Connect with us

ইউরোপ

টিউলিপের পর ব্রিটিশ মন্ত্রিসভায় বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুশনারা 

Avatar of author

Published

on

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি টিউলিপ সিদ্দিকের পর যুক্তরাজ্যের মন্ত্রিসভায় জায়গা পেলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ এমপি রুশনারা আলী।

যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী কেয়ার স্টারমারের নেতৃত্বাধীন মন্ত্রিসভায় বাসস্থান, কমিউনিটি ও স্থানীয় সরকারের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বাংলাদেশি অধ্যুষিত বেথানাল গ্রীন বো আসন থেকে টানা পাঁচবার এমপি নির্বাচিত হওয়া রুশনারাকে।

মন্ত্রী হিসেবে টিউলিপ সিদ্দিকের নাম ঘোষণার ঘণ্টাদুয়েক পরেই রোশনারা আলীর মন্ত্রীদের সংবাদ প্রকাশিত হয়।

মন্ত্রী হিসেবে টিউলিপ সিদ্দিকের নাম ঘোষণার ঘণ্টাদুয়েক পরেই রোশনারা আলীর মন্ত্রীদের সংবাদ প্রকাশিত হয়।

যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এমপি রুশনারা আলীর জন্ম সিলেটে। তার বয়স যখন সাত বছর তখন যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমায় তার পরিবার। তিনি অক্সফোর্ডের সেন্ট জনস কলেজ থেকে দর্শন, রাজনীতি ও অর্থনীতিতে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন।

Advertisement

রোশনারা আলী যুক্তরাজ্যে প্রথম বাংলাদেশি এমপি হিসাবে নির্বাচিত হয়ে ইতিহাসে নাম লিখিয়েছিলেন। যুক্তরাজ্যে বাঙালির জয়যাত্রা নিয়ে উঠে আসে রোশনারা আলীর নাম। এরপর টিউলিপ সিদ্দিক, রূপা হক, আপসানা বেগমসহ চার বাঙালি এমপি পেয়েছে বাঙালি কমিউনিটি।

গেলো সপ্তাহে (৪ জুলাই) অনুষ্ঠিত যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনে লেবার পার্টি থেকে টানা পঞ্চমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হন রুশনারা আলী। তিনি ২০১০ সাল থেকে চলতি বছর পার্লামেন্ট বাতিল করা পর্যন্ত বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো-এর সংসদ সদস্য (এমপি) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি লেবার পার্টির একজন সদস্য।

২০১০ থেকে আন্তর্জাতিক উন্নয়নবিষয়ক ছায়ামন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন রুশনারা আলী। এরপর তিনি ২০১৩ সালের অক্টোবরে ছায়া শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী নিযুক্ত হন।

জেএইচ

Advertisement
Advertisement

ইউরোপ

গিনেস বুকে বিশ্বের দীর্ঘতম বাইসাইকেলের নাম লিখালো ৮ প্রকৌশলী

Published

on

এতোদিন বিশ্বের দীর্ঘতম সাইকেল তৈরির রেকর্ড দখলে রেখেছিলো অস্ট্রেলিয়ার বার্নি রায়ান। তিনি ২০২০ সালে ১৫৫ ফুট দীর্ঘ ৮ ইঞ্চি চওড়া সাইকেল বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলো গোটা বিশ্বকে। এবার নেদারল্যান্ডসের ৭ জন প্রকৌশলীকে সঙ্গে করে সেই রেকর্ড ভেঙে দিলেন ইভান শাল্ক। নতুন বাইসাইকেলটি ১৮০ ফুট লম্বা, ১১ ইঞ্চি চওড়া।

চাকা আবিষ্কারের অন্যতম সেরা প্রাপ্তি হল বাইসাইকেল। দূষণে জর্জর পৃথিবীতে এর চেয়ে উপকারী যান আর হয় না। তাই বলে ১৮০ ফুট লম্বা বাইসাইকেল কে দেখেছে? দুই বা খুব বেশি হলে তিন চাকার (সার্কাসের কুশীলবরা চালান) সাইকেলই সাধারণত নজরে পড়ে। কিন্তু ৩৯ বছরের ইভান শাল্ক হৃদয়ের অন্তঃপুরে লালন করছিলেন ব্যতিক্রমী ইচ্ছে।

শৈশব থেকেই গিনেস বুকে নাম তোলার প্রতি প্রবল আগ্রহ ছিল তার। এর ফলে জন্ম হলো বিশ্বের দীর্ঘতম সাইকেলের। আদৌ কি চলে এই দু-চাকার যান?

২০১৮ সালে দীর্ঘতম সাইকেল তৈরির কাজ শুরু করেন ইভানসহ আট ইঞ্জিনিয়ার। তবে চাইলেই এই সাইকেল নিয়ে পথেঘাটে নামা যাবে না। বাঁধা হয়ে দাঁড়াবে সাইকেলটির বিরাট দৈর্ঘ্যই।

ইতোমধ্যে নেটিজেনদের মন জয় করেছে ইভানের সাইকেল। আজব ‘সৃষ্টি’ ভাইরাল হয়েছে নেটদুনিয়ায়। এই বিষয়ে ইভান বলেন, ‘অন্যরা যখন আড্ডা দিয়ে সময় নষ্ট করে, আমরা তখন সৃষ্টিশীল কাজে মগ্ন থাকি।’

Advertisement

টিআর/

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ইউরোপ

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুশনারা আলী পঞ্চমবারের মতো বিজয়ী

Published

on

যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনে টানা পঞ্চমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুশনারা আলী। টাওয়ার হ্যামলেটসের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসন থেকে লেবার পার্টির প্রার্থী হিসেবে জিতেছেন তিনি। এ নির্বাচনে লেবার পার্টি সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছে।

শুক্রবার (৫ জুলাই)  ব্রিটিশ পার্লামেন্টের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে নির্বাচনের এ ফল প্রকাশ করা হয়।

জানা যায়, এবারের নির্বাচনে ১৫ হাজার ৮৯৬ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন রুশনারা আলী। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী আজমল মাশরুর পেয়েছেন ১৪ হাজার ২০৭ ভোট। লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী রাবিনা খান চার হাজার ৭৭৭ ভোট পেয়ে তৃতীয় হয়েছেন।

২০১০ সাল থেকে বর্তমান আসনে টানা পাঁচবার এমপি নির্বাচিত হলেন তিনি। ২০১০ থেকে আন্তর্জাতিক উন্নয়নবিষয়ক ছায়ামন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন রুশনারা আলী। এরপর তিনি ২০১৩ সালের অক্টোবরে ছায়া শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী নিযুক্ত হন তিনি।

উল্লেখ্য,  রুশনারা আলীর জন্ম বাংলাদেশের সিলেটে । সাত বছর বয়সে পরিবারের সঙ্গে যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান তিনি।  অক্সফোর্ডের সেন্ট জনস কলেজ থেকে দর্শন, রাজনীতি ও অর্থনীতিতে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন তিনি।

Advertisement

আই/এ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ইউরোপ

পরাজয়ের দায় নিয়ে যা বললেন সুনাক

Published

on

যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির হতাশাজনক  ফলাফলের পরই পরাজয় স্বীকার করে নিয়েছেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। তিনি এই ফলাফলে দুঃখ প্রকাশ করে দায় নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন। একইসঙ্গে অনেক কিছু শেখার আছে বলেও মন্তব্য করেছেন বিদায়ী এ প্রধানমন্ত্রী।

শুক্রবার (৫ জুলাই) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

ঋষি সুনাক বলেন, ‘এই কঠিন রাতে, আমি আপনাদের অব্যাহত সমর্থনের জন্য রিচমন্ড এবং নর্থালারটন নির্বাচনী এলাকার জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে চাই। লেবার পার্টি এই সাধারণ নির্বাচনে জিতেছে এবং আমি স্যার কিয়ার স্টারমারকে তার বিজয়ের জন্য অভিনন্দন জানাতে তাকে ফোন করেছি।’

এ বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী বলেন,  আজ সব পক্ষের শুভেচ্ছাসহ শান্তিপূর্ণ এবং সুশৃঙ্খলভাবে ক্ষমতার হাতবদল হবে। এটি এমন কিছু যা  দেশের স্থিতিশীলতা এবং ভবিষ্যতের প্রতি সকলকে আস্থা এনে দেবে।

সুনাক আরও বলেন, ‘ব্রিটিশ জনগণ আজ রাতে গুরুত্বপূর্ণ রায় দিয়েছে, এখান থেকে অনেক কিছু শেখার আছে… এবং আমি সেই ক্ষতির দায় নিচ্ছি।’

Advertisement

এসময়, নিজেদের অক্লান্ত প্রচেষ্টা, স্থানীয় রেকর্ড ভালো থাকা সত্ত্বেও অনেক ভালো, কঠোর পরিশ্রমী কনজারভেটিভ প্রার্থীদের যারা আজ পরাজিত হয়েছেন, তাদের কাছেও দুঃখ প্রকাশ করেন ঋষি সুনাক।

আই/এ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত