Connect with us

ক্রিকেট

ভারতকে কাঁদিয়ে ষষ্ঠ শিরোপা ঘরে নিলো অস্ট্রেলিয়া

Avatar of author

Published

on

পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন শিরোপা কী নিজেদের ঘরে নিতে পারবে স্বাগতিক ভারত। এমন জল্পনা-কল্পনা ছিলো দিনভর।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট ভেন্যু আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে অস্ট্রেলিয়া টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠায় স্বাগতিক ভারতকে। এবারের আসরে একমাত্র অপরাজিত দল হিসেবে ফাইনালে খেলতে আসা রোহিত শর্মার টিম ইন্ডিয়া ১ লাখ ৩০ হাজার সমর্থকের সামনে ১০ বছরের শিরোপা খরা কাটাতে উন্মুখ ছিলো। গ্যালারিও ছিলো তাদের দখলে। কিন্তু অজিদের বোলিং তোপে বেশি দূর যেতে পারেননি রোহিতরা। ৫০ ওভার খেলে সব উইকেট হারিয়ে ২৪০ রানের ঘরেই আটকে যায় তাদের ব্যাট। এতো কম রান টপকাতে হবে তা হয়তো ধারণা ছিলো না অজি অধিনায়ক প্যাট কামিন্সের।

সহজ টার্গেটে ব্যাট হাতে নিয়ে হোঁচট খেতে হয় অজিদের। চার ওভার শেষে হারাতে হয় প্রথম উইকেট। পরের দুই ওভার খেলায় নেই দ্বিতীয় উইকেট। সপ্তম ওভারে ৪৭ রান সংগ্রহ করে প্যাট কামিন্সের দল। তবে এরই মধ্যে হারাতে হয়েছে তিনটি উইকেট।

ট্রাভিস হেড ও মারনাস লাবুশেনের জুটি রানের গতি বোড়িয়ে দেয় জ্যামিতিক হারে। তাদের ব্যাটে দলের সেই রানের গতি থামে ২৩৯ রান। ট্রাভিস হেড একাই করেন ১৩৭ রান। মারনাস লাবুশেনের ব্যাট থেকে আসে ৫৮ রান।

ভারতের পক্ষে ২টি উইকেট পান যশপ্রীত বুমরা আর একটি উইকেট পান মোহাম্মদ শামি।

Advertisement

এদিকে, ভারতের ব্যাটারদের মধ্যে রোহিত শর্মা ৩১ বল খেলে ৪৭ রান করেন। বিরাট কোহলি ৬৩ বল খেলে করেন ৫৪ রান। রাহুল করেন ৬৬ রান, এতে তার খরচ হয় ১০৭ বল। সূর্যকুমার যাদব করেন ১৮ রান। কুলদীপ যাদব ১০ রান করলেও, বাকিরা দুই অংকের ঘর পার হতে পারেননি। এতো দিন ভালো ফরমে থাকা শুভমান গিল মাত্র ৪ রান করেই মাঠ ছাড়েন ফাইনাল ম্যাচে।

অজিদের পক্ষে মিচেল স্টার্ক ৩টি ও প্যাট কামিন্স ২টি উইকেট পান।

এনিয়ে দ্বিতীয়বারের মত বিশ্বকাপের ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছে ভারত-অস্ট্রেলিয়া। এর আগে ২০০৩ সালে জোহানেসবার্গে ১২৫ রানে জয়ী হয়েছিল টিম অস্ট্রেলিয়া।

ভারত : রোহিত শর্মা (অধিনায়ক), শুবমান গিল, বিরাট কোহলি, শ্রেয়াস আইয়ার, লোকেশ রাহুল (উইকেটকিপার), সূর্যকুমার যাদব, রবীন্দ্র জাদেজা, যশপ্রীত বুমরা, কুলদীপ যাদব, মোহাম্মদ শামি ও মোহাম্মদ সিরাজ।

Advertisement
Advertisement

ক্রিকেট

তরুণ প্রজন্মের প্রশংসায় নুরুল হাসান সোহান

Published

on

কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে এখন পুরো দেশ উত্তাল। এই আন্দোলন ঘিরে হামলা-পাল্টা হামলায় নিহত হওয়ার মতো ঘটনাও ঘটছে। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অনেক ক্রিকেটাররা এই আন্দোলন প্রসঙ্গে কথা বলছেন। এরমধ্যে জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটার নুরুল হাসান সোহান তরুণ প্রজন্মকে প্রশংসা করে নিজের ফেসবুকে পোস্ট করেছেন।

দেশের বর্তমান পরিস্থিতি একেবারেই স্বাভাবিক নয়। আর তা নিয়ে নানারকম দুশ্চিন্তা দেখিয়েছেন ক্রিকেটাররা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তারা শিক্ষার্থীদের পক্ষে কথা বলেছেন।

নুরুল হাসান তার ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘আমাদের তরুণ প্রজন্ম দেখিয়ে দিচ্ছে কিভাবে ঐক্যবদ্ধ হতে হয় এবং ঐক্যবদ্ধভাবে তারা কতটা শক্তিশালী। সত্যি বলতে তাদেরকে সঠিক পথে পরিচালিত হতে দিলে তারাই বাংলাদেশকে বিশ্ব মঞ্চে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যেতে পারে। তাদের মধ্যে ওই সাহস, শক্তি ও নিস্বার্থতা আছে। তারাই পারবে আমাদের দেশের এই স্বার্থপরতার সংস্কৃতিতে পরিবর্তন করতে। তাই দয়া করে তাদেরকে বিপথগামী করার চেষ্টা করবেন না। তাদেরকে নষ্ট করবেন না।’

 

এম/এইচ

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ক্রিকেট

ইংল্যান্ডের বোলিং পরামর্শক অ্যান্ডারসন

Published

on

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন জেমস অ্যান্ডারসন। এবার ইংল্যান্ড দলে গ্রহণ করলেন নতুন দায়িত্ব। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের শেষ দুই ম্যাচের জন্য বোলারদের পরামর্শক হিসেবে কাজ করবেন তিনি। আজ, বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচটি শুরু হবে।

টেস্ট ক্রিকেটে তৃতীয় সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি হিসেবে অ্যান্ডারসনের নাম জ্বলজ্বল করছে। তার ঝুলিতে ৭০৪ টি উইকেট। তার পেছনে কেবল আছেন শেন ওয়ার্ন ও মুত্তিয়া মুরালিধরন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ইনিংস ও ১১৪ রানে জিতেছে ইংল্যান্ড। প্রায় দুই যুফের ক্যারিয়ার সেই ম্যাচের মধ্য দিয়ে শেষ করেছে অ্যান্ডারসন। বর্তমান ও সাবেকরা তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

ইংল্যান্ডের জার্সি তুলে রাখলেও, পুরোপুরি চলে যাওয়া হচ্ছে না এই পেসারের। বরং দলে তাকে কতটা প্রয়োজন, সেটাই বোঝা যায়। সেখান থেকেই অ্যান্ডারসনকে এবার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ইংলিশদের সাথে। চলমান সিরিজের শেষ দুই ম্যাচে দলের সাথে থেকে পরামর্শকের দায়িত্ব পালন করবেন।

 

Advertisement

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ক্রিকেট

ভারতের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হতে যাচ্ছেন সূর্যকুমার

Published

on

হার্দিক পান্ডিয়া নয়, সূর্যকুমার যাদব হতে যাচ্ছেন ভারতের নতুন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। রোহিত শর্মার কাছ থেকে দায়িত্বভার গ্রহণ করতে যাচ্ছেন সূর্যকুমার। ইএসপিএন ক্রিকইনফো’র এক প্রতিবেদনে এ বিষয়ে নিশ্চিত করা হয়েছে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের পর অবসরে যান রোহিত। তার সাথে একইরকম সিদ্ধান্ত নেন ভিরাট কোহলি ও রবীন্দ্র জাদেজা। বিশ্বকাপে রোহিতের সহকারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন হার্দিক।

হার্দিক ভারতের পক্ষে ৩ টি ওডিআই এবং ১৬ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ফিটনেস ও ওয়ার্কলোড বিবেচনা করা হয়েছে হার্দিকের ক্ষেত্রে। ফলে দায়িত্ব দেওয়া হয়নি তাকে।

সবশেষ ওডিআই বিশ্বকাপে গোড়ালিতে আঘাত পেয়ে লম্বা সময় মাঠের বাইরে ছিলেন হার্দিক। এরপর ২০২৪ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে নেতৃত্ব দিয়েছে। যেখানে বেশ সমালোচনাও সইতে হয়েছে তার। মুম্বাই ভালো করেনি, ভালো করেননি তিনি নিজেও।

সূর্যকুমার এর আগে ঘরোয়া ক্রিকেটে মুম্বাইয়ের অধিনায়ক ছিলেন। গতবছর নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪-১ এ ভারতের সিরিজ জয়ের ম্যাচগুলোতে নেতৃত্বে ছিলেন তিনি। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও দলের অধিনায়ক ছিলেন।

Advertisement

 

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত