্যদেরকেও।

ম্যাচের ৫৬ মিনিটের দিকে দি মারিয়ার বদলি হিসেবে মাঠে নামেন মেসি। তবে মেসির পা থেকে কোন গোল পায়নি আর্জেন্টিনা। কিন্তু যখনই এই তারকার পায়ে বল ছিল পুরো স্টেডিয়াম প্রকম্পিত হয়ে যাচ্ছিল।

শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আর্জেন্টিনা।

Advertisement

আগামী ১৫ জুন কোপা আমেরিকার প্রস্তুতি ম্যাচে গুয়েতেমালার বিপক্ষে মাঠে নামবে আর্জেন্টিনা।

 

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত