Connect with us

ফুটবল

যেভাবে ‘আরব্য রজনীর’ গল্প শুরু করলেন নেইমার

Published

on

রিয়াদের প্রিন্স ফয়সাল বিন ফাহাদ স্টেডিয়াম ভুগছিল নেইমার-ম্যানিয়ায়।  ব্রাজিলিয়ান তারকার অভিষেক উপলক্ষ্যে গ্যালিরির দর্শকরা নেইমার নেইমার ধ্বনি কম্পিত করে পুরো স্টেডিয়াম।  তবে নেইমারকে শুরু থেকে রাখেনি আল হিলাল কোচ।

দ্বিতীয়ার্ধের ৬৪ মিনিটে আরেক ব্রাজিলিয়ান মাইকেল অলিভিয়েরার পরিবর্তে তুমুল হর্ষধ্বনির মধ্যে মাঠে নামেন নেইমার। ব্রাজিলের সর্বকালে সর্বচ্চো গোলদাতা নেইমার মাঠে নামার আগে আল রিয়াদের বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে ছিল আল হিলাল।  কিন্তু নেইমার মাঠে নামার পরই আক্রমনের গতি কয়েক গুণ বেড়ে যায়।

 

নেইমার গোল পাপনি, তবে নামে পাশে যুক্ত হয়েছে একটি অ্যাসিস্ট।  অবশ্য বাকি গোল গুলোতেও পরোক্ষ ভাবে অবদান রেখেছিলেন তিনি।

নেইমার মাঠে নামার ৪ মিনিট পরই গোল করেন নাসের আলদাওয়াসারি। এই গোলের উৎস ছিলেন নেইমারই। তাঁর দুর্দান্ত এক ‘ফ্লিক’ থেকে তৈরি হয়েছিল সেই আক্রমণ।

Advertisement

৮৪ মিনিটে হিলালের জার্সিতে গোলের পাশে সরাসরি জড়ায় নেইমারের নাম।  মাঝ মাঠ থেকে বল পেয়ে বক্সের কাছে চলে যান তিনি। সেখান থেকে বল বাড়ান আরেক ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ম্যালকমের উদ্দেশ্যে।  বল পেয়েই দারুণ ফিনিশিংয়ে বল জালে পাঠিয়ে দেন ম্যালকম।

তার মিনিট দুয়েক পর নেইমারের নেয়া শট ডি-বক্সের ভিতরে হাতে লাগে প্রতিপক্ষের এক ফুটবলারের।  পেনাল্টি থেকে প্রথম গোল করার সুযোগ পেয়ে যান নেইমার।  কিন্তু সেই সুযোগ নিজে না নিয়ে সালেম আলদাওয়াসেরিকে দেন সাবেক পিএসজি তারকা।

৬ষ্ঠ গোলটিতেও অবদান রাখেন নেইমার।  যোগ করা সময়ে তার নেয়া শট রুখে দেন রিয়াদ গোলরক্ষক।  ফিরতি শটে দলের ৬ষ্ঠ গোলটি করেন সালেম।

শেষ সময়ে এসে সান্ত্বনার এক গোল পায় রিয়াদ। শেষ পর্যন্ত ৬-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আল হিলাল।

জয়ের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের অভিষেক-অনুভূতির কথা জানিয়েছেন নেইমার। সেখানে বেশকিছু ছবি পোস্ট করে ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার লিখেছেন, ‘অভিষেকে পাওয়া এই জয়ে খুবই আনন্দিত। ট্রিবিউট দেওয়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ ভক্তদের।’

Advertisement

 

Advertisement

ফুটবল

স্পেনে রঙিন ইউরোর সেরা একাদশ

Published

on

ইউরোপিয়ান ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা (উয়েফা) থেকে ইউরো-২৪ এর সেরা একাদশ ঘোষণা করা হয়েছে।  যেখানে ৫ টি দলের খেলোয়াড়েরা জায়গা করে নিয়েছেন। আর স্পেন দল থেকেই সর্বোচ্চ ৬ জন খেলোয়াড় আছেন।

উয়েফার সেরা একাদশে ফ্রান্স থেকে ২ জন খেলোয়াড় আছেন। একজন করে খেলোয়াড় জায়গা পেয়েছেন; ইংল্যান্ড, সুইজারল্যান্ড, জার্মানি থেকে। খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স, দলে তাদের প্রভাব- এসব বিবেচনায় আনা হয়েছে সেরা একাদশ গঠন করার ক্ষেত্রে।

৪-৩-৩ ফর্মেশনে সাজানো হয়েছে এই সেরা একাদশ। স্পেন থেকে আছেন লামিনে ইয়ামাল, নিকো উইলিয়ামস, দানি অলমো, ফাবিয়ান রুইজ, রদ্রি ও মার্ক কুকুয়েরা। ফ্রান্স থেকে গোলরক্ষক মাইক মাইনিয়, রক্ষণে উইলিয়াম সাবিলা আছেন। জার্মানি, সুইজারল্যান্ড ও ইংল্যান্ড থেকে আছেন; জামাল মুসিয়ালা, ম্যানুয়েল আকাঞ্জি, কাইল ওয়াকার।

ইউরো-২০২৪ এর সেরা একাদশ মাইক মাইনিয় (ফ্রান্স); কাইল ওয়াকার (ইংল্যান্ড), উইলিয়াম সালিবা (ফ্রান্স), ম্যানুয়েল আকাঞ্জি (সুইজারল্যান্ড), মার্ক কুকুরেয়া (স্পেন); রদ্রি (স্পেন), দানি ওলমো (স্পেন), ফাবিয়ান রুইজ (স্পেন); লামিন ইয়ামাল (স্পেন), জামাল মুসিয়ালা (জার্মানি), নিকো উইলিয়ামস (স্পেন)।

 

Advertisement

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ফুটবল

অনির্দিষ্টকালের জন্য মাঠের বাইরে লিওনেল মেসি

Published

on

কোপা আমেরিকার ফাইনালে পুরো ম্যাচ খেলা হয়নি লিওনেল মেসির। চোট পেয়ে মাঠের বাইরে বেরিয়ে যেতে হয় ৯০ মিনিট শেষ হওয়ার আগেই। এবার জানা গেল, অনির্দিষ্টকালের জন্য মাঠের বাইরে থাকতে হবে এই আর্জেন্টাইন তারকাকে।

মেসির ক্লাব ইন্টার মায়ামি থেকে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। যেখানে বলা হয়, ‘মেডিকেল পরীক্ষার পর এটি নিশ্চিত হওয়া গেছে, লিওনেল মেসি তার ডান অ্যাঙ্কেলের লিগামেন্টে চোট পেয়েছেন। অধিনায়ককে কবে পাওয়া যাবে, সেটা তার সেরে ওঠার ওপর নির্ভর করছে।‘

কোপা আমেরিকার ফাইনালে কলম্বিয়াকে ১-০ গোলে পরাজিত করে আর্জেন্টিনা। টানা দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা জয়ের দিনে পুরো ম্যাচ খেলা হয় না মেসির। কান্নাভেজা চোখে মাঠ ছাড়তে দেখা যায় তাকে। এই ম্যাচ ছিল আনহেল দি মারিয়ার বিদায়ের ম্যাচ। আর্জেন্টিনার জার্সিতে বিদায় বলে দিয়েছেন এই উইঙ্গার।

সম্প্রতি একটি ইন্সটাগ্রাম পোস্টে মেসি নিজের আবেগ প্রকাশ করেন। যেখানে তিনি নিজের শারীরিক অবস্থা নিয়েও কথা বলেন। তিনি সেখানে জানিয়েছিলেন, মাঠে ফিরছেন খুব শীগ্রই। তবে তার ক্লাব মায়ামির বিবৃতি যা বলছে, তাতে মেসির মাঠে ফেরা হয়তো আরও পিছিয়ে যাবে।

 

Advertisement

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ফুটবল

পদত্যাগ করলেন ইংল্যান্ড কোচ গ্যারেথ সাউথগেট

Published

on

ইংল্যান্ড কোচের দায়িত্ব ছাড়লেন গ্যারেথ সাউথগেট। ইংল্যান্ডের ফুটবল সংস্থা থেকে আশা করা হয়েছিল, সাউথগেট হয়তো তার চুক্তি বৃদ্ধি করবেন। কিন্তু এই কোচ নতুন চ্যালেঞ্জ খোঁজার লক্ষ্য নিয়ে দায়িত্ব ছেড়েছেন।

ইংল্যান্ড ও স্পেনের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয় ইউরো ২০২৪ এর ফাইনাল। যেখানে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে শিরোপা অর্জন করে স্পেন। সেই ম্যাচটি ছিল ইংলিশদের হয়ে সাউথগেটের শেষ ম্যাচ। এই কোচ বিদায়ের আগে একটি বিবৃতি দিয়েছেন। যেখানে তিনি বলেন, ‘একজন গর্বিত ইংরেজ হয়ে, ইংল্যান্ডের খেলা ও ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করা আমার জন্য সম্মানের।‘

‘এটা আমার জন্য সবকিছুই ছিল এবং আমি এর জন্য সবকিছুই দিয়েছি। তবে এখন পরিবর্তন করার সময় নতুন এক অধ্যায়ের জন্য। স্পেনের বিপক্ষে রবিবারের ফাইনাল ইংল্যান্ডের ম্যানেজার হিসেবে আমার শেষ ম্যাচ।‘

সাউথগেটের বয়স ৫৩ বছর। শীর্ষ টুর্নামেন্টগুলোতে ধারাবাহিক পারফরম্যান্সের ক্ষেত্রে সফল এক ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। এই পদে ৮ বছর কাটালেন সাউথগেট। তিনি থাকাকালীন ইংল্যান্ড মোট ১০২ টি ম্যাচ খেলেছে।

সাউথগেটের অধীনে ২০১৮ বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল, ২০২২ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলেছে ইংল্যান্ড। এছাড়াও টানা দুইবার ইউরোর ফাইনাল খেললো ইংল্যান্ড, যা এই ইংলিশ কোচ দায়িত্বে থাকাকালীন।

Advertisement

 

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত