Connect with us

ক্রিকেট

প্রোটিয়া বোলারদের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি ইংলিশরা

Avatar of author

Published

on

বিশ্বকাপে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামে দক্ষিণ আফ্রিকা। উভয় দলের ঘুরে দাঁড়ানোর ম্যাচে মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়েতে টস জিতে প্রোটিয়াদের ব্যাটিংয়ে পাঠায় ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার। আগে ব্যাট করতে নেমে হেনরিখ ক্লাসনের বিধ্বংসী শতকে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩৯৯ রানের বড় পুঁজি পায় এইডেন মার্করামের দল। মাত্র ১৭০ রান তুলতেই অলআউট হয়ে যায় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ব্যবধানে হারের তালিকায় আট নম্বরে জায়গা পেয়েছে ইংলিশদের লজ্জার এই হার।

৪০০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইংল্যান্ডের হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন জনি বেয়ারস্টো ও ডেভিড মালান। প্রথম থেকেই দেখেশুনে খেলেন তারা। তবে বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি তাদের জুটি। ম্যাচের তৃতীয় ওভারেই ওপেনিং জুটি ভাঙেন লুঙ্গি এনগিডি। তার এক্সট্রা বাউন্স বলে ডুসেনের তালুবন্দী হন বেয়ারস্টো। সাজঘরে ফেরার আগে ১০ করেন তিনি।

দ্বিতীয় উইকেটে ব্যাট করতে আসে জো রুটও টিকতে পারেননি বেশিক্ষণ। দলীয় ২৩ রানে জানসেনের বলে মিলারকে ক্যাচ দেওয়ার আগে ২ রান করেন এ ডানহাতি ব্যাটার। এরপর ইংলিশ শিবিরে ব্যাটিংয়ে চলে আসা যাবার মিছিল। ৪৫ রানের ভিতর হারিয়ে বসে আরও চার উইকেট। মালান ৬, বেন স্টোক ৫, জস বাটলার ১৫ ও হ্যারি ব্রুক ১৭ করে সাজঘরে ফিরলে ম্যাচ থেকে এক প্রকার ছিটকে যায় ইংল্যান্ড।

পরে ক্রিস উড ও গাস অ্যাটকিনসনের ৭০ রানের জুটি হারের ব্যবধান কমিয়েছে ইংলিশদের। ম্যাচের ২৩ ওভারের গাস অ্যাটকিনসনের স্ট্যাম্প ভাঙেন কেশব মহারাজ। এতে ইংলিশদের ইনিংস থেমে যায় ১৭০ রানে। প্রোটিয়াদের হয়ে বল হাতে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট শিকার করেন জেরার্ল্ড কোয়েৎজে।

এর আগে প্রোটিয়াদের হয়ে দলটির হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন কুইন্টন ডি কক ও রেজা হেনড্রিকস। তবে শুরুটা ভালো হয়নি তাদের। প্রথম ওভারেই রিস টপলির বলে জস বাটলারের তালুবন্দী হন ডি কক । শূন্য রানে সাজঘরে ফেরনে তিনি। এরপর ক্রিজে আসেন রাসি ফন ডার ডুসেন। মাঠে নেমে ইংলিশ বোলারদের দেখে শুনে খেলে ফিফটি পূর্ণ করে তিনি। একই ওভারে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ অর্ধ শতক তুলে নেন হেনড্রিকস।

Advertisement

অবশ্য ফিফটির ইনিংস লম্বা করতে পারেননি ডুসেন। আদিল রশিদের বলে জনি বেয়ারস্টোর তালুবন্দী হন তিনি। আউট হওয়ার আগে ৬০ রান করেন এ ব্যাটার। পরে বাইশ গজে আসেন প্রোটিয়া দলপতি এইডেন মার্করাম। তার সঙ্গে ৩৯ রানের জুটি গড়েন রেজা। ম্যাচের ২৬তম ওভারে আদিল রশিদের বলে বোল্ড হন রেজা। আউট হওয়ার আগে ৮৫ রান করেন এ ওপেনার।

রেজার বিদায়ে ক্রিজে আসেন হেনরিখ ক্লাসেন। তাকে সঙ্গে নিয়ে দলীয় ইনিংস এগিয়ে নিতে থাকেন মার্করাম। তবে ৬৯ রানের জুটি গড়ে প্রোট্রিয়া অধিনায়ক আউট হলে ভাঙে এই দুই জনের পার্টনারশিপ। ৪৪ বলে ৪২ করেন তিনি। এরপর উইকেটে আসেন মিলার। তবে নামের পাশে ৫ রান যোগ করতেই দলীয় ২৪৩ রানে সাজঘরে ফেরেন তিনি।

ষষ্ট উইকেটে ব্যাটে আসেন মার্কো জানসেন। তাকে সঙ্গে নিয়ে ইংলিশ বোলারদের ওপর তান্ডব চালাতে থাকে ক্লাসেন। দ্রুত রান তুলতে থাকা এই ব্যাটার শতক তুলেনেন ৬১ বলে। এর মধ্যে দিয়ে বিশ্বকাপের ইতিহাসে দ্রুত শতক করার তালিকায় ষষ্ট স্থানে নিজের জায়গা করে নেন ক্লাসেন। এদিকে ক্লাসনের শতকের পর ইংলিশ বোলারদের ওপর চড়া হতে থাকেন জানসেন। চার-ছয়ের তান্ডবে ৩৫ বলে নিজের অর্ধশতক তুলে নেন তিনি।

তবে দলীয় ৩৯৪ রানে ক্লাসেন আউট হলে ভাঙে ১৫১ রানের জুটি। সাজঘরে ফেরার আগে ১০৯ করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ৭৫ রানে অপরাজিত থাকেন মার্কো জানসেন। এতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে প্রোটিয়াদের ইনিংস থামে ৩৯৯ রানে। এরমধ্যে দিয়ে ইংলিশদের বিপক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহ করার রেকর্ড গড়েন আফ্রিকা। এর আগে ২০১৫ সালে নিউজিল্যান্ডের ৩৯৮ রান ছিল সর্বোচ্চ।

এএম/

Advertisement
Advertisement

ক্রিকেট

তরুণ প্রজন্মের প্রশংসায় নুরুল হাসান সোহান

Published

on

কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে এখন পুরো দেশ উত্তাল। এই আন্দোলন ঘিরে হামলা-পাল্টা হামলায় নিহত হওয়ার মতো ঘটনাও ঘটছে। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অনেক ক্রিকেটাররা এই আন্দোলন প্রসঙ্গে কথা বলছেন। এরমধ্যে জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটার নুরুল হাসান সোহান তরুণ প্রজন্মকে প্রশংসা করে নিজের ফেসবুকে পোস্ট করেছেন।

দেশের বর্তমান পরিস্থিতি একেবারেই স্বাভাবিক নয়। আর তা নিয়ে নানারকম দুশ্চিন্তা দেখিয়েছেন ক্রিকেটাররা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তারা শিক্ষার্থীদের পক্ষে কথা বলেছেন।

নুরুল হাসান তার ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘আমাদের তরুণ প্রজন্ম দেখিয়ে দিচ্ছে কিভাবে ঐক্যবদ্ধ হতে হয় এবং ঐক্যবদ্ধভাবে তারা কতটা শক্তিশালী। সত্যি বলতে তাদেরকে সঠিক পথে পরিচালিত হতে দিলে তারাই বাংলাদেশকে বিশ্ব মঞ্চে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যেতে পারে। তাদের মধ্যে ওই সাহস, শক্তি ও নিস্বার্থতা আছে। তারাই পারবে আমাদের দেশের এই স্বার্থপরতার সংস্কৃতিতে পরিবর্তন করতে। তাই দয়া করে তাদেরকে বিপথগামী করার চেষ্টা করবেন না। তাদেরকে নষ্ট করবেন না।’

 

এম/এইচ

Advertisement
পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ক্রিকেট

ইংল্যান্ডের বোলিং পরামর্শক অ্যান্ডারসন

Published

on

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন জেমস অ্যান্ডারসন। এবার ইংল্যান্ড দলে গ্রহণ করলেন নতুন দায়িত্ব। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের শেষ দুই ম্যাচের জন্য বোলারদের পরামর্শক হিসেবে কাজ করবেন তিনি। আজ, বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচটি শুরু হবে।

টেস্ট ক্রিকেটে তৃতীয় সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি হিসেবে অ্যান্ডারসনের নাম জ্বলজ্বল করছে। তার ঝুলিতে ৭০৪ টি উইকেট। তার পেছনে কেবল আছেন শেন ওয়ার্ন ও মুত্তিয়া মুরালিধরন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ইনিংস ও ১১৪ রানে জিতেছে ইংল্যান্ড। প্রায় দুই যুফের ক্যারিয়ার সেই ম্যাচের মধ্য দিয়ে শেষ করেছে অ্যান্ডারসন। বর্তমান ও সাবেকরা তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

ইংল্যান্ডের জার্সি তুলে রাখলেও, পুরোপুরি চলে যাওয়া হচ্ছে না এই পেসারের। বরং দলে তাকে কতটা প্রয়োজন, সেটাই বোঝা যায়। সেখান থেকেই অ্যান্ডারসনকে এবার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ইংলিশদের সাথে। চলমান সিরিজের শেষ দুই ম্যাচে দলের সাথে থেকে পরামর্শকের দায়িত্ব পালন করবেন।

 

Advertisement

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

ক্রিকেট

ভারতের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হতে যাচ্ছেন সূর্যকুমার

Published

on

হার্দিক পান্ডিয়া নয়, সূর্যকুমার যাদব হতে যাচ্ছেন ভারতের নতুন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। রোহিত শর্মার কাছ থেকে দায়িত্বভার গ্রহণ করতে যাচ্ছেন সূর্যকুমার। ইএসপিএন ক্রিকইনফো’র এক প্রতিবেদনে এ বিষয়ে নিশ্চিত করা হয়েছে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের পর অবসরে যান রোহিত। তার সাথে একইরকম সিদ্ধান্ত নেন ভিরাট কোহলি ও রবীন্দ্র জাদেজা। বিশ্বকাপে রোহিতের সহকারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন হার্দিক।

হার্দিক ভারতের পক্ষে ৩ টি ওডিআই এবং ১৬ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ফিটনেস ও ওয়ার্কলোড বিবেচনা করা হয়েছে হার্দিকের ক্ষেত্রে। ফলে দায়িত্ব দেওয়া হয়নি তাকে।

সবশেষ ওডিআই বিশ্বকাপে গোড়ালিতে আঘাত পেয়ে লম্বা সময় মাঠের বাইরে ছিলেন হার্দিক। এরপর ২০২৪ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে নেতৃত্ব দিয়েছে। যেখানে বেশ সমালোচনাও সইতে হয়েছে তার। মুম্বাই ভালো করেনি, ভালো করেননি তিনি নিজেও।

সূর্যকুমার এর আগে ঘরোয়া ক্রিকেটে মুম্বাইয়ের অধিনায়ক ছিলেন। গতবছর নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪-১ এ ভারতের সিরিজ জয়ের ম্যাচগুলোতে নেতৃত্বে ছিলেন তিনি। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও দলের অধিনায়ক ছিলেন।

Advertisement

 

এম/এইচ

পুরো পরতিবেদনটি পড়ুন

সর্বাধিক পঠিত